• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০

 

প্রকল্পের ব্যয় ও সময় বাড়ানোর অপসংস্কৃতি বন্ধ হবে কবে

নিউজ আপলোড : ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন প্রকল্পের কাজই শুরু হয়নি, তার আগেই প্রকল্পের ব্যয় ও সময় বাড়ানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। আজ প্রকাশিত সংবাদ-এর এক প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে এ কথা। উক্ত প্রকল্পের অধীনে ৩ হাজার ২০০ কোটি টাকা ব্যয়ে ৯০০ কিলোমিটার নৌপথ খনন, বন্দর উন্নয়ন এবং অবকাঠামো নির্মাণ করার কথা ছিল। প্রকল্প সংশোধন করে ব্যয় বাড়ানো হচ্ছে প্রায় দেড়শ’ কোটি টাকা। কথা ছিল প্রকল্পের কাজ শেষ হবে ২০২০ সালে। এখন বলা হচ্ছে ২০২৫ সালের ডিসেম্বরে কাজ শেষ হবে। অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) জানিয়েছে ব্যয় ও সময় বাড়ানো সংক্রান্ত প্রস্তাব শীঘ্রই একনেকে উপস্থাপন করা হবে। প্রকল্প পরিচালক বলেছেন, ডলারের দাম বাড়ায় ব্যয় বাড়ানো হচ্ছে। আর বিভিন্ন প্যাকেজ সংশোধনের কারণে সময় বাড়ানো হবে দেড় বছর।

প্রকল্পের ব্যয় ও সময় বাড়ানো অবধারিত হয়ে পড়েছে। কোন প্রকল্প নির্ধারিত সময়ে শেষ হয়েছে বা বরাদ্দ অনুযায়ী কাজ হয়েছে এমন নজির মেলা ভার। দফায় দফায় এ ব্যয় বাড়িয়েও প্রকল্পের কাজ শেষ করা যাচ্ছে না। মেগা বা মিনি সব প্রকল্পেরই একই দশা। এখন এমন অবস্থা দাঁড়িয়েছে যে, প্রকল্প শুরু হওয়ার আগেই ব্যয় বাড়ানো হচ্ছে, সময় বাড়ানো হচ্ছে। বলা হচ্ছে, ডলারের দাম বেড়েছে বলে ব্যয় বাড়ছে। আমরা জানতে চাই যে, ডলারের দাম কমলে কি প্রকল্পের ব্যয় কমানো হতো নাকি কোনদিন কমানো হয়েছে। এমন অনেক প্রকল্পের কথা জানা যায় যেটা আড়াই বছরে শেষ হওয়ার কথা সেটা শেষ হতে একযুগ সময় লেগেছে। প্রকল্পের ব্যয় দ্বিগুণ-তিনগুণ বাড়া মামুলি ঘটনায় পরিণত হয়েছে।

প্রকল্পের ব্যয় বাড়া মানে রাষ্ট্রের খরচ বাড়া। নির্ধারিত ব্যয়ে একেকটি প্রকল্প শেষ হলে রাষ্ট্রীয় কোষাগারের অর্থ অন্য কোন কাজে লাগানো যায়। জনগণের করের টাকায় প্রকল্পের ব্যয় বাড়ানো হলেও তার বড় একটি অংশ দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা-কর্মচারী, ঠিকাদারদের পকেটে যায় বলে অভিযোগ রয়েছে। যথাসময়ে কাজ শেষ করা না হলে জনদুর্ভোগ বাড়ে। প্রকল্পের মেয়াদ বা ব্যয় বাড়ানোর ঘটনায় বিভিন্ন সময় প্রধানমন্ত্রী অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। তাতে প্রকল্পের ব্যয় বা সময় বৃদ্ধি বন্ধ হয়নি। দেশ থেকে এ অপসংস্কৃতি কবে বিদায় নেবে সেটা একটা প্রশ্ন।

আমরা বলতে চাই, যথাসময়ে নির্ধারিত বরাদ্দে মধ্যে প্রকল্পের কাজ শেষ করতে হবে। প্রকল্প গ্রহণের শুরুতেই হিসাব-নিকাশ করে ব্যয় বরাদ্দ দেয়া হয়, সময় নির্ধারণ করা হয়। দফায় দফায় ব্যয় বা সময় না বাড়িয়ে প্রকল্প বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্টদের কাজে দক্ষতা ও সক্ষমতা বাড়াতে হবে। প্রকল্পের টাকা হরিলুট বন্ধ করা জরুরি। অনিয়ম-দুর্নীতির রাস্তা বন্ধ করা হলে ব্যয় বা সময় বাড়ানোর ঘটনা অনেকাংশেই কমবে।

মালিক-শ্রমিককে আলোচনায় বসতে হবে

এগারো দফা দাবিতে পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে সারা দেশে অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘট কর্মসূচি পালন করছেন নৌযান শ্রমিককরা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার মান ও গবেষণা দুটোই উন্নত করতে হবে

প্রতি বছর নতুন বিভাগ খোলা, শিক্ষার্থী ও শিক্ষক বাড়ানো, বিপুলসংখ্যক প্রশাসনিক কর্মী নিয়োগ- সব মিলিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কলেবরের দিক দিয়ে বিশাল আকার ধারণ করলেও শিক্ষার মান ও গবেষণার দিক দিয়ে কোন উন্নতি হয়নি বলে গতকাল মঙ্গলবার গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। মূলত শিক্ষা ও সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে গুণগতমানের দিক দিয়ে প্রত্যাশিত কোন উন্নতিই হয়নি।

ধর্ষকদের বিরুদ্ধে তীব্র সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার নির্দেশ ইন্দিরার

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

image

মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা বলেছেন, বিকৃত মস্তিস্ক, কান্ডজ্ঞানহীন বিবেক বর্জিত ও মানসিক বিকার গ্রস্তরাই ধর্ষণকারী।

sangbad ad

ধর্ষণ মামলার দ্রুত বিচার অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত

মোংলায় শিশু ধর্ষণের এক মামলায় চার্জ গঠনের পর ৭ কার্যদিবসের মধ্যে রায় ঘোষণা করেছেন বাগেরহাট জেলা ও দায়রা জন্য আদালত।

বনাঞ্চল সুরক্ষায় কার্যকর উদ্যোগ নিতে হবে

দেশের দুই লাখ ৮৭ হাজার ৪৫২ একর বনভূমি বেদখল হয়ে আছে। প্রায় ৯০ হাজার ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান অবৈধভাবে এসব জমি জবরদখল করে রেখেছেন।

বাংলাদেশকেও ঘটনার তদন্ত করতে হবে

গতকাল রোববার চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় বিএসএফের গুলিতে একজন বাংলাদেশি নাগরিক মারা গেছেন। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, দামুড়হুদা

প্লাস্টিকের পচনশীল বিকল্প বের করতে হবে

রাজধানীর চারপাশের চারটি নদীতে ৩০ হাজার টন প্লাস্টিক বর্জ্য পাওয়া গেছে, যার অর্ধেকই রয়েছে বুড়িগঙ্গায়। বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে

দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন

গতকাল শনিবার সকালে ফেনীতে ধর্ষণবিরোধী লংমার্চে হামলার ঘটনা ঘটেছে। হামলার জন্য পুলিশ এবং ছাত্রলীগ-যুবলীগকে দায়ী করেছেন আন্দোলনকারীরা।

ভাসানচর প্রস্তুত, রোহিঙ্গাদের দ্রুত স্থানান্তর করুন

কক্সবাজারে বসবাসরত রোহিঙ্গাদের স্থানান্তরের জন্য ভাসানচর পুরোপুরি প্রস্তুত রয়েছে বলে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে গণমাধ্যমে।

sangbad ad