• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০

 

তথ্য অধিকার আইন সঠিকভাবে কার্যকর করুন

মতপ্রকাশের বাধাগুলো দূর করুন

নিউজ আপলোড : ঢাকা , সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

তথ্য অধিকার আইন হওয়ার এক দশক পেরিয়ে গেলেও দেশের খুব কম মানুষই জানে এ সম্পর্কে। ফলে এই আইন ব্যবহার করে তারা তথ্য পাওয়া নিশ্চিত করতে পারছে না। সাম্প্রতিক তিনটি জরিপ অনুসারে দেশের ৮১.৭ শতাংশ মানুষ তথ্য অধিকার আইন সম্পর্কে জানে না। আবার অনেকেই এ আইনের অধীনে তথ্য চেয়েও পাচ্ছেন না সরকারি-বেসরকারি অফিসের অবজ্ঞা-অনীহার কারণে। এ প্রেক্ষাপটে গত সোমবার উদযাপিত হলো বিশ্ব তথ্য অধিকার দিবস।

দেশে তথ্য অধিকার আইন থাকলেও সে আইনের বাস্তবায়নে যে বড় ধরনের সংকট রয়েছে সেটা বলাবাহুল্য। তথ্য পেতে নির্দিষ্ট ফরমে আবেদন করেও বেশির ভাগ ক্ষেত্রে কাজ হয় না। প্রক্রিয়া অনুসরণ করেও বিড়ম্বনার শিকার হতে হয়। তাছাড়া প্রকৃত তথ্য প্রকাশে সরকারিভাবেই বাধা দেওয়া হচ্ছে। করোনাকালে বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠান বিচ্ছিন্নভাবে নিজেদের কর্মচারীদের তথ্য প্রকাশে বিধি-নিষেধ আরোপ করলে ব্যাপক সমালোচনা হচ্ছিল। এরই মধ্যে গত ২৪ আগস্ট কেন্দ্রীয়ভাবে ‘সরকারি কর্মচারী (আচরণ) বিধিমালা-১৯৭৯ অনুযায়ী দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তি ছাড়া অন্যদের গণমাধ্যমে তথ্য প্রকাশে বা কথা না বলতে সব মন্ত্রণালয় ও বিভাগে চিঠি দিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। অন্যদিকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন করে স্বাধীন মতপ্রকাশের পথরুদ্ধ করা হয়েছে। এই আইনের ভয়ে মানুষ এখন সত্য কথা বলতে বা লিখতে ভয় পাচ্ছেন। আর্টিকেল নাইনটিন-এর তথ্য অনুযায়ী ২০১৯ সালে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মতপ্রকাশজনিত অপরাধের ৬৩টি মামলা রেকর্ড করা হয়। চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে এপ্রিল পর্যন্ত এ সংক্রান্ত ৪৫টি মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। যেগুলোর অধিকাংশই করা হয়েছে লেখক, কার্টুনিস্ট, গণমাধ্যমের সাংবাদিক ও সম্পাদকদের বিরুদ্ধে। দুই মাসেরও বেশি সময় ধরে নিখোঁজ থাকা সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজলকে উদ্ধারের পর তার বিরুদ্ধে যেভাবে আইনি প্রক্রিয়ার অপব্যবহার করা হয়েছে তাতে আরও ভীতিকর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের নিবর্তনমূলক সব ধারার বিপক্ষে আমরা। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের সংশ্লিষ্ট ধারাগুলো স্পষ্টতই সংবিধানে প্রদত্ত মৌলিক অধিকার ও বিশ্ব মানবাধিকার ঘোষণার ১৯ ধারার পরিপন্থী। যে আইন মানুষের সত্য কথা বলা রুদ্ধ করে সেই আইন অবশ্যই জনস্বার্থ বিরোধী। কাজেই এ আইন অবিলম্বে বাতিল করতে হবে। সেই সঙ্গে এ আইনে গ্রেপ্তারকৃত নিরপরাধ ব্যক্তিদের মুক্তি দিতে হবে এবং এটাও মনে রাখতে হবে যে, গণমাধ্যম এবং মতপ্রকাশের অধিকারকে দমিয়ে রাখার প্রবণতা অব্যাহত থাকলে গণতন্ত্রও হুমকির মুখে পড়বে।

মালিক-শ্রমিককে আলোচনায় বসতে হবে

এগারো দফা দাবিতে পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে সারা দেশে অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘট কর্মসূচি পালন করছেন নৌযান শ্রমিককরা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার মান ও গবেষণা দুটোই উন্নত করতে হবে

প্রতি বছর নতুন বিভাগ খোলা, শিক্ষার্থী ও শিক্ষক বাড়ানো, বিপুলসংখ্যক প্রশাসনিক কর্মী নিয়োগ- সব মিলিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কলেবরের দিক দিয়ে বিশাল আকার ধারণ করলেও শিক্ষার মান ও গবেষণার দিক দিয়ে কোন উন্নতি হয়নি বলে গতকাল মঙ্গলবার গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। মূলত শিক্ষা ও সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে গুণগতমানের দিক দিয়ে প্রত্যাশিত কোন উন্নতিই হয়নি।

ধর্ষকদের বিরুদ্ধে তীব্র সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার নির্দেশ ইন্দিরার

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

image

মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা বলেছেন, বিকৃত মস্তিস্ক, কান্ডজ্ঞানহীন বিবেক বর্জিত ও মানসিক বিকার গ্রস্তরাই ধর্ষণকারী।

sangbad ad

ধর্ষণ মামলার দ্রুত বিচার অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত

মোংলায় শিশু ধর্ষণের এক মামলায় চার্জ গঠনের পর ৭ কার্যদিবসের মধ্যে রায় ঘোষণা করেছেন বাগেরহাট জেলা ও দায়রা জন্য আদালত।

বনাঞ্চল সুরক্ষায় কার্যকর উদ্যোগ নিতে হবে

দেশের দুই লাখ ৮৭ হাজার ৪৫২ একর বনভূমি বেদখল হয়ে আছে। প্রায় ৯০ হাজার ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান অবৈধভাবে এসব জমি জবরদখল করে রেখেছেন।

বাংলাদেশকেও ঘটনার তদন্ত করতে হবে

গতকাল রোববার চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় বিএসএফের গুলিতে একজন বাংলাদেশি নাগরিক মারা গেছেন। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, দামুড়হুদা

প্লাস্টিকের পচনশীল বিকল্প বের করতে হবে

রাজধানীর চারপাশের চারটি নদীতে ৩০ হাজার টন প্লাস্টিক বর্জ্য পাওয়া গেছে, যার অর্ধেকই রয়েছে বুড়িগঙ্গায়। বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে

দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন

গতকাল শনিবার সকালে ফেনীতে ধর্ষণবিরোধী লংমার্চে হামলার ঘটনা ঘটেছে। হামলার জন্য পুলিশ এবং ছাত্রলীগ-যুবলীগকে দায়ী করেছেন আন্দোলনকারীরা।

ভাসানচর প্রস্তুত, রোহিঙ্গাদের দ্রুত স্থানান্তর করুন

কক্সবাজারে বসবাসরত রোহিঙ্গাদের স্থানান্তরের জন্য ভাসানচর পুরোপুরি প্রস্তুত রয়েছে বলে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে গণমাধ্যমে।

sangbad ad