• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০

 

কিশোরীকে শারীরিক নির্যাতনকারী স্কুলশিক্ষিকাকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিন

নিউজ আপলোড : ঢাকা , শুক্রবার, ১৬ অক্টোবর ২০২০

কুমিল্লার চান্দিনায় স্কুলশিক্ষিকা সৎমায়ের ধারাবাহিক শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনে মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়েছে তিথি নামের এক কিশোরী। তিথি দেবীদ্বার উপজেলার বাগমারা ইসলামিয়া আলিম মাদরাসায় অষ্টম শ্রেণীতে পড়ত। চলতি বছরের শুরুর দিকে তার বাবা অবৈধ ব্যবসার কাজে জড়িয়ে কারাগারে থাকায় সৎমায়ের ধারাবাহিক নির্যাতন সহ্য করতে হয়েছে তাকে। মানসিক ভারসাম্যহীন তিথি সারা শরীরে ক্ষত নিয়ে বর্তমানে চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে। গতকাল বৃহস্পতিবার এ নিয়ে সংবাদ সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

জানা গেছে, তার বাবার অবর্তমানে তুচ্ছ বিষয়ে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালাতে থাকে সৎমা লাভলী। কথায় কথায় মারধর, দেয়ালের সঙ্গে ধাক্কা, খুন্তির গরম ছ্যাঁকাসহ নানা শারীরিক, মানসিক ও অমানবিক নির্যাতন চলে তার ওপর। গত ১ অক্টোবর কাজ করতে না পারার অজুহাতে তিথিকে বেধড়ক পিটিয়ে গায়ে খুন্তি দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছ্যাঁকা দেয়। এতে মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ে তিথি। বর্তমানে স্কুলশিক্ষিকা লাভলী পলাতক রয়েছে।

ঘটনাটি অত্যন্ত অমানবিক। শিক্ষকদের বলা হয়, মানুষ গড়ার কারিগর। তাদের কাছ থেকে এমন অমানবিক আচরণ কখনোই প্রত্যাশিতও নয়, কাম্যও নয়। তারা মানুষকে আচার-ব্যবহারে সভ্য হতে শেখাবেন, মানুষকে সত্যিকারের মানুষ হিসেবে গড়ে তুলবেন, এমনটাই প্রত্যাশিত ও কাম্য। এ ঘটনায় স্কুলশিক্ষিকা যেটা করেছেন, সেটা মধ্যযুগীয় বর্বরতা। এ ধরনের ঘটনা নতুন নয় ঠিকই কিন্তু এমন ঘটনা প্রায়ই ঘটছে এবং তা সংবাদমাধ্যমে আসছে।

দেশে শিশু নির্যাতনের বিষয়টি উদ্বেগজনক মাত্রায় বৃদ্ধি পেয়েছে। এক সময় মনে করা হতো, দেশে কাক্সিক্ষত মাত্রায় শিক্ষার বিস্তার হলে এর ভয়াবহতা কমবে। কিন্তু বাস্তবে লক্ষ্য করা যাচ্ছে, দেশে শিক্ষার হার বাড়লেও শ্লীলতাহানিসহ নারী ও শিশু নির্যাতনের সংখ্যা কমেনি। বর্তমানে এ সামাজিক ব্যাধিটি যেহেতু ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে, সেহেতুু এর হাত থেকে পরিত্রাণের জন্য করণীয় নির্ধারণ জরুরি হয়ে পড়েছে। এসব ঘটনায় কোন কোন ব্যক্তির বিকৃত মনমানসিকতার বিষয়টিই স্পষ্ট হয়ে ওঠে। এই সমস্যা যতই ভয়াবহ আকার ধারণ করুক না কেন, দ্রুতই এর সমাধানসূত্র খুঁজে বের করা জরুরি হয়ে পড়েছে। কোন নারী ও শিশু শারীরিক নির্যাতনের শিকার হলে অপরাধীকে দ্রুত আইনের আওতায় আনা জরুরি।

এই অমানবিক ঘটনার সঙ্গে জড়িত শিক্ষক লাভলীকে দ্রুত খুঁজে বের করে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। আমরা মনে করি, নৈতিকতার চর্চা ও সামাজিক আন্দোলন নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধে সহায়ক হবে।

বিজয়া দশমীর শুভেচ্ছা

আজ বিজয়া দশমী। শারদীয় দুর্গাপূজা ও আনন্দ উৎসবের আজ সমাপনী দিবস।

শিক্ষক প্রশিক্ষণে যথাযথ গুরুত্ব দিন

শ্রেণীকক্ষে পাঠদানের গুণগতমান অনেকাংশেই নির্ভর করে শিক্ষকের যোগ্যতার ওপর। এজন্য বেশির ভাগ দেশেই শিক্ষকতা পেশায় যোগদানের পরপরই বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ নিতে হয় শিক্ষকদের।

চীনের প্রস্তাবকে ইতিবাচকভাবে কাজে লাগাতে হবে

নিজ দেশ মায়ানমারে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন নিয়ে সন্দেহ-সংশয় দিন দিন গভীর হচ্ছে।

sangbad ad

সালতা নদী খনন প্রকল্পে দুর্নীতির দায়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন

সাতক্ষীরা ও খুলনা জেলার মধ্য দিয়ে প্রবাহিত ১৮ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যরে সালতা নদী খনন প্রকল্পে ঠিকদারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম নদী, খননে ধীরগতি ও লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সড়ক কবে নিরাপদ হবে

নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার দেশে চতুর্থবারের মতো পালিত হলো জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস।

সব থানায় অনলাইনে জিডির সুযোগ রাখতে হবে

করোনাকালে সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন সেবা দিতে যেখানে অনলাইনকে প্রাধান্য দেয়া হচ্ছে, ডিএমপি সেখানে ব্যতিক্রম।

প্রতিমা ভাঙচুরের সঙ্গে জড়িতদের বিচার করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করুন

ফরিদপুরের বোয়ালমারী ও নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে প্রতিমা ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে।

বায়ুদূষণ রোধে কার্যকর উদ্যোগ নিন

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংস্থা হেলথ ইফেক্টস ইনস্টিটিউট এবং ইনস্টিটিউট ফর হেলথ মেট্রিক্স অ্যান্ড ইভালুয়েশনের সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদনে দক্ষিণ এশিয়াকে বায়ুর দিক থেকে বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত অঞ্চল হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

মালিক-শ্রমিককে আলোচনায় বসতে হবে

এগারো দফা দাবিতে পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে সারা দেশে অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘট কর্মসূচি পালন করছেন নৌযান শ্রমিককরা।

sangbad ad