• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯

 

জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে আদর্শিক লড়াই চালাতে হবে

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বুধবার, ০৬ মার্চ ২০১৯

নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন হরকাতুল জিহাদের (হুজি) জঙ্গি সদস্যরা অর্থ সংগ্রহে ডাকাতি করছে। গত রোববার রাজধানীতে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ১৪ সদস্যের একটি ডাকাত দলকে গ্রেফতার করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। এদের মধ্যে দু’জন হুজির সদস্য। পুলিশ বলছে, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত এক আসামিকে কারাগার থেকে বের করে আনার জন্য প্রয়োজনীয় টাকা সংগ্রহের লক্ষ্যেই দুই জঙ্গি ডাকাতিতে যুক্ত হয়েছে।

জঙ্গি অর্থায়নে ডাকাতির মতো অপরাধ অতীতেও সংঘটিত হয়েছে। আমাদের মনে আছে, ২০১৫ সালে আশুলিয়ায় দুটি জঙ্গি সংগঠনের সদস্যরা দুর্ধর্ষ ব্যাংক ডাকাতি করেছিল। সেই ব্যাংক ডাকাতির ঘটনায় ৮ জন সাধারণ মানুষ মারা জান। জঙ্গিরা শুধু নিজেরাই ডাকাত দল গড়ে তুলছে না, পেশাদার ডাকাত দলেও যুক্ত হচ্ছে। ডাকাতিতে নাম লেখানো দুই জঙ্গি আটকের ঘটনায় বোঝা যায়, কোন কিছুতেই জঙ্গিরা তাদের অপতৎপরতা বন্ধ করতে রাজি নয়। জঙ্গিবিরোধী অভিযানে বিভিন্ন সময়ে দেশের শীর্ষ জঙ্গিরা হয় মারা গেছে, নয়তো গ্রেফতার হয়েছে। তা সত্ত্বেও দেখা গেছে, জঙ্গি সংগঠনগুলোর সদস্যরা অপতৎপরতা অব্যাহত রেখেছে। নতুন নেতৃত্বে তারা গোপনে সংগঠিত হচ্ছে। নানা কৌশলে তারা অর্থ আর অস্ত্র সংগ্রহ করছে।

জঙ্গি সংগঠনগুলোর অর্থায়নের উৎস বহুমুখী। জঙ্গিবাদ দমনে অর্থ আর অস্ত্রের উৎস বন্ধ করার বিকল্প নেই। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী বিভিন্ন সময় জঙ্গি অর্থায়নের উৎস চিহ্নিত করে এর হোতাদের আটক করেছে। জঙ্গিরা যে অর্থ সংকটে পড়েছে সেটা বোঝা যায় তাদের ডাকাতিতে যুক্ত হওয়ার ঘটনায়। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অব্যাহত অভিযানে জঙ্গি সংগঠনগুলোর অর্থের অনেক উৎস বন্ধ হয়েছে। হলি আর্টিজানের পর দেশে জঙ্গি হামলা হয়নি। জঙ্গি হামলার চেষ্টা হলেও তা অঙ্কুরেই বিনষ্ট করা গেছে। তবে জঙ্গি সংগঠনগুলোর সদস্য সংগ্রহ বা সদস্যদের অপতৎপরতা পুরোপুরি বন্ধ করা যায়নি। এর কারণ হচ্ছে, জঙ্গিবাদকে এখনও আদর্শিকভাবে পরাস্ত করা যায়নি।

জঙ্গিবাদকে নির্মূল করা না গেলে এটা আগামীতেও মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে পারে। বিগত বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার আমলে শীর্ষ জঙ্গিদের সাজা দিয়েও জঙ্গিবাদ নির্মূল করা যায়নি। দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে ভয়াবহ জঙ্গি হামলা হয়েছে হলি আর্টিজানে। শুধু পুলিশি অভিযান চালিয়ে জঙ্গিবাদকে সাময়িকভাবে দমিয়ে রাখা গেলেও দীর্ঘমেয়াদে সুফল নাও মিলতে পারে। সরকারকে জঙ্গিবাদবিরোধী আদর্শিক লড়াই শুরু করতে হবে। তরুণরা যেন জঙ্গিবাদের ভুল পথে না জড়ায় সেজন্য সাংস্কৃতিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সবাইকে সচেতন করার বিকল্প নেই।

দৈনিক সংবাদ : ৬ মার্চ ২০১৯, বুধবার, ৬ এর পাতায় প্রকাশিত

সমাজ ও ব্যক্তির জন্য সৃষ্টি হচ্ছে ভয়াবহ সংকট

দেশে সংস্কৃতিচর্চার সুযোগ দিন দিন কমছে। সরকারি সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে পেশাদারি, জবাবদিহি ও আন্তরিকতার অভাব। সংস্কৃতি

দেশের বাঁধগুলোর সক্ষমতা বাড়াতে হবে সংস্কারের লক্ষ্যে মনিটরিং করুন

ঘূর্ণিঝড় ফণী বাংলাদেশ অতিক্রম করে গেছে। ভারতের ওড়িশা উপকূলে আঘাত হানার পর পশ্চিমবঙ্গ হয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে ঘূর্ণিঝড়।

পরিবহন সেক্টরকে মাফিয়ামুক্ত করুন

সাত দফা দাবিতে পরিবহন শ্রমিকদের ডাকা ধর্মঘটে গত সোমবার দিনভর দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে সাধারণ মানুষকে। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত

sangbad ad

জঙ্গিবাদের হুমকি মোকাবিলায় ঐক্য গড়ে তুলুন

মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গে হামলার পরিকল্পনা করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গত বৃহস্পতিবার

গণধর্ষণ মামলার চার্জশিট প্রশ্নবিদ্ধ পুলিশের ভূমিকা

সুবর্ণচরে গণধর্ষণের শিকার নারীর অভিযোগ ছিল একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিজের পছন্দের প্রতীকে ভোট দেয়ায় তার ওপর নির্যাতন হয়েছে

বিদ্যুৎ সঞ্চালন ও বিতরণ ব্যবস্থা ত্রুটিমুক্ত করতে হবে

চাহিদার চেয়ে বেশি বিদ্যুৎ উৎপাদন সক্ষমতা থাকলেও বিদ্যুৎ বিভাগ মানসম্মত বিতরণ ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে না পারায়

রমজানে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে চাই কঠোর মনিটরিং

আসন্ন রমজানে দ্রব্যমূল্য সহনীয় পর্যায়ে থাকবে বলে আশ্বস্ত করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু

ই-বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় রিসাইক্লিংয়ে পরিকল্পিত ও স্থায়ী উদ্যোগ নিন

ইলেকট্রনিক পণ্যের ব্যবহার বাড়ছে। একই সঙ্গে বাড়ছে ইলেকট্রনিক বা ই-বর্জ্যরে পরিমাণও। এসব ই-বর্জ্যরে দূষণ থেকে প্রাণ ও প্রকৃতিকে রক্ষা

বর্ষার আগেই ঢাকাডুবি কেন নগর কর্তৃপক্ষ কী করছে

চৈত্র মাসেই বৃষ্টির পানি জমে সয়লাব হয়ে যাচ্ছে রাজধানী ঢাকার বেশিরভাগ এলাকার রাস্তা

sangbad ad