• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৯

 

উপজেলা নির্বাচনে সহিংসতা রোধে কঠোর হোন

নিউজ আপলোড : ঢাকা , মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯

উপজেলা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে জয়পুরহাটের কালাইয়ে গত শনিবার দু’জন মারা গেছে। নিহতদের দু’জনই ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের কর্মী বলে জানা গেছে। গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, উপজেলা নির্বাচনে বিজয়ী প্রার্থী এবং মনোনয়ন বঞ্চিত স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতার অনুসারীদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে অন্তত ছয়জন আহত হয়েছে। সংঘর্ষ চলাকালে দোকান ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ, লুটপাটের ঘটনাও ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ শতাধিক রাবার বুলেট ছোড়ে। দু’পক্ষের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে গত কিছুদিন ধরেই উত্তেজনা বিরাজ করছিল বলে জানা গেছে।

নির্বাচনোত্তর সহিংসতায় হতাহতের খবর আমাদের উদ্বিগ্ন করেছে। সব দলের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আর যাই হোক, অন্তত সহিংসতা হয়নি। উপজেলা নির্বাচনে বিএনপিসহ অনেক রাজনৈতিক দলই অংশ নিচ্ছে না। মূল রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের অনুপস্থিতিতে ক্ষমতাসীন দলের এক নেতাই আরেক নেতার প্রতিপক্ষ হয়ে উঠেছেন। তাদের দ্বন্দ্ব-বিবাদে কর্মী-সমর্থকরাও সংযুক্ত হয়ে পড়ছে।

কালাইয়ে ক্ষমতাসীন দলের দু’পক্ষের সংঘাত এড়ানো যেত কিনা- সে প্রশ্ন উঠেছে। স্থানীয়রা বলছেন, দু’পক্ষের মধ্যে বেশকিছু দিন ধরেই উত্তেজনা চলছিল। নির্বাচন কমিশন বা স্থানীয় প্রশাসন যদি বিষয়টিকে গুরুত্বের সঙ্গে নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করত তাহলে হয়তো রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা এড়ানো সম্ভব হতো।

ধাপে ধাপে উপজেলা নির্বাচন চলছে। বড় অনেক রাজনৈতিক দল এ নির্বাচনে অংশ না নিলেও আরও সংঘাত-সংঘর্ষের আশঙ্কা উড়িয়ে দেয়া যায় না। আমরা চাই না, দেশের আর কোথাও কালাইয়ের মতো ঘটনার পুনরাবৃত্তি হোক। এজন্য নির্বাচন কমিশনকে সতর্ক থাকতে হবে। অধিকাংশ রাজনৈতিক দলের বর্জনের মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠিত উপজেলা নির্বাচনও যদি সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠিত করা না যায়, অন্তত নির্বাচনকেন্দ্রিক সংঘাত-সংঘর্ষ বন্ধ না করা যায় তাহলে ইসির যোগ্যতা-দক্ষতা প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে পড়বে। বর্তমান ইসির অধীনে অনুষ্ঠিত বিভিন্ন নির্বাচন নিয়ে খোদ ইসির মধ্যেই বিতর্ক হয়েছে। এ বিতর্ক আরও বড় হতে না দেয়ার দায়িত্ব ইসিরই।

কালাইয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে হবে। যাদের হটকারিতায় সেখানে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া না হলে আগামীতে এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটতে পারে। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আর একটি মানুষও প্রাণ হারাক সেটা আমরা চাই না।

দৈনিকা সংবাদ : ১৯ মার্চ ২০১৯, মঙ্গলবার, ৬ এর পাতায় প্রকাশিত

রমজানে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে চাই কঠোর মনিটরিং

আসন্ন রমজানে দ্রব্যমূল্য সহনীয় পর্যায়ে থাকবে বলে আশ্বস্ত করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু

ই-বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় রিসাইক্লিংয়ে পরিকল্পিত ও স্থায়ী উদ্যোগ নিন

ইলেকট্রনিক পণ্যের ব্যবহার বাড়ছে। একই সঙ্গে বাড়ছে ইলেকট্রনিক বা ই-বর্জ্যরে পরিমাণও। এসব ই-বর্জ্যরে দূষণ থেকে প্রাণ ও প্রকৃতিকে রক্ষা

বর্ষার আগেই ঢাকাডুবি কেন নগর কর্তৃপক্ষ কী করছে

চৈত্র মাসেই বৃষ্টির পানি জমে সয়লাব হয়ে যাচ্ছে রাজধানী ঢাকার বেশিরভাগ এলাকার রাস্তা

sangbad ad

পুলিশের ভূমিকা খতিয়ে দেখতে হবে

ফেনীর সোনাগাজীতে মাদ্রাসাছাত্রীকে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টার মামলায় স্থানীয় পুলিশের ভূমিকা নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন ভিকটিমের স্বজনরা।

স্বাভাবিক পুঁজিবাজার চাই অনৈতিক কারসাজি দমন করুন

দেশের পুঁজিবাজারে এখনও কারসাজি হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। স্বার্থান্বেষী একটি গোষ্ঠী দুই স্টক এক্সচেঞ্জের সূচক সুকৌশলে নিয়ন্ত্রণ করছে এমন

দ্রুত সম্পন্ন করা রাষ্ট্রের দায়িত্ব

অর্পিত সম্পত্তি অবমুক্তির লাখো মামলা বছরের পর বছর ধরে ঝুলে আছে। মামলা নির্ধারিত সময়ে নিষ্পত্তি হচ্ছে কিনা তা মনিটর করার কেউ

রোজার মাসে ভোগ্যপণ্যের বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখুন

রমজান সামনে রেখে এরই মধ্যে অস্থির হয়ে উঠতে শুরু করেছে ভোগ্যপণ্যের বাজার। বিভিন্ন নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম কোন কারণ ছাড়াই

রাজধানী কি এবারও জলাবদ্ধ হয়ে পড়বে

রাজধানীর অনেক এলাকা আগামী বর্ষাতেও জলাবদ্ধ হয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়ন হতে হবে

অগ্নিকান্ড রোধ এবং এর ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৫টি নির্দেশনা দিয়েছেন। গত সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার নিয়মিত

sangbad ad