• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

 

ইসরায়েলের সাথে আমিরাত ও বাহরাইনের চুক্তির ৫ গুরুত্বপূর্ণ দিক

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বুধবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

সংবাদ :
  • সংবাদ অনলাইন ডেস্ক
image

সম্প্রতি ইসরায়েলের সঙ্গে শান্তি চুক্তিতে পৌঁছেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন। গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রথমে সংযুক্ত আরব আমিরাতের সঙ্গে এবং পরে বাহরাইনের সঙ্গে চুক্তির ঘোষণা দেন। আনুষ্ঠানিক চুক্তিও সই করেছে দেশগুলো।

গত জানুয়ারিতে ট্রাম্পের ঘোষিত পরিকল্পনার ধারাবাহিকতায় যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্থতায় এ চুক্তি দুটি হয়েছে। এ ধরনের চুক্তির কথা কিছুকাল আগ পর্যন্ত ছিল অভাবিত।

গত শতকের মাঝামাঝি থেকে ইসরায়েলের রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা ও ফিলিস্তিনের স্বাধীনতা সংগ্রাম বিশ্বরাজনীতিতে সবচেয়ে অমীমাংসিত বিষয়। বিশেষ করে আরব বিশ্বের ঘটনাপ্রবাহ এই দুটি রাজনৈতিক অস্তিত্বের দ্বন্দ্ব-সংঘাতকে কেন্দ্র করে আবর্তিত হয়েছে। ফিলিস্তিনের প্রশ্নে আরব বিশ্ব ছিল একাট্টা।

তবু বিশ্ব পরিস্থিতির পরিবর্তন, পৃথিবীর বৃহৎশক্তিগুলোর সঙ্গে আরবের বিভিন্ন দেশের সম্পর্কের সমীকরণ এক্ষেত্রে ভূমিকা রেখেছে বলে ধারণা করা হয়।

কেন এই চুক্তি, এর কি প্রভাব পড়বে ঐ মধ্যপ্রাচ্যে, এই দুটি চুক্তির পাঁচটি গুরুত্বপূর্ণ দিক নিয়ে বিবিসির বিশ্লেষণ –

*১. বাণিজ্য এবং আরো কিছুর সম্ভাবনা দেখছে উপসাগরীয় দেশদু’টি:*

সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন উভয় দেশই ইসরায়েলের সঙ্গে চুক্তির ফলে বাণিজ্য সম্ভাবনা বাড়ার আশা করছে।

ইসরায়েল প্রযুক্তি ক্ষেত্রে অনেক এগোনো। তাদের রয়েছে বিশ্বের সর্বাধুনিক উচ্চপ্রযুক্তি খাত। এই খাতের পণ্যে প্রবেশাধিকার পাওয়ার পাশাপাশি ভ্রমণপ্রিয় ইসরায়েলি পর্যটকদের ঢলও প্রত্যাশা করছে সংযুক্ত আরব আমিরাত।

সংযুক্ত আরব আমিরাত নিজেদের বাণিজ্য ও পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার পাশাপাশি সামরিক শক্তি বাড়ানোর দিকেও মনোযোগ দিয়েছে। এর মধ্যে তারা লিবিয়া, ইয়েমেন সামরিক অভিযান চালিয়েছে।

আবার ইরানকে নিয়ে তাদের উদ্বেগ বাড়ছে। ইরানের অবস্থান উপসাগরের ঠিক ওপর পাড়েই। চুক্তির আগে যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে এফ-৩৫ এবং এইএ-১৮জি যুদ্ধবিমানসহ আধুনিক যুদ্ধসরঞ্জামাদি পাওয়ার প্রতিশ্রুতি পেয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত।

ইরানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েলের পাশাপাশি তিক্ততা রয়েছে বাহরাইনেরও। ১৯৬৯ পর্যন্ত বাহরাইনকে নিজেদের অংশ বলতো ইরান। আবার বাহরাইনের সুন্নী শাসকদের মনে ভয় ইরানের সঙ্গে ঝামেলা বাঁধলে তার শিয়া অধ্যুষিত এলাকাগুলো ওদিকে চলে যাবে।

*২. ইসরায়েলের একঘরে দশা ঘুচবে:*

সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইনের সঙ্গে চুক্তি ইসরায়েলের জন্য সত্যিকারভাবেই বড় অর্জন।

১৯২০ এর দশকে ইহুদি রাষ্ট্র ইসরায়েল ও আরবদের মধ্যে লৌহকঠিন দেওয়াল তৈরি করে রাখার যে কথা বলা হয়েছিল এতদিন সেই নীতিতেই বিশ্বাসী ছিলেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু।

সেই নীতির একটা ভাবনার জায়গা ছিল, একসময় এসে আরব রাষ্ট্রগুলো ইসরায়েলের অস্তিত্ব উপলব্ধি করে তাদের মেনে নেবে। কিন্তু মধ্যপ্রাচ্যে ইসরায়েলিরা আর একা থাকতে চায় না।

তারা ভবিষ্যতে এই আরব রাষ্ট্রগুলোর সম্পর্ক আরো জোরালো করতে পারবে। তার ওপর ইরানের বিরুদ্ধে এই আরব রাষ্ট্রসমূহের সঙ্গে নতুন এই জোট ইসরায়েলের বাড়তি পাওয়া।

নেতানিয়াহু ইরানকে এক নম্বর শত্রু মনে করে। তিনি ইরানের নেতাদের নাৎসি বাহিনীর সঙ্গে তুলনা করেন। তাছাড়া তার বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলা চলছে, যাতে তার জেলও হতে পারে। কোভিড-১৯ মহামারি মোকাবেলায় তার সরকার শুরুটা ভালো করলেও পরে লেজেগোবরে হয়ে যায়। এর মধ্যেই তার বিরুদ্ধে দেশে শুরু হয় বিক্ষোভ। এই পরিস্থিতির মধ্যে এ অর্জনের চেয়ে ভালো আর কী হতে পারতো তার জন্য?

*৩. পররাষ্ট্রনীতিতে অভ্যুত্থান ঘটিয়ে দিলেন ট্রাম্প:*

এই চুক্তি দুটোতে কয়েকভাবে লাভবান হলেন ট্রাম্প। এতে ইরানের ওপর বিশাল চাপ পড়লো। একে নির্বাচনী বছরে নিজের সক্ষমতার প্রমাণ হিসেবে হাজির করতে পারছেন।

ফলে ইসরায়েলের প্রতি সহমর্মী ট্রাম্পের ভোট ব্যাঙ্ক হিসেবে পরিচিত আমেরিকান ইভানজেলিকাল খ্রিস্টানেরা আরো প্রসন্ন হবে তার ওপর। এছাড়া মধ্যপ্রাচ্যে যুক্তরাষ্ট্রের বন্ধুদের ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক রক্ষার ক্ষেত্রে লুকোছাপা করতে হবে না আর। সবচেয়ে বড় কথা, এর ফলে মধ্যপ্রাচ্যে ইরানের বিরুদ্ধে শক্তি ভারসাম্যে এগিয়ে গেল যুক্তরাষ্ট্র।

*৪. আবারো বেইমানির শিকার হলেন বলে মনে করে ফিলিস্তিনিরা:*

আব্রাহাম অ্যাকর্ড নামে সংযুক্ত আরব আমিরাতের সঙ্গে ইসরায়েলের এই চুক্তিকে বিশ্বাসঘাতক হিসেবে নিন্দা জানিয়েছে ফিলিস্তিন। এর আগে আরব বিশ্বের মধ্যে একটা ঐক্যমত্য ছিল যে ইসরায়েলের সঙ্গে যে কোনো প্রকারের স্বাভাবিক সম্পর্ক মানে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকে বিকিয়ে দেওয়া।

আর এখন ইসরায়েলের সঙ্গে একে একে আরব দেশ যখন সম্পর্ক করছে তখন ফিলিস্তিনিরা অধিকৃত পূর্ব জেরুজালেম ও পশ্চিম তীরে বন্দিদশার মধ্যে ছটফট করছে।

আবু ধাবির যুবরাজ মোহাম্মেদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান বলেছেন, এই চুক্তির গুরুত্ব এটিই যে এর ফলে পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি অধিগ্রহণ বন্ধ হবে। বাহরাইনের চুক্তি করাটা ফিলিস্তিনিদের জন্য আরো চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়ালো। কারণ সৌদি আরবের সম্মতি ছাড়া তা কখনোই হওয়ার কথা না।

ফিলিস্তিনের স্বাধীনতার দাবি সংবলিত যে শান্তি পরিকল্পনা ছিল তার প্রণেতা ছিল সৌদি আরবই। মুসলমানদের দুটো প্রধান তীর্থকেন্দ্রের হেফাজতকারী হিসেবে সৌদি বাদশার ক্ষমতা অনেক। তার সহজে ইসরায়েলকে স্বীকৃতি দেওয়ার কথা না। কিন্তু যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান হয়তো এ প্রশ্নে বাদশার মতো শক্ত থাকবেন না।

*৫. ইরানের মাথাব্যথা বাড়লো:*

ইরানের নেতৃবৃন্দ এই চুক্তির কড়া সমালোচনা করেছে। তবে সেটা শুধু রাজনৈতিক সমালোচনা নয়। এর ফলে তাদের ওপর চাপ বাড়লো।

এমনিতেই ট্রাম্প প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞায় অর্থনৈতিকভাবে চাপের মধ্যে ছিল তারা, এখন কৌশলগতভাবে ঝামেলায় পড়ে গেলো তারা। কেননা ইসরায়েলের বিমানঘাটিগুলো ইরান থেকে অনেক দূরে। কিন্তু আরব আমিরাত একেবারে কাছে।

এখন যদি ইরানের পরমাণু কর্মসূচির জবাবে বিমান হামলার কথা হয়, তাহলে কঠিন পরিস্থিতিতে পড়বে ইরান। তার নড়াচড়ার সুযোগ সীমিত হয়ে গেছে। এদিকে যুক্তরাষ্ট্র, ইসরায়েল, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন একাট্টা হওয়া তাদের হাতে ইরানকে ঘায়েল করার উপায় বহুগুণে বেড়ে গেলো।

গরু পাচারে বিএসএফ যোগ : আনন্দবাজার

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

image

বাংলাদেশে গরু পাচারকারী চক্রের সন্ধানে নেমে তাতে বিএসএফ কর্মকর্তাদের সংশ্লিষ্টতা পেয়েছে ভারতের

করোনায় মৃত্যু ১০ লাখ ছুই ছুই

সংবাদ ডেস্ক

image

বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৩ কোটি ২৪ লাখ ১১ হাজার ছাড়িয়েছে।

নোবেল পুরস্কারে অর্থমূল্য বাড়ল ১০ লাখ ক্রোনা

অনলাইন ডেস্ক

image

চলতি বছর বিশ্বের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ নোবেল পুরস্কার বিজয়ীদের গত বছরের তুলনায় ১০ লাখ সুইডিশ ক্রোনা বা প্রায় এক লাখ ১০ হাজার ইউএস ডলার বেশি দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন নোবেল ফাউন্ডেশনের প্রধান লারস হেইকেনস্টেন। ফলে এ বছর নোবেল বিজয়ীরা পাবেন ১ কোটি ক্রোনা।

sangbad ad

যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত ৭০ লাখ ছাড়ালো

সংবাদ ডেস্ক

image

যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৭০ লাখ ছাড়িয়েছে। যা বিশ্বের মোট আক্রান্তের ২০ শতাংশের বেশি। বৃহস্পতিবার গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ঘোষণার পর দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এই মাইলফলক অতিক্রম করেছে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের সংগৃহীত পরিসংখ্যানে এই তথ্য উঠে এসেছে।

সৌদি আরবের বিরোধী দলের আত্মপ্রকাশ

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

image

সৌদি আরবের রাজতন্ত্রের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে বিরোধী দল গঠন করেছে ভিন্নমতাবলম্বীরা। যুক্তরাষ্ট্র

ইরাকে কোভিডে মৃতদের স্বজনরা হমলা চলাচ্ছে চিকিৎসকদের উপর

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

image

ইরাকে কোভিডে মৃতদের স্বজনরা হমলা চলাচ্ছে চিকিৎসকদের উপর। দেশটিতেকরোনাভাইরাস সংক্রমণ বাড়তে থাকার

নাভালনিকে ছাড়পত্র দিল জার্মান হাসপাতাল

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

image

রাশিয়ার বিরোধীদলীয় নেতা আলেক্সি নাভালনিকে জার্মানির বার্লিন হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।

নোবেল পুরস্কারের অর্থমূল্য বাড়ল ফাউন্ডেশন

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

image

গত বছরের তুলনায় চলতি বছর নোবেল পুরস্কারজয়ীদের ১০ লাখ ক্রৌন বা প্রায়

জনসন কোম্পানির ভ্যাকসিনের ট্রায়াল শুরু হয়েছে ৬০ হাজার স্বেচ্ছাসেবীর দেহে

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

image

যুক্তরাষ্ট্রের বৃহত্তম ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি ‘জনসন অ্যান্ড জনসন’ এর ভ্যাকসিনের ট্রায়াল শুরু হয়েছে