• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

 

দীর্ঘ ৯ বছর বন্ধ থাকার পর প্রিপেইড মিটারে আবাসিক খাতে নতুন গ্যাস সংযোগ চালু হচ্ছে

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

সংবাদ :
  • ফয়েজ আহমেদ তুষার
image

দীর্ঘ ৯ বছর বন্ধ থাকা ‘আবাসিক খাতে নতুন গ্যাস সংযোগ’ পুনরায় চলু করার চিন্তা-ভাবনা করছে সরকার। তবে এবার নতুন সংযোগ দেয়া হবে প্রি-পেইড মিটারের আওতায়। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নির্দেশে গঠিত কমিটির সুপারিশে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছে।

দেশে চাহিদার তুলনায় প্রাকৃতিক গ্যাসের সরবরাহ কম থাকায় সরকার ২০০৯ সালের ২১ জুলাই থেকে শিল্প ও বাণিজ্যিক খাতে নতুন গ্যাস সংযোগ বন্ধ ঘোষণা করে। এরপর একই কারণে ২০১০ সালের ১৩ জুলাই থেকে আবাসিক খাতে (বাসা-বাড়ির রান্নার চুলায়) নতুন গ্যাস-সংযোগ বন্ধ করা হয়। প্রায় তিন বছর পর ২০১৩ সালের ৭ মে আবাসিকে সংযোগ দেয়া শুরু হলেও কিছুদিন পরই তা আবার বন্ধ করা হয়। এদিকে প্রায় ৯ বছর (টানা ৬ বছর) গ্যাস সংযোগ বন্ধ থাকায় শহরে নতুন বহুতল ভবন নির্মাণ করে বিপাকে পড়েন আবাসন ব্যবসায়ীরা। নতুন বাড়ি নির্মাণের পর গ্যাস সংযোগ না পেয়ে হতাশ হন বাড়িওয়ালা ও ফ্ল্যাট মালিকরা। রাজধানীসহ আশপাশের জেলাগুলোতে চলে অবৈধ গ্যাস সংযোগ নেয়ার মহোৎসব। গ্যাস সংযোগ বন্ধ থাকার পরও গত কয়েক বছরে দেশের বিতরণ সংস্থাগুলো এক লাখের বেশি গ্রাহকের আবেদন জমা নেয়। এর মধ্যে তিতাস গ্যাস কোম্পানির কাছেই ৮০ হাজার আবেদন জমা পড়ে।

জনগণের আশা পূরণে জনপ্রতিনিধিদের দাবির মুখে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে আবাসিক খাতে নতুন গ্যাস সংযোগ দেয়ার ইঙ্গিত দেয়া হয়। এতে সংযোগ প্রত্যাশী লাখ লাখ গ্রাহক আশান্বিত হয়। তবে গত ১৫ মে জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের এক প্রজ্ঞাপনে আবাসিক ও সিএনজি খাতে পাইপ লাইন গ্যাস সংযোগ দেয়ার বিষয়টি নিরুৎসাহিত করায় আশাহত হন সংযোগ প্রত্যাশীরা। পাইপলাইনের মাধ্যমে আবাসিকে নতুন গ্যাস সংযোগ বন্ধ করে দেয়ার কারণ হিসেবে সরকারের দায়িত্বশীল অনেকেই বলেন, বিশ্বের কোন দেশে পাইপলাইনে আবাসিক গ্যাস সংযোগ দেয়া হয় না। বাংলাদেশে বাসায় রান্নার কাজে পাইপলাইনে গ্যাস দিয়ে প্রাকৃতিক গ্যাসের অপচয় হচ্ছে।

তবে গত বছরের সেপ্টেম্বরে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বীরবিক্রমের সভাপতিত্বে ‘আবাসিক জ্বালানি হিসেবে এলপিজি ও এলএনজির তুলনামূলক মূল্য পর্যালোচনা’ শীর্ষক এক বৈঠকের আলোচনায় ভারতের শহরাঞ্চলে এলপিজি ব্যবহার বাদ দিয়ে নতুন পাইপলাইন নির্মাণ করে এলএনজি সরবরাহ করার বিষয়টি উঠে আসে। বাংলাদেশের জনগণের চাহিদার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে বিদ্যমান পাইপলাইনে আবাসিকে নতুন গ্যাস সংযোগ চালুর বিষয়েও সুপারিশ আসে বৈঠকে। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে গঠিত হয় কমিটি। বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের (বিইআরসি) সদস্য মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে ওই কমিটিতে অন্য সদস্যরা হলেন- জ্বালানি বিভাগের যুগ্ম সচিব ড. শাহ মোহাম্মদ সানাউল হক, তিতাসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মোস্তফা কামাল, পিডিবির সদস্য উৎপাদন সাঈদ আহমেদ, আরপিজিসিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. কামরুজ্জামান প্রমুখ।

গত মার্চে ওই কমিটি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রতিবেদন জমা দেয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, সাশ্রয়ী জ্বালানি ব্যবহারে সুযোগ করে দিতে ভারত সব জেলা শহরে গ্যাস পাইপলাইন বসাচ্ছে। সিঙ্গাপুর এবং জাপানও পাইপলাইনে গ্যাসের সরবরাহ বাড়াচ্ছে। কমিটির এক সদস্য জানান, কমিটির সদস্যরা পাইপলাইনে গ্যাস সরবরাহকে লাভজনক ও নিরাপদ মনে করছেন; তবে তা হতে হবে প্রি-পেইড মিটারের আওতায়।

প্রতিবেদনে ভারত, সিঙ্গাপুর ও জাপানে আবাসিক খাতে পাইপলাইনে গ্যাস সংযোগ দেয়ার বিস্তারিত বর্ণনা তুলে ধরে বলা হয়- ভারতে গত ২৬ ফেব্রুয়ারি ১০ম বিডিং-এর আওতায় দেশের ১২৪টি জেলা শহরে পাইপলাইনে গ্যাস সরবরাহ করার লক্ষ্যে সিটি গ্যাস ডিস্ট্রিবউশন (সিএসডি) কার্যক্রম পরিচালনার লাইসেন্স দিয়েছে। এর ফলে, দেশটির ২৭ প্রদেশের ৪০২টি জেলা সিএসডির আওতায় এসেছে। ভারত সরকার অন্য কম গুরুত্বপূর্ণ খাত থেকে গ্যাস প্রত্যাহার করে আবাসিক ও সিএনজি খাতে বরাদ্দ করছে। পশ্চিমবঙ্গেও পাইপলাইনে গ্যাস সরবরাহের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। দেশটির রাজ্য সরকার আশা করছে, ২০২০ সালের মধ্যে পাইপলাইনের মাধ্যমে গৃহস্থালি ও সিএনজিতে গ্যাস দেয়া সম্ভব হবে। সম্প্রতি গ্যাস অথোরিটি অব ইন্ডিয়া লিমিটেডকে (জিএআইএল) দেয়া এক নির্দেশনায় ভারত সরকার বলেছে, গ্যাস বিতরণের বার্ষিক সম্মেলনে নতুন দিল্লিতে গত বছর ১৩ ডিসেম্বর জানানো হয়, ভারত শহর এলাকায় আবাসিকে গ্যাস দেয়ার নীতি গ্রহণ করায় গত পাঁচ বছরে বার্ষিক ১৭ শতাংশ হারে পাইপলাইন নির্মাণ বেড়েছে।

সিঙ্গাপুরে পাইপলাইন গ্যাস সরবরাহের বিষয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, দেশটি ২০০২ সালে পাওয়ার গ্যাস লিমিটেড কোম্পানি থেকে আলাদা করে সিটি গ্যাস কোম্পানি গঠন করে। বর্তমানে প্রায় এক মিলিয়ন আবাসিক বাসস্থানে সিটি গ্যাস রান্নায় জ্বালানির জন্য পাইপলাইনে গ্যাস সরবরাহ করছে। সিঙ্গাপুরে এলপি গ্যাস সরবরাহের জন্য বেশ কয়েকটি কোম্পানিও কাজ করছে। দেশটিতে নাগরিকদের পাইপলাইনে গ্যাস, এলপি গ্যাস ও বিদ্যুৎ থেকে রান্নায় ব্যবহারের জন্য জ্বালানির অপশন খুঁজে নেয়ার সুযোগ রয়েছে। সিঙ্গাপুরে বর্তমানে প্রায় দুই-তৃতীয়াংশেরও বেশি বাসস্থানে জ্বালানি হিসেবে পাইপলাইন প্রাকৃতিক গ্যাস ব্যবহার হচ্ছে বলেও ওই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।

জাপানে পাইপলাইন গ্যাস সরবরাহের বিষয়ে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘টোকিও গ্যাস’ জাপানের টোকিও মেট্রোপলিটন ও এর আশপাশের শহর নাগানো, কানাগাওয়া, সাইটামা, সিবা, টোচিগি, ইয়াসাকি ইত্যাদি শহরে পাইপলাইন গ্যাস সরবরাহ করছে। ‘টোকিও গ্যাস’ জাপানের সিটি গ্যাস সরবরাহকারীদের মধ্যে সবচেয়ে বড় কোম্পানি। এই কোম্পানি প্রায় ৬৫ হাজার কিলোমিটার গ্যাস পাইপলাইন স্থাপনের মাধ্যমে প্রায় ১১ মিলিয়ন গ্রাহককে গ্যাস সরবরাহ করছে। জাপান মূলত এলএনজি আমদানির মাধ্যমে বিপুল পরিমাণ গ্রাহককে আবাসিক রান্নায় পাইপলাইনে গ্যাস সরবরাহ করে আসছে।

আবাসিকে পাইপলাইন গ্যাস সংযোগ বন্ধ করে দিয়ে শুধু এলপিজি (লিকুইড পেট্রোলিয়াম গ্যাস) চালু করে জনগণকে জিম্মি করা বলে মনে করেন জ্বালানি খাতের বিশ্লেষকরা। তাদের মতে বাসা-বাড়িতে রান্নায় পাইপলাইন গ্যাস, এলপিজি এবং বিদ্যুৎ সব সুযোগই থাকা উচিত; যাতে মূল্য ও সুবিধাভেদে গ্রাহক তার পছন্দসই জ্বালানি বেছে নিতে পারেন। পাইপলাইনে প্রি-পেইড মিটার দেয়াটা জরুরি উল্লেখ করে জ্বালানি বিশেষজ্ঞরা বলছেন, প্রি-পেইড মিটার হলে একজন গ্রাহক যতটুকু গ্যাস ব্যবহার করবেন, ততটুকু গ্যাসেরই বিল দেবেন। এতে সবার স্বার্থ রক্ষা হবে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যলয়ের গঠিত কমিটির সুপারিশ প্রসঙ্গে জ্বালানি বিভাগের এক কর্মকর্তা বলেন, বিষয়টি নিয়ে ইতিবাচক আলোচনা চলছে। জ্বালানি বিভাগ পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত নেবে।

উল্লেখ্য, সারাদেশে রাষ্ট্রীয় ছয়টি কোম্পানি গ্যাস বিতরণে নিয়োজিত। এগুলো হলো তিতাস, কর্ণফুলী, পশ্চিমাঞ্চল, জালালাবাদ, বাখরাবাদ ও সুন্দরবন। সারাদেশে বৈধ আবাসিক গ্রাহক রয়েছেন ৩৮ লাখ। এর মধ্যে তিতাস গ্যাসের গ্রাহক প্রায় ২৭ লাখ। তিতাস ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সীগঞ্জ, মানিকগঞ্জ, গাজীপুর, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, জামালপুর, শেরপুর, নরসিংদী, নেত্রকোনা ও কিশোরগঞ্জে গ্যাস বিতরণে নিয়োজিত।

বিমানের ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের চতুর্থ ড্রিমলাইনার ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করেছেন। বিকেলে হযরত শাহজালাল

ফিরে যেতে লি জিমিংয়ের কাছে রোহিঙ্গাদের তিন দাবি

নুরুল হক, টেকনাফ (কক্সবাজার)

image

মায়ানমারে নাগরিকত্ব, কেড়ে নেয়া জমি ফেরত ও নিরাপত্তার নিশ্চয়তা পেলে স্বেচ্ছায় নিজ দেশ মায়ানমারে ফিরে যাবেন বলে চীনের প্রতিনিধি

দুদক চেয়ারম্যানের সঙ্গে মার্কিন আইন উপদেষ্টার সাক্ষাৎ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগের আবাসিক আইন উপদেষ্টা

sangbad ad

‘ডিপ্লোম্যাট’-এ শেখ হাসিনা: দ্য মাদার অব হিউম্যানিটি

কূটনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

নেদারল্যান্ডসের কূটনীতি বিষয়ক বিখ্যাত ম্যাগাজিন ‘ডিপ্লোম্যাট’ তাদের চলতি সংখ্যার প্রচ্ছদ করেছে

টিসিবিকে আরও শক্তিশালী করার পরামর্শ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)’র কার্যক্রম আরো শক্তিশালী করার পরামর্শ দিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয়

শুধু গণমাধ্যমেই প্রকাশিত নারী-শিশু নিপীড়নের ঘটনায় সমাজ শঙ্কিত : প্রকৃত মাত্রা আরও ভয়াবহ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

’ধর্ষনের শাস্তি ৩ হাজার টাকা জরিমানা, রংপুরের পীরগঞ্জে ধর্ষনে ব্যর্থ হয়ে শ্বাসরোধে স্কুল ছাত্রীকে হত্যা’র ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ

বিনামূল্যের পাঠ্যবই মুদ্রণে অনিয়ম ও প্রতারণা

রাকিব উদ্দিন

image

সরকারের বিনামূল্যের পাঠ্যবই ছাপতে গিয়ে অনিয়ম ও প্রতারণার আশ্রয় নিচ্ছেন দায়িত্বপ্রাপ্ত ছাপাখানার মালিকরা। তারা পাঠ্যবই ছাপার

৪৮ বছর পর সীমান্ত পিলারে পাকিস্তান মুছে বাংলাদেশ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

স্বাধীনতা যুদ্ধের মাধ্যমে ৪৮ বছর আগে দেশ স্বাধীন হলেও পাকিস্তান ও ভারতের নাম লেখা সম্বলিত পিলারে বাংলাদেশের সীমানা

পরিকল্পিতভাবে উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে-প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করতে যাত্রীদের চাপ, যানবাহন চলাচলের গতি, সড়কের দৈর্ঘ্য, ডাস্ট ম্যানেজমেন্ট,

sangbad ad