• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , রোববার, ১৯ মে ২০১৯

 

ক্রসফায়ারের নামে কোনো বাহিনী কাউকে হত্যা করছে না-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিউজ আপলোড : ঢাকা , শনিবার, ০৯ মার্চ ২০১৯

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
image

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল জানিয়েছেন, সুশীল সমাজের অনেকেই সমালোচনা করছেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নাকি নিরাপরাধীদের ক্রসফায়ারের নামে হত্যা করছে। আমি স্পষ্ট করে বলছি, ক্রসফায়ারের নামে কোনো বাহিনী কাউকে হত্যা করছে না। মাদকবিরোধী অভিযানে গেলে যখন অবৈধ অস্ত্রের ব্যবহারে গুলি ছোড়া হচ্ছে তখনই আত্মরক্ষার্থে গুলি করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। কাউকে হত্যার উদ্দেশ্যে নয়। ৯ মার্চ শনিবার দুপুরে রাজধানীর তেজগাঁও বিজি প্রেস মাঠে আয়োজিত মাদকবিরোধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যখন পুরো বিশ্ব হিমশিম খাচ্ছিল তখন আমরা বাংলাদেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় ভয়ঙ্কর জঙ্গিবাদকে নিয়ন্ত্রণ করেছি। যারা (জঙ্গিরা) বাংলাদেশকে অকার্যকর রাষ্ট্র হিসেবে দেখানোর পাঁয়তারা করছিল। আবার জঙ্গিবাদের মতোই মাদকের ব্যাপারে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। মাদকের বিরুদ্ধে আমাদের যুদ্ধ শুরু হয়েছে। যারা ইয়াবা সেবন করেন তাদের মেধা বিলুপ্ত হয়। ৩/৪ বছর ইয়াবা হেরোইন সেবন করলে নিজের নামটাও ভুলে যাবার দশা হয়। একটা মানুষ যদি ২৪ ঘণ্টা জেগে থাকেন তাহলে তিনি কতোটা সুস্থ থাকবেন? আমরা কঠিন সাজার ব্যবস্থা করে নতুন আইন করেছি। এই আইনের কঠোর প্রয়োগ হচ্ছে। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী কঠোর পদক্ষেপ নিচ্ছেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, আমাদের কারাগারে ধারণ ক্ষমতা ৩৫ হাজার। অথচ আছে ৯৫ হাজার কয়েদি। এই কয়েদিদের অধিকাংশই মাদক সংশ্লিষ্ট মামলায় গ্রেফতার। কঠোরতার কারণেই মাদকসেবী, মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক কারবারীদের জায়গা কারাগারে। আমি বিজিবিকে নির্দেশনা দিয়েছি কোনোভাবে সীমান্ত দিয়ে যেন মাদক না ঢোকে। কোস্টগার্ডকে বলেছি উপকূলে নজরদারি রাখতে। এরপরেও মাদক আসছে। আমরা মাদক তৈরি করি না তবুও মাদক আসছে। মাদক আমাদের যে কী ক্ষতি করছি তা ঘরে ঘরে জানাতে হবে। সচেতনতা বাড়াতে হবে।

ইয়াং গ্রুপ সীসা বারে যায়। হুক্কা টানে। আগুনে ইয়াবা গুড়া করে টানছে। সেজন্য আমরা সীসাবারও নিয়ন্ত্রণে এনেছি। বিদেশে দেখেন যেখানেই মাদকের ব্যবসা সেখানে কী পরিমাণ অস্ত্রের ব্যবসাও হচ্ছে। আমরা বলেছি, আইনি সহযোগিতা করবো, সারেন্ডার করেন, মুচলেকা দেন। অভিযানে মাদক কারবারীদের ধরতে গেলেই অবৈধ অস্ত্রের ব্যবহার করছে। আত্মরক্ষার অধিকার তো আমাদের বাহিনীরও আছে। যারাই সারেন্ডার করবেন, মাদকের ব্যবসা ছাড়বেন, তাদের শেষ সুযোগটা দেয়া হবে। নইলে জেলে যেতে হবে। আর অস্ত্রের ঝনঝনানি যদি দেখাতে চান তাহলে কী পরিণতি হতে পারে তা আপনারাই জানেন। তোমরা ছাত্র যুবকরা মাদককে না বলবে, মাদক বিক্রেতা ও ব্যবসায়ীদের ধরিয়ে দেবে। আমরা তালিকা করেছি, কাউকে ছাড়বো না। ব্যবসা না ছাড়া পর্যন্ত আমাদের অভিযান চলবে।

মাদকের ব্যাপারে যারা তথ্য দিচ্ছেন, তাদের পুরস্কৃত করা হচ্ছে। বাবা মা যেমন জঙ্গি সন্তানকে ধরিয়ে দিয়েছিল তেমনি মাদকাসক্ত সন্তানকে নিয়ে আসুন। আসুন আমরা ঘুরে দাঁড়াই মাদকের বিরুদ্ধে। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও বর্তমানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ই কমিটির সভাপতি শামসুল হক টুকু বলেন, যুব সমাজ ছাত্র সমাজ দৃঢ় প্রত্যয়ে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছিল। আজ যুব সমাজের বড় অংশ মাদকাসক্ত। তাদের জন্য আমরা কী করতে পেরেছি? আমাদের সন্তানরা যেন মাদকাসক্ত না হয়, মাদক নেয় কিনা খোঁজ রাখা, খেয়াল রাখা দরকার।

কোনো ধর্ম নেই- যে বলে অপরাধের সঙ্গে জড়িত হও। মাদক নেয়াও ধর্মীয় অনুশাসন বিরোধী। ধর্মীয় অনুশাসন যদি লালন করি, তাহলে মাদককে শুধু স্লোগানে না বলা নয়, সমূলে নির্মূল করা যাবে। রাজনীতিবিদরা রাজনীতি করি দেশের জন্য, মানুষের জন্য। মাদকবিরোধী অবস্থান নিয়েও আমাদের সকল রাজনীতিবিদের কাজ করতে হবে। মাদকমুক্ত নের্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করতে হবে। মাদক ব্যবসায়ীমুক্ত নের্তৃত্ব যদি প্রতিষ্ঠা করতে পারি তাহলে মাদকের বিরুদ্ধে যে যুদ্ধ তা অনেকটা সফল হবে। সম্মিলিত প্রচেষ্টায় অনেক কঠিন কাজ সহজ হয়। শুধু বয়ান দিলেই হবে না, ঈমামের দায়িত্ব অনেক। ধর্মের অনুশাসন শুধু প্রচার নয়, মাদকের মতো ধর্মীয় অনুশাসন বিরোধী কাজগুলোও বন্ধ করতে নির্দেশনা ও চেষ্টা চালাতে হবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের মহাপরিচালক (ডিজি) জামাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর আর ঠুঁটো জগন্নাত নয়। জনবল দ্বিগুণ করেছে, ৩২২২ জন জনবল করা হয়েছে। আগে কখনো পায়ে হেঁটেও মাদকবিরোধী অভিযানে যেতো কর্মকর্তারা। এখন প্রত্যেক জেলায় কর্মকর্তাদের জন্য গাড়ি দেয়া হয়েছে। যে কারণে কাজে গতি ফিরেছে। মাদকবিরোধী সমাবেশ করা হচ্ছে জেলায় জেলায়। মাদকবিরোধী মানুষদের সঙ্গে নিয়ে কাজ করছি। মাদকাসক্তির সংখ্যা যাই হোক না কেন, বাড়তে দেয়া যাবে না, এটা বন্ধ করতে হবে, মাদকের অস্তিত্ব বাংলাদেশে থাকতে দেয়া হবে না। এজন্য ঘরে ঘরে দুর্গ গড়ে তুলতে হবে, প্রতিবাদ প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রতিনিধি মোসাদ্দেক মো. আবুল কালাম, কাউন্সিলর মুন্সি কামরুজ্জামান কাজল, মনোচিকিৎসক মোহিত কামাল, মানসের অধ্যাপক অরুপ রতন চৌধুরী।

ঈদে নিরাপত্তা জোরদার করা হবে, বৈধ লাইসেন্স ছাড়া গাড়ি চালানো যাবে না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ঈদ উপলক্ষে সারাদেশে নিরাপত্তা জোরদার করা হবে। ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন শহরে ব্লক রেইড

তরুণ প্রজন্মকে তথ্য-প্রযুক্তিতে সমৃদ্ধ হয়ে গড়ে ওঠার আহবান স্পীকারের

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, বর্তমান বিশ্ব

প্রধানমন্ত্রীকে ওআইসি শীর্ষ সম্মেলনে আমন্ত্রণ সৌদি বাদশাহর

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদ চলতি রমজানের শেষ

sangbad ad

হৃদরোগের জন্য স্বতন্ত্র শক্তিশালী উপাদান ট্রান্স ফ্যাট’র ঝুঁকি থেকে রক্ষার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ পিছিয়ে

যোবায়ের মুরাদ

image

বাংলাদেশে প্রতিবছর হৃদরোগে মারা যায় ২ লাখ ৭৭ হাজারের বেশি মানুষ। যা দেশের মোট মৃত্যুর এক-তৃতীয়াংশ। হৃদরোগ বিশেষজ্ঞরা বলছেন

হাওয়াই যাচ্ছেন সেনাবাহিনী প্রধান

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ ১৭ মে শুক্রবার ইউএস আর্মি প্যাসিফিক কমান্ডার জেনারেল রবার্ট বি ব্রাউন এর আমন্ত্রণে পাঁচ

খাদ্যে ভেজালের বিরুদ্ধে ‘যুদ্ধ’ ঘোষণার আহ্বান

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

নানা আলোচনা আর সমালোচনার পর অবশেষে বিএসটিআইয়ের মানের পরীক্ষায় নিম্নমানের বিভিন্ন কোম্পানির ৫২টি খাদ্যপণ্য বিক্রি বন্ধের নির্দেশ

প্লাষ্টিক পন্যের জন্য হুমকির মুখে জলজপ্রানী : হাবিবুন নাহার

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার বলেছেন, সব জলজ প্রাণী আজকে হুমকির মুখে পড়েছে প্লাস্টিক পণ্যের

ক্ষমতার সঙ্গে যারা যুক্ত তারাই আইন ভাঙছেন

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মো.মোজাম্মেল হক চৌধুরী জানিয়েছেন, আমাদের দেশের মহাসড়কগুলো আন্তর্জাতিক মানের নয়। এসব

কঙ্গোতে আইজিপির মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও আইজিপির শোক

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

কঙ্গোতে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় বাংলাদেশের অতিরিক্ত পুলিশ মহাপরিদর্শক (অতিরিক্ত আইজিপি) রৌশন আরা বেগমের মৃত্যুতে গভীর শোক

sangbad ad