• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮

 

যৌন হয়রানি রোধে আইন প্রণয়ন অপরিহার্য : বিশেষজ্ঞদের অভিমত

নিউজ আপলোড : ঢাকা , শনিবার, ০৯ জুন ২০১৮

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

সাম্প্রতিক সময়ে নারী ও শিশুর প্রতি সর্বক্ষেত্রে যৌন হয়রানির ব্যাপকতা ক্রমেই বেড়ে যাওয়া উদ্বেগ প্রকাশ করে একটি পূর্ণাঙ্গ আইন প্রণয়নের উপর গুরুত্বারোপ করেছেন বিশেষজ্ঞরা। তারা বলেছেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও কর্মক্ষেত্রে কর্তৃপক্ষের অসচেতনতা এবং আদালতের নির্দেশনা না জানা অথবা জানলেও তা না মানার কারণে কমছে না যৌন হয়রানির ঘটনা। হাইকোর্টের নির্দেশনা প্রণয়নের দীর্ঘ নয় বছর পরেও যৌন হয়রানি প্রতিরোধে কার্যকর ব্যবস্থা পরিলক্ষিত হচ্ছে না। তাই বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো আমাদের দেশেও সকল ক্ষেত্রে যৌন হয়রানি প্রতিরোধে একটি পৃথক ও পূর্ণাঙ্গ আইন প্রণয়ন অপরিহার্য।’

শনিবার (৯ জুন) রাজধানীর ডেইলি স্টার ভবনে ‘সকল ক্ষেত্রে যৌন হয়রানি প্রতিরোধ ও সুরক্ষার জন্য খসড়া আইন, ২০১৮’ শীর্ষক এক মতবিনিময় সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতি ও জাতীয় কন্যাশিশু অ্যাডভোকেসি ফোরামের যৌথ উদ্যোগে এবং প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের গার্লস অ্যাডভোকেসি অ্যালায়েন্স এর সহায়তায় সভাটি অনুষ্ঠিত হয়। এতে ছয়জন জেলা জজ, একজন পাবলিক প্রসিকিউটর, একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, কয়েকজন আইনজীবী এবং বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সভাটি মডারেটর হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ‘সুজন’ সম্পাদক ও জাতীয় কন্যাশিশু অ্যাডভোকেসি ফোরামের সভাপতি ড. বদিউল আলম মজুমদার। সভার শুরুতে এ সংক্রান্ত একটা খসড়া আইন উত্থাপন করেন মহিলা আইনজীবী সমিতির পরিচালক তৌহিদা খন্দকার। এরপর উন্মুক্ত আলোচনায় অংশ নিয়ে খসড়া আইনের বিভিন্ন দিক নিয়ে নিজ নিজ মতামত তুলে ধরেন অতিথি ও বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধিরা। সভার শেষ পর্যায়ে একটি সমন্বিত যৌন হয়রানি প্রতিরোধ ও সুরক্ষা আইনের খসড়া তৈরির জন্য চার সদস্যের একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করা হয়।

সূচনা বক্তব্যে ড. বদিউল আলম মজুমদার বলেন, ‘একটি সমাজ কতটা সভ্য তা নির্ভর করে সে দেশের অপেক্ষাকৃত দুর্বল জনগোষ্ঠী কতটা ভালো আছে তার ওপর। আমরা দেখি, আমাদের সমাজে নারীরা এখনও পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠী এবং তারা বিভিন্ন অবহেলা ও নির্যাতনের শিকার। তাদের ওপর সবচেয়ে বড় নির্যাতন হলো যৌন নির্যাতন। আমরা মনে করি, তাদের প্রতি নির্যাতন রোধে প্রথমত একটি সমন্বিত আইন হওয়া দরকার।’ বক্তারা বলেন, ২০০৯ সালে ‘বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতি’র দায়ের করা এক রিট পিটিশনের পরিপ্রেক্ষিতে মহামান্য হাইকোর্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানি প্রতিরোধের লক্ষ্যে এক যুগান্তকারী রায় প্রদান করেন। ইতিমধ্যে প্রায় এক দশক অতিবাহিত হয়ে গেছে। কিন্তু বর্তমান সময়ে নারী ও শিশুর প্রতি সর্বক্ষেত্রে যৌন হয়রানির ব্যাপকতা ক্রমেই বেড়ে চলেছে। যৌন হয়রানি এখন নিত্য দিনের ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। ঘরে, পথে, ঘাটে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং কর্মক্ষেত্র সর্বত্রই যৌন হয়রানির শিকার হচ্ছেন নারীরা। বর্তমানে যৌন হয়রানি একটি সামাজিক ব্যাধিতে পরিণত হয়েছে। এটি এখন শুধু বাংলাদেশের সমস্যা নয়, এটি বৈশ্বিক সমস্যায় রূপ নিয়েছে।

শিক্ষকদের উন্নয়নে সরকার সব করছে : শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

শিক্ষকদের কল্যাণে এবং তাদের জীবনমান ও পেশাগত উন্নয়নে সরকার সব ধরনের

ভোটের ৭-১০দিন আগে সেনা মোতায়েন : ইসি সচিব

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সাত থেকে দশদিন আগেই সেনাবাহিনী ও বিজিবি

আর বাকী ৪৪ দিন

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আর ৪৪ দিন বাকী। ভোট হবে আগামী ৩০ ডিসেম্বর, রোববার

sangbad ad

আরও চারটি মাধ্যমিক বিদ্যালয় জাতীয়করন

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

জাতীয়করণ হয়েছে আরও চারটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়। এ নিয়ে বর্তমানে দেশে সরকারি মাধ্যমিক

সব প্রার্থীর জন্য সমান সুযোগ নিশ্চিত করার নির্দেশ সিইসির

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিরপেক্ষ

কোন অনুকম্পা নয় রক্তের বিনিময়ে অর্জিত বাংলাদেশের সংবিধান : স্পিকার

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, বাংলাদেশের সংবিধান বিশ্বে অনন্য। জাতির

দুদক ৫ বছরে দুর্নীতিবাজদের ২৭৪ কোটি ২৭ লাখ টাকা বাজেয়াপ্ত ও জরিমানা করেছে

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

দুর্নীতি দমন কমিশন ৫ বছরে দুর্নীতির মামলায় অভিযুক্ত দুর্নীতিবাজদের কাছ থেকে

টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে বাধা শিশুশ্রম

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জন করতে হলে দেশ থেকে শিশুশ্রম মুক্ত করতে হবে। শিশু

৩০ ডিসেম্বরের পর ভোট পেছানোর সুযোগ নেই : সিইসি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

নির্বাচন আরও পেছানোর দাবি নাকচ করে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা বলেছেন

sangbad ad