• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮৬৯ কোটি টাকার বাজেটে গবেষণায় বরাদ্দ মাত্র ১ শতাংশ

বেতন-ভাতায়ই বরাদ্দ ৭০ শতাংশ

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২৩ জুলাই ২০২০

সংবাদ :
  • প্রতিনিধি, ঢাবি
image

২০২০-২১ অর্থবছরের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ৮৬৯ কোটি ৫৬ লাখ টাকার বাজেট পেশ করা হয়েছে, যা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় প্রস্তাবিত বাজেট। দুই উপ-উপাচার্য ও কোষাধ্যক্ষসহ প্রশাসনের শীর্ষ কয়েকজনের বয়কটের কারণে আটকে থাকা মুলতবিকৃত বার্ষিক সিনেট অধিবেশন বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হয়। বিকেল সাড়ে ৩টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনের মূল মিলনায়তনে পুরনো বিবেদ ভুলে সবাই যোগ দিলেও কিছুটা দূরত্ব দৃশ্যমানই ছিল। এদিন কোষাধ্যক্ষপদ শূন্য থাকায় উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসেবে বাজেট উপস্থাপন করেন। সিনেটের চেয়ারম্যান ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে সিনেট অধিবেশনে উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল।

এর আগে গত ১৪ জুন অনুষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটের বার্ষিক অধিবেশনে ২০২০-২০২১ অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপন করা হয়নি। বাজেট উপস্থাপন ও বিবেচনার জন্য সিনেটের এই অধিবেশন ২৩ জুলাই বিকেল সাড়ে ৩টা পর্যন্ত মুলতবি করা হয়। গতকাল অধিবেশনে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষের মেয়াদ পূর্ণ হওয়ায় উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ তাঁর পক্ষে বক্তব্য উপস্থাপন করেন। করোনা পরিস্থিতিতে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে যথাসম্ভব সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য অনুষ্ঠিত হয় এই অধিবেশন।

সিনেট অধিবেশনে বিশ্ববিদ্যালয়ের চলতি অর্থবছরের জন্য ৮৬৯ কোটি ৫৬ লাখ টাকার বাজেট পাশ হয়। বাজেটে আয় হিসেবে ধরা হয়েছে ৮১৯ কোটি ৬ লাখ টাকা। যা ঘোষিত বাজেটের ৯৪ দশমিক ১৯ শতাংশ। এর মধ্যে ৮৬ দশমিক ০৩ শতাংশ আসবে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) থেকে। টাকার অঙ্কে ৭৪৮ কোটি ৬ লাখ টাকা। আর ৮ দশমিক ১৭ শতাংশ বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব আয়। এক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের ফি, ভর্তি ফরম বিক্রি, বেতন-ভাতা, সম্পত্তিসহ নিজস্ব খাত থেকে ৭১ কোটি টাকা আয় দেখানো হচ্ছে। ঘাটতি থাকবে ৫০ কোটি ৫০ লাখ টাকা৷ এর আগে ফিন্যান্স কমিটির সভা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী সভা সিন্ডিকেটে বাজেট অনুমোদন পায়।

প্রস্তাবিত বাজেট বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, এবারও দুই-তৃতীয়াংশের বেশি ব্যয় হবে শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা ও পেনশন বাবদ। অন্যদিকে ব্যয় বৃদ্ধি পেলেও বরাবরের মতোই উপেক্ষিত গবেষণা খাত।

এই বাজেটে গবেষণার জন্য বরাদ্দ রাখা হয়েছে ৯ কোটি ৫০ লাখ টাকা; যা মোট বাজেটের ১.০৯ শতাংশ। গত বছর গবেষণা খাতে বরাদ্দ রাখা হয়েছিল ১৬ কোটি ৮৬ লাখ টাকা; যা ছিল মোট বাজেটের ২.১ শতাংশ। যদিও সিনেট অধিবেশনে বেশ কয়েকজন সদস্যই গবেষণাখাতে বরাদ্দ বাড়ানোর ব্যাপারে পরামর্শ রেখেছেন।

গতকাল পাশ হওয়া বাজেট পর্যালোচনা করে দেখা যায়, ৭০ শতাংশই বরাদ্দ হয়েছে শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা বাবদ। এর মধ্যে বেতন বাবদ ব্যয় হবে ২৬৭ কোটি টাকা, যেটি মূল বাজেটের ৩০ দশমিক ৭১ শতাংশ। এর মধ্যে শিক্ষক-কর্মকর্তাদের বেতনই ২৩ দশমিক ২৩ শতাংশ। এছাড়াও ভাতাদি বাবদ ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে ২১৫ কোটি ৭৭ লাখ টাকা। যা মোট বাজেটের ২৪ দশমিক ৮১ শতাংশ। এ খাতে দায়িত্বভার ভাতা ১ কোটি ৮০ লাখ টাকা, যাতায়াত ভাতা ১ কোটি ৩০ লাখ টাকা, শিক্ষা সহায়ক ভাতা ৩ কোটি ১০ লাখ টাকা, বাড়ি ভাড়া বাবদ ১১৮ কোটি ৭১ লাখ টাকা, চিকিৎসা ভাতা ১২ কোটি টাকা, মোবাইল ফোন ভাতা ৮৫ লাখ টাকা, আবাসিক টেলিফোন নগদায়ন ৩ কোটি টাকা, টিফিন ভাতা ৭৮ লাখ টাকা, ধোলাই ভাতা ৩২ লাখ টাকা, উৎসব ভাতা ৪৫ কোটি টাকা, অতিরিক্ত কাজের ভাতা ৫ কোটি ৮৬ লাখ টাকা, বিনোদন ভাতা ৯ কোটি টাকা, বাংলা নববর্ষ ভাতা ৪ কোটি ৫০ লাখ টাকা এবং বিশেষ ভাতা ১৯ কোটি ৫৫ লাখ টাকা। এদিকে, বাজেটের ১৪ দশমিক ৩৮ শতাংশ ব্যয় হবে পেনশন ও অবসর সুবিধা হিসেবে। যা টাকার অঙ্কে ১২৫ কোটি টাকা।

বাজেটে সরবরাহ ও সেবা বাবদ ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে ১৯৮ কোটি ৪ লাখ টাকা। যা মূল বাজেটের ২২ দশমিক ৭৭ শতাংশ। অন্যান্য অনুদান হিসেবে ব্যয় হবে ২৩ কোটি ৫০ লাখ ৫০ হাজার টাকা। আর মূলধন অনুদানের জন্য বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ৩০ কোটি ৬১ লাখ ৬৫ হাজার টাকা। এদিন দায়িত্বপ্রাপ্ত কোষাধ্যক্ষ গত ২০১৯-২০ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটও পেশ করেন। যেখানে গেল অর্থবছরে ৮১০ কোটি ৪২ লাখ টাকা থেকে বেড়ে ৮৪৫ কোটি ১৫ লাখ টাকা ব্যয় দেখানো হয়।

এদিকে বাজেটের মুখবন্ধে করোনা মহামারির কারণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস বন্ধ থাকায় আর্থিক তথ্যাদি পুরোপুরি সংগ্রহ করা সম্ভব হয়নি বলে জানিয়েছেন দায়িত্বপ্রাপ্ত কোষাধ্যক্ষ ও উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ ৷ তিনি বলেন, অনেক ক্ষেত্রে অনুমাননির্ভর তথ্যের ভিত্তিতে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে৷ কোথাও কোনো বরাদ্দ সমন্বয় করার প্রয়োজন হলে বা কোন তথ্যের প্রয়োজন হলে ২০২০-২১ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটে সমন্বয় ও সংযোজন করা হবে।

অনলাইন ক্লাস যাচাই করতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আকস্মিক পরিদর্শনের নির্দেশ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

করোনার কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অনলাইলে ক্লাসের নির্দেশ দেয়া আছে। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে (স্কুল ও কলেজ) নিয়মিত অনলাইন ক্লাস হচ্ছে কিনা তা যাচাইয়ে শিক্ষা কর্মকর্তাদের আকস্মিক পরিদর্শনের নির্দেশ দিয়েছেন মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক। একইসঙ্গে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের আওতাধীন শিক্ষা অফিস আকস্মিকভাবে পরিদর্শনেরও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক স্বাক্ষরিত আদেশে এই নির্দেশনা দেওয়া হয়।

জাবির মেডিকেলে নাভানার দুইিট অক্সিেজন ভেন্টিলেটর জাবি বিসিএস ফোরামের উদ্যোগ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় বিসিএস অফিসার্স ফোরামের উদ্যোগে ও নাভানা গ্রুপের সৌজন্যে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

এইচএসসি পরীক্ষা কবে, জানা যাবে ২৪ সেপ্টেম্বর

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

স্থগিত থাকা এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা কবে, কীভাবে নেওয়া হবে সে বিষয়ে

sangbad ad

করোনা উপসর্গ নিয়ে জাবি অধ্যাপকের মৃত্যু

প্রতিনিধি, জাবি

image

করোনা উপসর্গ নিয়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক মো. মনজুরুল করিমের মৃত্যু

কলেজে ভর্তি শুরু

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

একাদশ শ্রেণিতে সুযোগ পাওয়া শিক্ষার্থীদের কলেজে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। রোববার শুরু

শ্রেণী কার্যক্রম ও পরীক্ষা ব্যবস্থায় বিপর্যয়

রাকিব উদ্দিন

image

দীর্ঘ করোনা সংকটে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে একাডেমিক জটের পাশাপাশি পরীক্ষা ব্যবস্থাও বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে। চাপের মুখে অনলাইন শিক্ষাদান অব্যাহত রাখলেও শহরের শিক্ষার্থীদের একটি অংশ এই সুবিধা

আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস : প্রেক্ষিত বাংলাদেশ

অধ্যক্ষ মো. শাহজাহান আলম সাজু

image

শিক্ষা ছাড়া কোন দেশ ও জাতির উন্নয়ন অগ্রগতি সম্ভব নয়। এই উপলব্ধি থেকেই বিশ্বের উন্নয়ন ও অগ্রগতির লক্ষ্যে ১৯৬১ সালের ডিসেম্বর মাসে পৃথিবীর সব দেশ থেকে নিরক্ষরতা দুর কারা লক্ষ্যে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে একটি প্রস্তাব গৃহীত হয়। ১৯৬৫ সালের ৮-১৯ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘের সহযোগি সংস্হা ইউনেস্কোর উদ্যোগে ইরানের তেহরানে আন্তর্জাতি সাক্ষরতা দিবস পালিত হয়। এই সম্মেলনে প্রতিবছর ৮ সেপ্টেম্বরকে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস হিসাবে ঘোষণা করা হয়।

প্রাথমিকে স্কুল খোলা সম্ভব না হলে অটোপাস

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

করোনা মহামারীতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের পরীক্ষাভিত্তিক মূল্যায়ন

অষ্টম শ্রেণির মূল্যায়ন নিজ নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে চলতি বছরের জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে। বর্তমানে অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের নিজ নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে মূল্যায়ন করে নবম শ্রেণিতে উন্নীত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।