• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮

 

বেলজিয়াম তৃতীয়

নিউজ আপলোড : ঢাকা , শনিবার, ১৪ জুলাই ২০১৮

সংবাদ :
  • সংবাদ স্পোর্টস ডেস্ক
image

ছবি: ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত

সোনালী প্রজন্মের বেলজিয়াম বিশ্বকাপে তৃতীয় স্থান লাভ করেছে। শনিবার তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে বেলজিয়াম ২-০ গোলে পরাজিত করে ইংল্যান্ডকে। সেমিফাইনালে ফ্রান্সের কাছে হেরে বেলজিয়াম এবং ক্রোয়েশিয়ার কাছে হেরে ইংল্যান্ড এ ম্যাচ খেলতে বাধ্য হয়। এ ম্যাচ জিতে বেলজিয়াম হয় তৃতীয় সেরা। এক ঝাক দুরন্ত খেলোয়াড়দের নিয়ে গড়া বেলজিয়াম যোগ্য দল হিসেবেই তৃতীয় হয়েছে। গ্রুপ পর্বে এ দুই দলের খেলা ছিল আনুষ্ঠানিকতা। কারণ উভয় দলই খেলেছে বলতে গেলে রিজার্ভ একাদশ নিয়ে। এ ম্যাচে তা হয়নি। বেলজিয়াম খেলেছে পূর্ণ শক্তির দল নিয়েই। তার ফলও তারা পেয়েছে। ইংল্যান্ড সেমিফাইনালে হারার পর আর তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচকে গুরুত্ব দেয়নি। তাই তারা এটাকে নিয়েছে নিয়ম রক্ষার ম্যাচ হিসেবেই। তাইতো তারা শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পেরে ওঠেনি বেলজিয়ামের সঙ্গে। উভয় অর্ধে একটি করে গোল খেয়ে চতুর্থ স্থান পেয়েছে তারা। বিশ্বকাপে ইংলিশদের ব্যর্থতা আগে ছিল নিয়মিত। এবার তারা তা কাটিয়ে উঠেছিল সেমিফাইনালে। সেই সুখ স্মৃতি নিয়েই তারা সন্তুষ্ট এবং চতুর্থ হয়ে ফিরেছে দেশে।

বিশ্বকাপে তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচ কোন দলই নিজের ইচ্ছায় খেলে না। ম্যাচটি মূলত নিয়ম রক্ষার এবং অংশ নেয়া দুই দলের সম্মানের লড়াই। সেই সম্মানটাকে সম্ভবত বেলজিয়াম বেশি গুরুত্ব দিয়েছে। কারণ সেমিফাইনালে খেলা একাদশ নিয়েই তারা এ ম্যাচ খেলতে নামে। অন্যদিকে ইংল্যান্ড তাদের একাদশে পরিবর্তন আনে ৫টি। বেলজিয়াম তাদের শক্তিশালী দল মাঠে নামানোর ফল পেয়ে যায় চার মিনিটের মাথায়। সম্মিলিত একটি আক্রমণ থেকে বেলজিয়ামকে এগিয়ে দেন থমাস মুনিয়ের। তার সুন্দর প্লেসিং শটটি ফেরানোর কোন সুযোগই পাননি ইংলিশ কিপার পিকফোর্ড। এ ম্যাচটি ছিল বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ গোলদাতা হওয়ারর ক্ষেত্রে হ্যারি কেন এবং রোমেলু লুকাকুর ব্যক্তিগত লড়াইও। ৬ গোল দিয়ে বেশ সুবিধাজনক জায়গায় থাকা ইংলিশ অধিনায়ক কেন চেষ্টা করেন তার গোল সংখ্যা বাড়িয়ে নিতে। তিনি সুযোগও পান ২৪ মিনিটে। রাহিম স্টালির্ংয়ের বাড়ানো বলে কেনের নেয়া শট চলে যায় বাইরে। প্রথমার্ধে সুযোগ সৃষ্টির দিক থেকে বেশ খানিকটা এগিয়ে ছিল বেলজিয়াম। ৩৪ মিনিটে ইডেন হ্যাজার্ডের শট পেনাল্টি বক্সের মধ্যে পা দিয়ে আটকে দেন জন স্টোন্স। এরপর কর্নার কিক থেকে সুন্দর একটি শট নিয়েছিলেন অ্যান্ডারউইল্ড। কিন্তু সেটি চলে যায় ক্রসবারের সামান্য ওপর দিয়ে। এ দুই দলের মোট ১৯জন খেলোয়াড় খেলেন ইংলিশ লীগে। তাই তারা পরস্পরকে বেশ ভালোভাবে চিনেন। তাই খেলতে বিশেষ কৌশল নিতে সুবিধা হয় উভয় দলের ক্ষেত্রেই। প্রথমার্ধে বেলজিয়াম তাদের প্রাধান্য বহাল রাখে এবং একমাত্র গোলে এগিয়েও থাকে। তারা যদি আরও বেশি ব্যবধানে এগিয়ে থাকতো তাহলে অবাক হওয়ার কিছু থাকতোনা। তা হয়নি ইংলিশ ডিফেন্ডারদের কারণে। ইডেন হ্যাজার্ড এবং ডি ব্রুইনের সমন্বয়ে গড়া বেলজিয়াম মিডফিল্ডের সাথে পেরে ওঠেনি ড্যানি রোজ, ডালফ, লুফটাস চি ও ট্রিপিয়ারের সমন্বয়ে গড়া মিডফিল্ড। তাইতো ইংলিশ রক্ষণভাগের উপর চাপ ছিল বেশ বেশি। জন স্টোন্স, জোন্স এবং ম্যাগুয়াইর মিলে মোটামুটি ভালভাবেই সামাল দিয়েছেন বেলজিয়ান আক্রমণ। গ্রুপ পর্বে দল দুটি একই গ্রুপে থাকায় আরেকবার মুখোমুখি হয়েছিল তারা। সে ম্যাচে ১-০ গোলে জিতেছিল বেলজিয়াম। ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধেও বেলজিয়ামের প্রাধান্য অব্যাহত থাকে। ৫৫ মিনিটে রোমেলু লুকাকু অবিশ্বাস্যভাবে ব্যর্থ হন ব্যবধান বাড়াতে। ইংলিশ ডিফেন্ডারদের ব্যর্থতায় একেবারে ফাঁকায় বল পেয়ে যান লুকাকু। কিন্তু সেটি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে শট নেয়ার আগেই ধরে নেন পিকফোর্ড। এর কিছুক্ষণ পর তাকে তুলে নেন কোচ। ফলে এবারের বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ গোলদাতা হওয়া আর হলোনা লুকাকুর। ৬৯ মিনিটে এরিক ডায়ারকে গোল বঞ্চিত করেন বেলজিয়ামের ডিফেন্ডার অ্যাল্ডারউইলিড। ডায়ার সুন্দরভাবে বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আগুয়ান গোলরক্ষক কর্তোয়ার নাগালের বাইরে দিয়ে বল প্লেস করেন। সেটি জালে প্রবেশের ঠিক আগে প্রতিহত করেন অ্যাল্ডারউইলিড। এ সময় বেশ কিছুক্ষণ বেলজিয়ামদের চেপে ধরে রাখে। তারা সুযোগও তৈরি করে। কিন্তু তা জালে প্রবেশ করাতে না পারায় হতাশ হতে হয় তাদের। ৭৯ মিনিটে কাউন্টার অ্যাটাক থেকে দারুন একটি সুযোগ তৈরি করে বেলজিয়াম। মুনিয়েরের ভলি অবিশ্বাস্য তৎপরতায় ফিরিয়ে দেন পিকফোর্ড। অবশ্য এর দুই মিনিট পর হ্যাজার্ডকে আর গোল বঞ্চিত করতে পারেননি তিনি। প্রথম পোস্ট ঘেসে তার নেয়া শট আশ্রয় নেয় জালে এবং বেলজিয়াম এগিয়ে যায় ২-০ গোলে। এ গোলের পর আর বেলজিয়ামের জয় নিয়ে কোন সংশয় ছিলনা। বিশ্বকাপের অন্যতম সেরা রক্ষণভাগের দল বেলজিয়ামের জালে বল পাঠানো সম্ভব হয়নি ইংলিশদের। তাদেরকে চতুর্থ স্থান নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়। ওয়েবসাইট।

২১৮ রানে পিছিয়ে জিম্বাবুয়ে

বিশেষ প্রতিনিধি

image

ব্যাটিংয়ে মমিনুল-মুশফিকের পর বোলিংয়ে জিম্বাবুয়ের ওপর চড়াও হয়ে ছিলেন দুই স্পিনার

মুশফিকের ডাবল সেঞ্চুরিতে রানের পাহাড়ে বাংলাদেশ

বিশেষ প্রতিনিধি

image

জিম্বাবুয়ের কাছে সিলেট টেস্টে নাস্তানাবুদ বাংলাদেশ দল যে আহত বাঘের মতো ভয়ঙ্কর হয়ে উঠতে পারে সেই ইঙ্গিত দেয়া হয়েছিল

মমিনুল-মুশফিকের শতকে চাপমুক্ত বাংলাদেশ

বিশেষ প্রতিনিধি

image

চাপের মুখে থাকা বাংলাদেশের টেস্ট ‘স্পেশালিস্ট’ ব্যাটসম্যান মমিনুল হক খেললেন

sangbad ad

অমার্জনীয় ব্যাটিংয়ে বিধ্বস্ত বাংলাদেশ

অজয় বড়ুয়া

image

সিলেট টেস্টে চার দিনের মধ্যে মঙ্গলবার (৬ নভেম্বর) গ্যালারিতে দর্শক সবচেয়ে বেশি ছিল। এক-দুই রানেও উল্লসিত সবাই! কিন্তু রেজিস চাকাভা যখন

আত্মঘাতী ব্যাটিংয়ে ১৪৩ রানেই শেষ বাংলাদেশ

সংবাদ স্পোর্টস ডেস্ক

image

অবিশ্বাস্য বললেও কম বলা হয়। ওয়ানডেতে সহজেই বাংলাওয়াশ করা জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে

পাকিস্তানকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

আরাফাত জোবায়ের

image

মুদাসসর নজরের শট ঠেকালেন বাংলাদেশের গোলরক্ষক মেহেদী হাসান। সঙ্গে সঙ্গেই নেপালের

ভারতকে টাইব্রেকারে হারিয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ

ক্রীড়া বার্তা পরিবেশক

image

শক্তিশালী ভারতকে হারিয়ে সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে উঠেছে বাংলাদেশ।

অনায়াসে সিরিজ জয় বাংলাদেশের

বিশেষ প্রতিনিধি

image

শতরানের কাছে পৌঁছেও অযথা শট খেলতে গিয়ে সেঞ্চুরি করার সুযোগ হাতছাড়া করলেও জয়ের

চট্টগ্রামেই লিড নিতে চায় বাংলাদেশ

বিশেষ প্রতিনিধি

image

সফরে আসা জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচ ওডিআই সিরিজের প্রথমটাতে আত্মবিশ্বাসী জয় পাওয়া

sangbad ad