• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , রোববার, ৩১ মে ২০২০

 

বাসা-বাড়িতে গ্যাস সংযোগ দেয়া বন্ধ শুধু কাগজে-কলমে

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯

সংবাদ :
  • ফয়েজ আহমেদ তুষার
image

বাসা-বাড়িতে রান্নায় বৈধভাবে নতুন গ্যাস সংযোগ দেয়া বন্ধ থাকলেও অবৈধ গ্যাস সংযোগ নেয়া বন্ধ নেই। রাজধানীসহ আশপাশের কয়েকটি জেলার কয়েক লাখ বাসায় জ্বলছে অবৈধ চুলা। যারা বৈধ লাইনের জন্য অপেক্ষা করছেন সরকার তাদের এলপি গ্যাস ব্যবহার করতে বলছে; যদিও এর বাজার সরকারের নিয়ন্ত্রণে নেই। গ্যাস বিতরণে নিয়োজিত সবচেয়ে বড় রাষ্ট্রীয় কোম্পানি ‘তিতাস’ অবশ্য অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্নকরণ অভিযান নিয়মিত পরিচালনা করছে। গত এক বছরে কোম্পানিটি এক লাখের বেশি অবৈধ সংযোগ এবং প্রায় ৫০০ কিলোমিটার অবৈধ পাইপলাইন উচ্ছেদ করেছে। তবে বেশিরভাগ এলাকায় পুলিশ ও প্রশাসনকে ‘ম্যানেজ’ করে স্থানীয় একটি চক্র আবার অবৈধ লাইন দিয়ে এলাকাবাসীর মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পালি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রকৌশলী মো. মোস্তফা কামাল বিদ্যমান অবৈধ সংযোগের বিষয়ে একমত পোষণ করে গতকাল রাতে সংবাদকে বলেন, অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্নকরণ অভিযানের পরও একটি শ্রেণী রাতের আঁধারে আবার সংযোগ নিচ্ছে। অনেক সময় দুর্ঘটনা ঘটলে আমরা খবর পাই।

এলাকার নাম উল্লেখ না করে গত রোববার তিতাসের এক অভিযান প্রসঙ্গে তিতাসের এমডি প্রকৌশলী মো. মোস্তফা কামাল বলেন, গত মঙ্গলবার আমাদের এক টিম অভিযানে অবৈধ লাইন কেটেছে। ওখানে আইন, শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর সদস্যদের বাসা ছিল। এরপর তারা তিতাসের লোকজনকে আটকে রাখে। পরে আমরা তাদের বোঝাতে সক্ষম হই যে, তারা যে বাসায় থাকছে সেখানে অবৈধ গ্যাস সংযোগ। এরপর তারা তিতাসের লোকজনদের ছেড়ে দেয়।

অভিযান পরিচালনায় লোকবল সংকট নেই জানিয়ে তিতাসের এমডি প্রকৌশলী মো. মোস্তফা কামাল বলেন, স্থানীয় সূত্র কিংবা আমাদের লোকজনের মাধ্যমে তথ্য পেলেই আমরা অবৈধ সংযোগের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করি। তিনি বলেন, এটা একটা অব্যাহত কাজ। যারা চুরি করছে, তারাও থেমে নেই। তিনি বলেন, গণমাধ্যমে সংবাদ বের হলেও আমরা অভিযান চালাই। আপনারা (সংবাদকর্মীরা) চাইলে সরাসরি অথবা পত্রিকায় নিউজের মাধ্যমে আমাদের এ বিষয়ে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করতে পারেন।

দেশে গ্যাসের চাহিদার তুলনায় উৎপাদন সংকট দীর্ঘদিনের। এ কারণে নতুন বাড়ি বানালেও রান্নার গ্যাস পাচ্ছেন না কেউ। সরকরের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, নতুন করে আবাসিকে আর কোন গ্যাস সংযোগ দেয়া হবে না। রান্নার কাজে এখন বোতলজাত এলপি (লিকুইড পেট্রোলিয়াম) গ্যাসই ভরসা। তবে রাজধানীসহ আশেপাশের কয়েকটি জেলায় অবৈধ গ্যাস সংযোগ নিয়ে বিল ছাড়াই রান্না করছে কয়েক লাখ পরিবার। এই অবৈধ সংযোগ তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিউিশন কোম্পানি লিমিটেডের (তিতাস) নিয়ন্ত্রণে নেই বললেই চলে।

বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন, তিতাসের বিজ্ঞপ্তি এবং সরেজমিন প্রাপ্ত তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, গত পাঁচ বছরে ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, নরসিংদী, গাজীপুর ও মুন্সীগঞ্জে শ’ শ’ কিলোমিটার পাইপ বসিয়ে অন্তত পাঁচ লাখ বাসা-বাড়িতে অবৈধ গ্যাস সংযোগ নেয়ার ঘটনা ঘটেছে। মাসিক বিল না দিয়ে মাসের পর মাস চলছে এসব অবৈধ গ্যাস লাইন। তিতাসের অভিযানে সংযোগ বিচ্ছন্ন হলেও এটা সাময়িক। কারণ স্থানীয় একটি চক্র স্বল্প সময়ের মধ্যেই আবার অবৈধ সংযোগ চালু করে দিচ্ছে। পুনরায় লাইন দেয়ার নামে নির্দিষ্ট হারে টাকা ওঠানোর সময় বাসা-বাড়ির মালিককে বলা হচ্ছে বিল দিলে চুলা প্রতি মাসিক আটশ’ টাকা করে লাগত। আপনাদের তো বিল লাগে না। এই চক্র মোটা অংকের টাকা উঠিয়ে একটা অংশ স্থানীয় পুলিশ ও প্রশাসনকে দিয়ে আবার অবৈধ লাইন চালু করে।

চলতি অক্টোবরেও গাজীপুরের সদর উপজেলা, সভারের আশুলিয়াসহ কয়েজটি স্থানে অভিযান চালিয়ে প্রায় তিন হাজর অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে। উচ্ছেদ করেছে প্রায় দশ কিলোমিটার অবৈধ বিতরণ লাইন। নির্ভরযোগ্য একটি সূত্র বলছে, সরকারি মালিকানাধীন ছয়টি গ্যাস কোম্পানির মধ্যে তিতাসসহ চারটি কোম্পানি এ বছরের আগস্ট পর্যন্ত মোট ৯৭ হাজার ৯৩৫টি অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে। এ সময় ৩০৭ কিলোমিটার গ্যাস লাইন বিচ্ছিন্ন করা হয়। গ্যাস লাইনের পুরোটাই ছিল আবাসিক খাতের। বিচ্ছিন্ন করা সংযোগেরও প্রায় সিংহভাগ আবাসিক খাতের। আবাসিকের ৯৭ হাজার ৮৩টি চুলা এ সময় বিচ্ছিন্ন করা হয়। বাকিগুলোর মধ্যে বাণিজ্যিক খাতের ২০২টি, শিল্প খাতের ৮৭টি, সিএনজি ২২টি এবং ক্যাপটিভ সংযোগ ৪১টি। তিতাস গ্যাস কোম্পানি সূত্র জানায়, ২০১৭-১৮ অর্থবছরে কোম্পানির অভিযানেও ৬৩ হাজারের বেশি অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। পরিসংখ্যান বিশ্লেষণে দেখ গেছে, গত সাত-আট বছর অবৈধ গ্যাস সংযোগের মহোৎসব চললেও তিতাস গ্যাস কোম্পানি অভিযান পরবর্তী (২০১৫ থেকে নভেম্বর ২০১৮ পর্যন্ত) সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছে ১৩২টি, মামলা করেছে ৮৪টি । এসব মামলায় সাজা হওয়ার উল্লেখযোগ্য কোন নজির পাওয়া যায়নি।

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু বলেছেন, অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্নকীরণ অভিযান পরিচালনায় বড় বাধা স্থানীয় সংসদ সদস্যরা। অভিযানে তাদের কাছ থেকে কোন সহযোগিতা পাওয়া যায় না। সম্প্রতি এক বৈঠকে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি রাজধানীসহ আশেপাশের কয়েকটি জেলায় লাগামহীন অবৈধ গ্যাস সংযোগের বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করলে প্রতিক্রিয়া প্রতিমন্ত্রী বিপু তাদের এ জবাব দেন। তবে কমিটি অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্নকরণের বিষয়ে মন্ত্রীকে আরও কঠোর হওয়ার পরামর্শ দেয়।

স্থানীয় কমিটির এক সদস্য বলেন, দেশের দুর্নীতি বিরুদ্ধে শুদ্ধি অভিযান চলছে। অন্য সব দুর্নীতিবাজদের মতো গ্যাস সেক্টরের দুর্নীতিবাজদেরও চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা উচিৎ। এ বিষয়ে কমিটির বৈঠকে আলোচনা করে দ্রুত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

সরেজমিন দেখা গেছে, গাজীপুর, নরসিংদী, নারায়ণগঞ্জ ও মুন্সীগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় এখনও গ্যাসের অবৈধ পাইপলাইন রয়েছে। কোথাও মাটির ওপর দিয়ে, আবার কোথাও ব্রিজের ওপর দিয়ে এসব অবৈধ লাইন দৃশ্যমান। স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এসব এলাকার লাইন ইতোপূর্বে কাটা গেলেও পরবর্তীতে আবার লাইন নেয়া হয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেকেই জানান, যতবার লাইন কাটা হয় ততবারই বাসা-বাড়ি থেকে টাকা তুলে পুনরায় লাইন নেয়ার ব্যবস্থা করেন স্থানীয় প্রভাশালী মহল।

অভ্যন্তরীণ রুটে বিমানের যাত্রীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

অভ্যন্তরীণ রুটে পরিচালিত বিমানের যাত্রীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য বিমানবন্দরে সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী।

১১ বেঞ্চে ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে চলবে বিচার কার্যক্রম

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

করোনা ভাইরাস সংক্রমণরোধে আগামী ১৫ জুন পর্যন্ত সুপ্রিম কোর্টের আপিল ও হাইকোর্ট উভয় বিভাগে ভার্চুয়াল পদ্ধতিতেই কার্যক্রম চলতে

করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের আরও বেশী সম্পৃক্ত করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণ প্রতিরোধ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের আরও বেশি সম্পৃক্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন।

sangbad ad

গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি না মানলে ব্যবস্থা : ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, দেশের চলমান করোনা পরিস্থিতির মধ্যে চালু হওয়া গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধির শর্তগুলো যারা মানবেন না তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিহত বাংলাদেশিদের মিজদাহ শহরেই দাফন

কুটনৈতিক বার্তা পরিবেশক

উত্তর আফ্রিকার দেশ লিবিয়ার মিজদাহ শহরে মানবপাচারকারীদের গুলিতে নিহত বাংলাদেশিদের লাশ সেখানেই দাফন করা হয়েছে।

এসএসসির ফল প্রকাশ কাল

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

আগামীকাল (৩১ মে) এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হবে। বেলা ১২টায় শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ফেইসবুক লাইভে ফলাফলের বিস্তারিত তুলে ধরবেন।

মাদারীপুরের নিহত ১১ জনের বাড়িতে চলছে শোকের মাতন

জেলা বার্তা পরিবেশক, মাদারীপুর

লিবিয়ায় গুলি করে ২৬ বাংলাদেশিকে হত্যার ঘটনায় মাদারীপুরের ১১ যুবকের নিহত ও ৩ যুবকের গুরুতর আহত হওয়ার খবর গ্রামের বাড়িতে আসার পর থেকে পরিবারগুলোতে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। নিহতদের পরিবারগুলো সরকারের কাছে সন্তানের লাশ ও আহতরা সন্তানকে ফিরিয়ে আনার দাবী করেছে। পাশাপাশি দালালদের শাস্তিও দাবী করছে।

করোনায় একদিনেই ঝরল ২৮ প্রাণ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণে ২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে; যা এ পর্যন্ত সর্বোচ্চ। নতুন শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৭৬৪ জন।

২৪০০ কোটি টাকার কাজ পেলো রাশিয়ার জেএসসি এলরন

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের (এনপিপি) ভৌত সুরক্ষা ব্যবস্থায় (পিপিএস) ব্যয় হবে ২ হাজার

sangbad ad