• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০

 

সালতা নদী খনন প্রকল্পে দুর্নীতির দায়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন

নিউজ আপলোড : ঢাকা , শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০

সাতক্ষীরা ও খুলনা জেলার মধ্য দিয়ে প্রবাহিত ১৮ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যরে সালতা নদী খনন প্রকল্পে ঠিকদারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম নদী, খননে ধীরগতি ও লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগসাজশ করে দুর্নীতি এবং অনিয়ম করা হচ্ছে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন। ১৪ কোটি ৬৩ লাখ ৫২ হাজার টাকা ব্যয়ে খুলনার এসকেই (জেডি) ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সালতা নদী খনন ২১ মার্চ ২০১৯ থেকে কাজ শুরু করে। ২৫ জুন ২০২০-এ কাজ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও প্রকল্প বাস্তবায়নকারী ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান দুই দফায় কাজের মেয়াদ বাড়ালেও এখনও পর্যন্ত নদী খনন শেষ হয়নি।

দেশে নদী ও খাল খননে অনিয়ম ও দুর্নীতির বিষয়টি বহুল আলোচিত। দুর্নীতিবাজরা অভিনব কায়দায় দুর্নীতি করে পার পাওয়ার চেষ্টা করে থাকে। বস্তুত নদী খননের নামে সরকারি অর্থ লুটপাটের উৎসব চলছে বহু আগে থেকেই। নদীটি খনন না করায় নদীর দু’পাড়ে তিন উপজেলার ২০-২৫টি গ্রামে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। নদী খনন প্রকল্পে যদি অনিয়ম-দুর্নীতি ও লুটপাট হয়, তাহলে প্রকল্প কীভাবে বাস্তবায়ন হবে? অনিয়ম-দুর্নীতি ও লুটপাটের কারণে বহু প্রকল্প ব্যর্থ হয়েছে। যে উদ্দেশ্যে প্রকল্প নেয়া হয়, তা পূরণ করতে পারে না। আমরা জানি, নদ-নদী বা খাল-খনন প্রকল্পসহ যত সরকারি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়, তাতে বরাদ্ধ দেয়া টাকা জনগণের। প্রকল্প বাস্তবায়নের নামে এভাবে জনগণের টাকার নয়ছয় করা আর কতদিন চলবে?

যে কোন প্রকল্প যথাযথভাবে বাস্তবায়নের সঙ্গে দেশের উন্নয়ন-অগ্রগতির প্রশ্নটি যুক্ত। অথচ দুর্ভাগ্যজনকভাবে আমাদের দেশে অনেক ক্ষেত্রেই বিভিন্ন প্রকল্প গ্রহণ থেকে মুরু করে বাস্তবায়ন পর্যন্ত প্রায় প্রতিটি পর্যায়েই অস্বচ্ছতা ও অনিয়মের অভিযোগ ওঠে। এ জন্য যে কোন প্রকল্পর কাজে আর্থিক স্বচ্ছতা, জবাবদিহি ও সুষ্ঠু ব্যবস্থানা নিশ্চিত করা সবার আগে দরকার।

আমরা চাই, সালতা নদী খননের কাজে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানটির অনিয়ম, দুর্নীতি ও লুটপাটের যে অভিযোগ উঠেছে তার ভিত্তিতে এই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানটিকে বাদ দিয়ে অন্য কোন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কাছে এই দায়িত্ব দেয়া হোক। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে যথাযথ আইনি ব্যবস্থা নিতে হবে।

ভ্রাতৃঘাতি সংঘাতের অবসান চাই

পার্বত্য শান্তিচুক্তির ২৩ বছর পূর্তি হয়েছে আজ। ১৯৯৭ সালের ২ ডিসেম্বর স্বাক্ষরিত শান্তিচুক্তির মধ্য দিয়ে পার্বত্যাঞ্চলে দুই দশকের বেশি সময় ধরে চলা সশস্ত্র আন্দোলনের অবসান ঘটে।

দখল হওয়া বনভূমি স্থায়ীভাবে পুনরুদ্ধার করুন

সারাদেশে দখল হওয়া ২ লাখ ৮৭ হাজার ৪৫২ একর বনভূমির মধ্যে ১ লাখ ৩৮ হাজার ৬১৩ একর সংরক্ষিত বনভূমি উদ্ধারে অভিযান পরিচালনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পরিবেশ বন ও জনবায়ু বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

যথাসময়ে বিনামূল্যের বই ছাপা ও সরবরাহ নিশ্চিত করুন

২০২১ শিক্ষাবর্ষে বিভিন্ন মাধ্যমের প্রাক-প্রাথমিক থেকে নবম শ্রেণী পর্যন্ত পাঠ্যবই ছাপাতে হবে প্রায় ৩৬ কোটি।

sangbad ad

ডেঙ্গু ও নিপাহ ভাইরাস নিয়েও সতর্ক থাকতে হবে

আসন্ন শীতে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের পাশাপাশি বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা। এ বছরের গত রোববার পর্যন্ত ডেঙ্গুজ্বরে সর্বমোট আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ১৩৪ জন।

মহান বিজয়ের মাস

আগামী ১৬ ডিসেম্বর ৫০তম বিজয় দিবস। একাত্তরে লাখো শহীদের আত্মত্যাগ, বীর মুক্তিযোদ্ধাদের

ধান চাল সংগ্রহ : কৃষক যেন লাভবান হয়

দেশের বিভিন্ন স্থানে কৃষকরা সরকারের কাছে ধান-চাল বিক্রিতে আগ্রহ

কোভিডে ক্ষতিগ্রস্ত সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রতিশ্রুত ক্ষতিপূরণ দিন

নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কেউই প্রতিশ্রুত ক্ষতিপূরণ পাননি।

আবাদযোগ্য জলাশয়গুলো কচুরিপানামুক্ত করুন

পানি কমে গেলেও পাবনার সুজানগর উপজেলার গাজনার বিলের কৃষকরা চাষাবাদ শুরু করতে পারছেন না।

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যবিরোধীদের কাছে নতিস্বীকার করা চলবে না

দেশে কোন ভাস্কর্য তৈরি হলে টেনেহিঁচড়ে ফেলে দেয়ার হুমকি দিয়েছেন হেফাজতে ইসলামের নব্য আমির জুনায়েদ বাবু নগরী।

sangbad ad