• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , মঙ্গলবার, ০২ জুন ২০২০

 

মাদুরোকে সরাতে ব্যর্থ গুইদো!

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ০২ মে ২০১৯

সংবাদ :
  • সংবাদ ডেস্ক
image

ভেনিজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোকে উৎখাতের দাবিতে কারাকাসে বিক্ষোভ করেছে দেশটির স্বঘোষিত প্রেসিডেন্ট হুয়ান গুইদোর সমর্থকরা। এ সময় মাদুরো সমর্থিত সামরিক বাহিনীর সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে কমপক্ষে ১শ’ জন আহত হয়-বিবিসি

ভেনিজুয়েলার স্বঘোষিত অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট হুয়ান গুইদোর বুধবারের ডাকা বিক্ষোভ সত্ত্বেও মাদুরো প্রশাসনের প্রতি দেশটির সামরিক বাহিনী তাদের সমর্থন এখনো ধরে রেখেছে। এবার সাধারণ ধর্মঘটের দাবিতে সমর্থন জানিয়ে আরও চাপ সৃষ্টি করতে চান গুইদো।

মঙ্গলবার রাজপথে নেমে দেশটির প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোকে ক্ষমতাচ্যুত করার চেষ্টায় ব্যর্থ হন স্বঘোষিত প্রেসিডেন্ট গুইদো। সামরিক বাহিনীর উদ্দেশ্যে তিনি মাদুরোর প্রতি আনুগত্য ত্যাগের আহ্বান জানালেও হাতে গোনা কয়েকজন সৈন্য ছাড়া কেউ তাতে সাড়া দেয়নি। মহান মে দিবস উপলক্ষে ১ মে বুধবার আবারও মাদুরোবিরোধী বিক্ষোভ আয়োজন করেন গুইদো। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তিনি দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় সমাবেশের ডাক দেন। এক টুইটবার্তায় তিনি দাবি করেন, ‘ভেনিজুয়েলার লাখ লাখ মানুষ’ পথে নেমেছিলেন। কিন্তু বাস্তবে দুপুরের মধ্যেই বেশিরভাগ বিক্ষোভকারী ঘরে ফিরে যান। এদিন সরকারি বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে এক বিক্ষোভকারী নিহত ও শতাধিক আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। এমন প্রেক্ষাপটে প্রবল চাপ সত্ত্বেও মাদুরো আপাতত ক্ষমতায় টিকে রয়েছেন। রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানগুলোর উপর এখনো তার কর্তৃত্ব বহাল রয়েছে। সামরিকবাহিনীর মধ্যেও কোনো বিদ্রোহের লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। এমন পরিস্থিতিতেও হাল ছাড়তে প্রস্তুত নন গুইদো। প্রায় ৩ মাস ধরে প্রচেষ্টা চালিয়ে আন্তর্জাতিক মঞ্চে যথেষ্ট সমর্থন আদায় করতে পারলেও মাদুরোকে ক্ষমতাচ্যুত করতে পারেননি দেশটির বিরোধী এ নেতা। এবার মাদুরোর সমর্থক বলে পরিচিত শ্রমজীবী মানুষের দাবি মেনে তিনি একাধিক ধর্মঘট ও দেশজুড়ে সাধারণ ধর্মঘটের প্রতি সমর্থন জানাতে পারেন। দেশের অর্থনীতি ও নাগরিক পরিষেবার বিপর্যস্ত অবস্থার কারণে সাধারণ মানুষের ভোগান্তির শেষ নেই। শেষ পর্যন্ত তাদের সমর্থন পেলে গুইদো আরো শক্তিশালী হয়ে উঠতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এদিকে মাদুরোকে কেন্দ্র করে ওয়াশিংটন ও মস্কোর মধ্যে উত্তেজনা ক্রমেই বেড়ে চলেছে। ওয়াশিংটন গুইদোকে ভেনিজুয়েলার প্রেসিডেন্ট হিসেবে স্বীকৃতি দিলেও মস্কো মাদুরোকে মদত দিয়ে চলেছে। এ দুই দেশ পরস্পরের বিরুদ্ধে ভেনিজুয়েলার অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপের অভিযোগ করছে। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও ভেনিজুয়েলায় প্রয়োজনে সামরিক হস্তক্ষেপের সম্ভাবনাও বাদ দিচ্ছেন না । তবে মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এখনই কোনো প্রস্তুতির সম্ভাবনা প্রত্যাখান করেছে। রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ বুধবার পম্পেওকে সতর্ক করে বলেছেন, ভেনিজুয়েলায় ওয়াশিংটন আরো আগ্রাসী পদক্ষেপ নিলে তার পরিণতি ভালো হবে না।

অপরদিকে মাদুরো প্রশাসনের অন্যতম মদতকারী দেশ কিউবা আবারও জানিয়েছে, ভেনিজুয়েলায় তার দেশের কোনো সৈন্য পাঠানো হয়নি। মার্কিন প্রশাসন কিউবার উদ্দেশ্যে সেনা প্রত্যাহারের ডাক দেবার পর দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, যুক্তকরাষ্ট্রও জানে যে, ভেনিজুয়েলায় কিউবার ২০ হাজার সৈন্য মোতায়ন করা হয়নি। মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বল্টনকে কিউবা ‘ধারাবাহিক মিথ্যাবাদী’ হিসেবে বর্ণনা করেছে। রয়টার্স।

ভেনিজুয়েলায় সামরিক হস্তক্ষেপের আভাস যুক্তরাষ্ট্রের

ভেনিজুয়েলায় চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতায় সামরিক হস্তক্ষেপের আভাস দিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। কারাকাস ইস্যুতে বুধবার রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভের সঙ্গেও আলোচনা করেছেন তিনি। মঙ্গলবার এক ভিডিও বার্তায় আকস্মিক অভ্যুত্থানের ঘোষণা দেন ভেনিজুয়েলার স্বঘষোতি অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট হুয়ান গুইদো। ভিডিওতে তার সঙ্গে বেশ কয়েকজন সামরিক সদস্যকেও দেখা যায়। এ অভ্যুত্থানে সমর্থন জানায় ওয়াশিংটন। এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার ওই অভ্যুত্থান প্রচেষ্টা নস্যাতের দাবি করেন দেশটির বর্তমান প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো। তিনি বলেন, ভেনিজুয়েলা কখনোই সাম্রাজ্যবাদী শক্তির কাছে নত করবে না। এমন রাজনৈতিক টানাপোড়েনের মধ্যেই মার্কিন সংবাদমাধ্যম ফক্স বিজনেস নেটওয়ার্ককে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেন, প্রেসিডেন্ট (ট্রাম্প) এ বিষয়ে অত্যন্ত স্বচ্ছ ও অটল রয়েছেন। সামরিক পদক্ষেপের সম্ভাবনা রয়েছে। যদি তার দরকার হয় তাহলে যুক্তরাষ্ট্র তা করবে। এর আগে এক টেলিভিশন সাক্ষাৎকারে মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বল্টন জানান, ভেনিজুয়েলা পরিস্থিতি নিয়ে রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করেছেন মাইক পম্পেও। মাদুরোর পরিকল্পনায় রাশিয়ার সম্পৃক্ততা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র কতটুকু জানে তা পরিষ্কার না করলেও বল্টন বলেন, কারাকাসে মস্কোর হস্তক্ষেপকে স্বাগত জানাবে না যুক্তরাষ্ট্র।

ইউরোপ সফর বাতিল মার্কিন প্রতিরক্ষা প্রধানের

এদিকে ভেনিজুয়েলা ইস্যুতে পূর্ব নির্ধারিত ইউরোপ সফর বাতিল করেছেন মার্কিন ভারপ্রাপ্ত প্রতিরক্ষামন্ত্রী প্যাট্রিক শানান। কারাকাসের বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া সহজ করতেই এ সময়ে তিনি ওয়াশিংটনে অবস্থান করবেন বলে মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতরের পক্ষ থেকে বুধবার নিশ্চিত করা হয়। এদিন মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগের সদর দফতর পেন্টাগনের মুখপাত্র এরিক পাহন বলেন, ভেনিজুয়েলা ইস্যুতে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আরও কার্যকর সমন্বয়ের উদ্দেশ্যে ভারপ্রাপ্ত প্রতিরক্ষামন্ত্রী এ সময়ে দেশেই অবস্থান করবেন। জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিল ও পররাষ্ট্র দফতরের সঙ্গে তিনি এ সংক্রান্ত বিষয়ে আলাপ-আলোচনা করবেন। এছাড়াও দক্ষিণ সীমান্ত নিয়েও কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলবেন তিনি। এক প্রতিবেদনের বরাতে এ তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম আনদোলু এজেন্সি।

ব্রাজিলের দূতাবাসে আশ্রয় প্রার্থনা ২৫ ভেনিজুয়েলান সেনার

অপরদিকে ভেনিজুয়েলার কমপক্ষে ২৫ সৈন্য কারাকাসে অবস্থিত ব্রাজিলের দূতাবাসে আশ্রয় চেয়েছে বলে দাবি করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট জেইর বোলসোনারোর মুখপাত্র। তার দাবি, দূতাবাসে আশ্রয় চেয়ে যারা আবেদন করেছে তাদের মধ্যে সেনা সদস্য ও লেফটেন্যান্ট রয়েছে। একাধিক টুইটবার্তায় প্রেসিডেন্ট বোলসোনারো বলেন, ‘ব্রাজিল ভেনিজুয়েলার জনগণ, প্রেসিডেন্ট হুয়ান গুইদো ও ভেনিজুয়েলার নাগরিকদের মুক্তির পক্ষে রয়েছে। প্রকৃত গণতন্ত্র চূড়ান্তভাবে রক্ষায় বন্ধুপ্রতিম এ দেশের প্রতি আমাদের সমর্থন রয়েছে।’ প্রেসিডেন্টের অনুসরণ করে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী আনেস্তো আরাইজো ভেনিজুয়েলার ‘গণতান্ত্রিক পরিবর্তনে’ ব্রাজিলের সমর্থনের কথা পুনর্ব্যক্ত করেন এবং তার প্রত্যাশাÑভেনিজুয়েলার সামরিক বাহিনী এ প্রক্রিয়ায় অংশ নেবে। ভেনিজুয়েলার অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ৫০টিরও বেশি দেশ গুয়াইদোকে স্বীকৃতি দিয়েছে। এসব দেশের মধ্যে ব্রাজিলও রয়েছে।

বিক্ষোভের সময় স্ত্রী-পুত্রকে নিয়ে বাঙ্কারে লুকিয়েছিলেন ট্রাম্প!

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

কৃষ্ণাঙ্গ হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভে উত্তাল যুক্তরাষ্ট্র। বিক্ষোভকারীরা শুক্রবার (২৯ মে) রাতে হোয়াইট হাউজের বাইরেও জড়ো হন। এ সময় প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে হোয়াইট হাউজের আন্ডারগ্রাউন্ড বাঙ্কারে নিয়ে যাওয়া হয়।

বিশ্বে করোনায় মৃত্যু ৩ লাখ ৭৩ হাজার

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা প্রতিদিনই বাড়ছে। গত ডিসেম্বরের শেষে চীনের উহানে শুরু হওয়া করোনার সংক্রমণ বিশ্বের ২১৫টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে।

কারফিউ ভেঙে যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিবাদ বিক্ষোভ

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে জুড়ে কৃষ্ণাঙ্গ খুনের প্রতিবাদ-বিক্ষোভ বিক্ষোভ আরও বেড়েছে। টিভি সংবাদমাধ্যম

sangbad ad

বিক্ষোভে উত্তাল যুক্তরাষ্ট্রে সেনা মোতায়েন

সংবাদ ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের মিনেপোলিস শহরে পুলিশের হেফাজতে জর্জ ফ্লয়েড নামের এক কৃষ্ণাঙ্গ আমেরিকান নাগরিকের মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদে টানা চতুর্থ দিনের বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছে যুক্তরাষ্ট্র। শনিবার ডেট্রয়েটসহ দেশটির বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যের রাস্তায় এ বিক্ষোভ সহিংস আকার ধারণ করে। এসময়

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্নের ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) সঙ্গে তার দেশের সম্পর্কের ইতি টানার ঘোষণা দিয়েছেন। ট্রাম্প ঘোষণা দিলেও ডব্লিউএইচও’র সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কচ্ছেদ কবে থেকে কার্যকর হচ্ছে, তা স্পষ্ট হওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। তবে ট্রাম্পের এ ঘোষণা নিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

করোনা চিকিৎসায় ‘প্লাজমা থেরাপি’ ‘রেমডেসিভির’ ব্যবহারে ডব্লিউএইচওর না

অনলাইন বার্তা পরিবেশক,

image

করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) চিকিৎসায় প্লাজমা থেরাপি ব্যবহার না করার পরামর্শ দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। পাশাপাশি ‘রেমডেসিভির’সহ অন্যান্য অ্যান্টিভাইরালও ব্যবহার না করার সুপারিশ করেছে সংস্থাটি।

বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত ৬০ লাখ ছাড়াল

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা প্রতিদিনই বাড়ছে। গত ডিসেম্বরের শেষে চীনের উহানে শুরু হওয়া করোনার সংক্রমণ বিশ্বের ২১৫টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে।

করোনা বস্তু থেকে সহজে ছড়ায় না : সিডিসি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

কোনো বস্তু বা পৃষ্ঠতল থেকে করোনাভাইরাস সহজে ছড়ায় না, বরং মূলত মানুষ থেকে মানুষেই রোগটি ছড়াচ্ছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল এন্ড প্রিভেনশন (সিডিসি)।

লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশি শ্রমিক হত্যা

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশিসহ ৩০ অভিবাসী শ্রমিককে গুলি করে হত্যা করেছে মানবপাচারকারী চক্রের এক সদস্যের পরিবারের লোকজন। নিহত বাকি চারজন আফ্রিকান। এছাড়া আরো ১১ জন গুরুতর আহত হয়েছেন। আন্তর্জাতিক স্বীকৃতিপ্রাপ্ত লিবিয়ার সরকার (জিএনএ) বৃহস্পতিবার এই তথ্য জানিয়েছেন।

sangbad ad