• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৮

 

আদালতের নির্দেশে খালেদাকে ডিভিশন দেওয়া হয়েছে: কারা কর্তৃপক্ষ

নিউজ আপলোড : ঢাকা , রবিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০১৮

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
image

দুর্নীতির মামলায় ৫ বছরের সাজা নিয়ে কারাগারে থাকা বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া কারাবিধি অনুযায়ী ডিভিশন পান না। তাছাড়া আদালতের নির্দেশে রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) বিকেল থেকে খালেদা জিয়াকে প্রথম শ্রেণীর ডিভিশনপ্রাপ্ত বন্দীর মর্যাদা দেয়া শুরু করেছে কারা কর্তৃপক্ষ। খালেদা জিয়াকে প্রথম শ্রেণীর বন্দী হিসেবে ডিভিশনপ্রাপ্ত সব সুযোগ-সুবিধা দেয়ার আদেশ সন্ধ্যায় পৌঁছায় কারা কর্তৃপক্ষের কাছে।

কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দীন জানান, আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে প্রথম শ্রেণীর ডিভিশনপ্রাপ্ত বন্দীর মর্যাদা দেয়া হয়েছে। সন্ধ্যার পর কারাগারে ডিভিশন প্রাপ্তির কাগজ পৌঁছায়। এর ফলে খালেদা জিয়া কারাগারে খাট, চেয়ার-টেবিল, তোশক, চাদর, বালিশ, টুথপেস্ট, ব্রাশ, সকাল-বিকেল নাস্তা, জেল কোডের মেন্যু অনুযায়ী পছন্দসই খাবার খাওয়া, রেডিও ও টেলিভিশন শোনা, সার্বক্ষণিক কাজের জন্য একজন কয়েদি সেবকসহ প্রথম শ্রেণীর বন্দীর সব সুবিধাই প্রাপ্য হবেন। বর্তমানে খালেদা জিয়া পুরান ঢাকা কারাগারের মহিলা সেলের তিন তলা ভবনের ২ তলায় ডে কেয়ার সেন্টারেই থাকছেন। সেখানে তাকে এসব সুবিধা প্রদানের ব্যবস্থা করা হয়েছে। তাছাড়া সার্বক্ষণিক সহায়তার জন্য ৪ জন কারারক্ষী নিয়োজিত রয়েছেন।

এর আগে দুপুরে রাজধানীর উমেশ দত্ত রোডের কারা অধিদফতরের নিজ কক্ষে সাংবাদিকদের বিভিন্ন পশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আদালত কর্তৃক কারা কর্তৃপক্ষের কাছে কোন প্রকার নির্দেশনা না থাকায় গত তিন দিন সাধারণ বন্দীর মতোই ছিলেন বেগম খালেদা জিয়া। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, খালেদা জিয়াকে পরিত্যক্ত কারাগারে নয় সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারে বিশেষ জেলে রাখা হয়েছে। তিনি সম্পূর্ণ স্বাভাবিক রয়েছেন এবং নিয়মিত খাবার গ্রহণ করছেন।

সাংবাদিকদের কারা মহাপরিদর্শক বলেন, মূলত কারাবিধিতে সাবেক রাষ্ট্রপতির কথা উল্লেখ থাকলেও সাবেক প্রধানমন্ত্রীর বিষয়ে কোন নির্দেশনা না থাকায় এবং জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়ে সুনির্দিষ্ট কিছু বলা না থাকায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে একজন সাধারণ বন্দীর মতোই রাখা হয় গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে। এছাড়া কারাগারে প্রথম শ্রেণীর বন্দীর মর্যাদা (ডিভিশন) পাওয়ার যে দুটি ‘ক্রাইটেরিয়া’ দেয়া রয়েছে, তার কোনটিতেই খালেদা জিয়া পড়েন না। কারাবিধির ৬১৭ উপবিধিতে বলা হয়েছে শুধু সাবেক রাষ্ট্রপতির কথা, সাবেক প্রধানমন্ত্রীর কথা সেখানে নেই। আর কারাবিধি অনুযায়ী সংসদে প্রতিনিধিত্বকারী দলের সংসদ সদস্য, সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক কারাগারে প্রথম শ্রেণীর মর্যাদা পেতে পারেন। বিএনপি যেহেতু সংসদে প্রতিনিধিত্ব করছে না, সেহেতু খালেদা জিয়াকে সেভাবেও বিবেচনা করছে না কারা কর্তৃপক্ষ।

ইফতেখারউদ্দীন বলেন, প্রাথমিক রিকমেন্ডেশন কোর্ট থেকে আসে। যেহেতু ৮ তারিখের রায়ের সঙ্গে রেকমেন্ডেশন আসেনি, তাই তাকে জেল কোড অনুযায়ী যেটা আছে, সে অনুযায়ী সাধারণ বন্দী হিসেবেই রাখা হয়। খালেদা জিয়াকে কয়েদির পোশাকে রাখা হয়েছে কি না এ প্রশ্নের সরাসরি উত্তর না দিয়ে কারা মহাপরিদর্শক বলেন, কারাবিধি অনুযায়ী কয়েদিদের কারাগারের পোশাকই পড়ার কথা।

খালেদা জিয়ার সেবায় তার গৃহকর্মী ফাতেমা বেগমও কারাগারে রয়েছেন বলে যে খবর বিভিন্ন সংবাদপত্রে এসেছে, তা নাকচ করে কারা মহাপরিদর্শক বলেন, ফাতেমা নামে কেউ সেখানে নেই।

নাজিমউদ্দিন রোডে ২২৮ বছরের পুরনো ঠিকানা থেকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার ২০১৬ সালে কেরানীগঞ্জে স্থানান্তর করা হয়। খালেদা জিয়াই সেখানে এখন একমাত্র বন্দী। এ বিষয়ে জানতে চাইলে সৈয়দ ইফতেখার বলেন, সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিশেষ কারাগার হিসেবে সেখানে রাখা হয়েছে। সরকার যেহেতু এখনও ভবনটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করেনি. তাই এটাকে পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগার হিসেবে বিবেচনা করা হয়। কাশিমপুর মহিলা কারাগারে রাখলে এই বয়সে প্রিজন ভ্যানে করে এতদূরে আনা-নেয়ায় উনার অসুবিধা হত।

এর আগে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালও সচিবালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বলেন, আদালতের একটি দিকনির্দেশনা হয়েছে, আমরা কিছুক্ষণ আগে জানতে পেরেছি। আদালতের সেই দিকনির্দেশনা পেলে আমরা ব্যবস্থা নেব।

পরীক্ষামূলক সম্প্রচার

খালেদার আপিল গ্রহণযোগ্যতার ওপর শুনানি বৃহস্পতিবার

image

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়ার সাজার বিরুদ্ধে করা আপিলের গ্রহণযোগ্যতার ওপর শুনানি

বন্দী ১৩৯ জনের বিরুদ্ধে মামলাগুলো আগস্টের মধ্যে শেষ করার আদেশ

image

হত্যা এবং অন্যান্য ফৌজদারি মামলার যেগুলো সাত বছরের বেশি সময়েও বিচার শেষ হয়নি

খালেদার আইনজীবীদের হাতে রায়ের অনুলিপি

image

বিকেল সোয়া চারটার দিকে বিশেষ জজ আদালত-৫–এর বিচারক আখতারুজ্জামানের কার্যালয় থেকে এ অনুলিপি খালেদা জিয়ার আইনজীবীদের কাছে হস্তান্তর করা হয়

sangbad ad

আদালতের নির্দেশে সঙ্গে আছে ফাতেমা

image

আদালতের আদেশ কারা কর্তৃপক্ষকে বাস্তবায়ন করতে হবে। তবে ঘটনাটিকে তিনি ‘নতুন’ বলে আখ্যা দেন।

প্রশ্ন ফাঁস : তদন্ত ও রোধে দুটি কমিটি গঠন

image

এসএসসি ২০১৮ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করে দিয়েছে হাইকোর্ট। প্রত্যেক

বুধবার কপি পেলে বৃহস্পতিবার আপিল

image

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিচারিক

আমার বোনের মত আর কেউ যেন এ ধরনের ঘটনার শিকার না হন

image

টাঙ্গাইলে কলেজছাত্রী জাকিয়া সুলতানা রূপা হত্যা মামলার রায়ে পাঁচ আসামির মধ্যে চারজনকে মৃত্যুদণ্ড ও একজনকে

খালেদা জিয়া সাধারণ বন্দীর মতোই আছেন : আইজি প্রিজন

image

কারা বিধি (১৯৬৪ ও ২০০৬ সাল) অনুযায়ী যারা বর্তমানে সাংসদ তাঁরা ডিভিশন পান। সাবেক প্রেসিডেন্টও

খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত সহকারী ও ছাত্রদল সভাপতি রিমান্ডে

image

শিমুল বিশ্বাসকে শাহবাগ থানার এবং রাজীব আহসানকে মতিঝিল থানায় পুলিশের করা নাশকতা মামলার আসামি করা হয়েছে

sangbad ad