• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০

 

রাজস্ব আদায়ে কর্মীদের অতিমাত্রায় ক্ষমতা স্বেচ্ছাচারিতা বাড়াবে

নিউজ আপলোড : ঢাকা , শনিবার, ২০ জুন ২০২০

২০২০-২১ অর্থবছরের নতুন বাজেট অনুযায়ী রাজস্ব কর্মকর্তারা চাইলে যে কোন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হানা দিতে পারবেন। ব্যবসায়ীরা আগের চেয়ে বেশি নজরদারিতে থাকবেন। তাদের অনেক বেশি শর্ত মানতে হবে। ভ্যাট নিয়ে মামলা করতে চাইলে ব্যবসায়ীদের আগের চেয়ে দ্বিগুণ অর্থ খরচ করতে হবে। আবার শিল্পপণ্য আমদানিতে ভ্যাটের আগাম কর দিতে হলে নানা ধরনের কাগজপত্র জমা দেয়া বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। মাসের পর মাস আটকে থাকতে পারে উপকরণ কর রেয়াতের টাকা।

এসব পরিবর্তনে ব্যবসায়ীদের যে আরও বেশি ভোগান্তি পোহাতে হবে এতে কোন সন্দেহ নেই। নতুন বাজেট পাস হলে মূল্য সংযোজন কর (মূসক) বা ভ্যাট আদায়ের জন্য এনবিআরের ভ্যাট বিভাগের মাঠপর্যায়ের কর্মীরাই অনুমতি ছাড়া (রাজস্ব কর্মকর্তা) হানা দিতে পারবেন যে কোন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে। তারা চাইলে ওই সব প্রতিষ্ঠানের নথিপত্র যাচাই করতে পারবেন। এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট কমিশনারের আগাম অনুমোদন লাগবে না। মাঠপর্যায়ের কর্মীদের ক্ষমতা বৃদ্ধি পাওয়ায় তাদের স্বেচ্ছাচারী হওয়ার সুযোগ বাড়বে।

মাঠপর্যায়ের কর্মীদের এ ধরনের পদক্ষেপ নেয়ার ক্ষমতা শুধু জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের অনুমোদন সাপেক্ষে থাকা উচিত। এখন যে পদক্ষেপটি নেয়া হয়েছে, তা হয়তো কর বাড়ানোর চেষ্টা। কিন্তু স্বাভাবিক সময়েই মাঠপর্যায়ে এত ক্ষমতা দেয়ার বিষয়টি গ্রহণযোগ্য হতো না। বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে ব্যবসা-বাণিজ্যের অবস্থা ভালো নয়। উল্টো সরকারের রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা অনেক বেশি। আমরা আশঙ্কা করছি, এতে করে ব্যবসায়ীদের হয়রানি বাড়বে। মাঠপর্যায়ে অনুমতি ছাড়া নথিপত্র যাচাইয়ের সুযোগ দেয়া হলে সমস্যা বাড়বে। পদে পদে বিপদ দেখে উদ্যোক্তারা নিরুৎসাহিত হবেন। তাছাড়া সর্বব্যাপী দুর্নীতি ও অনিয়মে যে রাজস্ব বিভাগের নাম নেই এমনটা নয়। ফলে রাজস্ব আদায় বাড়াতে গিয়ে নতুন করে দুর্নীতির ক্ষেত্র তৈরি হবে। তাই মাঠপর্যায়ে এত ক্ষমতা না দেয়াই সুবিবেচনাপ্রসূত কাজ হবে। এক্ষেত্রে অনলাইনে রিটার্ন দেয়ার ব্যবস্থা করা যায়, যাতে কর কর্মকর্তাদের সঙ্গে ব্যবসায়ীদের দেখা না হয়।

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রসঙ্গে

বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া শরণার্থী রোহিঙ্গাদের নিজ দেশ মায়ানমারে প্রত্যাবাসন নিয়ে অনিশ্চয়তা কাটছে না। গত কয়েক বছরেও রাখাইনের...

মোবাইলে কথা বলা এবং ইন্টারনেটের খরচ কমাতে হবে

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

২০২০-২১ অর্থবছরে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে কথা বলা ও ইন্টারনেট ব্যবহারে খরচ বাড়তে যাচ্ছে। বাজেটে মোবাইল সেবার ওপর কর

অক্সিজেন নিয়ে কারসাজিকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন

বৈশ্বিক মহামারী নভেল করোনাভাইরাসের প্রেক্ষিতে দেশে এবার অক্সিজেন সিলিন্ডার, পালস অক্সিমিটার, জীবনরক্ষাকারী বিভিন্ন ওষুধের দাম

sangbad ad

সংবাদপত্র বাঁচাতে কমাতে হবে কর-ভ্যাট

সম্পাদকীয়

image

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে বিরূপ পরিস্থিতিতে পড়েছে সংবাদপত্র শিল্প। বিজ্ঞাপন শূন্যের কোঠায় নেমে এসেছে। পত্রিকার গ্রাহকও কমেছে। এ অবস্থায় সংবাদপত্র টিকিয়ে রাখাই কঠিন হয়ে পড়েছে।

অর্থনীতি পুনরুদ্ধারের বাজেট

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

আগামী ২০২০-২১ অর্থবছরের জন্য অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল গতকাল ৫ লাখ ৬৮ হাজার কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা করেছেন

রোহিঙ্গা ইস্যুতে চীনের বক্তব্য ইতিবাচক

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে ঢাকা ও বেইজিং সম্মত হয়েছে। গত শুক্রবার চীনের রাজধানী বেইজিংয়ে দেশটির প্রেসিডেন্ট শি জিন পিংয়ের সঙ্গে

সঞ্চয়পত্রের মুনাফার উৎসে কর বৃদ্ধির প্রস্তাব প্রত্যাহার করুন

প্রস্তাবিত বাজেটে সঞ্চয়পত্রের মুনাফার ওপর উৎসে কর ৫ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে

রোহিঙ্গা ইস্যুতে মায়ানমারের ওপর কূটনৈতিক চাপ অব্যাহত রাখতে হবে

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফিরিয়ে নেয়ার ব্যাপারে সব দেশ সম্মত হলেও মায়ানমারের সাড়া পাওয়া যাচ্ছে

ইরান-মার্কিন বিরোধেও কি বাংলাদেশ জড়িত থাকবে

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওকে লেখা এক চিঠিতে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

sangbad ad