• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৯

 

স্বাভাবিক পুঁজিবাজার চাই অনৈতিক কারসাজি দমন করুন

নিউজ আপলোড : ঢাকা , মঙ্গলবার, ০৯ এপ্রিল ২০১৯

দেশের পুঁজিবাজারে এখনও কারসাজি হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। স্বার্থান্বেষী একটি গোষ্ঠী দুই স্টক এক্সচেঞ্জের সূচক সুকৌশলে নিয়ন্ত্রণ করছে এমন অভিযোগ প্রায়ই শোনা যায়। দেশের অর্থনীতির কোন সূচকের সঙ্গেই পুঁজিবাজারের সূচক সামঞ্জস্যপূর্ণ নয় বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে বাজার নিয়ন্ত্রকরা দাবি করছেন, পুঁজিবাজার স্থিতিশীল আছে। সাধারণ বিনিয়োগকারীদের অভিযোগ, একটি স্বার্থান্বেষী গোষ্ঠী এখন বাজারের সূচক বা কোম্পানির শেয়ার দর নিজেদের ইচ্ছেমতো নিয়ন্ত্রণ করছে। এ নিয়ে গণমাধ্যমগুলো নিয়মিত প্রতিবেদন প্রকাশ করছে।

২০১০-এর বিপর্যয়ের পর সরকার পুঁজিবাজারকে স্বাভাবিক করতে এ পর্যন্ত অনেক পদক্ষেপ নিয়েছে। কিন্তু এখনও পুঁজিবাজারকে স্বচ্ছ করা যায়নি। গতিশীলতা ফেরানো যায়নি। নতুন কোম্পানির আইপিও অনুমোদন থেকে শুরু করে সেকেন্ডারি বাজারে স্টক লেনদেন পর্যন্ত সবস্তরেই নিয়ন্ত্রক ব্যাংকগুলো দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়ে আসছে। দেনায় ডুবতে থাকা কোম্পানিগুলোকে পুঁজি উত্তোলনের অনুমোদন দেয়া হচ্ছে। অনুমোদন পাওয়া কোম্পানি পুঁজি সংগ্রহের পরপরই লোকসানি প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়, এমনকি বন্ধ হয়ে যায়। দেশীয় বা বহুজাতিক ভালো কোম্পানি তালিকাভুক্ত করার কার্যকর কোন উদ্যোগ নেই।

সেকেন্ডারি বাজারে এক শ্রেণীর কোম্পানির মালিক, ব্রোকারেজ হাউজের অসাধু কর্মকর্তারা কোম্পানির মূল্য কারসাজি করে বাড়ায় বা কমায়। কোটি কোটি টাকার অনিয়মের ঘটনায় নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি জরিমানা করে কয়েক লাখ টাকা। শেয়ার কেলেঙ্কারির মামলাগুলোর কোন গতি নেই। আইসিবিসহ কারা মার্কেট মেকিংয়ের দায়িত্বে রয়েছে তাদের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। দেশে এখন এমন কোন পরিস্থিতি তৈরি হয়নি যে, দুই মাসে সূচক ৬০০ পয়েন্টের বেশি কমবে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সূচক যতটা কমেছে, অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ারের দর তার চেয়ে বেশি কমেছে। সূচকে বাজারের প্রকৃত পরিস্থিতি প্রতিফলিত হচ্ছে না। সুকৌশলে সূচক নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে। আমরা জানতে চাই, কারা কীভাবে সূচক নিয়ন্ত্রণ করছে। কারা পুঁজিবাজারের স্বাভাবিক বিকাশে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করছে। তাদের খুঁজে বের করে আইনি ব্যবস্থা নেয়া না হলে পুঁজিবাজার স্বাভাবিক হবে না।

উন্নত অর্থনীতির বড় অনুষজ্ঞ হচ্ছে পুঁজিবাজার। ব্যাংকনির্ভর অর্থনীতি দিয়ে অর্থনীতিকে খুব বেশি দূর এগিয়ে নেয়া যাবে না। নীতি-নির্ধারকদের বিষয়টি বুঝতে হবে। পুঁজিবাজারকে একটি ভিত্তির ওপর দাঁড় করানো না গেলে অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রা মুখ থুবড়ে পড়বে। ব্যাংক খাত ইতোমধ্যে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। অথচ এর বিকল্প হিসেবে এখনও পুঁজিবাজারকে তৈরি করা যায়নি। এটা সরকারের অর্থনৈতিক লক্ষ্যের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয়।

দৈনিক সংবাদ : ৯ এপ্রিল ২০১৯, মঙ্গলবার, ৬ এর পাতায় প্রকাশিত

রমজানে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে চাই কঠোর মনিটরিং

আসন্ন রমজানে দ্রব্যমূল্য সহনীয় পর্যায়ে থাকবে বলে আশ্বস্ত করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু

ই-বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় রিসাইক্লিংয়ে পরিকল্পিত ও স্থায়ী উদ্যোগ নিন

ইলেকট্রনিক পণ্যের ব্যবহার বাড়ছে। একই সঙ্গে বাড়ছে ইলেকট্রনিক বা ই-বর্জ্যরে পরিমাণও। এসব ই-বর্জ্যরে দূষণ থেকে প্রাণ ও প্রকৃতিকে রক্ষা

বর্ষার আগেই ঢাকাডুবি কেন নগর কর্তৃপক্ষ কী করছে

চৈত্র মাসেই বৃষ্টির পানি জমে সয়লাব হয়ে যাচ্ছে রাজধানী ঢাকার বেশিরভাগ এলাকার রাস্তা

sangbad ad

পুলিশের ভূমিকা খতিয়ে দেখতে হবে

ফেনীর সোনাগাজীতে মাদ্রাসাছাত্রীকে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টার মামলায় স্থানীয় পুলিশের ভূমিকা নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন ভিকটিমের স্বজনরা।

দ্রুত সম্পন্ন করা রাষ্ট্রের দায়িত্ব

অর্পিত সম্পত্তি অবমুক্তির লাখো মামলা বছরের পর বছর ধরে ঝুলে আছে। মামলা নির্ধারিত সময়ে নিষ্পত্তি হচ্ছে কিনা তা মনিটর করার কেউ

রোজার মাসে ভোগ্যপণ্যের বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখুন

রমজান সামনে রেখে এরই মধ্যে অস্থির হয়ে উঠতে শুরু করেছে ভোগ্যপণ্যের বাজার। বিভিন্ন নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম কোন কারণ ছাড়াই

রাজধানী কি এবারও জলাবদ্ধ হয়ে পড়বে

রাজধানীর অনেক এলাকা আগামী বর্ষাতেও জলাবদ্ধ হয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়ন হতে হবে

অগ্নিকান্ড রোধ এবং এর ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৫টি নির্দেশনা দিয়েছেন। গত সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার নিয়মিত

নববর্ষ উদযাপনে কোন বিধি-নিষেধ নয়

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) কর্তৃপক্ষ নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে পহেলা বৈশাখের দিন বিকাল ৫টার পর ক্যাম্পাস এলাকায় প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি

sangbad ad