• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০

 

হাইটেক পার্ক

দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ নিশ্চিত করুন

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০

হাইটেক পার্ক নিয়ে সরকারের লক্ষ্য পূরণ হচ্ছে না বলে জানা গেছে। দেশের একাধিক হাইটেক পার্কে প্রত্যাশিত বিনিয়োগ হয়নি, কর্মসংস্থান আশানুরূপ নয়, তৈরি হয়নি দক্ষ জনবল। এনিয়ে বিভিন্ন সময় গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। গত বুধবার একটি জাতীয় দৈনিকের প্রতিবেদনে যশোরে অবস্থিত শেখ হাসিনা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কের নানা সীমাবদ্ধতা ও প্রত্যাশা পূরণ না হওয়ার চিত্র প্রকাশ পেয়েছে। উক্ত হাইটেক পার্ককে বাংলাদেশের সিলিকন ভ্যালি হিসেবে গড়ে তোলার কথা ছিল। ৩০৫ কোটি টাকা ব্যয়ে এ হাইটেক পার্ক এখন বিনিয়োগ আর দক্ষ জনবলের সংকটে ভুগছে। অনেক বিনিয়োগকারী হাইটেক পার্ক ছেড়ে চলে যাচ্ছেন। সেখানে বিদেশি বিনিয়োগ হয়নি। ভাড়া, বিদ্যুৎ প্রভৃতি কারণে নতুন বিনিয়োগও আকৃষ্ট করা যাচ্ছে না।

বিশ্বজুড়ে তথ্যপ্রযুক্তির প্রভাবে যে পরিবর্তন ঘটেছে সেটার সর্বোচ্চ সুবিধা নেয়ার জন্য হাইটেক পার্কের প্রয়োজন রয়েছে। হাইটেক পার্ককে কেন্দ্র করে তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর গবেষণা হবে, নতুন নতুন উদ্ভাবন সম্ভব হবে। সৃষ্টি হবে নতুন কর্মসংস্থান। হাইটেক পার্কের সম্ভাবনা সম্পর্কে সরকার ওয়াকিবহাল আছে। দেশে ইতোমধ্যে একাধিক হাইটেক পার্কে তৈরি হয়েছে। আগামীতে প্রতি জেলায় এ ধরনের পার্ক করার কথা রয়েছে। প্রশ্ন হচ্ছে, শত শত কোটি টাকা ব্যয় করে হাইটেক পার্ক নির্মাণ করলেই কি দেশে তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক গবেষণা বা উদ্ভাবনের বন্যা বয়ে যাবে। আপনাতেই কি কর্মসংস্থান তৈরি হবে। পার্ক নির্মাণ করার পাশাপাশি দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ নিশ্চিত করতে হবে। বিনিয়োগ আকৃষ্ট করার জন্য বিদ্যুৎসহ অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা সহজলভ্য করা দরকার। আর জরুরি হচ্ছে, দক্ষ লোকবল তৈরি করা। প্রতিষ্ঠানগুলো দক্ষ জনবলের অভাবের কথা বলছে। দক্ষ জনবল তৈরিতে প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই। এক্ষেত্রে সরকারকে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা নিয়ে এগোতে হবে। এখন যে কয়েকটি হাইটেক পার্ক হয়েছে সেখানে কাজ করার মতোই জনবল নেই। ভবিষ্যতে হাইটেক পার্কের সংখ্যা বাড়লে জনবল সংকট চরমে উঠবে।

দেশে হাইটেক পার্কের প্রয়োজন রয়েছে। তবে হুজুগের বশে জেলায় জেলায় হাইটেক পার্ক তৈরি করার আগে সম্ভাব্যতা যাচাই করে দেখতে হবে। বিদ্যমান পার্কগুলোকে আগে কার্যকর করা হোক। দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ নিশ্চিত করা হোক। তারপর না হয় আরও পার্ক করা যাবে। লক্ষ্য পূরণ করা না গেলে শত শত কোটি টাকা ব্যয় করে একেকটি পার্ক তৈরি করার কোন অর্থ নেই। বিয়ের উৎসব করার জন্য হাইটেক পার্ক নির্মাণ করা হয়নি। দেশি-বিদেশি তথ্যপ্রযুক্তি বিদদের সম্মিলন ঘটানোর লক্ষ্যে পার্ক করা হয়েছে। এ লক্ষ্য ভুলে গেলে চলবে না।

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যবিরোধীদের কাছে নতিস্বীকার করা চলবে না

দেশে কোন ভাস্কর্য তৈরি হলে টেনেহিঁচড়ে ফেলে দেয়ার হুমকি দিয়েছেন হেফাজতে ইসলামের নব্য আমির জুনায়েদ বাবু নগরী।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় চাই সমন্বিত পদক্ষেপ

বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণের উদ্যোগ নিতে সরকারকে পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তাদের মতে, করোনা মোকাবিলায় গোটা সরকারব্যবস্থাকে যুক্ত করা দরকার।

সুনির্দিষ্ট নীতিমালা ও কর্মপরিকল্পনা থাকা জরুরি

প্রায় ১০ কোটি করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন পাওয়ার আশ্বাস মিলেছে। গ্লোবাল অ্যালায়েন্স ফর ভ্যাকসিন অ্যান্ড ইমিউনাইজেশনস (গ্যাভি) ৬ কোটি ৮০ লাখ ও ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউট তিন কোটি টিকা দেয়ার আশ্বাস দিয়েছে।

sangbad ad

তদন্ত করে রহস্য উদ্ঘাটন করুন

আবার আগুন লাগল রাজধানীর কালশীর বাউনিয়াবাদের বস্তিতে। এ নিয়ে গত ১১ মাসে সেখানে দুবার অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটল। কিন্তু এসব অগ্নিকান্ড কেন ঘটছে, তার তদন্ত হচ্ছে না।

গণঅভ্যুত্থান, জাতীয় স্বাস্থ্যনীতি এবং বিএমএ

image

আজ যে সময়ে আমরা শহীদ ডা. মিলনকে স্মরণ করছি তখন গোটা বিশ্ব করোনাভাইরাসের ভয়াল থাবায় অনেকটা পর্যুদস্ত, বিপর্যস্ত অর্থনীতি, অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ।

আদিয়স ‘দিয়োস ভিভো’ ম্যারাডোনা

বিশ্ব ফুটবলের অবিসংবাদিত তারকা আর্জেন্টিনার ফুটবলার দিয়েগো ম্যারাডোনা (৬০) গতকাল বুধবার নিজ বাসায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

এসএমই খাতে ঋণপ্রবাহ বাড়ান নারী উদ্যোক্তাদের উৎসাহিত করুন

ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলো (এসএমই) দেশের কর্মসংস্থানের বড় ক্ষেত্রে পরিণত হচ্ছে।

করোনা বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় গুরুত্ব দিন

আত্মঘাতী হয়ে উঠছে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ রোধে ব্যবহৃত স্বাস্থ্য সুরক্ষাসামগ্রী।

কাগজের দাম নিয়ে কারসাজি কাম্য নয়

হঠাৎ করেই বই ছাপার কাগজের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে দেশীয় কাগজ কলগুলো।

sangbad ad