• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৯

 

অবিলম্বে ব্যাংকিং কমিশন গঠন করুন

নিউজ আপলোড : ঢাকা , রবিবার, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০১৯

ব্যাংক খাতের বিভিন্ন অনিয়ম বন্ধে ব্যাংকিং কমিশন গঠনের দাবি উঠেছে। ব্যাংকিং খাতের অব্যাহত অনিয়ম-দুর্নীতির পরিপ্রেক্ষিতে এ দাবি দিন দিন জোরালো হচ্ছে। দেশের সরকারি-বেসরকারি ব্যাংকগুলোতে হাজার হাজার কোটি টাকা ঋণ খেলাপির ঘটনার তদন্ত এবং ঋণ জালিয়াতির পুনরাবৃত্তি রোধে বিশেষজ্ঞরা ব্যাংকিং কমিশন গঠনের পরামর্শ দিয়ে আসছেন। আওয়ামী লীগ সরকারের আগের মেয়াদে তৎকালীন অর্থমন্ত্রী ব্যাংকিং কমিশনের প্রয়োজনীয়তার কথা স্বীকার করেছিলেন। যদিও শুরুতে তিনি এর বিরোধিতা করেছিলেন। তিনি ব্যাংকিং কমিশন গঠনের পক্ষে সক্রিয় উদ্যোগও নেন। তবে শেষ পর্যন্ত সেটা আলোর মুখ দেখেনি।

দেশের জনঅগ্রসরমান অর্থনীতিতে ব্যাংকিং খাতের অবদান দিন দিন বাড়ছে। ৪ দশক আগে জিডিপিতে ব্যাংক খাতের অবদান ছিল দশমিক ২৬ শতাংশ। বর্তমানে এটা ২৯ দশমিক ৭৫ শতাংশ। এ সময়ের মধ্যে ব্যাংকের সংখ্যা বেড়েছে ৪ গুণেরও বেশি, আমানত বেড়েছে ২৮৪ ভাগ। উদ্বেগের বিষয় হচ্ছে, ব্যাংক খাতে খেলাপি ঋণও বেড়েছে পাল্লা দিয়ে। ঋণখেলাপির অপসংস্কৃতি বরাবরই ছিল। তবে হলমার্ক, বিসমিল্লাহ গ্রুপ এবং বেসিক ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারির পর এর ভয়াবহ চিত্র প্রকাশিত হয়। খেলাপি ঋণের কারণে ব্যাংক খাত বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। যেহেতু ব্যাংক খাত দেশের অর্থনীতির একটি বড় নিয়ামক খাতে পরিণত হয়েছে সেহেতু এ খাতের বিপর্যয়ের ধাক্কা জাতীয় অর্থনীতিতে পড়তে বাধ্য। ব্যাংক খাতের স্বার্থে তো বটেই, জাতীয় অর্থনীতির স্বার্থেই ব্যাংক কমিশন গঠন করা অত্যন্ত জরুরি হয়ে পড়েছে।

ব্যাংক কমিশন গঠন করার বিষয়টি নির্ভর করে সরকারের উচ্চপর্যায়ের রাজনৈতিক সিদ্ধান্তের ওপর। গত সরকারের আমলে কমিশন গঠনের সব কাজ গুছিয়ে আনার পরও শেষ পর্যন্ত সেটা বাস্তবায়ন হয়নি। ধারণা করা হচ্ছে, সরকারের উচ্চপর্যায়ের সবুজ সংকেত পাওয়া যায়নি। সরকার কেন কমিশন গঠন করতে এখনও আগ্রহী নয় সেটার ব্যাখ্যা পাওয়া যায়নি। সরকারকে ব্যাংক খাতের সংস্কারে আগ্রহী মনে হচ্ছে না। বরং ব্যাংক মালিকদের নানা সুবিধা দেয়া হচ্ছে। ব্যাংকগুলোতে পরিবারতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য আইন বদলানো হয়েছে। ফারমার্স ব্যাংকের উদ্যোক্তা-মালিকদের পিঠ বাঁচাতে এর বোঝা সরকার নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছে। আমরা বরাবরই সরকারের এসব পদক্ষেপের বিরোধিতা করেছি। আমরা ব্যাংকিং ডিভিশন বিলুপ্ত করে একটি স্বাধীন কমিশন গঠনের পক্ষপাতী। আমরা মনে করি, ব্যাংক মালিক এবং ঋণখেলাপিদের গোষ্ঠী স্বার্থের চেয়ে জাতীয় স্বার্থকে প্রাধান্য দেয়া উচিত। জনস্বার্থকে গুরুত্ব দিয়ে কাজ করাই গণতান্ত্রিক সরকারের বৈশিষ্ট্য।

আমরা বলতে চাই, অবিলম্বে একটি ব্যাংকিং কমিশন গঠন করা হোক। এ লক্ষ্যে বিগত সরকারের অর্থ মন্ত্রণালয় কাজ এগিয়ে রেখেছে। এখন জরুরি হচ্ছে বর্তমান সরকারের রাজনৈতিক সদিচ্ছা। আমরা শুধু মনে করিয়ে দিতে চাই যে, ব্যাংক খাতের বিপর্যয়ের কারণে উন্নত অনেক দেশের অর্থনীতি অতীতে বিপর্যস্ত হয়েছে। সরকার যদি অর্থনীতিকে উন্নত, সমৃদ্ধ ও টেকসই করতে চায় তবে ব্যাংক খাতে অবশ্যই শৃঙ্খলা ফেরাতে হবে।

কিভাবে নির্মূল হবে তার উপায় কোথায়

দুর্নীতি না কমানো গেলে দেশের সব অর্জন নষ্ট হয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা

পাকিস্তানকে অপ্রাসঙ্গিক করা সময়ের দাবি

ভারতশাসিত জম্মু-কাশ্মীরে সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্সের গাড়িবহরে বোমা হামলায়

অবিলম্বে শক্তিশালী ব্যাংক কমিশন গঠন করুন

ব্যাংকের ঋণখেলাপি ও অর্থ পাচারকারীদের গত ২০ বছরের তালিকা তৈরি করে তা দাখিলের

sangbad ad

বিজিবির গুলিতে হতাহতের ঘটনা : প্রকৃত কারণ খুঁজে বের করুন

ঠাকুগাঁওয়ের হরিপুরে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) গুলিতে মারা গেছে তিনজন এবং

বিদ্যুৎ খাতে স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও সুশাসন প্রতিষ্ঠা করুন বকেয়া এবং লোকসানের বোঝা যেন জনগণের ঘাড়ে না চাপে

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ গত সোমবার জাতীয় সংসদে জানান, সরকারি, আধা সরকারি/বেসরকারি

উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় মতপ্রকাশের স্বাধীনতা ও মানবাধিকার অপরিহার্য

বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখার জন্য মতপ্রকাশের ও নাগরিক স্বাধীনতা জরুরি।

তদন্ত করে অপরাধীদের ধরতে পারে দুদক

বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানি লিমিটেড (বিসিএমসিএল) গায়েব হওয়া প্রায় দেড় লাখ

পুলিশ কেন নিরীহ জনগণকে হয়রানি করবে

দেশের নিরীহ জনগণকে কোন ধরনের হয়রানি না করতে পুলিশ সদস্যদের নির্দেশ দিয়েছেন

আইন সবার জন্য সমান হওয়াই বাঞ্ছনীয়

নাটোর সদর উপজেলার যুবলীগ নেতা জামাল হোসেন ওরফে মিলনকে গত বৃহস্পতিবার

sangbad ad