• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০

 

চিঠিপত্র : কেমন আছে অধিভুক্ত সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৫ অক্টোবর ২০২০

মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়

কেমন আছে অধিভুক্ত সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর চাপ কমাতে এবং রাজধানীর সাতটি সরকারি কলেজের মান উন্নয়নের জন্য ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত করা হয়। তখন সাত কলেজের শিক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল প্রায় ১ লাখ ৬৭ হাজার। ঢাবি অধিভুক্তের প্রথমদিকে সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের ঠিকমতো পরীক্ষা হয়নি, রেজাল্ট প্রণয়নে দেরি হয়েছে এবং আশানুরূপ রেজাল্ট পায়নি শিক্ষার্থীরা। এতে করে সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা জাতীয় ও অন্যান্য পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের তুলনায় অনেকটা পিছিয়ে পড়ে। বহু ত্যাগ-তিতিক্ষা, সংগ্রাম ও আন্দোলনের ফলে গত বছর থেকে কিছুটা উন্নতির দিকে হাঁটলেও এ বছরের করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের জন্য সাত কলেজ আগের অবস্থায় ফিরেছে। তৃতীয়-চতুর্থ বর্ষের ফাইনাল পরিক্ষার্থীরা এক থেকে দেড় বছর হতে যাচ্ছে এখনও কিছু ডিপার্টমেন্টের রেজাল্ট পায়নি আর যা পেয়েছে তা অনেকেরই আশানুরূপ হয়নি।

একদিকে করোনা মহামারী অন্যদিকে সেশন জট এবং আশানুরূপ রেজাল্টের অভাবে তাদের সব মিলিয়ে অনার্স শেষ করতে ৬-৭ বছর সময় লেগে যাচ্ছে। প্রথম-দ্বিতীয় বর্ষের পরীক্ষার্থীদেরও প্রায় ১ বছর হতে চলছে অধিকাংশ ডিপার্টমেন্টের রেজাল্ট বাকি রয়েছে। করোনাভাইরাসের এমতাবস্থায় শিক্ষার্থীদের নামমাত্র ক্লাস হচ্ছে আর ভালো ইন্টারনেট সুবিধার অভাবে ঠিকমতো ক্লাস করতে পারছে না সাত কলেজের লাখ শিক্ষার্থী। এতে করে পড়াশোনা থেকে অনেকেটা দূরে সরে যাচ্ছে শিক্ষার্থীরা। সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের আদৌ পরীক্ষা হবে কিনা তাছাড়া অটোপ্রমোশন এর কোন সুযোগ পাবে কিনা এ ব্যাপারে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কিছু জানায়নি। এমতাবস্থায় সাত কলেজের লাখ লাখ শিক্ষার্থীরা এক ধরনের অনিশ্চয়তায় কাটাচ্ছে। দয়া করে কলেজ কর্তৃপক্ষ এবং বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আমাদের দিকে একটু নজর দিন। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে এ ব্যাপারে দ্রুত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি।

মো. তোফায়েল আহমেদ

শিক্ষার্থী, ঢাকা কলেজ

শীতের আগমনী বার্তা, বাড়াতে হবে সচেতনতা

বর্তমান বিশ্বে করোনা নামক এক ভয়াবহ আতঙ্কের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। যার ভ্যাকসিন এখনও আবিষ্কার করা সম্ভব হয়নি। বিশেষজ্ঞদের মতে, আসন্ন শীতকালে এটি পূর্বের চেয়ে মারাত্মক আকার ধারণ করতে পারে। ফলে শীতকালে পরিস্থিতির আরও অবনতি হতে পারে কেননা বছরের এ সময়টাতে মানুষের মধ্যে শ্বাসকষ্টজনিত আরও অনেক ভাইরাস ও ফ্লু জাতীয় রোগের লক্ষণ দেখা যায়। শীতে তাপমাত্রা ও কম আর্দ্রতা করোনাভাইরাসকে আরও বেশি সময়ের জন্য বেঁচে থাকার সুযোগ করে দেবে। সেই সঙ্গে ভিটামিন ‘ডি’র ঘাটতি ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাওয়ার ফলে করোনাভাইরাসটি মানুষের ওপর আরও বেশি প্রভাব ফেলবে।

শীতে প্রবীণ ব্যক্তি ও শিশুদের এ ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি আরও মারাত্মক হবে। বিশেষজ্ঞদের মতে আবহাওয়ার সঙ্গে করোনার কোন সম্পর্ক নেই, তবে ঋতুর সঙ্গে এর সম্পর্ক রয়েছে।

করোনার লক্ষণগুলো শীতজনিত রোগের মতো। এটি মূলত শীতের একটি রোগ। এর অনেকগুলো স্ট্রেন আছে যা গ্রীষ্ম ও বর্ষার মৌসুমে বেঁচে থাকতে পারে। প্রাথমিক পর্যায়ে বিশেষজ্ঞরা ভেবেছিলেন গ্রীষ্মে ভাইরাসটি দুর্বল হয়ে যেতে পারে, তবে গরমকালেও এ ভাইরাস সংক্রমণের তীব্রভাবে বৃদ্ধি পাওয়ায় তাদের ধারণা ভুল প্রমাণিত হয়েছে। করোনাভাইরাসের কিছু স্ট্রেন শীতকালে তীব্র ও মারাত্মক হয়ে উঠতে পারে। তাই, আমাদের এখনই পরিকল্পনা করা উচিত যাতে শীতকালে আমরা ভাইরাসকে কার্যকরভাবে মোকাবিলা করতে পারি।

মামুন হোসেন আগুন

রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ,

ঢাকা কলেজ, ঢাকা।

চিঠিপত্র : নিত্যপণ্যের মূল্যে লাগাম টানুন

নিত্যপণ্যের মূল্যে লাগাম টানুন নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের লাগামহীন মূল্যবৃদ্ধি বর্তমানে একটা অভিশাপ হয়ে দেখা

চিঠিপত্র : পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতে প্রকৃত মেধার মূল্যায়ন চাই

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছ পদ্ধতিতে অনলাইনের মাধ্যমে ভর্তি পরীক্ষার নীতিগত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

চিঠিপত্র : প্লাস্টিক বর্জ্য ও আমাদের করণীয়

২০০২ সালে প্রজ্ঞাপন জারি করে দেশে একটি আইন প্রনয়ণ করা হয়েছিল।

sangbad ad

চিঠিপত্র : করলে শাকসবজি চাষ, আয় আসবে বারোমাস

আমাদের প্রায় সবারই বসত বাড়ির আশেপাশে পতিত জায়গা বা খালি জায়গা পড়ে থাকে বছরের পর বছর।

চিঠিপত্র : মানসিক স্বাস্থ্যের গুরুত্ব

করোনা মহামারীর কারণে বিশ্বজুড়ে মানসিক স্বাস্থ্য মারাত্মক বিপর্যয়ের সম্মুখীন। বিশেষজ্ঞদের

চিঠিপত্র : হাত ধুলে নিয়মিত থাকব সবাই করোনামুক্ত

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

করোনা মহামারীর প্রাক্কালে এবারের বিশ্ব হাত ধোয়া দিবসের গুরুত্ব অন্যবারের তুলনায় অনেক বেশী।

চিঠিপত্র : এইচএসসি পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করুন

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ চলছে বিশ্বময়। পৃথিবীর প্রত্যেকটি ব্যবস্থাকে বিপর্যস্ত করে দিয়েছে কোভিড-১৯।

চিঠিপত্র : ডেঙ্গু মোকাবিলায় আমরা প্রস্তুত তো?

বর্তমানে দেশ নভেল করোনা ভাইরাসে বিপর্যস্ত। সবাই মনে একরকম আতঙ্ক ও উৎকন্ঠা নিয়ে বসবাস করছে । কিন্তু এ মহামারীর

চিঠিপত্র : নিরাপদ সড়ক যেন অবাস্তব কল্পনা

প্রতিদিনই ঘটছে প্রাণহানির ঘটনা। অদক্ষ চালক, ফিটনেসবিহীন যানবাহন

sangbad ad