• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮

 

দেশমের ফ্রান্সই চ্যাম্পিয়ন

নিউজ আপলোড : ঢাকা , সোমবার, ১৬ জুলাই ২০১৮

সংবাদ :
  • আরাফাত জোবায়ের, মস্কো থেকে
image

ছবি : ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত

বেদনার রং নীল। লুঝনিকে আনন্দের প্রতীক হয়ে থাকল নীল। ফ্রান্স ৪-২ গোলে ক্রোয়েশিয়াকে হারিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন। আর্জেন্টিনা, উরুগুয়ের সমান ট্রফি এখন ফরাসিদের।

রেফারির শেষ বাশি বাজার অপেক্ষায়। ফরাসি ডাগ আউট আর সমর্থকদের তর সইতে ছিল না। কখন শিরোপা উৎসব করবে। আর্জেন্টাই রেফারি নেস্তর পিতানা বাশি ফুকার সাথে সাথেই ডাগ আউট দৌড়ে মাঠে প্রবেশ। কোচ দেশমকে গোল করে ঘিরে যা একটু উল্লাস। অধিনায়ক ও কোচ হয়ে দ্বিতীয় ব্যক্তি হিসেবে বিশ্বকাপ জিতলেন। বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন তেমন বাড়তি উদযাপন করতে দেখা গেল না। কয়েকজন গ্যালারীতে গিয়ে ফ্রান্সের পতাকা নিয়ে একটু মাঠ প্রদিক্ষণ করলেন। দুই একজনকে দেখা গেল মাশরাফি-তাসকিনের মতো লাফিয়ে বুক মেলাতে। এটুকুই বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন উদযাপন। এতটাই পেশাদার আচরণ যে তাদের চ্যাম্পিয়ন হওয়াটাই যেন স্বাভাবিক। গ্যালারীর ফরাসি দর্শকরা পতাকা ও গান গেয়ে যা একটু আনন্দ করল। লুঝনিকির অধিকাংশ দর্শক ছিল ক্রোয়েশিয়ার। ক্রোয়েশিয়ার হারে লুঝনিক খানিকটা স্তব্ধই হলো।

সর্বশেষ তিন বিশ্বকাপের ফাইনাল অতিরিক্ত সময়ে গড়িয়েছিল। লুঝনিকিতে ৯০ মিনিটে মীমাংসা হলেও অনেক নাটকীয়তা ও ইতিহাসের জন্ম দিয়েছে। ১৯৭০ সালে ব্রাজিলের পর ফাইনালে আর কেউ চার গোল করতে পারেনি। ৪৮ বছর পর ফ্রান্স সেই রেকর্ড ভেঙেছে। এই বিশ্¦কাপের তরুণ ফুটবলারদের মধ্যে আগেই দৃষ্টি কেড়েছেন এমবাপে। সেই এমবাপে পেলের পরেই নাম লিখিয়েছেন। ১৯৫৮ সালে পেলের গোলই ছিল ফাইনালে সর্বকনিষ্ঠ। পেলের পর দ্বিতীয় সর্বকনিষ্ঠ হয়ে গোল করলেন এমবাপে। এমবাপের চতুর্থ গোলটি ছিল দুর্দান্ত। অনেকটা একক প্রচেষ্ঠায়। মাঝমাঠ থেকে বল পেয়ে বক্সের মধ্যে প্রবেশ করে ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে গোল দেন। তৃতীয় গোলের উৎসও ছিলেন এই তরুণ। কাউন্টার অ্যাটাকে লম্বা বল বাড়ানো হয় এমবাপের উদ্দেশ্যে। এমবাপে বক্সের মধ্যে বল রিসিভ করে গ্রিজম্যানকে দেন। গ্রিজম্যান স্কয়ার পাস করেন পগবাকে। পগবার প্রথম শট ক্রোয়েশিয়ান রক্ষণে লেগে ফেরত আসে। পগবার দ্বিতীয় জোরালো শটে অবশ্য রক্ষণ ও গোলরক্ষক

কেউ সুযোগ পাননি। ৪-১ গোলে লীড নিয়ে যখন ফ্রান্স সহজ জয়ের অপেক্ষায়। তখনই অধিনায়ক গোলরক্ষক হুগো লরিসের ভুলে আবার খেলায় ফিরে আসে ক্রোয়েশিয়া। লরিসকে ব্যাকপাস করা হয়। একটু সামনে থাকা মানজুকিচকে কাটিয়ে লম্বা শট নিতে যান। মানজুকিচের পায়ে লেগে বল ফ্রান্সের জালে প্রবেশ করে। স্কোরলাইন ৪-২ হওয়ার পর ক্রোয়েশিয়া পুনরায় চেপে ধরে ফ্রান্সকে। শেষ দশ মিনিট বেশ কয়েকটি সংঘবদ্ধ আক্রমণ করে গোলের সুযোগ তৈরি করে ক্রোয়েটরা। শেষ পর্যন্ত গোল আর না হওয়ায় ৪-২ গোলর জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ফ্রান্স। ফাইনাল সেরা হন গ্রিজম্যান। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুটাও হয়েছিল ক্রোয়েশিয়ার আধিপত্য দিয়ে। পগবা,গ্রিজম্যান, এমবাপের ৬ মিনিটের ঝড়েই মূলত ম্যাচের পার্থক্য গড়ে দিয়েছে। ৫২ মিনিটে আকস্মিক ঘটনা ঘটে। চার জন সমর্থক মাঠে প্রবেশ করে। একজন তো ক্রোয়েশিয়ান ফুটবলারকে চেপে ধরে রীতিমতো। এক মিনিটের মধ্যেই সেই দর্শকদের বের করা হয়।

ফাইনালের প্রথমার্ধও বেশ নাটকীয়তাপূর্ণ। ফ্রান্স ২-১ গোলের লীড নিয়ে বিরতিতে গেলেও খেলার নিয়ন্ত্রণ ছিল ক্রোয়েশিয়ার। ক্রোয়েশিয়া বল দখলে শুরু থেকে এগিয়ে। প্রথম ১৫ মিনিট পর্যন্ত আক্রমণ সব ছিল ক্রোয়েশিয়ার। বা প্রান্ত দিয়ে বেশ কয়েকবার ফরাসি রক্ষণে হানা দেয় ক্রোয়েট ফরোয়ার্ডরা। ১৭ মিনিট বক্সের একটু সামনে এমবাপেকে ফাউল করেন ক্রোয়েশিয়ান ডিফেন্ডার। এমন জায়গায় ফ্রি কিক থেকে গ্রিজম্যান গোল করতে পারদর্শী। গ্রিজম্যানে ডান পায়ের ফ্রি কিক ক্লিয়ার করতে গিয়ে ক্রোয়েশিয়ার মানজুকিচের মাথা ছুয়ে বল জালে প্রবেশ করে। দুই মিনিট পরেই প্রায় একই রকম জায়গায় ক্রোয়েশিয়ার ফ্রি কিক। সেই ফ্রি কিক লক্ষ্যভ্রষ্ট। নয় মিনিট পর আবার ফ্রি কিক। এবার মাঝমাঠের সামনে। বক্সের মধ্যে কয়েক পাক ঘুরে পেরিসিচের পায়ে বল। পেরিসিচের এই ম্যাচ খেলা নিয়ে ছিল সংশয়। দুই দিন অনুশীলন করেননি। সেই পেরিসিচই দেখালেন পায়ের জাদু। দুর্দান্তভাবে বল রিসিভ করলেন। একজনকে কাটিয়ে বা পায়ে দুর্দান্ত কোনাকুনি শট। গতি ও অ্যাকুরিসির কাছে হার মানেন ফরাসি অধিনায়ক হুগো লরিস পরাস্ত। লুঝনিকি ফেটে পড়ল উল্লাসে। ৭৮০০০ সমর্থকের অধিকাংশই মনে হলো ক্রোয়েট।

টুর্নামেন্টে সবচেয়ে আলোচিত বিষয় ভিএআর। সেই প্রযুক্তি ব্যবহার হলো ফাইনালেও। ৩৪ মিনিটে ফ্রান্সের ফ্রি কিক। দুই জনই লাফিয়েছেন। ক্রোয়েট পেরিসিচের হাতে লাগে। রেফারি প্রথমে এড়িয়ে গেলেও। ফ্রান্সের দাবির প্রেক্ষিতে ভিএআর দেখেন। আর্জেন্টাইন রেফারি ভিএআর দেখে নিশ্চিত হন পেনাল্টি। গ্রিজম্যান পেনাল্টি থেকে গোল করতে ভুল করেননি। প্রথমার্ধের শেষ তিন মিনিটে ক্রোয়েশিয়া তিন কর্নার পেলেও সমতা আনতে পারেনি।

ফ্রান্স: হুগো লরিস ( গোলরক্ষক ), বেঞ্জামিন পাভার্ড, রাফায়েল ভারানে, স্যামিয়েল উমিতি, লুকাস হারনানদেজ, পল পগবা, কন্তে( জেভিন), মাতুদি(টলিসো), অ্যান্তোনি গ্রিজম্যান,অলিভার ও এমবাপে।

ক্রোয়েশিয়া:ড্যানিয়েল সুবাসিচ ( গোলরক্ষক), সিমে ভারসালজোকো, ইভান স্ট্রিনিচ, ডেজান লভরেন, ডোমাগজ ভিদা, ইভান রাকিটিচ, লুকা মদ্রিচ (অধিনায়ক), ইভান পেরেসিচ, ব্রোজোভিচ, মারিও মানজুকিচ, আনতে রাবিচ

রেফারি: নেস্তর পিতানা ( আর্জেন্টিনা)।

২১৮ রানে পিছিয়ে জিম্বাবুয়ে

বিশেষ প্রতিনিধি

image

ব্যাটিংয়ে মমিনুল-মুশফিকের পর বোলিংয়ে জিম্বাবুয়ের ওপর চড়াও হয়ে ছিলেন দুই স্পিনার

মুশফিকের ডাবল সেঞ্চুরিতে রানের পাহাড়ে বাংলাদেশ

বিশেষ প্রতিনিধি

image

জিম্বাবুয়ের কাছে সিলেট টেস্টে নাস্তানাবুদ বাংলাদেশ দল যে আহত বাঘের মতো ভয়ঙ্কর হয়ে উঠতে পারে সেই ইঙ্গিত দেয়া হয়েছিল

মমিনুল-মুশফিকের শতকে চাপমুক্ত বাংলাদেশ

বিশেষ প্রতিনিধি

image

চাপের মুখে থাকা বাংলাদেশের টেস্ট ‘স্পেশালিস্ট’ ব্যাটসম্যান মমিনুল হক খেললেন

sangbad ad

অমার্জনীয় ব্যাটিংয়ে বিধ্বস্ত বাংলাদেশ

অজয় বড়ুয়া

image

সিলেট টেস্টে চার দিনের মধ্যে মঙ্গলবার (৬ নভেম্বর) গ্যালারিতে দর্শক সবচেয়ে বেশি ছিল। এক-দুই রানেও উল্লসিত সবাই! কিন্তু রেজিস চাকাভা যখন

আত্মঘাতী ব্যাটিংয়ে ১৪৩ রানেই শেষ বাংলাদেশ

সংবাদ স্পোর্টস ডেস্ক

image

অবিশ্বাস্য বললেও কম বলা হয়। ওয়ানডেতে সহজেই বাংলাওয়াশ করা জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে

পাকিস্তানকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

আরাফাত জোবায়ের

image

মুদাসসর নজরের শট ঠেকালেন বাংলাদেশের গোলরক্ষক মেহেদী হাসান। সঙ্গে সঙ্গেই নেপালের

ভারতকে টাইব্রেকারে হারিয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ

ক্রীড়া বার্তা পরিবেশক

image

শক্তিশালী ভারতকে হারিয়ে সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে উঠেছে বাংলাদেশ।

অনায়াসে সিরিজ জয় বাংলাদেশের

বিশেষ প্রতিনিধি

image

শতরানের কাছে পৌঁছেও অযথা শট খেলতে গিয়ে সেঞ্চুরি করার সুযোগ হাতছাড়া করলেও জয়ের

চট্টগ্রামেই লিড নিতে চায় বাংলাদেশ

বিশেষ প্রতিনিধি

image

সফরে আসা জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচ ওডিআই সিরিজের প্রথমটাতে আত্মবিশ্বাসী জয় পাওয়া

sangbad ad