• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮

 

ইন্দোনেশিয়ায় সুনামিতে প্রাণহানি ১২০০ ছাড়াল

নিউজ আপলোড : ঢাকা , মঙ্গলবার, ০২ অক্টোবর ২০১৮

সংবাদ :
  • সংবাদ ডেস্ক
image

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দ্বীপরাষ্ট্র ইন্দোনেশিয়ায় শক্তিশালী ভূমিকম্প পরবর্তী সুনামিতে যেন ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে সুলাওয়েসি দ্বীপ। উদ্ধার কার্যক্রমে বেগ পেতে হচ্ছে উদ্ধারকারীদের। এদিকে নিহতের সংখ্যা ক্রমেই বেড়ে চলেছে। রোববার (৩০ সেপ্টেম্বর) রাষ্ট্রীয় কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে ১ হাজার মানুষের মৃত্যুর আশঙ্কা প্রকাশ করা হলেও সোমবার (১ অক্টোবর) পর্যন্ত বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের বরাতে জানা গেছে, মৃতের সংখ্যা কয়েক হাজারে গিয়ে পৌঁছতে পারে। সারি সারি মরদেহকে আপাতত গণকবর দেয়া হচ্ছে। যারা ভূমিকম্পের কবল থেকে বেঁচে যাওয়ারা, এবার ক্ষুধার যন্ত্রণায় মরিয়া হয়ে উঠেছেন। সড়ক-যোগাযোগ-বিদ্যুৎ ও টেলিফোন নেটওয়ার্কের পাশাপাশি ভেঙে পড়েছে দুর্গত অঞ্চলের সামগ্রিক প্রশাসনিক ব্যবস্থা। এমন পরিস্থিতিতে ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত কারাগার থেকে পালিয়ে যাচ্ছে বন্দীরা এবং দোকান থেকে যার যার মতো খাবার সংগ্রহ করে ক্ষুধা মেটানোর চেষ্টা করছে স্থানীয় বাসিন্দারা। অন্যদিকে ধ্বংসস্তূপের নিচে থাকা বিপন্ন মানুষের আহাজারিতে ভরে উঠেছে বিধ্বস্ত দেশটির আকাশ। এমন বাস্তবতায় আহত হয়ে হাসপাতালে থাকা বা ধ্বংসাবশেষের নিচে চাপা পড়ে থাকা মানুষদেরই উদ্ধারে প্রাধান্য দিচ্ছেন কর্তৃপক্ষ। এর পাশাপাশি দুর্গত মানুষের কাছে ত্রাণ পৌঁছে দেয়ার প্রচেষ্টাও অব্যাহত রয়েছে। তবে এখনও এ তৎপরতায় তেমন কোন অগ্রগতি লক্ষ্য করা যায়নি। তবে সোমবার পর্যন্ত পাঁচজন বিদেশি নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানা গেছে। তাদের মধ্যে তিনজন ফরাসি, একজন মালয়েশীয় ও একজন দক্ষিণ কোরীয় রয়েছেন। ইন্দোনেশীয় সরকার জানায়, এখনও পর্যন্ত ১১৪ জন বিদেশি নাগরিককে অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

বিশ্বের ১১তম বৃহত্তম দ্বীপ সুলাওয়েসি। ইন্দোনেশিয়ার বর্নিওর এ দ্বীপাঞ্চলটি বেশ কয়েকটি দীর্ঘ উপদ্বীপ নিয়ে গঠিত। গত শুক্রবার সেখানে ৭ দশমিক ৫ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হানে। এ কম্পনের পর এলাকাটিতে আছড়ে পড়ে প্রলয়ঙ্করী সুনামির সুউচ্চ ঢেউ। লন্ডভন্ড করে দেয় উপকূলীয় এলাকা। এদিনের কম্পন ও সুনামির পরদিন (শনিবার) উপকূলে সন্ধান মিলেছে বহু মরদেহের। এ প্রাকৃতিক দুর্যোগে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ৮৩২ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন দেশটির কর্মকর্তারা। কয়েক দফা ভূমিকম্প পরবর্তী পরাঘাতে (আফটার শক) বিভিন্ন ভবনের ধ্বংসাবশেষ আরও ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে ওঠায় উদ্ধারকারীরা ভারী যন্ত্রপাতির অপেক্ষায় রয়েছেন। আটকেপড়াদের আর্তনাদে সাড়া দিয়ে চলছে খাবার ও পানি পৌঁছে দেয়ার চেষ্টা। এদিকে দেশটির প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো বলেছেন, দুর্যোগে আন্তর্জাতিক ত্রাণ গ্রহণ গত রাতে অনুমোদন করেছে তার দেশ। সুলাওয়েসি প্রদেশে ১৪ দিনের জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। ধ্বংসস্তূপ সরাতে প্রয়োজনীয় ভারী যন্ত্রপাতি এখনও দুর্গত এলাকায় পৌঁছায়নি। ফলে উদ্ধার তৎপরতা চালাতে এখনও উদ্ধারকারীদের হাত-পায়ের ওপর ভরসা করতে হচ্ছে। পালুর রোয়া রোয়া হোটেলের ধ্বংসস্তূপে আটকে পড়া ৫০ জনেরও বেশি মানুষকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। সোমবার সকালেও ধ্বংসস্তূপের ভেতর থেকে মানুষের আর্তনাদ শোনা গেছে।

সুলাওয়েসি প্রদেশের রাজধানী পালু শহরে ৩ লাখ ৫০ হাজার মানুষের বসবাস। এ প্রদেশের বেশ কয়েকটি উপজেলা ও গ্রাম সুনামির ফলে সৃষ্ট ভূমিধসে মাটির নিচে চলে গেছে। ভূমিকম্পের দুই দিন পেরিয়ে গেলেও এখনও পালুর ধ্বংসস্তূপের মাঝে বসে ত্রাণ ও খাবারের অপেক্ষায় সময় কাটাচ্ছেন ক্ষতিগ্রস্তরা। তবে ত্রাণ যথাসময়ে না পৌঁছানোয় অনেকে নিজেরাই শপিং মলগুলোতে ঢুকে ট্রলিতে করে খাবার ও পানি লুট করে নিয়ে আসছে। আটকেপড়া রাস্তা, ক্ষতিগ্রস্ত বিমানবন্দর এবং ভেঙে পড়া টেলিযোগাযোগ দুর্গত এলাকায় সাহায্য পৌঁছানো কঠিন করে তুলেছে। সুনামির কারণে সৃষ্ট প্রাণঘাতী ভূমিধসের কারণে দক্ষিণ পালুর পেতোবো উপজেলায় দুই হাজার মানুষের মৃত্যুর আশঙ্কা করা হচ্ছে। ভূমিধস তাদের বাড়িঘর পুরোপুরি ধুয়ে নিয়ে গেছে। স্থানীয় এক বাসিন্দা জাকার্তা পোস্টকে বলেছেন, ঢেউয়ের মতো এগিয়ে আসছিল ভূমিধস। পশ্চিম পালুর আরেক উপজেলাও মাটির নিচে ডুবে গেছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ধ্বংসস্তূপের ভেতরে শিশুদের আর্তনাদ
ভূমিকম্প ও সুনামিকবলিত পালু শহরের একটি হোটেলের ধ্বংসস্তূপের নিচে আটকা পড়ে রয়েছেন অনেকে। রোববার মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনের খবরে উদ্ধারকারীদের বরাতে রোয়া রোয়া নামের হোটেলটিতে ২৪ জন আটকে পড়ার কথা বলা হলেও পরে ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপিকে এক স্বেচ্ছাসেবী উদ্ধারকারী বলেছেন, এখনও সেখানে ৫০ জনের বেশি মানুষ আটকে রয়েছেন। ধ্বংসস্তূপের ভেতর থেকে শিশুসহ বহু মানুষের আর্তনাদ ভেসে আসছে বলে জানিয়েছেন তিনি। ঘটনাস্থল থেকে তিনজনকে উদ্ধার করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন ওই উদ্ধারকারী। কেন্দ্রীয় সুলাওয়েসি উপকূল থেকে দূরবর্তী দ্বীপ দঙ্গালার রাজধানী বানাওয়া। ৩ লাখেরও বেশি মানুষের বাস। সেখানে এখনও উদ্ধার তৎপরতা শুরু করতে পারেনি উদ্ধারকারীরা। ধ্বংসস্তূপের মধ্য থেকে বেঁচে থাকার মতো উপকরণ সংগ্রহের চেষ্টায় রয়েছে সেখানকার বাসিন্দারা।

সুনামি সতর্কতা প্রত্যাহার করে সমালোচনার মুখে ভূতাত্ত্বিক সংস্থা বিএমকেজি : শুক্রবার দেশটির সুলাওয়েসি দ্বীপে ৭ দশমিক ৫ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। এদিন শক্তিশালী এ ভূমিকম্প অনুভূত হওয়ার পর সুনামি সতর্কতা জারি করা হলেও ৩৪ মিনিট পরই তা প্রত্যাহার করে নেয়া হয়। তবে, ভূতাত্ত্বিক সংস্থাটির আভাসকে ভুল প্রমাণ করে সেখানে কম্পনের পর আছড়ে পড়ে প্রলয়ঙ্করী সুনামির ঢেউ। সুউচ্চ ঢেউ লন্ডভন্ড করে দেয় উপকূলীয় এলাকা। সেদিন ইন্দোনেশিয়ার উপকূলে আছড়ে পড়েছিল ভয়াবহ সুনামি। বিশাল ও সুউচ্চ ঢেউয়ের তোড়ে ভেসে গেছে মানুষ, বিলীন হয়েছে ঘরবাড়ি। ভূমিকম্প ও সুনামিতে ইতোমধ্যেই আট শতাধিক প্রাণহানির খবর নিশ্চিত করেছে কর্তৃপক্ষ। প্রাণহানির সংখ্যা ১২শ ছাড়িয়ে গেছে বলে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম ডেইলি মেইল জানিয়েছে এবং এ সংখ্যাও ছাড়িয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। ওই দিন সুনামি সতর্কতা দিয়ে তা প্রত্যাহার করে নেয়ায় ব্যাপক ক্ষোভের মুখে রয়েছে ইন্দোনেশিয়ার ভূতাত্ত্বিক সংস্থা (বিএমকেজি)। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ নিয়ে তুমুল সমালোচনা চলছে। তবে বিএমকেজির দাবি, পালুর কাছাকাছি জোয়ার পরিমাপক যন্ত্র না থাকায় যথাযথভাবে ঢেউয়ের উচ্চতা নির্ণয় করা যায়নি। দূরের একটি যন্ত্রের ওপর নির্ভর করতে হয়েছে তাদের। সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনের বরাতে এ তথ্য জানা গেছে।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে এর মুখপাত্র সুতোপো পুরও নুগরোহো জানিয়েছেন, এখনও অনেক মরদেহ উদ্ধার করা যায়নি। শুক্রবার একটি উৎসবে যোগ দিতে কয়েকশ মানুষ পালুর সমুদ্র সৈকতে জড়ো হন। সুনামি সতর্কতা প্রত্যাহার করে নেয়ায় অনেকে নিরাপদে সরে যাননি। সুনামির সময় ছয় মিটার উচ্চতার ঢেউ এসে তাদের অনেককে ভাসিয়ে নিয়ে যায়।এ নিয়ে ব্যাপক ক্ষোভের মুখে রয়েছে ইন্দোনেশিয়ার ভূতাত্ত্বিক সংস্থা বিএমকেজি। সুনামি সতর্কতা প্রত্যাহার করে নেয়ায় এবং সময়মতো তথ্য সরবরাহ করতে না পারায় সংস্থার বিরুদ্ধে সমালোচনা চলছে। জানোগুসি নামের এক টুইটার ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘খুব হতাশাজনক সুনামির হুমকি সত্ত্বেও সতর্কতা প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছিল।’ সংস্থা বলছে, তারা যথাযথ মানদ- অনুসরণ করেই সতর্কতা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছিল। পালু থেকে ২০০ কিলোমিটার দূরের টাইডাল সেন্সর থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে সতর্কতা প্রত্যাহার করা হয়। ভূমিকম্প ও সুনামি ব্যবস্থাপনা কেন্দ্র বিএমকেজি’র প্রধান রহমত ত্রিয়োনো বলেন, ‘পালুতে আমাদের কোন পর্যবেক্ষণ ডাটা নেই। সে কারণে আমাদের হাতে পাওয়া ডাটার ভিত্তিতেই সিদ্ধান্ত নিতে হয়। আর এর ওপর ভিত্তি করেই আমরা সুনামি সতর্কতা প্রত্যাহার করেছিলাম।’ তিনি জানান, জোয়ার মাপক যন্ত্র দিয়ে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা মাপা হয় এবং এটি কেবল ৬ সে.মি উচ্চতার ঢেউ রেকর্ড করতে পেরেছে, পালুর কাছের বিশাল বিশাল ঢেউগুলো মাপতে পারেনি। তিনি আরও বলেন, ‘পালুতে আমাদের যদি সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা পরিমাক যন্ত্র থাকতো কিংবা সেখানকার যথাযথ তথ্য পাওয়ার কোন উৎস থাকতো তবে পরিস্থিতি অপেক্ষাকৃত ভালো হতে পারতো।’ তবে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতত্ত্ববিষয়ক গবেষক ব্যাপটিস্টে গোম্বার্ট বলেন, এ ভূমিকম্পের কারণে সুনামি হয়েছে, এটা ‘বিস্ময়কর’। ইন্দোনেশিয়ার দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের মুখপাত্র সুতোপো পুরবো নুগরোহো সাংবাদিকদের বলেন, ‘মানুষের কাছে সহজবোধ্য করে সতর্কবার্তাটি প্রচার করার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন তারা। কিন্তু তার আগেই ‘সুনামি সতর্কতা আচমকা’ তুলে নেয়া হয়।

অন্যদিকে পালুতে যে পরিমাণ মরদেহের স্তূপ তৈরি হচ্ছে তার সৎকার নিয়েই হিমশিম খাচ্ছেন স্থানীয় সরকারি কর্মকর্তারা। দেশটির দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের মুখপাত্র সুতোপো পুরও নুগরোহো রোববার রাতে আপাতভাবে মরদেহগুলোকে গণকবরে মাটি চাপা দেয়ার কথা জানান। তিনি জানান পরে ওই মরদেহগুলোকে ভালোভাবে সৎকার করা হবে। তিনি সোমবার সকালে টুইটারে পাবোয়া কবরস্থান পরিদর্শনের ছবি পোস্ট করেন। ওই কবরস্থানের মৃতদেহ মাটিচাপা দেয়ার কাজ শুরু হবে। তিনি বলেন, জনস্বাস্থ্যের কথা বিবেচনা করে দ্রুত গতিতে মাটি চাপা দেয়ার কাজ শুরু হবে। মৃতদেহগুলো গণকবর দেয়ার জন্য পালুতে ১০০ মিটার দীর্ঘ ও ১০ মিটার প্রস্থের একটি গণকবর খোঁড়ার কথা বলেছেন তিনি। সেখানে ৩০০টি মরদেহ মাটি চাপা দেয়া হবে। তবে প্রয়োজন পড়লে গণকবরের আয়তন আরও বাড়ানো হবে।

এদিকে পরিস্থিতি মোকাবিলায় আন্তর্জাতিক ত্রাণ ও সহায়তা অনুরোধ জানিয়েছেন ইন্দোনেশীয় প্রেসিডেন্ট। ইতোমধ্যে এগিয়ে এসেছে বিশ্ব সম্প্রদায়। ইউরোপীয় ইউনিয়ন ১৭ লাখ ডলার ও দক্ষিণ কোরিয়া ১০ লাখ ডলার অর্থ সহায়তার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। তবে ইন্দোনেশিয়াকে কিভাবে সহায়তা করা যায় সে বিষয়টি খতিয়ে দেখছে অস্ট্রেলীয় সরকার। রোববার উদ্ধার কার্যক্রম সম্পর্কে দেশটির প্রেসিডেন্ট উইদোদো বলেন, আমি আশাকরি, জনগণ ধৈর্যধারণ করবে। আমরা মিলেমিশে কাজ করছি। দেশটির জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংস্থা বিএনপিবি বলছে, ভূমিকম্প ও সুনামির কারণে ১৬ হাজারের বেশি মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। কিন্তু দঙ্গলা ও পালু শহরে মানবিক সহায়তার প্রয়োজন পড়বে ২৪ লাখ মানুষের। একই দিন দেশটির রাজধানী জার্কাতায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংস্থার মুখপাত্র সুতোপো পুরওহো বলেন, জ্বালানি, সুপেয় পানি, চিকিৎসা সহায়তা, তাঁবু, বৈদ্যুতিক ব্যবস্থা, খাদ্য ও অন্য প্রয়োজনীয় জিনিস সরবারহ খুব জরুরি হয়ে দাঁড়িয়েছে। ভূমিকম্প ও সুনামির কবলিত সুলয়াওয়েসির কারাগার থেকে ১২০০ আসামি পালিয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন ইন্দোনেশীয় আইন মন্ত্রণালয়।

খাশোগি হত্যাকাণ্ড : সন্দেহভাজন খুনিদের হস্তান্তরের তুর্কি দাবি প্রত্যাখ্যান সৌদির

সংবাদ ডেস্ক

image

ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে নৃশংস হত্যাকাণ্ডের শিকার সাংবাদিক জামাল খাশোগির হত্যার

সহিংস বিক্ষোভ : ‘জাতীয় ঐক্য’র আহ্বান ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রীর

সংবাদ ডেস্ক

image

তুমুল বিক্ষোভ-সহিংসতার মুখে ‘জাতীয় ঐক্য পুনঃপ্রতিষ্ঠা’র আহ্বান জানিয়েছেন ফরাসি

খাশোগি হত্যাকাণ্ড : মার্কিন সিনেটরদের ব্রিফ করলেন তুরস্কের গোয়েন্দা প্রধান

সংবাদ ডেস্ক

image

সৌদির স্বেচ্ছানির্বাসিত সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ড নিয়ে মার্কিন সিনেটরদের ব্রিফ

sangbad ad

বিদেশি শ্রমিক নিতে জাপানের পার্লামেন্টে আইন পাস

সংবাদ ডেস্ক

image

শ্রমিকের ঘাটতি নিরসনে কয়েকে হাজার বিদেশি শ্রমিক নেবে জাপান। বিদেশি শ্রমিকদের

জাতিসংঘে হামাসবিরোধী মার্কিন নিন্দা প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান

সংবাদ ডেস্ক

image

ইসরায়েল অধিকৃত গাজা নিয়ন্ত্রণকারী প্যালেস্টাইনি রাজনৈতিক সংগঠন হামাসকে নিন্দা

ইরানের বোমা বিস্ফোরণ : নিহত ২ আহত ২৮

সংবাদ ডেস্ক

image

ইরানের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় বন্দরনগরী চবাহারে পুলিশ সদর দফতরের কাছে একটি শক্তিশালী

খাশোগি হত্যাকাণ্ড : যুবরাজ সালমানকে দায়ী করে মার্কিন সিনেটে বিল উত্থাপন

সংবাদ ডেস্ক

image

সৌদির নির্বাসিত সাংবাদিক জামাল খাশোগির বহুল আলোচিত হত্যাকাণ্ড দেশটির যুবরাজ

ভারত মহাসাগরে চীনের জোরালো তৎপরতা : নয়াদিল্লির উদ্বেগ

সংবাদ ডেস্ক

image

পাকিস্তানে করিডর নির্মাণ শেষে মায়ানমারের বন্দর তৈরি করতে যাচ্ছে চীন। ভারতকে

ফ্রান্সে জ্বালানি তেলের বাড়তি কর স্থগিত

সংবাদ ডেস্ক

image

কয়েক সপ্তাহ ধরে চলা তুমুল আন্দোলনের মুখে জ্বালানি তেলের ওপর বাড়তি করারোপের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে ফরাসি সরকার। এদিকে ব্যাপক

sangbad ad