• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বুধবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৮

 

রমজানে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে চাঁদাবাজি বন্ধের দাবি

নিউজ আপলোড : ঢাকা , রবিবার, ১৫ এপ্রিল ২০১৮

সংবাদ :
  • অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক
image

আসন্ন রমজান মাসে নিত্যপণ্য দাম নিয়ন্ত্রণে রাখতে চাঁদাবাজি বন্ধের দাবিসহ ব্যবসায়ীদের স্বদিচ্ছা এবং সরকারের কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ জরুরি বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। তারা বলেন, পরিবহন খাতে চাঁদাবাজি ও যানজট নিয়ন্ত্রণে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ এবং ব্যবসায়ী সমাজ ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ও সরকারি সংস্থার সম্মিলিত প্রচেষ্টার মাধ্যমেই নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য এবং আইন আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্থিতিশীল রাখা সম্ভব। একই সঙ্গে চাহিদা মাফিক পণ্যের সরবরাহ নিশ্চিতকরণ, দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পণা প্রণয়ন, পণ্য আমদানিতে আন্তর্জাতিক বাজারের ওপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে আভ্যন্তরীণভাবে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের উৎপাদন বৃদ্ধি, ব্যাংকের সুদের হার কমানোর বিষয়ের ওপর সরকারের কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণের আহ্বান জানান তারা।

রোববার (১৫ এপ্রিল) রাজধানীর মতিঝিলে ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাষ্ট্রিতে (ডিসিসিআই) আয়োজিত ‘আসন্ন পবিত্র রমজান মাসে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য সহনীয় পর্যায়ে রাখার পাশাপাশি আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বিষয়ে এলাকাভিত্তিক ও বিশেষায়িত ব্যবসায়ী সমিতিগুলোর সঙ্গে মতবিনিময় সভা’ শীর্ষক সভায় এ দাবি জানানো হয়। ডিসিসিআই সভাপতি আবুল কাসেম খানের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। বিশেষ অতিথি ছিলেন কনজুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) সভাপতি গোলাম রহমান। এছাড়া ডিসিসিআই সহ-সভাপতি রিয়াদ হোসেন, পরিচালক হোসেন এ সিকদার, ইমরান আহমেদ, কে এম এন মঞ্জুরুল হক, ইঞ্জি. মো. আল আমিন, মোহাম্মদ বাশীর উদ্দিন, সেলিম আকতার খান এবং মহাসচিব এএইচএম রেজাউল কবির উপস্থিত ছিলেন। মতবিনিময় সভায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাধ তত্ত্ব বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. জিয়া রহমান মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।

স্বাগত বক্তব্যে ঢাকা চেম্বারের সভাপতি আবুল কাসেম খান বলেন, ২০১৭ সালের এপ্রিল থেকে মে মাসের ব্যবধানে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম গড়ে ১৭ দশমিক ৫১ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছিল এবং এই মূল্যবৃদ্ধির মূলে রয়েছে প্রথাগত বাজার সরবরাহ প্রক্রিয়া, অতিরিক্ত মজুদকরণের মাধ্যমে বাজারে পণ্যদ্রব্যের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি, অপর্যাপ্ত ও সমন্বয়হীন বাজার মনিটরিং, পরিবহনখাতে চাঁদাবাজি, দুর্বিষহ যানজট এবং অতিরিক্ত পরিবহন ব্যয়। তিনি বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য মতে, ২০১৮ সালে দেশে গড় মুদ্রাস্ফীতি ৫ দশমিক ৮২ শতাংশ এবং খাদ্যদ্রব্যে গড় মুদ্রাস্ফীতি ৭ দশমিক ১৩ শতাংশ। এ পরিস্থিতে আসন্ন রমজান মাসে খাদ্যদ্রব্যের দাম আরও বাড়লে মধ্যবিত্ত আয়-ব্যয়ে সমন্বয় করতে হিমশিম খাবে। ডিসিসিআই’র সভাপতি বলেন, বর্তমানে ঋণ প্রদানের ক্ষেত্রে ব্যাংকগুলো দুই অঙ্কের উচ্চ সুদের হার এবং কোন কোন ব্যাংকের ১৬ শতাংশ থেকে ১৭ শতাংশ সুদ হার উৎপাদন খরচ বাড়াতে পারে, পাশাপাশি রয়েছে ঋণ পাওয়ার জটিলতা ও অপ্রয়োজনীয় সময়ক্ষেপণ এবং এসব কিছুর চাপ শেষ পর্যন্ত গিয়ে উৎপাদন খরচের সঙ্গে যোগ হয় এবং ভোক্তাকেই তা বহন করতে হয়। পাশাপাশি রমাজানে ট্যারিফ কমিশন ও রাজস্ব বোর্ড এসব নির্দিষ্ট ভোগ্যপণ্যে ট্যারিফ ও শুল্ক হ্রাস করতে পারে এবং ব্যবসায়ীরা রমজানে পাইকারী পর্যায়ে বিক্রয় করার ক্ষেত্রে অন্য মাসের তুলনায় সুলভমূল্যে বিক্রয় করতে পারবে। তিনি বলে অভিমত ব্যক্ত করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন বলেন, দেশের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যবৃন্দ কোন ধরনের অনৈতিক কার্যক্রমকে প্রশ্রয় দিবে না এবং এ ধরনের পরিস্থিতি কঠোর হস্তে দমন করা হবে। তিনি বলেন, এ ধরনের অসাধু কার্যক্রমে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কোন সদস্য জড়িত থাকলে তাকে কোন ধরনের ছাড় দেয়া হবে না। মহাসড়কে যানজটের বিষয়ে তিনি গাড়ি চালকদের নিয়ম মেনে গাড়ি চালানোর আহ্বান জানান এবং মাত্রাতিরিক্ত পণ্য পরিবহনে বিরত থাকার জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানান। তিনি আসন্ন রমজান মাসে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম সহনীয় পর্যায়ে রাখা এবং বিপণী বিতানসমূহে নিরাপত্তা বিধানে সরকারের পক্ষ হতে সব ধরনের উদ্যোগ গ্রহণের আশ্বাস প্রদান করেন। একই সঙ্গে আসন্ন রমজান মাসে নৈতিকতার সঙ্গে ব্যবসায়িক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

কনজুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব)-এর সভাপতি গোলাম রহমান বলেন, সম্প্রতি বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে একটি সভা আয়োজন করে, যেখানে এ বছর রমজান মাসে চাহিদা মাফিক পণ্য সরবরাহের বিষয়টি সরকার ও ব্যবসায়ীদের পক্ষ হতে আশ্বাস প্রদান করা হয়েছে। তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে পণ্যের দাম স্থিতিশীল থাকা সত্ত্বেও ডলারের দামের ওঠা-নামার ফলে আমাদের আভ্যন্তরীণ বাজারে পণ্যের দাম বৃদ্ধি পায় এবং এ ব্যাপারে বাংলাদেশ ব্যাংক, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে আরও সচেতন থাকতে হবে। তিনি আরও বলেন, রাস্তাঘাটে যানজট, বন্দরসমূহে জাহাজ ও পণ্যবাহী ট্রাকের জটের ফলে বিশেষ করে রমজান মাসে চাহিদামাফিক পণ্যের সরবরাহ ব্যাহত হয়, তাই এ সমস্যা সমাধানে বন্দর কর্তৃপক্ষ এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে আরও উদ্যোগী হতে হবে। ক্যাব সভাপতি বলেন, ভেজাল ও নিম্নমানের পণ্য রোধকল্পে অবশ্যই সব সংস্থার সমন্বয়ে নিয়মিতভাবে মোবাইল কোট পরিচালনা করতে হবে। বাংলাদেশে সয়াবিন তেলের চেয়ে পামওয়েল বেশি আমদানি করা হলেও বাজারে সয়াবিন তেলের আধিক্য পরিলক্ষিত হয়, এ অবস্থা নিরসনে দুটো পণ্য আমদানিতে বিদ্যমান শুল্ক কাঠামোর সংষ্কার আবশ্যক। পচনশীল পণ্যে সংরক্ষণে পর্যাপ্ত সুযোগ-সুবিধা না থাকার এ ধরনের পণ্যের দাম অস্বাভাবিক হারে বৃদ্ধি পায় বলে, তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন।

মূল প্রবন্ধে ড. জিয়া রহমান বলেন, রমজান মাসে কিছু অসাধু ব্যবসায়ীদের যোগসাজশে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে কিছু পণ্যের মূল্য বৃদ্ধির প্রচেষ্টা আমাদের পরিলক্ষিত হয় এবং এটা হয়ে থাকে মূলত পণ্যের চাহিদা ও যোগানের ঘাটতির কারণে। তিনি ‘ভোক্তা অধিকার আইন’ এবং ‘বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য আইন’ যথাযথভাবে বাস্তবায়নের ওপর জোরারোপ করেন। তিনি অসাধু ব্যবসায়ীদের আইনের আওতায় নিয়ে আসার জন্য ‘ন্যায্য মূল্য নিয়ন্ত্রণ সেল’ গঠনের প্রস্তাব করেন। তিনি আরও বলেন, সরকার যদি রমজানের আগে বাজরে কি কি পণ্যেও চাহিদা কত রয়েছে তা নিরূপণ করতে পারে, তাহলে সেটার ভিত্তিতে ব্যবসায়ীরা এলসি’র মাধ্যমে প্রয়োজনীয় পণ্য আমদানি করতে সক্ষম হবে এবং পণ্যের কৃত্রিম সংকট তৈরি সম্ভব হবে না।

ব্যবসায়ীরা বলেন, রমজান এলেই পুলিশ ও রাজনৈতিক দলের নানা ধরনের অপতৎপরতা শুরু হয়। ইফতার পার্টির নামে চলে চাঁদাবাজি। এতে ব্যবসায়ীদের প্রচুর অর্থ খেসারত দিতে হয়। বাড়তি এ টাকা ক্রেতাদের কাছ থেকেই তুলে নেয়ায় পণ্যের দাম বেড়ে যায়। তাই রমজান মাসে পুলিশের অপতৎপরতা, দলীয় নেতা ও মাস্তানদের চাঁদাবাজি বন্ধ করার দাবি জানান ব্যবসায়ীরা। তারা বলেন, রাস্তায় গাড়ি থামিয়ে চাঁদাবাজি করে যানজটের সৃষ্টি করা হয়। সঠিক সময়ে পণ্য পৌঁছানো যায় না। ফলে দাম বেড়ে যায়। বর্তমানে রমজানের প্রয়োজনীয় পণ্য মজুদ স্বাভাবিক রয়েছে। চাহিদা অনুযায়ী সরবারহ ঠিক থাকলে দাম বাড়বে না। এ জন্য সরকারকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করতে হবে।

উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষায় সহযোগিতার হাত বাড়ান : আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে অর্থমন্ত্রী

সংবাদ ডেস্ক

image

স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উত্তরণের পরবর্তী চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় ও উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে

বিজিবি-বিএসএফ সীমান্ত সম্মেলন শুরু

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

ঢাকায় শুরু হয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও ভারতের বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্সের (বিএসএফ)

একটি মাত্র এক্সরে মেশিন তাও নষ্ট

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে এক্সরে মেশিনটি নষ্ট। রহস্যজনক কারণে

sangbad ad

সরকার বিনা মূল্যে ১৯ ক্যাটাগরি কর্মী পাঠাবে আমিরাতে

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

গৃহকর্মে নিয়োজিত ১৯ ক্যাটাগরির শ্রমিকদের বিনামূল্যে সংযুক্ত আরব আমিরাতে পাঠাবে সরকার।

প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর আট দিনের সফর

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

সৌদি আরব ও যুক্তরাজ্যে আট দিনের সরকারি সফর শেষে সোমবার (২৩ এপ্রিল) সকালে

তারেক লন্ডনে বসে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করছে : প্রধানমন্ত্রী

image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা লন্ডনে অবস্থানরত বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সন্ত্রাসী

নির্বাচনকে ঘিয়ে সৃষ্ট অরাজকতার চেষ্টা কঠোরভাবে দমন করা হবে

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, এ বছর নির্বাচনকে ঘিরে কোন অরাজকতা

চিনিশিল্প রক্ষায় ১০০ কোটি টাকা দিচ্ছে সরকার

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনকে (বিএসএফআইসি) ভর্তুকি হিসেবে আরও ১০০ কোটি টাকা দিচ্ছে

ছাত্রলীগকে নতুন আঙ্গিকে বিকশিত করার কাজ চলছে

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আওয়ামী লীগ সভাপতি

sangbad ad