• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , সোমবার, ০১ জুন ২০২০

 

লকডাউনের মধ্যেই দিল্লিতে ঘরমুখো মানুষের সমাগম

নিউজ আপলোড : ঢাকা , সোমবার, ৩০ মার্চ ২০২০

সংবাদ :
  • সংবাদ ডেস্ক
image

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার কারণে বিশ্বজড়ে দেখা দিয়েছে ভীতি ও অনিশ্চয়তা। এর সংক্রমণে সৃষ্ট রোগ কোভিড-১৯ প্রতিরোধে ভারতে চলছে ২১ দিনের লকডাউন। এর মাঝেই সংক্রমণের ভয় উপেক্ষা করেই দিল্লিতে কয়েক হাজার অভিবাসী শ্রমিক ও দিনমজুর (দৈনিক কাজ করে খাওয়া) মানুষের সমাগম দেখা গেল। এনডিটিভি, টাইমস অব ইন্ডিয়া।

গত রোববার দেশটির সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া এক প্রতিবেদনে বলেছে, গত মঙ্গলবার থেকে শুরু হওয়া ২১ দিনের লকডাউনের ফলে কর্মহীন হয়ে পড়া এসব অভিবাসী ও দিনমজুর মানুষ অনিশ্চয়তা মধ্যে নিজ গন্তব্য বাড়ির উদ্দেশে দিল্লি ছাড়তে শুরু করেছেন।

দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি করোনার প্রকোপ ঠেকাতে ভারতজুড়ে ২১ দিনের লকডাউন ঘোষণা করেছেন। মানুষও স্বপ্রণোদিতভাবে তা গ্রহণ করেছে। তবে রোজগার বন্ধ হয়ে গেছে দেশটির কয়েক লাখ অভিবাসী ও দিনমজুর শ্রমিকের। দেশটির বিভিন্ন রাজ্য থেকে কাজের খোঁজে দিল্লিতে আসা এসব নিম্ন আয়ের মানুষের কাছে যেন মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা হিসেবে ধরা দিয়েছে নভেল করোনাভাইরাস। এমন অবস্থায় লকডাউনের চার দিনের মাথায় কাজহীন অবস্থায় দিল্লি ছাড়তে শুরু করছেন তারা।

এর আগের দিন শনিবার রাত উত্তরপ্রদেশের সীমানা এলাকা থেকে বাড়ি ফেরার চেষ্টায় দিল্লি বাসস্ট্যান্ডে জড়ো হন এসব শ্রমিকেরা। যদিও লকডাউনের ফলে দেশে বাস ও ট্রেন ছাড়াও বন্ধ রয়েছে সমস্ত খাবার হোটেলসহ আনুষাঙ্গিক দোকান-পাট। কোন গণপরিবহন না পায়ে হেঁটেই বাড়ি ফেরার চেষ্টা করেন অনেকে! এ অবস্থায় অনেকটা বাধ্য হয়েই শ্রমিকদের বাড়ি ফেরার ব্যবস্থা করেছে উত্তরপ্রদেশ ও দিল্লির সরকার। উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ জানান, তার সরকারের পক্ষ থেকে ১ হাজার বাসের ব্যবস্থা করা হয়েছে। আর দিল্লির কেজরিওয়াল সরকার শ্রমিকদের বাড়ি ফেরাতে ২০০ বাসের ব্যবস্থা করেছে।

দেশটির অপর সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি বলছে, দিল্লির আনন্দবিহার বাসস্ট্যান্ডে হাজারও নারী-পুরুষের অপেক্ষা বাড়তে থাকে সন্ধ্যা থেকে। চোখে-মুখে অনিশ্চয়তার ছাপ থাকলেও অপেক্ষারত এসব মানুষের মুখে ছিল মাস্ক, আবারও কারও মুখ রুমালে ঢাকা।

তবে কাউকে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখতে দেখা যায়নি।

বাসস্ট্যান্ডে অপেক্ষারত উত্তর প্রদেশের এক শ্রমিক সংবাদ সংস্থা এএনআইকে বলেন, আমি একজন দিনমজুর। এখন কোন কাজ নেই। আমরা করব কী? সরকারের কোন সাহায্য-সহযোগিতাও পাইনি। উপোস থেকে মরার উপক্রম হয়েছে।

‘তাই গ্রামে ফিরে যাচ্ছি। সেখানে রয়েছে আমার স্ত্রী, ছেলেমেয়ে এবং মা-বাবা ছাড়াও পরিবারের সদস্যরা। তাই আমরা আমাদের গ্রামে ফিরে যাচ্ছি। যদি এখানে এভাবে পড়ে থাকি তাহলে না খেতে পেয়ে মারা যাব,’ যোগ করেন জোগেশ নামের ওই শ্রমিক।

এদিকে মানুষের এ ভিড় সামলাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে। দায়িত্বরত পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, সবার কথা একটাই বাড়ি যাওয়া চাই। কেউ-ই শুনতে চাইছে না। তবে করোনা প্রতিরোধে যতটুকু সুরক্ষা দেয়া যায় আমরা সে চেষ্টাই করছি। দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেন, ভাসমান শ্রমিকদের সহায়তা করতে বর্তমান সরকার বদ্ধপরিকর। এ বিষয়ে কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকারগুলোর পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, এসব শ্রমিকের বিপর্যয় মোকাবিলায় তহবিল গড়ে তোলা হয়েছে। এ তহবিল থেকেই তাদের পাশে দাঁড়ানো হবে। এমনকি করোনাভাইরাস সংক্রমণ যাতে না ছড়ায়, সেদিকে লক্ষ্য রেখে ক্যাম্প তৈরির কথাও জানান ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

এদিকে দিল্লিতে দিনমজুরসহ ভাসমান প্রায় চার লাখ মানুষের মধ্যাহ্নভোজ ও নৈশভোজের ব্যবস্থা করেছে কেজরিওয়াল সরকার। মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল বলেন, ভাইরাস ছড়ানো রুখতে এটাই একমাত্র পথ।

দিল্লিতে আটকে পড়া শ্রমিকদের রাজ্যে ফেরাতে সহযোগিতার জন্য কেজরিওয়াল সরকারের কাছে সহযোগিতা চেয়েছেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি এবং উড়িষ্যার নুবীন পট্টনায়েকও।

এদিকে করোনা সংক্রমণের আশঙ্কার মধ্যেও শ্রমিকদের জড়ো হওয়ার ছবি টুইটারে পোস্ট করেছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। এতে সরকারের সমালোচনা করতেও ছাড়েননি তিনি। নিজের পোস্টে রাহুল গান্ধী বলেন, কর্মহারা হয়ে ও নিজেদের ভবিষ্যৎ নিয়ে অনিশ্চয়তার মুখে পড়েছেন এসব মানুষ। তাই বাধ্য হয়েই আমাদের লক্ষাধিক ভাই-বোন বাড়ি ফেরার চেষ্টা করছেন। ভারতবাসীর সঙ্গে আমরা এই আচরণ করছি কেন করছি, এটা অত্যান্ত লজ্জাজনক। এর জন্য সরকারের কোন পরিকল্পনা নেই।

তিনি বলেন, এই ভয়াবহ পরিস্থিতির জন্য সরকারই দায়ী। কোন নাগরিককে এ পরিস্থিতিতে ফেলা অনেক বড় অপরাধ।

বিক্ষোভের সময় স্ত্রী-পুত্রকে নিয়ে বাঙ্কারে লুকিয়েছিলেন ট্রাম্প!

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

কৃষ্ণাঙ্গ হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভে উত্তাল যুক্তরাষ্ট্র। বিক্ষোভকারীরা শুক্রবার (২৯ মে) রাতে হোয়াইট হাউজের বাইরেও জড়ো হন। এ সময় প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে হোয়াইট হাউজের আন্ডারগ্রাউন্ড বাঙ্কারে নিয়ে যাওয়া হয়।

বিশ্বে করোনায় মৃত্যু ৩ লাখ ৭৩ হাজার

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা প্রতিদিনই বাড়ছে। গত ডিসেম্বরের শেষে চীনের উহানে শুরু হওয়া করোনার সংক্রমণ বিশ্বের ২১৫টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে।

কারফিউ ভেঙে যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিবাদ বিক্ষোভ

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে জুড়ে কৃষ্ণাঙ্গ খুনের প্রতিবাদ-বিক্ষোভ বিক্ষোভ আরও বেড়েছে। টিভি সংবাদমাধ্যম

sangbad ad

বিক্ষোভে উত্তাল যুক্তরাষ্ট্রে সেনা মোতায়েন

সংবাদ ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের মিনেপোলিস শহরে পুলিশের হেফাজতে জর্জ ফ্লয়েড নামের এক কৃষ্ণাঙ্গ আমেরিকান নাগরিকের মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদে টানা চতুর্থ দিনের বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছে যুক্তরাষ্ট্র। শনিবার ডেট্রয়েটসহ দেশটির বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যের রাস্তায় এ বিক্ষোভ সহিংস আকার ধারণ করে। এসময়

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্নের ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) সঙ্গে তার দেশের সম্পর্কের ইতি টানার ঘোষণা দিয়েছেন। ট্রাম্প ঘোষণা দিলেও ডব্লিউএইচও’র সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কচ্ছেদ কবে থেকে কার্যকর হচ্ছে, তা স্পষ্ট হওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। তবে ট্রাম্পের এ ঘোষণা নিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

করোনা চিকিৎসায় ‘প্লাজমা থেরাপি’ ‘রেমডেসিভির’ ব্যবহারে ডব্লিউএইচওর না

অনলাইন বার্তা পরিবেশক,

image

করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) চিকিৎসায় প্লাজমা থেরাপি ব্যবহার না করার পরামর্শ দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। পাশাপাশি ‘রেমডেসিভির’সহ অন্যান্য অ্যান্টিভাইরালও ব্যবহার না করার সুপারিশ করেছে সংস্থাটি।

বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত ৬০ লাখ ছাড়াল

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা প্রতিদিনই বাড়ছে। গত ডিসেম্বরের শেষে চীনের উহানে শুরু হওয়া করোনার সংক্রমণ বিশ্বের ২১৫টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে।

করোনা বস্তু থেকে সহজে ছড়ায় না : সিডিসি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

কোনো বস্তু বা পৃষ্ঠতল থেকে করোনাভাইরাস সহজে ছড়ায় না, বরং মূলত মানুষ থেকে মানুষেই রোগটি ছড়াচ্ছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল এন্ড প্রিভেনশন (সিডিসি)।

লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশি শ্রমিক হত্যা

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশিসহ ৩০ অভিবাসী শ্রমিককে গুলি করে হত্যা করেছে মানবপাচারকারী চক্রের এক সদস্যের পরিবারের লোকজন। নিহত বাকি চারজন আফ্রিকান। এছাড়া আরো ১১ জন গুরুতর আহত হয়েছেন। আন্তর্জাতিক স্বীকৃতিপ্রাপ্ত লিবিয়ার সরকার (জিএনএ) বৃহস্পতিবার এই তথ্য জানিয়েছেন।

sangbad ad