• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , সোমবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯

 

কুর্দি উৎখাতে তুর্কি অভিযান : সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে ব্যাপক সংঘর্ষ

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১০ অক্টোবর ২০১৯

সংবাদ :
  • সংবাদ ডেস্ক
image

কুর্দি ও তুর্কিদের মধ্যে তীব্র সংঘাতের জেরে সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় শহর রাস আল আইন থেকে অন্যত্র সরে যেতে বাধ্য হচ্ছে বাসিন্দারা-বিবিসি

কুর্দি ওয়াইপিজি অধ্যুষিত সিরিয়ার উত্তর-পূর্ব সীমান্তে বিমান হামলা ও স্থল অভিযান জোরদার করেছে তুর্কি বাহিনী। তুর্কি সামরিক বাহিনী জানায়, ৯ অক্টোবর বুধবার দ্বিতীয় দিনের এ অভিযানে ওই অঞ্চলটির নির্ধারিত এলাকার দখল নিতে সক্ষম হয়েছে তারা। এদিকে দেশটির সীমান্তবর্তী মধ্যাঞ্চলে ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনায় ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছে কয়েক হাজার বাসিন্দা। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প কুর্দি অধ্যুষিত ওই এলাকা থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করার পরই অভিযান শুরু করে তুরস্ক। এদিকে তুরস্কের অভিযানে যুক্তরাষ্ট্র ‘সবুজ সংকেত’ দেয়নি বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। একই দিন (বুধবার) সম্প্রচারমাধ্যম পিবিএসকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি সিরিয়ার সীমান্ত নিয়ে আঙ্কারার নিরাপত্তা উদ্বেগকে ‘ন্যায্য’ বলে অ্যাখ্যা দিয়েছেন। বার্তা সংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

সিরিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের এক হাজারের মতো সৈন্য রয়েছে। মঙ্গলবার উত্তরাঞ্চল থেকে আমেরিকার ৫০ সেনাকে প্রত্যাহার করে নেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। ওয়াশিংটনের এমন সিদ্ধান্তের পর পরই সিরিয়ার কুর্দি নিয়ন্ত্রিত এ এলাকায় ‘অপারেশন পিস স্প্রিং’ নামে সর্বাত্মক অভিযান চালানোর ঘোষণা দেয় তুরস্ক। কুর্দি যোদ্ধাদের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়ে এসডিএফকে নির্মূল করে কয়েক লাখ সিরিয়ার শরণার্থীর জন্য একটি নিরাপদ অঞ্চল প্রতিষ্ঠা করতে চায় তুরস্ক। এরই অংশ হিসেবে অভিযানের প্রথম দিনে তুরস্কের বিমান ও কামান কুর্দিদের ১৮১টি স্থাপনায় আঘাত হেনেছে বলে জানিয়েছে আঙ্কারা। এসব হামলায় কমপক্ষে ৫ বেসামরিক নাগরিকসহ ৮ জন নিহত ও কয়েক ডজন মানুষ আহত হয়েছে বলে জানান সিরিয়ান ডেমক্রেটিক ফোর্স (এসডিএফ)। পরদিন বুধবার চালানো বিমান হামলার পাশাপাশি তুর্কি সেনাবাহিনী ও তাদের সমর্থিত সিরিয়ার বিদ্রোহীরা তেল আবায়াদ ও রাস আল আইনের ৪টি পয়েন্ট দিয়ে সীমান্ত অতিক্রম করে।

এদিকে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সেনাদের সরিয়ে নিয়ে মিত্রদের ‘পেছন থেকে ছুরি মেরেছেন’ বলে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন দেশটির ক্ষমতাসীন প্রভাবশালী রিপাবলিকান নেতারাও। এ প্রসঙ্গে সিনেটর লিন্ডসে গ্রাহাম বলেছেন, কুর্দিদের ওপর থেকে সমর্থন তুলে নেয়া ট্রাম্পের মেয়াদের সবচেয়ে বড় ভুল। আরেক রিপাবলিকান নেতা লি চেনি বলেন, এমন সিদ্ধান্ত রাশিয়া, ইরান ও তুরস্ককে সিরিয়ায় আরও শক্তিশালী করবে। তুর্কি এ অভিযানে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) পুনরুত্থানে ভূমিকা রাখতে পারে বলেও আশঙ্কা তার। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র আমাদের মিত্র কুর্দিদের ছেড়ে এসেছে। তারা আইএসের বিরুদ্ধে মুখোমুখি লড়াই করেছে ও আমাদের স্বদেশ সুরক্ষিত রাখতে সহযোগিতা করেছে। ট্রাম্পের এ সিদ্ধান্ত আমেরিকার প্রতিদ্বন্দ্বী রাশিয়া, ইরান ও তুরস্ককে সুবিধা এবং আইএসের পুনরুত্থানের পথ করে দেবে।

‘মধ্যপ্রাচ্যে যুদ্ধে জড়ানো যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বাজে সিদ্ধান্ত ছিল’
মধ্যপ্রাচ্যে যুদ্ধে জড়ানো যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বাজে সিদ্ধান্ত ছিল জানিয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেছেন, মধ্যপ্রাচ্যের যুদ্ধে জড়ানো ছিল যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসের সবচেয়ে বাজে সিদ্ধান্ত। বুধবার এক টুইটবার্তায় তিনি বলেন, মধ্যপ্রাচ্যে যুদ্ধ ও নীতিগত কারণে ৮ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার খরচ হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের। আমেরিকার হাজারো সেনা হতাহতের শিকার হয়েছেন। অন্যদিকে লাখো মানুষ মারা গেছে। মধ্যপ্রাচ্যের যুদ্ধে যুক্ত হওয়া ছিল আমাদের দেশের ইতিহাসের সবচেয়ে বাজে সিদ্ধান্ত। আমরা মিথ্যা বিশ্বাসে যুদ্ধ শুরু করেছিলাম। গণবিধ্বংসী অস্ত্রের কথা বলা হয়েছিল আমাদের। কিন্তু সেখানে কিছুই নেই।

পিবিএসকে দেয়া সাক্ষাৎকারে আমেরিকার পররাষ্ট্রমন্ত্রী পম্পেও জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসের পুনরুত্থানের আশঙ্কা প্রত্যাখ্যান করেছেন। তিনি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কুর্দি অধ্যুষিত এলাকার আমেরিকার সেনাদের বিপদের বাইরে রাখতেই এ সিদ্ধান্ত নেন।

অন্যদিকে কুর্দি নেতৃত্বাধীন সশস্ত্রগোষ্ঠী এসডিএফের মুখপাত্র কিনো গ্যাব্রিয়াল বলেন, যুক্তরাষ্ট্র আশ্বাস দিয়েছিল, তারা তুরস্ককে কোন সামরিক অভিযান পরিচালনা করতে দেবে না। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের এমন বিবৃতিতে আমার খুবই অবাক হয়েছি। ঘটনাটি পেছন থেকে ছুরিকাঘাত করার শামিল। তবে তুরস্কের এই অভিযানে আমেরিকার সেনা সরিয়ে নিলেও তুরস্কের বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক পদক্ষেপ নেয়া হতে পারে বলে জানান ট্রাম্প।

তুরস্কের ওই অভিযানে পশ্চিমা দেশগুলো উদ্বেগ জানিয়েছে। ইউরোপিয়ান ৫ দেশ যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, জার্মানি, বেলজিয়াম ও পোল্যান্ডের অনুরোধে এ অভিযান নিয়ে বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে আলোচনা করা হয়। অন্যদিকে আগামী শনিবার কায়রোয় জরুরি বৈঠক আহ্বান করেছে আরব লীগও।

আইএসবিরোধী লড়াইয়ে সফলতার পর এসডিএফের নিয়ন্ত্রণেই সিরিয়ার বিশাল অংশ রয়েছে। বলা হচ্ছে, দেশটির প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের পর তাদের নিয়ন্ত্রণেই সিরিয়ার সবচেয়ে বড় অংশ। বুধবার তুর্কি অভিযান শুরুর পর মস্কো কুর্দিদের দামেস্কের সঙ্গে বসার আহ্বান জানিয়েছে। এদিন ট্রাম্প সিরিয়ায় তুর্কি অভিযানকে ‘বাজে পরিকল্পনা’ অ্যাখ্যা দিলেও ওই এলাকা থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারে নিজের সিদ্ধান্তের পক্ষে সাফাই গেয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বলেন, তুর্কি ও কুর্দিরা শতকের পর শতক ধরে লড়াই করছে। কুর্দি যোদ্ধারা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে আমাদের সহায়তা করেনি। ডি-ডের দিনে নরম্যান্ডিতেও করেনি। এতকিছু বলার পরও আমরা কুর্দিদের পছন্দ করি। যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসে রিপাবলিকান সিনেটররা তুরস্কের বিরুদ্ধে বড় ধরনের নিষেধাজ্ঞার একটি বিল পাসের পরিকল্পনা করেছেন বলে জানিয়েছে আমেরিকার গণমাধ্যম। ডেমক্রেটিক সিনেটর ক্রিস ভ্যান হোলেন ওই বিলটি উত্থাপন করতে যাচ্ছেন।

বিশ্বের সবচেয়ে কম বয়সী প্রধানমন্ত্রী সানা ম্যারিন

সংবাদ ডেস্ক

image

ফিনল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত হলেন ৩৪ বছর বয়সী সানা ম্যারিন। এর মধ্য দিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে কম বয়সী প্রধানমন্ত্রী পেলো উত্তর

ভারতের লোকসভায় বিতর্কিত নাগরিকত্ব বিল পাস

সংবাদ ডেস্ক

image

অমুসলিম শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দিতে ভারতে বহুল আলোচিত নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (সিবিএ) ৯ ডিসেম্বর সোমবার সংসদে পাস হয়েছে।

ট্রাম্পের কর্মকাণ্ড ‘অভিশংসনযোগ্য’ : অভিমত ৩ আইন বিশেষজ্ঞের

সংবাদ ডেস্ক

image

রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে বিপাকে ফেলতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যেভাবে ইউক্রেনের ওপর চাপ সৃষ্টি করেছেন, তা অভিশংসনযোগ্য

sangbad ad

কলকাতায় শুরু হয়েছে ইনফোকম ২০১৯ সম্মেলন

মোহাম্মদ কাওছার উদ্দীন

image

ভারতের আনন্দবাজার পত্রিকা (এবিপি) গ্রুপের প্রতিষ্ঠান ইনফোকম এর আয়োজনে ‘Winning in

ফিলিপাইনে ঘূর্ণিঝড় কামমুড়ির আঘাত

সংবাদ ডেস্ক

image

ফিলিপাইনের লুজন দ্বীপের দক্ষিণ উপকূল আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় কামমুড়ি। ২ ডিসেম্বর সোমবার স্থানীয় সময় মধ্যরাতে সর্বোচ্চ ১৫৫ কিলোমিটার

মার্কিন সামরিক বাহিনীকে হংকংয়ে ঢুকতে বাধা বেইজিংয়ের

সংবাদ ডেস্ক

image

হংকংয়ে মার্কিন যুদ্ধবিমান ও রণতরীর প্রবেশ স্থগিত করেছে বেইজিং

হংকংয়ের গণতন্ত্রপন্থিদের পক্ষে আইনে সই করলেন ট্রাম্প

সংবাদ ডেস্ক

image

হংকংয়ে সরকারবিরোধী আন্দোলন অব্যাহত রয়েছে। এতে গণতন্ত্রপন্থি বিক্ষোভকারীদের সমর্থন জানিয়ে একটি প্রস্তাবে (বিলে) স্বাক্ষর করেছেন

আলবেনিয়ায় শক্তিশালী ভূমিকম্প : নিহত ১১

সংবাদ ডেস্ক

image

ইউরোপের দাক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় দেশ আলবেনিয়ায় শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। ২৬ নভেম্বর মঙ্গলবার স্থানীয় সময় ভোরে রাজধানী

হংকংয়ে গণতন্ত্রপন্থিদের ঐতিহাসিক বিজয়

সংবাদ ডেস্ক

image

চীনের বিশেষ প্রশাসনিক অঞ্চল হংকংয়ের স্থানীয় পরিষদ নির্বাচনে গণতন্ত্রপন্থি আন্দোলনকারীরা নজিরবিহীন জয় পেয়েছে। ২৪ নভেম্বর রোববার

sangbad ad