• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , সোমবার, ০৩ আগস্ট ২০২০

 

ইতিহাস কেউ মুছে ফেলতে পারে না, তা সামনে আসবেই : সংসদে প্রধানমন্ত্রী

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বুধবার, ০৮ জুলাই ২০২০

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
image

প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ নেতা শেখ হাসিনা আজ (৮ জুলাই) জাতীয় সংসদে বিভিন্ন আসনের সদস্যদের প্রশ্নের উত্তর দেন।

প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ নেতা শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘ইতিহাস কেউ মুছে ফেলতে পারে না, কোনও না কোনভাবে সেটা সামনে আসবেই। আজকে সেই নামটা (বঙ্গবন্ধু) আবারও ফিরে এসেছে।’ প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের সর্বস্তরের মানুষ যাতে সঠিক ইতিহাসটা জানতে পারে সেজন্য তার সরকার সব ধরনের ব্যবস্থা নিলেও একাত্তরে পাকিস্তানের কারাগারে বঙ্গবন্ধুর বন্দিজীবনের কোন তথ্যই পাওয়া যায়নি। কেননা, বঙ্গবন্ধুই নিজেই সে কষ্টের কথা কাউকে জানাতে চাননি’।

স্বাধীন জাতি হিসেবে মাথা উঁচু করে চলতে হলে দেশের স্বাধীনতা অর্জনের সঠিক ইতিহাস জানা একান্ত ভাবে অপরিহার্য্য উল্লেখ করে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা বলেন, ‘এত কষ্ট একজন মানুষ যে একটি দেশের জন্য বা একটা জাতির জন্য করতে পারেন, যার ধারণাও করা যায় না।’

আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেন, ‘জাতির পিতা মন্ত্রীত্ব ছেড়ে দিয়েছেন সংগঠন করার জন্য, আওয়ামী লীগকে শক্তিশালী করার জন্য। আর দেশের জন্য তিনি সবকিছুই ছেড়েছিলেন। ইচ্ছা করলেই প্রধানমন্ত্রী হতে পারতেন, ক্ষমতায় যেতে পারতেন। কিন্তু তার মাথায় সবসময় এটাই ছিল যে, তিনি দেশকে স্বাধীন করবেন। এই বাংলাদেশ স্বাধীন হবে সেই চিন্তা থেকেই তার সারাটা জীবনকে তিনি উৎসর্গ করেছেন’।

আজ বুধবার (৮ জুলাই) দুপুরে একাদশ জাতীয় সংসদের অষ্টম অধিবেশনে (বাজেট) প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত ‘প্রশ্ন জিজ্ঞাসা ও উত্তর’ পর্বে বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য মুজিবুল হকের এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন। এর আগে বেলা ১১টায় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের মুলতবি বৈঠক শুরু হয়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘কারাগারের রোজনামচা ১৯৬৬ সালে জাতির পিতা গ্রেফতার হবার পর কারাগারে বসে লেখা। যেটা ছিল ১৯৬৮ সাল পর্যন্ত। যার একটি ছোট অংশ সে সময় ক্যান্টনমেন্টে বন্দি অবস্থায় তিনি লিখেছিলেন। তবে, একাত্তর সালের কোন লেখা নেই, পাইনি। ১৯৭১ সালে তিনি যে কারাগারে ছিলেন তার আমরা কিছু জানি না। তার সে সময়ের কারাজীবনের কোন কষ্ট, কোন দুঃখ, কোন যন্ত্রণার কথা কখনই তিনি বলেননি। যতটুকু জেনেছি তার লেখা পড়ে, এর বাইরে আর কোন কিছু জানতে পারিনি’।

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’, ‘কারাগারের দিনলিপি’ এবং ‘আমার দেখা নয়া চীন’ বই এবং লেখনি থেকে জাতির পিতার জীবনের অনেক তথ্য পাওয়া গেলেও একাত্তর সালের কোন তথ্য পাওয়া যায়নি।

বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা বলেন, ‘রেহানা ছোট ছিল বিধায় এসব বিষয়ে সে বাবাকে অনেক সময় জিজ্ঞেস করতো, যা আমরা সাহস পেতাম না। এই কয়েকদিন আগেও তাকে (রেহানাকে) জিজ্ঞেস করেছি, তুই কিছু শুনিস নাই?’ ‘আব্বাকে জিজ্ঞেস করেছি, তিনি বলেন তোর শোনা লাগবে না, শুনলে তোরা সহ্য করতে পারবি না। কাজেই আমি (বঙ্গবন্ধু) বলব না,’ রেহানার এই বক্তব্য উদ্ধৃত করেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সে সময়ের শুধুমাত্র একটা লাইন পাওয়া যায় আইযুব খানের একটি ডায়েরিতে, যেটা অক্সফোর্ড থেকে বের হয় সেখানে বলা হয়-‘বঙ্গবন্ধুকে যখন আদালতে আনা হোত তিনি আসতেন, তাকে বসতে দিলে বসতেন এবং তিনি কোর্টে এসে দাঁড়িয়েই নাকি জয় বাংলাদেশ বলতেন এবং বলতেন আমাকে যা কিছু করার করো, কিন্তু আমার যেটা করার আমি করে ফেলেছি-বাংলাদেশের স্বাধীনতা, এখন বাংলাদেশ স্বাধীন হবে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তবে, এর বাইরে সে সময়ে বঙ্গবন্ধুর আর কোন তথ্য বা লেখনি তিনি পাননি। যদিও এখনও এ বিষয়ে চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। শেখ হাসিনা বলেন, ১৯৬৫ সাল থেকে ১৯৭৭ সাল পর্যন্ত মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্টের ডিক্লাসিফাইয়েড রিপোর্টস পুরোটা তিনি সংগ্রহ করেছেন। যেখানে বাংলাদেশের বিষয়টা রয়েছে। করোনা ভাইরাসের কারণে ঘরে থাকার সুবাদে সেগুলো কম্পিউটারের হার্ড ডিস্ক থেকে বের করে প্রিন্ট আউট করছেন এবং সেখানেও পাকিস্তানের কারাগারের কিছু রয়েছে কিনা তিনি দেখছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিানা এ সময় টানা তৃতীয়বারের মত তার সরকারকে নির্বাচিত করাতেই দেশের সঠিক ইতিহাস জনগণের সামনে তুলে ধরার প্রয়াস পেয়েছেন উল্লেখ করে দেশের জনগণকে এজন্য পুণরায় কৃতজ্ঞতা জানান। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি কৃতজ্ঞতা জানাই বাংলাদেশের জনগণকে তারা ভোট দিয়ে পর পর তিনবার আমাদেরকে নির্বাচিত করেছেন। যার ফলে, আমরা ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে পেরেছি। নইলে মাঝে সরকার পরিবর্তন হলে অনেক কিছু হয়ে যায় যেটা আমরা ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সালের সময় দেখেছি।’ তিনি বলেন, ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনীর মত জীবনবৃত্তান্ত দিয়ে জাতির পিতার কিছু স্মৃতিকথা লেখাও তারা সংগ্রহ করতে সমর্থ হয়েছেন এবং সেটিও শিগগিরই মুদ্রণে যাব’।

শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুহার ১.৩১ শতাংশ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, আমাদের মতো একটি ঘনবসতিপূর্ণ

করোনায় একদিনে আরও ৩০ মৃত্যু : নতুন শনাক্ত ১৩৫৬ জন

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

দেশে করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত ‍ও মৃত্যু প্রতিদিনই বাড়ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার সংক্রমণে ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে, নতুন শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৩৫৬ জন।

ঈদের ছুটি শেষে খুলেছে অফিস-আদালত

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে ৩ দিনের সরকারি ছুটি শেষে আজ সোমবার (৩ আগস্ট) অফিস-আদালত খুলেছে।

sangbad ad

করোনা মহামারীর মধ্যে অফিস, দোকান-পাট ও শপিংমল খোলা রাখা সম্পর্কে নতুন নির্দেশনা

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

করোনা মহামারীর মধ্যে অফিস, দোকান-পাট ও শপিংমল খোলা রাখা সম্পর্কে

কুয়েতে বিমানের ফ্লাইট অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

কুয়েত বিমানবন্দরের স্থগিতাদেশের কারণে আগামী ৪ আগস্ট থেকে বাংলাদেশ বিমানের কুয়েতগামী সব

সোমবার খুলছে অফিস-আদালত

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের তিন দিনের ছুটি শেষে সোমবার (৩

করোনা একদিনে আরও ২২ জনের মৃত্যু : নতুন শনাক্ত ৮৮৬

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

দেশে করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত ‍ও মৃত্যু প্রতিদিনই বাড়ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার সংক্রমণে ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে, নতুন শনাক্ত হয়েছেন ৮৮৬ জন।

ঢাকার দুই সিটির ৪৮টি ওয়ার্ডে শতভাগ বর্জ্য অপসারণ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ৪৮টি ওয়ার্ডে শনিবার (১ জুলাই) রাত সাড়ে দশটার মধ্যে কোরবানির পশুর শতভাগ বর্জ্য অপসারণ করা হয়েছে।

বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়ন করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশের মানুষ যেন উন্নত জীবন পায় সেই লক্ষ্যে