• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৯

 

অবিলম্বে ব্যাংকিং কমিশন গঠন করুন

নিউজ আপলোড : ঢাকা , রোববার, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০১৯

ব্যাংক খাতের বিভিন্ন অনিয়ম বন্ধে ব্যাংকিং কমিশন গঠনের দাবি উঠেছে। ব্যাংকিং খাতের অব্যাহত অনিয়ম-দুর্নীতির পরিপ্রেক্ষিতে এ দাবি দিন দিন জোরালো হচ্ছে। দেশের সরকারি-বেসরকারি ব্যাংকগুলোতে হাজার হাজার কোটি টাকা ঋণ খেলাপির ঘটনার তদন্ত এবং ঋণ জালিয়াতির পুনরাবৃত্তি রোধে বিশেষজ্ঞরা ব্যাংকিং কমিশন গঠনের পরামর্শ দিয়ে আসছেন। আওয়ামী লীগ সরকারের আগের মেয়াদে তৎকালীন অর্থমন্ত্রী ব্যাংকিং কমিশনের প্রয়োজনীয়তার কথা স্বীকার করেছিলেন। যদিও শুরুতে তিনি এর বিরোধিতা করেছিলেন। তিনি ব্যাংকিং কমিশন গঠনের পক্ষে সক্রিয় উদ্যোগও নেন। তবে শেষ পর্যন্ত সেটা আলোর মুখ দেখেনি।

দেশের জনঅগ্রসরমান অর্থনীতিতে ব্যাংকিং খাতের অবদান দিন দিন বাড়ছে। ৪ দশক আগে জিডিপিতে ব্যাংক খাতের অবদান ছিল দশমিক ২৬ শতাংশ। বর্তমানে এটা ২৯ দশমিক ৭৫ শতাংশ। এ সময়ের মধ্যে ব্যাংকের সংখ্যা বেড়েছে ৪ গুণেরও বেশি, আমানত বেড়েছে ২৮৪ ভাগ। উদ্বেগের বিষয় হচ্ছে, ব্যাংক খাতে খেলাপি ঋণও বেড়েছে পাল্লা দিয়ে। ঋণখেলাপির অপসংস্কৃতি বরাবরই ছিল। তবে হলমার্ক, বিসমিল্লাহ গ্রুপ এবং বেসিক ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারির পর এর ভয়াবহ চিত্র প্রকাশিত হয়। খেলাপি ঋণের কারণে ব্যাংক খাত বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। যেহেতু ব্যাংক খাত দেশের অর্থনীতির একটি বড় নিয়ামক খাতে পরিণত হয়েছে সেহেতু এ খাতের বিপর্যয়ের ধাক্কা জাতীয় অর্থনীতিতে পড়তে বাধ্য। ব্যাংক খাতের স্বার্থে তো বটেই, জাতীয় অর্থনীতির স্বার্থেই ব্যাংক কমিশন গঠন করা অত্যন্ত জরুরি হয়ে পড়েছে।

ব্যাংক কমিশন গঠন করার বিষয়টি নির্ভর করে সরকারের উচ্চপর্যায়ের রাজনৈতিক সিদ্ধান্তের ওপর। গত সরকারের আমলে কমিশন গঠনের সব কাজ গুছিয়ে আনার পরও শেষ পর্যন্ত সেটা বাস্তবায়ন হয়নি। ধারণা করা হচ্ছে, সরকারের উচ্চপর্যায়ের সবুজ সংকেত পাওয়া যায়নি। সরকার কেন কমিশন গঠন করতে এখনও আগ্রহী নয় সেটার ব্যাখ্যা পাওয়া যায়নি। সরকারকে ব্যাংক খাতের সংস্কারে আগ্রহী মনে হচ্ছে না। বরং ব্যাংক মালিকদের নানা সুবিধা দেয়া হচ্ছে। ব্যাংকগুলোতে পরিবারতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য আইন বদলানো হয়েছে। ফারমার্স ব্যাংকের উদ্যোক্তা-মালিকদের পিঠ বাঁচাতে এর বোঝা সরকার নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছে। আমরা বরাবরই সরকারের এসব পদক্ষেপের বিরোধিতা করেছি। আমরা ব্যাংকিং ডিভিশন বিলুপ্ত করে একটি স্বাধীন কমিশন গঠনের পক্ষপাতী। আমরা মনে করি, ব্যাংক মালিক এবং ঋণখেলাপিদের গোষ্ঠী স্বার্থের চেয়ে জাতীয় স্বার্থকে প্রাধান্য দেয়া উচিত। জনস্বার্থকে গুরুত্ব দিয়ে কাজ করাই গণতান্ত্রিক সরকারের বৈশিষ্ট্য।

আমরা বলতে চাই, অবিলম্বে একটি ব্যাংকিং কমিশন গঠন করা হোক। এ লক্ষ্যে বিগত সরকারের অর্থ মন্ত্রণালয় কাজ এগিয়ে রেখেছে। এখন জরুরি হচ্ছে বর্তমান সরকারের রাজনৈতিক সদিচ্ছা। আমরা শুধু মনে করিয়ে দিতে চাই যে, ব্যাংক খাতের বিপর্যয়ের কারণে উন্নত অনেক দেশের অর্থনীতি অতীতে বিপর্যস্ত হয়েছে। সরকার যদি অর্থনীতিকে উন্নত, সমৃদ্ধ ও টেকসই করতে চায় তবে ব্যাংক খাতে অবশ্যই শৃঙ্খলা ফেরাতে হবে।

রমজানে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে চাই কঠোর মনিটরিং

আসন্ন রমজানে দ্রব্যমূল্য সহনীয় পর্যায়ে থাকবে বলে আশ্বস্ত করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু

ই-বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় রিসাইক্লিংয়ে পরিকল্পিত ও স্থায়ী উদ্যোগ নিন

ইলেকট্রনিক পণ্যের ব্যবহার বাড়ছে। একই সঙ্গে বাড়ছে ইলেকট্রনিক বা ই-বর্জ্যরে পরিমাণও। এসব ই-বর্জ্যরে দূষণ থেকে প্রাণ ও প্রকৃতিকে রক্ষা

বর্ষার আগেই ঢাকাডুবি কেন নগর কর্তৃপক্ষ কী করছে

চৈত্র মাসেই বৃষ্টির পানি জমে সয়লাব হয়ে যাচ্ছে রাজধানী ঢাকার বেশিরভাগ এলাকার রাস্তা

sangbad ad

পুলিশের ভূমিকা খতিয়ে দেখতে হবে

ফেনীর সোনাগাজীতে মাদ্রাসাছাত্রীকে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টার মামলায় স্থানীয় পুলিশের ভূমিকা নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন ভিকটিমের স্বজনরা।

স্বাভাবিক পুঁজিবাজার চাই অনৈতিক কারসাজি দমন করুন

দেশের পুঁজিবাজারে এখনও কারসাজি হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। স্বার্থান্বেষী একটি গোষ্ঠী দুই স্টক এক্সচেঞ্জের সূচক সুকৌশলে নিয়ন্ত্রণ করছে এমন

দ্রুত সম্পন্ন করা রাষ্ট্রের দায়িত্ব

অর্পিত সম্পত্তি অবমুক্তির লাখো মামলা বছরের পর বছর ধরে ঝুলে আছে। মামলা নির্ধারিত সময়ে নিষ্পত্তি হচ্ছে কিনা তা মনিটর করার কেউ

রোজার মাসে ভোগ্যপণ্যের বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখুন

রমজান সামনে রেখে এরই মধ্যে অস্থির হয়ে উঠতে শুরু করেছে ভোগ্যপণ্যের বাজার। বিভিন্ন নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম কোন কারণ ছাড়াই

রাজধানী কি এবারও জলাবদ্ধ হয়ে পড়বে

রাজধানীর অনেক এলাকা আগামী বর্ষাতেও জলাবদ্ধ হয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়ন হতে হবে

অগ্নিকান্ড রোধ এবং এর ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৫টি নির্দেশনা দিয়েছেন। গত সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার নিয়মিত

sangbad ad