• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৯

 

তামিমের স্বপ্নময় ইনিংস

নিউজ আপলোড : ঢাকা , শনিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৯

সংবাদ :
  • সংবাদ স্পোর্টস ডেস্ক
image

শুক্রবার (৮ ফেব্রুয়ারি) বিপিএলের ফাইনাল ছিল দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবালের স্বপ্ন পূরণের একটি দিন। নিজের পারফরমেন্স নিয়ে প্রায় সরব হন প্রায় সব খেলোয়াড়। অনেকের থাকে অনেক রকম ‘ফ্যান্টাসি’। কারও কম, কারও বেশি। তামিম বেশিদের দলে।

নিজের পারফরমেন্স তাকে খুব ভাবায়। স্বপ্ন দেখায়। বড় মঞ্চে নায়ক হবেন, অর্জন করবেন অভাবনীয় সাফল্য, বীরোচিত ব্যাটিংয়ে একাই গুঁড়িয়ে দেবেন প্রতিপক্ষকে, এসব ভাবনা তাকে দোলাও দেয় অবসর সময়ে। কল্পনার সেই ভাবনাগুলোই সত্যি হওয়ার দিন ছিল শুক্রবার। তামিম যেখানে বাস্তব অর্থে একনায়ক।

বিপিএলের ফাইনালে বলা যায় একা তামিমের কাছেই হেরে গেছে ঢাকা ডায়নামাইটস। অসাধারণ এক স্মরণীয় ইনিংস খেলে তামিম বিপিএল শিরোপা জয়ের মূলমন্ত্র ছড়িয়ে দেন কুমিল্লা দলের মধ্যে। তার কৃতিত্বেই দ্বিতীয়বার ট্রফি জয়ের আনন্দে মাতোয়ারা হয়েছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। নিজে করেন ৬১ বলে অপরাজিত ১৪১, দলের অন্যরা মিলে করেছেন ৫৯ বলে ৪৭। অতিরিক্ত ছিল ১১ রান। তার স্ট্রাইক রেট ২৩১.১৪, বাকিদের কারও স্ট্রাইক রেট ৮৬-ও নয়। তার এই ভূমিধস ব্যাটিংয়ে ছিল ১০টি চার ও ১১টি ছক্কার মার। দলের অন্য চার ব্যাটসম্যানের বাউন্ডারি ৩টি, ছক্কা ১টি। শেষ ১০ ওভারে কুমিল্লা করে ১২৬ রান, তামিমের ব্যাট থেকেই এসেছে তার ১০৩ রান। শেষ ৬ ওভারে দল করেছে ৮৫, যার ৭১ রানই তামিমের। দলের প্রায় ৭১ শতাংশ রান করেছেন একাই। শেষ ১০ ওভারে একাই করেছেন দলের প্রায় ৮২ শতাংশ রান!

স্বীকার করতেই হবে বাংলাদেশের কোন ব্যাটসম্যানের একরকম আগ্রাসী ব্যাটিং অভাবনীয়। তার ব্যাটিং দেখে কখনো মনে হয়েছে ‘হাইলাইটস।’ কখনো বিস্ময়ও মনে হয়েছে। তামিম বলেন, ‘সত্যি বলতে, আমি এখনও স্বপ্নে আছি। এখনও বুঝতে পারছি না, কিভাবে ব্যাট করলাম। সত্যিই জানি না। ঘরে গিয়ে হাইলাইটস দেখার পর হয়তো ভালো করে বুঝতে পারব। একটা সময়, বিজয় (এনামুল) আউট হওয়ার পর আমি খুবই বিরক্ত হয়েছিলাম। নিজেকে শান্ত করে আবার শুরু করতে হয়েছে।’ এই ম্যাচের আগেও টি-টোয়েন্টিতে একাধিক সেঞ্চুরি করা বাংলাদেশের একমাত্র ব্যাটসম্যান ছিলেন তিনি। কিন্তু দুটি সেঞ্চুরির একটিও ছিল না বিপিএলে। তার মানের একজন ব্যাটসম্যানের জন্য বিব্রতকরও। মনে তাড়নাও ছিল তীব্র। কাক্সিক্ষত সেই মাইলফলক এলো ফাইনালে, অপেক্ষার ফল মধুর মনে হচ্ছে তামিমের। ‘সেঞ্চুরির সুযোগ আমার আগে ছিল। গত মৌসুমেও দুয়েকবার ছিল। কোনভাবে হয়ে ওঠেনি। ৭০-৮০ রানে বেশ কবার আউট হয়েছি, তখনও হয়তো ৫-৬ ওভার ছিল। এবার ফাইনালে হলো, এর চেয়ে ভালো কিছু আর হতে পারত না।’

ইনিংসের ধ্বংসাত্মক রূপ, রেকর্ডের ছড়াছড়ির পাশাপাশি নজর কাড়ার মতো ঘটনা ছিল আরও একটি, ইনিংসটি যেভাবে গড়ে তোলেন। প্রথম চার ওভারে কোন বাউন্ডারিই মারেননি। পঞ্চম ওভারে সুনিল নারাইনকে ছক্কা মারেন, তার পরও ওভার শেষে তার রান ছিল ১৩ বলে ১১। এরপর আস্তে আস্তে বাড়তে থাকে রানের গতি। ১০ ওভার শেষে ২৭ বলে ৩৮। একাদশ ওভারে শুভাগত হোমের টানা দুই বলে চার ও ছক্কা, অর্ধশতক করেন ৩১ বলে। উইকেটে তখন জমে যান পুরোপুরি। বেরিয়ে এসে ছক্কায় ওড়ান সাকিবকে। ওই ওভারেই বিদায় নেন এনামুল হক। পরের ওভারে রান আউট শামসুর রহমান। তামিম কিন্তু দমেননি। ততক্ষণে হয়ে ওঠেন আরও অপ্রতিরোধ্য। গোটা টুর্নামেন্টে দারুণ বোলিং করা রুবেল হোসেনের এক ওভারে দুটি করে চার ও ছক্কা, জোড়া চার ও ছক্কা মারেন আন্দ্রে রাসেলের ওভারেও। সাকিবের ওভারে দুই ছক্কা, এক চার। ৫০ বলে সেঞ্চুরি! শেষ দিকে ঢাকার বোলারদের তা-বলীলা চালিয়ে অপরাজিত থেকেই ইনিংস শেষ।

ইনিংসজুড়ে প্রতিটি মুহূর্তের চাহিদা মিটিয়েছেন নিখুঁতভাবে, যেন শিল্পীর নান্দনিক তুলির আঁচড়। বল উড়েছে মাঠের নানা প্রান্তে, সীমানায়। রাসেলের ১৫ বলে নিয়েছেন ৩২ রান, রুবেলের ১৩ বলে ৩৭, সাকিবের ১০ বলে ৩০। আবার এ দিন ঢাকার সেরা বোলার সুনিল নারাইনকে একটি ছক্কা মারলেও তার ৯ বলে নিয়েছেন মাত্র ১২ রান। সতর্কতার সঙ্গে পার করেছেন নারাইনের স্পেল। এ নিয়ে তামিমের ব্যাখ্যাÑ ‘অবশ্য ভাবিনি এমন ইনিংস খেলতে পারব। কিন্তু ইনিংসটি আমি গুছিয়েছি খুব ভালোভাবে। আমার সঙ্গে উইকেটে যখন যে ছিল, আমি একটি কথা বলেছি যে সাকিব ও নারাইনকে উইকেট দেয়া যাবে না। নারাইনকে একটি ছক্কা মারলেও আমি কোন ঝুঁকি নিইনি। এটা ছিল গুরুত্বপূর্ণ। উইকেট অবিশ্বাস্যরকম ভালো ছিল (ব্যাটিংয়ের জন্য)। দিনটিও আমার ছিল। যেভাবে চেয়েছি, লেগেছে। ঠিক মতো লাগেনি যে দু-একটা, সেসবেও চার-ছক্কা পেয়েছি।’

ঢাকার ধারালো বোলিং আক্রমণের বিপক্ষেও এমন একটি বিস্ফোরক ইনিংস খেলতে পারায় তামিমকে অনুপ্রেরণা জোগাবে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টির জন্যও। ‘ইনিংসটি আমাকে একটা শিক্ষাও দিল, আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে আমি কিভাবে কাজে লাগাতে পারি। ঢাকার বোলিং আক্রমণ যেমন ছিল, অনেক আন্তর্জাতিক দলের বোলিং আক্রমণও এত ভালো থাকে না। এখানে এভাবে ব্যাট করতে পারলে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতেও না পারার কারণ নেই। অনেক শিখেছি।’

তামিমের প্রথম বিপিএল ট্রফি। দিনশেষে এমন প্রাপ্তিতে মিলেমিশে একাকার স্বস্তি ও উৎসাহব্যঞ্জক। ‘আমার খুব ইচ্ছে ছিল ট্রফি জয়ের। সবসময়ই চেয়েছি বিপিএল জিততে। ভারটা এখন নেমে গেছে।’ ওয়েবসাইট।

প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ম্যাচে জয়ী ঢাকা আবাহনী

ক্রীড়া বার্তা পরিবেশক

image

বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে শনিবার বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগে ঢাকা আবাহনী ৪-৩ গোলে হারিয়েছে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবকে। ১২ ম্যাচে ৩০

২০১৯ বিশ্বকাপ হবে আবহাওয়া নির্ভর-পিটারসেন

সংবাদ স্পোর্টস ডেস্ক

image

ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠেয় আইসিসি বিশ্বকাপ ক্রিকেটে আবহাওয়া একটা বড় ভূমিকা রাখবে বলে মন্তব্য করেছেন ইংল্যান্ডের সাবেক ব্যাটসম্যান কেভিন পিটারসেন

জহুরুল-সাইফউদ্দিনের ব্যাটে জয়ী আবাহনী

সংবাদ স্পোর্টস ডেস্ক

image

ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লীগের নবম রাউন্ডে আবাহনী লিমিটেড ৪ উইকেটে হারিয়েছে প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাবকে। ব্যাট হাতে আবাহনীর জয়ের

sangbad ad

সবার আগে সুপার সিক্সে আবাহনী

সংবাদ স্পোর্টস ডেস্ক

image

দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ফিফটি করেন নাজমুল হোসেন শান্ত। রান পেলেন সাব্বির রহমান ও মেহেদী হাসান মিরাজও। কিন্তু লক্ষ্য তাড়ায় আবাহনীর

বিশ্বকাপে মিরাজের লক্ষ্য মিতব্যয়ী বোলিং

সংবাদ স্পোর্টস ডেস্ক

image

আসন্ন বিশ্বকাপে করণীয় ঠিক করেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। উপমহাদেশের উইকেটে

জেসুসের জোড়া গোলে জিতল ব্রাজিল

সংবাদ স্পোর্টস ডেস্ক

image

বদলি খেলোয়াড় গ্যাব্রিয়েল জেসুসের জোড়া গোলে ব্রাজিল মঙ্গলবার এক প্রীতি ম্যাচে চেক প্রজাতন্ত্রকে ৩-১ ব্যবধানে হারিয়েছে। আগের ম্যাচে দুর্বল

জয় দিয়ে ইউরো অভিযান শুরু স্পেনের

সংবাদ স্পোর্টস ডেস্ক

image

জয় দিয়েই ইউরো ২০২০ এর বাছাই পর্ব শুরু করেছে স্পেন। যদিও তাদের প্রথম ম্যাচের পারফরমেন্স খুশি করতে পারেনি সমর্থকদের। নিজেদের মাঠে শনিবার

প্যালেস্টাইনের মুখোমুখি বাংলাদেশ

ক্রীড়া বার্তা পরিবেশক

image

প্রথম ম্যাচে স্বাগতিক বাহরাইনের বিরুদ্ধে লড়াই করে ১-০ গোলে হেরে গেছে বাংলাদেশ অলিম্পিক দল। এই হারে গ্রুপ পর্ব টপকানোর সম্ভাবনা উবে গেছে

আবাহনীর সহজ জয়

সংবাদ স্পোর্টস ডেস্ক

image

ঢাকা প্রিমিয়ার লীগের মঙ্গলবারের ম্যাচে সহজে জিতেছে আবাহনী লিমিটেড। শাইনপুকুর ক্রিকেট

sangbad ad