• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯

 

পাহাড়ে হত্যার রাজনীতির অবসান চাই

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বুধবার, ২০ মার্চ ২০১৯

রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়িতে গত সোমবার সশস্ত্র হামলায় সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার, আনসার-ভিডিপির সদস্যসহ ৭ জন মারা গেছেন। গুলিবিদ্ধ হয়েছেন ১৭ জন। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সূত্রে জানা গেছে, হামলার শিকার ব্যক্তিরা উপজেলা নির্বাচনের দায়িত্ব পালন করে ফেরার পথে নয়কিলো নামক স্থানে পৌঁছালে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা ব্রাশফায়ার করে। কে বা কারা হামলা চালিয়েছে সেটা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে জনসংহতি সমিতি(জেএসএস-এমএন লারমা) সন্ত্রাসী হামলার জন্য দায়ী করেছে জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমার (সন্তু লারমা) নেতৃত্বাধীন জনসংহতি সমিতিকে (জেএসএস)। এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে জেএসএস। পাহাড়ের আরেকটি সংগঠন ইউপিডিএফও এ হামলায় জড়িত থাকতে পারে বলে অভিযোগ উঠেছে। তবে সংগঠনটি এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে। এদিকে গতকাল বিলাইছড়ি উপজেলায় দুর্বৃত্তদের গুলিতে মারা গেছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুরেশ কান্তি তঞ্চঙ্গ্যা।

পাহাড়ে একাধিক আঞ্চলিক সংগঠনের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরেই বিভিন্ন বিষয়ে বিবাদ চলছে। বিবদমান সংগঠনগুলোর বিরুদ্ধে প্রায়ই সশস্ত্র হামলা চালানোর অভিযোগ পাওয়া যায়। উপজেলা নির্বাচন নিয়েও সংগঠনগুলো বিভক্ত হয়ে পড়েছিল। উপজেলা নির্বাচনের দিন জেএসএস সমর্থিত প্রার্থী ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন। বাগাইছড়িতে নির্বাচনে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা আঞ্চলিক সংগঠনগুলোর মধ্যে সীমাবদ্ধ ছিল। সঙ্গত কারণেই গত সোম ও মঙ্গলবারের সশস্ত্র হামলার জন্য পাহাড়ি সংগঠনগুলোর দিকেই অভিযোগের আঙুল উঠেছে।

স্বাধীনতার পর থেকেই পাহাড়ের রাজনৈতিক পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। ১৯৯৭ সালে পার্বত্য শান্তিচুক্তি হওয়ার পর আশা করা গিয়েছিল পাহাড়ে শান্তি ফিরবে। বাস্তবে সেখানে দ্বন্দ্ব-বিবাদ আরও বেড়েছে। বিশেষ করে পাহাড়িদের অন্তর্কলহ নতুন মাত্রা পেয়েছে। ভ্রাতৃঘাতী সংঘাত সংঘর্ষে শুধু পাহাড়ি সংগঠনের নেতাকর্মীরাই প্রাণ হারাননি, সাধারণ মানুষও ভুক্তভোগী হয়েছেন। সমঝোতার ভিত্তিতে ২০১৫ সালে পাহাড়ি সংঘঠনগুলো সন্ত্রাসের পথ ত্যাগ করলেও তা স্থায়ী হয়নি। ২০১৭ সালের শেষ দিকে আবার সশস্ত্র সংঘাত শুরু হয়। যা অব্যাহত আছে।

আমরা মনে করি, যতদিন ভূমি সংকটের কার্যকর সমাধান না হবে ততদিন পাহাড়ে এসব চলতেই থাকবে। সরকারের উচিত হবে দ্রুত এ সংকটের সমাধান করা। শান্তিচুক্তির পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়ন করার বিকল্প নেই। সেখানে সন্ত্রাস বন্ধ করতে প্রশাসনকে কঠোর হতে হবে। সশস্ত্র সংগঠনগুলোর অস্ত্র আর অর্থের উৎস কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। পাহাড়ি সংগঠনগুলোকেও ভ্রাতৃঘাতী সংঘাতের পথ ছেড়ে দিয়ে শান্তির পথ গ্রহণ করতে হবে।

দৈনিক সংবাদ : ২০ মার্চ ২০১৯, বুধবার, ৬ এর পাতায় প্রকাশিত

রোহিঙ্গা ইস্যুতে চীনের বক্তব্য ইতিবাচক

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে ঢাকা ও বেইজিং সম্মত হয়েছে। গত শুক্রবার চীনের রাজধানী বেইজিংয়ে দেশটির প্রেসিডেন্ট শি জিন পিংয়ের সঙ্গে

সঞ্চয়পত্রের মুনাফার উৎসে কর বৃদ্ধির প্রস্তাব প্রত্যাহার করুন

প্রস্তাবিত বাজেটে সঞ্চয়পত্রের মুনাফার ওপর উৎসে কর ৫ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে

রোহিঙ্গা ইস্যুতে মায়ানমারের ওপর কূটনৈতিক চাপ অব্যাহত রাখতে হবে

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফিরিয়ে নেয়ার ব্যাপারে সব দেশ সম্মত হলেও মায়ানমারের সাড়া পাওয়া যাচ্ছে

sangbad ad

ইরান-মার্কিন বিরোধেও কি বাংলাদেশ জড়িত থাকবে

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওকে লেখা এক চিঠিতে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

বহুতল ভবনের ঝুঁকি দায় নিতে হবে রাজউককে

রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) আওতাধীন অঞ্চলগুলোতে ১০ তলার বেশি এক হাজার ৮১৮টি বহুতল ভবনের বেশিরভাগেই ত্রুটি

সমাজ ও ব্যক্তির জন্য সৃষ্টি হচ্ছে ভয়াবহ সংকট

দেশে সংস্কৃতিচর্চার সুযোগ দিন দিন কমছে। সরকারি সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে পেশাদারি, জবাবদিহি ও আন্তরিকতার অভাব। সংস্কৃতি

দেশের বাঁধগুলোর সক্ষমতা বাড়াতে হবে সংস্কারের লক্ষ্যে মনিটরিং করুন

ঘূর্ণিঝড় ফণী বাংলাদেশ অতিক্রম করে গেছে। ভারতের ওড়িশা উপকূলে আঘাত হানার পর পশ্চিমবঙ্গ হয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে ঘূর্ণিঝড়।

পরিবহন সেক্টরকে মাফিয়ামুক্ত করুন

সাত দফা দাবিতে পরিবহন শ্রমিকদের ডাকা ধর্মঘটে গত সোমবার দিনভর দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে সাধারণ মানুষকে। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত

জঙ্গিবাদের হুমকি মোকাবিলায় ঐক্য গড়ে তুলুন

মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গে হামলার পরিকল্পনা করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গত বৃহস্পতিবার

sangbad ad