• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯

 

আদিবাসী ও দলিত সম্প্রদায়ের সব নাগরিক অধিকার নিশ্চিত করতে হবে

নিউজ আপলোড : ঢাকা , মঙ্গলবার, ১২ মার্চ ২০১৯

দেশের আদিবাসী ও দলিত জনগোষ্ঠীর নাগরিক অধিকার ও সেবা পাওয়ার ক্ষেত্রে বৈষম্যের শিকার হচ্ছে। ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) এক গবেষণা প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে এ তথ্য। ‘বাংলাদেশের আদিবাসী ও দলিত জনগোষ্ঠী : অধিকার ও সেবার অন্তর্ভুক্তির চ্যালেঞ্জ এবং করণীয়’ শীর্ষক প্রতিবেদনটি গত রোববার প্রকাশিত হয়েছে। ২৮ জেলায় বছরব্যাপী চালানো গবেষণায় দেখা গেছে, আদিবাসী ও দলিত জনগোষ্ঠীর মানুষ শিক্ষা, স্বাস্থ্য ভূমিসহ বিভিন্ন নাগরিক অধিকার পাওয়ার ক্ষেত্রে বঞ্চনার শিকার হচ্ছে। তাদের বঞ্চনার অবসান ঘটাতে টিআইবি ১৩টি সুপারিশ করেছে।

আদিবাসী ও দলিত জনগোষ্ঠীর মানুষের বঞ্চনার খবর নতুন নয়। স্বাধীন বাংলাদেশেও তাদের প্রতি হওয়া বৈষম্যের অবসান হয়নি। অর্থনৈতিক উন্নয়নের প্রভাবে তাদের জীবনের কোন কোন ক্ষেত্রে ইতিবাচক পরিবর্তন এলেও বড় কাজের বৈষম্য রয়েই গেছে। এখনও তাদের সন্তানরা শিক্ষা গ্রহণের ক্ষেত্রে নানা প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন হচ্ছে। মাতৃভাষায় শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ না পাওয়া বা নিজ ধর্ম শিক্ষা না পাওয়ার বঞ্চনা তো রয়েছেই, অনেক ক্ষেত্রে তারা স্কুলে ভর্তির ক্ষেত্রেও বাধার সম্মুখীন হয়। অভিযোগ রয়েছে, আদিবাসী ও দলিত জনগোষ্ঠীর সন্তানসম্ভবা নারীরা যথাযথ গর্ভকালীন সেবা পান না। তাদের সন্তানরা ঠিক সেবা থেকে বঞ্চিত হয়। অনেক ক্ষেত্রে চিকিৎসক ও নার্সরা অস্পৃশ্য বলে তাদের চিকিৎসাসেবা দিতে অনীহা দেখান। এ থেকে বোঝা যায়, নিজ দেশে তারা মানবেতর জীবনযাপন করছে। শরণার্থী মানুষের জীবনও এত করুণ নয়।

টিআইবির গবেষণা বলছে, দেশের বিদ্যমান আইন ও নীতিমালার নানা সীমাবদ্ধতার কারণে আদিবাসী ও দলিত সম্প্রদায়ের মানুষ বৈষম্যের শিকার হচ্ছে। অভিযোগ রয়েছে, দেশের সংবিধানও তাদের প্রতি সুবিচার করতে পারেনি। সব ধরনের বৈষম্যের অবসান ঘটিয়ে সাম্য প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধ হয়েছিল। একাত্তরে বাংলাদেশ স্বাধীন হলেও আদিবাসী ও দলিত সম্প্রদায় সংবিধান স্বীকৃত মৌলিক নাগরিক অধিকারগুলোই পাচ্ছে না। চাকরিতে কোটা ব্যবস্থা থাকার ফলে তাদের আর্থসামাজিক অবস্থার ইতিবাচক পরিবর্তনের সুযোগ ছিল। কোটা ব্যবস্থা বিলুপ্ত করার ফলে সেই সুযোগও রহিত হয়েছে।

আমরা বলতে চাই- শ্রেণী, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে দেশের প্রতিটি মানুষের অধিকার নিশ্চিত করতে হবে। যেসব আইন ও নীতি মানুষে মানুষে বৈষম্য তৈরি করছে সেসব আইন ও নীতিতে পরিবর্তন আনতে হবে। আদিবাসী ও দলিত সম্প্রদায়ের সব নাগরিক অধিকার নিশ্চিত করতে প্রয়োজনে সংবিধানে পরিবর্তন আনতে হবে। এ বিষয়ে আমরা মহান সংসদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। রাষ্ট্রকে মানবিক করতে, মানুষে মানুষে সাম্য প্রতিষ্ঠা করতে যা যা করা দরকার সেটাই করতে হবে।

দৈনিক সংবাদ : ১২ মার্চ ২০১৯, মঙ্গলবার, ৬ এর পাতায় প্রকাশিত

সমাজ ও ব্যক্তির জন্য সৃষ্টি হচ্ছে ভয়াবহ সংকট

দেশে সংস্কৃতিচর্চার সুযোগ দিন দিন কমছে। সরকারি সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে পেশাদারি, জবাবদিহি ও আন্তরিকতার অভাব। সংস্কৃতি

দেশের বাঁধগুলোর সক্ষমতা বাড়াতে হবে সংস্কারের লক্ষ্যে মনিটরিং করুন

ঘূর্ণিঝড় ফণী বাংলাদেশ অতিক্রম করে গেছে। ভারতের ওড়িশা উপকূলে আঘাত হানার পর পশ্চিমবঙ্গ হয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে ঘূর্ণিঝড়।

পরিবহন সেক্টরকে মাফিয়ামুক্ত করুন

সাত দফা দাবিতে পরিবহন শ্রমিকদের ডাকা ধর্মঘটে গত সোমবার দিনভর দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে সাধারণ মানুষকে। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত

sangbad ad

জঙ্গিবাদের হুমকি মোকাবিলায় ঐক্য গড়ে তুলুন

মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গে হামলার পরিকল্পনা করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গত বৃহস্পতিবার

গণধর্ষণ মামলার চার্জশিট প্রশ্নবিদ্ধ পুলিশের ভূমিকা

সুবর্ণচরে গণধর্ষণের শিকার নারীর অভিযোগ ছিল একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিজের পছন্দের প্রতীকে ভোট দেয়ায় তার ওপর নির্যাতন হয়েছে

বিদ্যুৎ সঞ্চালন ও বিতরণ ব্যবস্থা ত্রুটিমুক্ত করতে হবে

চাহিদার চেয়ে বেশি বিদ্যুৎ উৎপাদন সক্ষমতা থাকলেও বিদ্যুৎ বিভাগ মানসম্মত বিতরণ ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে না পারায়

রমজানে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে চাই কঠোর মনিটরিং

আসন্ন রমজানে দ্রব্যমূল্য সহনীয় পর্যায়ে থাকবে বলে আশ্বস্ত করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু

ই-বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় রিসাইক্লিংয়ে পরিকল্পিত ও স্থায়ী উদ্যোগ নিন

ইলেকট্রনিক পণ্যের ব্যবহার বাড়ছে। একই সঙ্গে বাড়ছে ইলেকট্রনিক বা ই-বর্জ্যরে পরিমাণও। এসব ই-বর্জ্যরে দূষণ থেকে প্রাণ ও প্রকৃতিকে রক্ষা

বর্ষার আগেই ঢাকাডুবি কেন নগর কর্তৃপক্ষ কী করছে

চৈত্র মাসেই বৃষ্টির পানি জমে সয়লাব হয়ে যাচ্ছে রাজধানী ঢাকার বেশিরভাগ এলাকার রাস্তা

sangbad ad