• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১

 

চিঠিপত্র : ইঁদুর নিধনে কার্যকর ব্যবস্থা নিন

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১২ নভেম্বর ২০২০

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়

ইঁদুর নিধনে কার্যকর ব্যবস্থা নিন

ইঁদুর একটি অত্যন্ত ক্ষতিকর প্রাণী। ছোট এ প্রাণীটির ক্ষতির ব্যাপকতা হিসাব করা খুবই কঠিন। যে কোন পরিবেশে, যে কোন খাদ্য খেয়ে বাঁচতে পারে এটি। বাংলাদেশ বিভিন্ন অঞ্চলে ১৮ প্রজাতির ইঁদুর দেখা যায়। এদের বংশ বৃদ্ধির হার অত্যাধিক। সুষ্ঠু পরিবেশে এক জোড়া ইঁদুর থেকে বছরে ৩ হাজার ইঁদুর জন্ম নিতে পারে। একেকটি ইঁদুর প্রতিবারে ৬-৮টি পর্যন্ত বাচ্চা দিতে পারে।

দৈনন্দিন জীবনে এমন কোন জায়গা খুঁজে পাওয়া যাবে না যেখানে ইঁদুরের উপস্থিতি নেই। ফসলের মাঠ থেকে শুরু করে নালা-নর্দমা, ডাস্টবিন, খাদ্যগুদাম, কারখানা, হোটেল-রেস্তোরাঁ, অফিস, দোকান, বাসাবাড়িতে সবখানে ইঁদুরের উপদ্রব আছে। দেশে প্রতি বছর ২ হাজার কোটি টাকার খাদ্যশস্য নষ্ট করে ইঁদুর। শুধু তাই নয়, দানাদার ফসল ছাড়াও ফলমূল, বইখাতা, আসবাবপত্র, কাপড়, বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি, বিভিন্ন ধরনের স্থাপনার ক্ষতি সাধন করে। আন্তর্জাতিক ধান গবেষণা কেন্দ্রের প্রতিবেদন মতে, এশিয়ায় বছরে ইঁদুর ১৮ কোটি মানুষের এক বছরের খাবারের সমান ধান-চাল খেয়ে নষ্ট করে। শুধু বাংলাদেশে ৫০-৫৪ লাখ লোকের এক বছরের খাবার নষ্ট করে। ইঁদুরের মলমূত্র, লোম থেকে টাইফয়েড, জন্ডিস, চর্মরোগসহ বিভিন্ন ধরনের রোগ ছড়ায়। প্লেগের অন্যতম বাহক হচ্ছে ইঁদুর। প্রতি বছর ইঁদুর দ্বারা আবাদি ফসলের একটি বড় অংশ নষ্ট হচ্ছে। ফলে আমাদের দেশে কৃষকরা ফসল বাঁচতে ইঁদুর নিধনে প্রচলিত পদ্ধতি ও বিষপ্রয়োগ করলেও কার্যকারিতা খুবই ক্ষণস্থায়ী।

তাই বাংলাদেশে ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি, খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ও জনস্বাস্থ্য রক্ষায় ইঁদুরের সমস্যাকে জাতীয় সমস্যা হিসেবে চিহ্নিত করা সময়ের দাবি। ইঁদুর কমাতে প্যাঁচা, গুইসাপ, বেজি, শিয়াল, বিড়াল পরভোজী প্রাণী সংরক্ষণে গুরুত্ব দিতে হবে পাশাপাশি কৃষকদের ইঁদুর মারার আধুনিক যন্ত্র ও প্রশিক্ষণ প্রদানসহ ইঁদুর নিধনে সরকারি-বেসরকারি কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা প্রয়োজন।

মো. সাইমুন

চন্দনাইশ, চট্টগ্রাম।

শিক্ষার্থী, সরকারি কমার্স কলেজ, চট্টগ্রাম

চিঠিপত্র : শিশুদের নৈতিকতা ও মূল্যবোধ শিক্ষায় পরিবার ও সমাজের ভূমিকা

শিশু-কিশোররা অনুকরণ প্রিয়। হাজার কথার চেয়ে একটা বাস্তব উদাহরণকেই তারা খুব দ্রুত বুঝে নেয়।

চিঠিপত্র : সড়ক হোক নিরাপদ

সড়ক হোক নিরাপদ একটি দেশের টেকসই উন্নয়নের পূর্বশর্ত হলো সাশ্রয়ী ও নিরাপদ

চিঠিপত্র : ছাত্ররা কি আজ অসহায়?

ছাত্ররা কি আজ অসহায়? বাংলাদেশ সৃষ্টির সঙ্গে জড়িত সব থেকে বড় নাম

sangbad ad

চিঠিপত্র : দুর্নীতি ও উন্নয়ন সাংঘর্ষিক

দুর্নীতি ও উন্নয়ন সাংঘর্ষিক একটি সভ্য দেশের ভাষা, সংস্কৃতি, সভ্যতা, মূল্যবোধ আর উন্নয়নের

চিঠিপত্র : শিশুদের মোবাইল ফোন থেকে দূরে রাখতে হবে

শিশুদের মোবাইল ফোন থেকে দূরে রাখতে হবে আজকের শিশু আগামী দিনের ভবিষ্যৎ।

চিঠিপত্র : শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা নিয়ে বিভ্রান্তি কাটবে কবে

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা নিয়ে বিভ্রান্তি কাটবে কবে বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় ২০২০

চিঠিপত্র : বেতারকে অনুষ্ঠান করতে হবে শ্রোতাদের মতামত ও গবেষণার ভিত্তিতে

বেতারকে অনুষ্ঠান করতে হবে শ্রোতাদের মতামত ও গবেষণার ভিত্তিতে দেশে বাংলাদেশ বেতারের

চিঠিপত্র : আঞ্চলিক ভাষা গৌরবের

বাংলাদেশ ছোট দেশ হলেও অঞ্চলভেদে প্রচলন আছে আঞ্চলিক ভাষা। রাজধানী ঢাকায় যাদের বসবাস তাদের একটা বড় অংশই এসেছেন ঢাকার বাইরে বিভিন্ন জেলা থেকে।

চিঠিপত্র : অপসংস্কৃতি রোধ করুন

অপসংস্কৃতি রোধ করুন বাংলার আবহমান সংস্কৃতিকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিচ্ছে ইন্টারনেট ও ভিনদেশি

sangbad ad