• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , রবিবার, ২২ জুলাই ২০১৮

 

জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বকে প্রশ্নবিদ্ধ করার নগ্ন প্রয়াস নওয়াজের

নিউজ আপলোড : ঢাকা , মঙ্গলবার, ০৯ জানুয়ারী ২০১৮

image

বছরের পর বছর ‘নিপীড়ন’ করে তাকে ‘বিদ্রোহের দিকে’ ঠেলে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়ে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ দাবি করেছেন, রাষ্ট্র কর্তৃক তাকে ‘একঘরে’ করে ফেলা আর ১৯৭১ সালে পাকিস্তানের কাছ থেকে বাংলাদেশের স্বাধীন হওয়ার পটভূমির মিল রয়েছে এবং বাংলাদেশকে বিচ্ছিন্ন হতে বাধ্য করেছেন তারাই। মঙ্গলবার পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম ডন এ খবর জানিয়েছে। মঙ্গলবার ইসলামাবাদে পাঞ্জাব হাউসে জড়ো হওয়া সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন। এ সময় ভোটে নির্বাচিত জনপ্রিয় নেতাদের কাছে রাষ্ট্রের ক্ষমতা হস্তান্তর না করার পরিণতি নিয়ে কথা বলেন নওয়াজ।

নওয়াজ বলেন, ‘শেখ মুজিবুর রহমান (বঙ্গবন্ধু) বিদ্রোহী ছিলেন না, কিন্তু তাকে বানানো হয়েছে।’ পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে তিন বার উৎখাত হওয়া নওয়াজ এর আগেও ১৯৭১ সালকে টেনে এনেছিলেন। পানামা পেপার্স কেলেঙ্কারিতে নাম উঠে আসার পর সুপ্রিম কোর্টের রায়ে প্রধানমন্ত্রীত্বের অযোগ্য ঘোষিত হওয়ার পরও প্রসঙ্গটি সামনে এনেছিলেন।

নওয়াজ বলেন, ‘কিন্তু আমি এইসব ক্ষত ভুলে যাবো না। যেখানে আবেগকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারি না সেখানে আমি এসব ক্ষতকে নিয়ে যেতে চাই না। আমার সঙ্গে ও দেশের ইতিহাসে নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রীদের সঙ্গে যা ঘটেছে তা সঠিক ছিল না। দেশ সেবার জন্য জাতির কাছ থেকে এ কোন ধরনের প্রতিদান?’

গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত সরকারকে অবৈধভাবে উচ্ছেদ বন্ধের দাবি জানিয়ে নওয়াজ এই রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের নেপথ্যে জড়িতদের তাদের পাপের প্রায়শ্চিত্ত করা ও জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানান।

ভাষণের এই পর্যায়ে নওয়াজ আবারও পাকিস্তানের কাছ থেকে বাংলাদেশের স্বাধীনতার প্রসঙ্গে ফিরে আসেন। তিনি বলেন, ‘পাকিস্তান সৃষ্টিতে বাঙালিদের একটি কেন্দ্রীয় ভূমিকা ছিল। কিন্তু আমরা তাদের সঙ্গে সঠিক আচরণ করিনি এবং আমাদের কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন করেছি। বাংলাদেশ রাষ্ট্রের সৃষ্টি নিয়ে বিচারপতি হামুদুর রহমান কমিশন একটি সততাপূর্ণ ও স্পষ্ট পর্যালোচনা তৈরি করেছিলেন। কিন্তু আমরা তা পড়েই দেখিনি।’

শরিফ বলেন, ‘আমরা কি তা অনুসারে কাজ করেছি, করলে আজকের পাকিস্তান অন্যরকম হতো। যে ধরনের খেলা চলছে তা তা হতো না।’

বিচারকরাই দেশটির গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে দুর্বল করছে বলে অভিযোগ করে সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী জানান, বিচারপতিদের ‘আইনি একনায়কত্ব’ রয়েছে এবং তারাই ‘এখতিয়ারের বাইরে গিয়ে কাজ করছেন’।

উত্তর কোরিয়ায় আরোপিত মার্কিন নিষেধাজ্ঞা শিথিলের পক্ষে চীন-রাশিয়া

সংবাদ ডেস্ক

image

উত্তর কোরিয়ার ওপর আরোপিত মার্কিন পরমাণু নিষেধাজ্ঞায় অতি দ্রুত শিথিলতা আনার পক্ষে অবস্থান নিয়েছে চীন ও রাশিয়া। তবে পিযংইয়ংয়ের

বিশ্বখ্যাত পর্যটন নগরী সাংহাই দিনে-রাতে দুই রূপ

ফয়েজ আহমেদ তুষার, সাংহাই (চায়না) থেকে ফিরে

image

বেইজিং বেড়াতে গেলে সময় পেলে যে শহরটি অবশ্যই দেখে আসা উচিৎ, তার নাম সাংহাই; গণচীনের

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার বিরুদ্ধে অবস্থান ২৪শ’ বিজ্ঞানীর

সংবাদ ডেস্ক

image

দৈনন্দিন ব্যবহারে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার রোবট মানুষের বিকল্প হয়ে উঠছে। এমন রোবট মানুষের মতো কাজ করতে পারে। অনেক দেশ রোবট সেনাও তৈরি

sangbad ad

এবার সরাসরি পুতিনকেই ‘দায়ী’ করলেন ট্রাম্প

সংবাদ ডেস্ক

image

এ মুহূর্তে অবাক বিস্ময়ে বিশ্ব দেখছে নতুন এক যুক্তরাষ্ট্রকে! গত বছরের ২০ জানুয়ারি দেশটির ৪৫তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর

চীনের মহাপ্রাচীর পর্যটকদের প্রধান আকর্ষণ

ফয়েজ আহমেদ তুষার, বেইজিং (চায়না) থেকে ফিরে

image

ছোটবেলায় সাধারণ জ্ঞানের বইয়ে পৃথিবীর সপ্তাশ্চর্যের এক আশ্চর্য চীনের মহাপ্রাচীরের কথা পড়েছি। শুনেছি সুবিশাল এই প্রাচীরকে ঘিরে নানা গল্প।

হামাসের ওপর ‘সবচেয়ে কঠোর হামলা’ ইসরায়েলের

সংবাদ ডেস্ক

image

২০১৪ সালের যুদ্ধের পর থেকে ইসরায়েল অধিকৃত গাজা ভূখণ্ডে হামাস রাজনৈতিক গোষ্ঠীর ওপর

জঙ্গি হামলার প্রেক্ষাপটে পাকিস্তানে নির্বাচন নিয়ে অনিশ্চয়তা

সংবাদ ডেস্ক

image

আগামী ২৫ জুলাই অনুষ্ঠিতব্য জাতীয় ও প্রাদেশিক পরিষদের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে একের পর এক জঙ্গি হামলায় রক্তাক্ত হয়ে উঠেছে পাকিস্তান। চলতি

যুক্তরাষ্ট্রে মা-বাবার কাছে ফিরছে পরিবার-বিচ্ছিন্ন শিশুরা!

সংবাদ ডেস্ক

image

মেক্সিকো সীমান্ত দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসনের-প্রত্যাশায় আসা অবৈধ পরিবারগুলো থেকে বিচ্ছিন্ন করা শিশুদের

এক-তৃতীয়াংশেরও বেশি সহায়তা বরাদ্দ কমালো ট্রাম্প প্রশাসন

সংবাদ ডেস্ক

image

যুক্তরাষ্ট্রের ‘ওবামা কেয়ার’ (অ্যাফোর্ডেবল কেয়ার অ্যাক্ট) নামের বহুল আলোচিত স্বাস্থ্য বীমার

sangbad ad