• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

 

ট্রাম্পের ‘নোংরা যুদ্ধের’ প্রতিবাদে একাট্টা ৩ শতাধিক সংবাদমাধ্যম

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৬ আগস্ট ২০১৮

সংবাদ :
  • সংবাদ ডেস্ক
image

সংবাদ মাধ্যমের বিরুদ্ধে ৪৫তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ধারাবাহিক আক্রমণের নিন্দা জানাতে প্রচারাভিযানে নেমেছে ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম ‘দ্য গার্ডিয়ান’সহ তিন শতাধিক (প্রায় ৩৫০টি) মার্কিন সংবাদ সংস্থা। এর পাশাপাশি মুক্ত সাংবাদিকতার চর্চার ওপর জোর দিয়েছে এ সংবাদ মাধ্যমগুলো। যুক্তরাষ্ট্রের বস্টনভিত্তিক জাতীয় দৈনিক ‘বস্টন গ্লোব’-এর আহ্বানে সাড়া দিয়ে ‘মুক্ত সাংবাদিকতার বিরুদ্ধে নোংরা যুদ্ধ’ নামের এ প্রচারাভিযানে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের নিন্দা জানিয়ে এ সংবাদ মাধ্যমগুলো বৃহস্পতিবার (১৬ আগস্ট) সমন্বিত সম্পাদকীয় প্রকাশ করেছে বলে জানা গেছে ।

গত সপ্তাহে বস্টন গ্লোব তার মতামত পাতায় ট্রাম্পের এ ‘নোংরা যুদ্ধের বিরুদ্ধে’ গণক্ষোভ জানাতে সংবাদ মাধ্যমগুলো বরাবর আহ্বান জানায়। একইসঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্টের এ আচরণের নিন্দা জানিয়ে ‘#EnemyOfNone’ হ্যাশটাগ ব্যবহার করারও আহ্বান জানায় সংবাদ মাধ্যমটি। প্রধান মার্কিন সংবাদপত্র ও স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো ছাড়াও ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানও এ আহ্বানে সাড়া দিয়েছে। প্রাথমিকভাবে ১০০ মার্কিন সংবাদ সংস্থা বস্টন গ্লোবের এ আহ্বানে সাড়া দেয়। তবে যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান সংবাপত্রগুলোর পাশাপাশি ছোট ছোট স্থানীয় গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানও এ আহ্বানে সাড়া দেয়ায় সংখ্যাটি সাড়ে তিনশ’র দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। এদিকে বুধবার সকাল পর্যন্ত পাওয়া তথ্য অনুয়ায়ী, ৩৪৩টি সংবাদ মাধ্যম এ প্রচারাভিযানে অংশ গ্রহণে অঙ্গিকারবদ্ধ রয়েছে বলে বস্টন গ্লোব-এর উপ-ব্যবস্থাপনা সম্পাদক মারজোরেই প্রিচার্ড সম্পাদকীয় পাতা পর্যবেক্ষণ করার পর জানিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রের এসকল সাংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে একাত্মতা জানিয়ে ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানও একটি সম্পাদকীয় প্রকাশ করেছে বলে জানা গেছে।

গত বছরের ২০ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেয়ার পর থেকেই নিয়মমাফিকভাবে সংবাদ মাধ্যমসহ এর বিভিন্ন প্রতিবেদককে ব্যক্তিগতভাবে আক্রমণ করে আসছেন ট্রাম্প। এসময়ে ঘটনাভিত্তিক বস্তুনিষ্ঠ ‘খবর’কে ‘ভুয়া খবরের’ ছাপ্পা দেয়ার পাশাপাশি ওই সব সংবাদ মাধ্যমকে ‘জনগনের শত্রু’ হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন তিনি। তবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে কেবল মাত্র ট্রাম্প একাই গণমাধ্যম বা সংবাদ মাধ্যমকে আক্রমণ করেন নি বা এর দ্বারা অন্যায়ভাবে আক্রমণের শিকার হওয়ার অভিযোগ করেন নি। এদিকে লন্ডনভিত্তিক জাতীয় দৈনিক দ্য গার্ডিয়ান তাদের সম্পাদকীয়তে লিখেছে, ট্রাম্প প্রথম প্রেসিডেন্ট যিনি জোরালোভাবে ও একইসঙ্গে গোপনে সংবাদমাধ্যমের কাজের ক্ষতিসাধনের নীতি নিয়েছেন, এমনকি সংবাদমাধ্যমের কাজকে বিপজ্জনকও করে তুলেছেন তিনি।

বস্টন গ্লোব ‘সংবাদপত্রের ওপর প্রশাসনের আক্রমণের বিপদ’ সম্পর্কে একটি সম্পাদকীয় প্রকাশ করছে বৃহস্পতিবার। বস্টন গ্লোবের সম্পাদকীয়র শিরোনাম করা হয়েছে, ‘সাংবাদিকরা শত্রু নয়’। সেখানে মনে করিয়ে দেয়া হয়েছে- ২০০ বছরের বেশি সময় ধরে আমেরিকান মূলনীতিগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে সংবাদপত্রের স্বাধীনতা। ‘এখন এটি ভয়াবহ ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে’ এমন বক্তব্য দিয়ে সংবাদ মাধ্যমটি জানচ্ছে, সংবাদমাধ্যমের ওপর মার্কিন প্রেসিডেন্টের এমন আচরণ ‘বিশ্বব্যাপী স্বৈরাচারী শাসকের ভয়াবহ বার্তা দেয়।’ নিউ ইয়র্ক টাইমস তাদের সম্পদকীয়র শিরোনাম করেছে- ‘এ ফ্রি প্রেস নিডস ইউ’, এতে ট্রাম্পের আক্রমণকে ‘গণতন্ত্রের প্রাণশক্তির জন্য বিপজ্জনক’ হিসেবে বর্ণনা করে তার বহু বক্তব্য থেকে বিভিন্ন উক্তি তুলে ধরা হয়েছে। ফিলাডেলফিয়া ইনকোয়ারার লিখেছে, অজনপ্রিয় দৃষ্টিভঙ্গী অথবা তথ্য প্রকাশের জন্য সংবাদপত্র যদি প্রতিশোধ, শাস্তি ও সন্দেহ মুক্ত থাকতে না পারে, তাহলে এই দেশও মুক্তি থাকতে পারে না, জনগণও না। অপরিদকে যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষমতাসীন রিপাবলিকান পার্টির সমর্থকদের মধ্যে পরিচালিত এক জরিপে দেখা যায়, গণমাধ্যম ‘গণতন্ত্রের গুরুত্বপূর্ণ অংশ না হয়ে জনগণের শত্রুও হতে পারে’ এমন ধারণায় বিশ্বাস করেন ৫১ শতাংশ উত্তরদাতা। ট্রাম্পের সমালোচনার কারণে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে সহিংসতা শুরু হতে পারে- এমন উদ্বেগের সঙ্গে একমত নন ৫২ শতাংশ উত্তরদাতা। তবে ৬৫ শতাংশ উত্তরদাতা বলেছেন, সংবাদ মাধ্যম যে গণতন্ত্রের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ, তা তারা বিশ্বাস করেন।

এছাড়াও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের এমন ভূমিকায় জাতিসংঘের বিশেষজ্ঞরাও শঙ্কা প্রকাশ করেছেন। তারা বলেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের এমন বিধ্বংসী আক্রমণের কারণে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে সহিংসতার ঝুঁকি বৃদ্ধি পাচ্ছে।

শত্রুদের বিরুদ্ধে প্রতিশোধ নিতে ইরানকে সহযোগিতা করবে রাশিয়া

সংবাদ ডেস্ক

image

সম্প্রতি ইরানে সামরিক কুচকাওয়াজে বন্দুকধারীদের হামলার ঘটনায় দেশটির প্রতি দুঃখ প্রকাশ

মায়ানমারের সার্বভৌমত্বে উপর জতিসংঘের হস্তক্ষেপের কোনও অধিকার নেই : মায়ানমার সেনাপ্রধান

image

মায়ানমারের সার্বভৌমত্বে উপর জতিসংঘের হস্তক্ষেপের কোনও অধিকার নেই বলে জানিয়েছেন

রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে মায়ানমারের মোকাবিলার সামর্থ্য প্রমাণ করেছে আইসিসি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

রোহিঙ্গা ইস্যুতে মায়ানমারকে মোকাবিলার সামর্থ্য প্রমাণ করেছে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত

sangbad ad

উ. কোরিয়ার সঙ্গে পুনরায় আলোচনায় প্রস্তুত যুক্তরাষ্ট্র

সংবাদ ডেস্ক

image

কোরীয় উপদ্বীপে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ করার লক্ষ্যে উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে পুনরায় আলোচনা

রোহিঙ্গা নির্যাতন : প্রাথমিক তদন্ত শুরু অপরাধ আদালতের

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

মায়ানমারের বিরুদ্ধে গত মঙ্গলবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রোহিঙ্গা নির্যাতনের প্রাথমিক তদন্ত

মায়ানমার সেনা আইনের ঊর্ধ্বে থাকলে দেশটিতে শান্তি ফিরবে না

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

মায়ানমারে শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে হলে সেনাবাহিনীর ক্ষমতা কমিয়ে বেসামরিক প্রশাসনকে শক্তিশালী

মুসলিম নারীদের সামাজিব ও অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে অংশ নিতে উৎসাহ দেবে ওআইসি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

রাষ্ট্রীয়, সামাজিক এবং অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে মুসলীম নারীদের আরও সম্পৃক্ত হতে উৎসাহিত

তুরস্ক ও রাশিয়াকে অবশ্যই ইতিবাচক সমাধান খুঁজতে হবে: এরদোগান

সংবাদ ডেস্ক

image

সিরিয়া ইস্যুতে মস্কো ও রাশিয়াকে অবশ্যই ইতিবাচক সমাধান খুঁজতে হবে বলে মন্তব্য

চীন ও হংকংয়ে মাংখুটের আঘাত

সংবাদ ডেস্ক

image

ফিলিপাইনের উত্তরাঞ্চলে ধ্বংসযজ্ঞ চালানোর পর এবার চীন ও হংকংয়ে আঘাত হেনেছে

sangbad ad