• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮

 

মহাজোট-ঐক্যফ্রন্ট : চূড়ান্ত হয়নি আসন বণ্টন

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বুধবার, ২৮ নভেম্বর ২০১৮

সংবাদ :
  • ফয়েজ আহমেদ তুষার ও অমিত হালদার
image

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন আজ। তবে এখনও নিজ নিজ জোটের শরিকদের সঙ্গে আসন বণ্টন চূড়ান্ত করতে পারেনি আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ‘মহাজোট’ এবং বিএনপির ‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট’। এই পরিপ্রেক্ষিতে জোটভুক্ত হয়েও দলীয়ভাবে যে-যার মতো করে মনোনয়নপত্র জমা দিচ্ছে। সমন্বয়হীনতার কারণে কোন কোন আসনে একই জোটের দুইজন প্রার্থী হচ্ছেন। আবার কৌশলগত কারণে একই আসনে দলীয় একাধিক প্রার্থীও মনোনয়নপত্র জমা দিচ্ছেন। ফলে প্রার্থীদের মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হচ্ছে। দুটি জোটেরই দায়িত্বশীল সূত্রমতে, এখন একাধিক প্রার্থী থাকলেও মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের সময় শেষ হওয়ার আগেই একক প্রার্থী রেখে অন্য প্রার্থীদের সরিয়ে নেয়া হবে।

ভোটের আগে গঠিত জোটগুলো নিজেদের জয় নিশ্চিত করতে প্রতিটি আসনে জোটের পক্ষ থেকে একজন প্রার্থী দেবে এটাই স্বাভাবিক। তবে একাদশ সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে ৩০০ আসনে মঙ্গলবার (২৭ নভেম্বর) রাত পর্যন্ত বিএনপি দলীয়ভাবেই প্রায় এক হাজার প্রার্থীকে মনোনয়ন দিয়েছে। এসব আসনে বিএনপির জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট এবং ২০ দলের পক্ষ থেকেও মনোনয়ন দেয়া হবে।

এদিকে আওয়ামী লীগ ২৩০টি আসনে ২৪৮ জন দলীয় প্রার্থীকে মনোনয়ন দিয়েছে। ক্ষমতাসীনরা মহাজোটের শরিকদের জন্য সত্তরটি আসন ছাড়ের কথা বলেছে। তবে মহাজোটের অন্যতম শরিক জাতীয় পার্টি জোট থেকে ৪৫ আসন পাওয়ার কথা জানালেও ২০০ আসনে দলীয় প্রার্থী মনোনয়নের ঘোষণা দিয়েছে। মহাজোটের শরিক ওয়ার্কার্স পার্টি জোট থেকে ৫টি আসন পেলেও নিজ দলের ৩৪ জনকে মনোনয়ন দিয়েছে। মহাজোটের শরিক আরও কয়েকটি দল জোটের পক্ষ থেকে প্রাপ্ত আসনের চেয়ে বেশি প্রার্থীকে দলীয় মনোনয়ন দিয়েছে। শরিকদের চাওয়া-পাওয়ায় ফারাক থাকায় মতৈক্য না হওয়ায় আসন বণ্টন চূড়ান্ত করতে পারেনি কোন জোট। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নির্ভরযোগ্য সূত্রমতে, শরিক গণফোরাম, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ, নাগরিক ঐক্য, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি-রব) বড় প্রত্যাশার বিপরীতে বিএনপির কম আসনে ছাড় দেয়ার মানসিকতার কারণেই এই জোটে আসন বণ্টন নিয়ে এখনও মতৈক্য হয়নি। বিএনপির নির্ভরযোগ্য একটি সূত্রমতে, সংসদীয় ২৪০ আসন নিজেদের জন্য রেখে বাকি ৬০টি আসন ২০ দল ও ঐক্যফ্রন্টের মধ্যে ভাগ করে দেবে বিএনপি। সূত্রমতে, ঐক্যফ্রন্টের চেয়ে ২০ দল বেশি আসন পাবে।

এদিকে মহাজোটের শরিক জাতীয় পার্টিসহ অন্যান্য দলগুলোর অধিক আসন প্রাপ্তির প্রত্যাশা থাকলেও বিজয়ের আস্থা না পেয়ে শরিকদের বেশি আসনে ছাড় দিতে রাজি হয়নি আওয়ামী লীগ। ফলে শরিকদের মধ্যে আসন বণ্টন চূড়ান্ত করতে পারেনি ক্ষমতাসীনরা। মহাজোট সূত্রমতে, এই জোটে আওয়ামী লীগ ২৩০টি, জাতীয় পার্টি (জাপা) ৪৫টি, ওয়ার্কার্স পার্টি ৫টি, জাসদ (ইনু) ৩টি, জাসদ (বাদল) ১টি, তরিকত ফেডারেশন ২টি, আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর জাতীয় পার্টি (জেপি) ১টি, বিকল্পধারার নেতৃত্বাধীন যুক্তফ্রন্টকে ৮টি (৩টি কমতে পারে) এবং ইসলাম দল এবং জোটসহ অন্য শরিকদের ৫টি (৩টি বাড়তে পারে) আসন পাবে।

মহাজোটের আসন বণ্টনে কালক্ষেপণের বিষয়টিকে রাজনৈতিক কৌশল হিসেবে আখ্যায়িত করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আমি তো আমার প্রতিপক্ষের কৌশলের কাছে পিছিয়ে থাকতে চাই না। এবার নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে। নির্বাচনী কৌশলকে কোনভাবেই অগ্রাহ্য করা যায় না। জোটের শরিকরা নিজেদের মতো করে দলীয় প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ করবে। কয়েকটি জায়গায় আওয়ামী লীগেরও দুইজন প্রার্থীকে মনোনয়নের চিঠি দেয়া হয়েছে। এখন সবাই মনোনয়নপত্র জমা দেবেন। তারপর আমরা মাঠপর্যায়ে জরিপ করে দেখব, কে জনপ্রিয়। আবার কেউ কেউ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের পর ঋণখেলাপি হতে পারেন। তাই সবকিছু যাচাই-বাছাই করে তালিকা প্রকাশ করব, যেন শরিকদের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝি না হয়।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র এবং বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জোটের মনোননয়ন তালিকা প্রকাশে বিলম্বের বিষয়ে বলেছেন, আমরা আমাদের দল থেকে মনোনয়ন দিচ্ছি। এখন পর্যন্ত ৮ শতাধিক মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। আর জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্য শরিকরা তাদের নিজ নিজ দল থেকে মনোনয়ন দিচ্ছে। ইসিতে যখন বাছাই হয়ে যাবে, তখন কে প্রার্থী হবে তা ঠিক হয়ে যাবে।

একই দলের একাধিক প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা দেয়া হলে কোন জটিলতা তৈরি হবে কি-না, জানতে চাইলে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) অতিরিক্ত আঞ্চলিক কর্মকর্তা মনির হোসাইন সংবাদকে বলেন, এখানে জটিলতার কিছু নেই। একটি দলের একাধিক প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারেন। যাচাই-বাছাই শেষে তারা বৈধ প্রার্থীও হতে পারেন। তবে দলীয়ভাবে যখন চিঠি দেয়া হবে তখন একজনের দলীয় মনোনয়ন চূড়ান্ত হবে, অন্যরা বাদ পড়ে যাবেন। একজনই দলীয় প্রতীক পাবেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তারিখ ঘোষণার পরপরই সারাদেশে আনন্দঘন পরিবেশে বিভিন্ন দল ও জোটের মনোনয়ন প্রক্রিয়া শুরু করে। রাজনীতিক, কর্মী ও সমর্থকদের প্রচারণায় রাজধানীতে উৎসবের আমেজ সৃষ্টি হয়। শহর পেরিয়ে নগর-বন্দর এবং গ্রাম-গঞ্জের চায়ের দোকান, অলিগলি, পাড়া-মহল্লা, মাঠ-ঘাট সর্বত্রই এ উৎসব ছড়িয়ে পড়ে। কোন আসনে কে প্রার্থী হচ্ছেন, কোন ‘সেলিব্রেটি’ কোন দল থেকে নির্বাচন করছেন, এসব বিষয় নিয়ে সব শ্রেণীপেশার মানুষ এখন আলোচনায় মুখর।্

এবার নির্বাচনে অর্ধশতাধিক দল অংশ নিলেও নৌকা আর ধানের শীষের মধ্যেই মূল লড়াই হবে। কারণ বেশিরভাগ জোট এই দুই প্রতীকে নির্বাচনের ঘোষণা দিয়েছে। নির্বাচনের আর ৩৩ দিন বাকি। তফসিল অনুযায়ী আগামীকাল ২৮ নভেম্বর রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিন। মনোনয়নপত্র বাছাই ২ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ হবে ৯ ডিসেম্বর। এরপরই শুরু হবে প্রতীকসহ প্রচারণা। ভোট হবে আগামী ৩০ ডিসেম্বর, রোববার।

মহাজোটে দেড় শতাধিক বিদ্রোহী প্রার্থী প্রচারণায়

ফয়েজ আহমেদ তুষার

image

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দেড় শতাধিক আসনে মহাজোটের প্রার্থীদের বিপরীতে

সাংবাদিককে হুমকি দেয়ার ঘটনায় আ’লীগের নিন্দা

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেছেন, জাতীয়

আর একবার জনগণের সেবা করার সুযোগ চাইলেন প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক ও প্রতিনিধি, গোপালগঞ্জ

image

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশবাসীকে নৌকা মার্কায় ভোট দেয়ার

sangbad ad

বিএনপি-জামায়াত সহিংসতা শুরু করেছে : ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, নির্বাচনকে

প্রচার উৎসবে দেশ

অমিত হালদার ও ফয়েজ আহমেদ তুষার

image

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু করেছে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট এবং বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট ও জাতীয়

পাল্টাপাল্টি অভিযোগ কাদের-ফখরুলের

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই’র সঙ্গে বিএনপি নেতারা বৈঠক করে নির্বাচন বানচালের

জামায়াতের ওপরই আস্থা বিএনপির

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলীয় জোটের চেয়ে জামায়াতে ইসলামীর

জাতীয় পার্টিকে নিয়ে অস্বস্তিতে আ’লীগ

ফয়েজ আহমেদ তুষার

image

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দ্বারপ্রান্তে এসে মহাজোটের বড় শরিক জাতীয় পার্টিকে (জাপা)

মহাজোটে আসন ২৯ উন্মুক্ত ১৩২

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টির (জাপা) ২৯ জন মহাজোটের প্রার্থী হিসেবে

sangbad ad