• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

 

শ্রীমঙ্গল নিলাম কেন্দ্র চা উৎপাদনকারীদের ব্যয় কমাবে : বাণিজ্যমন্ত্রী

নিউজ আপলোড : ঢাকা , সোমবার, ১৪ মে ২০১৮

সংবাদ :
  • অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক
image

শ্রীমঙ্গলে দ্বিতীয় চা নিলাম কেন্দ্রে চা উৎপাদনকারীদের ব্যয় কমাবে বলে মন্তব্য করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। তিনি বলেন, মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে দ্বিতীয় চা নিলাম কেন্দ্রে প্রথম নিলামে এক কেজি চা বিক্রি হয়েছে ১১ হাজার টাকায়। আগামী ২০২১ সালের মধ্যে ১ লাখ ২৫ মিলিয়ন কেজি চা উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে সরকার। এ জন্য একটি পথনকশা তৈরি করা হয়েছে। চা শিল্পের উন্নয়নে যেসব পদক্ষেপ গ্রহণ করা দরকার, সেসব উদ্যোগ গ্রহণ করবে সরকার।

সোমবার (১৪ মে) সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ভিডিও কনফান্সের মাধ্যমে মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গলে দেশের দ্বিতীয় চা নিমাল কেন্দ্রে নিলাম কার্যক্রম উদ্বোধন করে তিনি এ মন্তব্য করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র কর্মকর্তাবৃন্দ। শ্রীমঙ্গলে নিমাল কেন্দ্রে এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের চা বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল জাহাঙ্গীর আল মুস্তাহিদুর রহমান, চা উৎপাদন ও ব্যবসায়ী সমিতির আহবায়ক এবং জাতিসংঘের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ড. এ মোমেন, মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আজিজুর রহমান, মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক মো. তোফায়েল ইসলামসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, চা নিমাল কেন্দ্রের কার্যক্রম চালুর মাধ্যমে এ অঞ্চলের চা উৎপাদনকারীদের দীর্ঘদিনের দাবী পূরণ হলো। এতোদিন শুধু চট্রগ্রামে চা নিলাম হতো। এতে চা উৎপাদনকারীদের বেশ সমস্যা হতো এবং ব্যয় বেশি হতো। চা উৎপাদনকারীদের দাবীর প্রেক্ষিতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় শ্রীমঙ্গলে দেশের দ্বিতীয় চা নিলাম কেন্দ্র চালুর উদ্যোগ গ্রহণ করে। দেশের স্বাধীনতার পর অন্যতম রপ্তানি পণ্য ছিল চা। তখন দেশে ১০ মিলিয়ন কেজি চা উৎপাদিত হতো। এর মধ্যে ৭ মিলিয়ন কেজি চা রপ্তানি হতো। বর্তমানে দেশে ৮৫ মিলিয়ন কেজি চা উৎপাদিত হচ্ছে কিন্তু তেমন রপ্তানি করার সুযোগ হচ্ছে না। দেশের ১৬ কোটি মানুষের চায়ের চাহিদা পূরণ করতে অনেক সময় চা আমদানি করতে হয়। এর মাঝেও বাংলাদেশ ভালো মানে চায়ের চাহিদার প্রেক্ষিতে কিছু চা রপ্তানি করে থাকে।

প্রসঙ্গত, দেশে উৎপাদিত চায়ের ৯০ শতাংশের অধিক বৃহত্তর সিলেট অঞ্চলে উৎপাদিত হয়। এ অঞ্চলের চা উৎপাদনকারীরা তাদের উৎপাদিত চা সহজ ও স্বল্প ব্যয়ে ক্রয়-বিক্রয়ের সুবিধার্থে শ্রীমঙ্গলে চা নিলাম কেন্দ্র প্রতিষ্ঠার জন্য প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ে আবেদন জানিয়ে আসছিল। সে প্রক্ষিতে অর্থমন্ত্রী শ্রীমঙ্গলে দ্বিতীয় চা নিলাম কেন্দ্র উদ্বোধন করেন। আজকে ওই নিলাম কেন্দ্রে চা বিক্রি শুরু হলো।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান চা বাগান মালিকদের ১০০ বিঘা পর্যন্ত জমির মালিকানা সংরক্ষণের অনুমতি প্রদান করেন। দেশের ৯০ ভাগ চা উৎপাদন হয় সিলেট অঞ্চলে। এ চা নিলাম কেন্দ্রের কার্যক্রম উদ্বোধনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া প্রতিশ্রুতির বাস্তবায়ন হলো। বর্তমান সরকারের বিশেষ উদ্যোগ গ্রহনের ফলে এখন দেশের উত্তরাঞ্চলের পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও, লালমনিরহাট, দিনাজপুর জেলায়ও চা উৎপাদন শুরু হয়েছে। বর্তমানে দেশের ৬৪ হাজার ৮৮৬ হেক্টর জমিতে চা উৎপাদিত হচ্ছে। চা শ্রমিকের সংখ্যা প্রায় ১ লাখ ৩৩ হাজার। ২০১৭-১৮ মৌসুমে (এপ্রিল-মার্চ) নিলামে ৭৬ দশমিক ৫৮ মিলিয়ন কেজি চা বিক্রয় হয়। এসময় চায়ের গড় মূল্য ছিল ২১৪ দশমিক ১০ টাকা। ২০১৭ সালে ২ দশমিক ৫৬ মিলিয়ন কেজি চা রপ্তানি হয়েছে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নে জবাবে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতীয় সংসদে চাকুরীর ক্ষেত্রে কোটা তুলে নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। এতে সন্দেহের কোন অবকাশ নেই, প্রধানমন্ত্রী নিরাশ করবেন না। আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করেই গেজেট প্রকাশ করা হবে। একটু ধৈর্য্য ধরে অপেক্ষা করতে হবে।

উল্লেখ্য, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৫৭-১৯৫৮ সালে টি বোর্ডের চেয়ারম্যান ছিলেন। পরবর্তীতে বঙ্গবন্ধুর সরকার ১৯৭২-১৯৭৪ সালে চা উৎপাদনকারীদের নগদ আর্থিক সহায়তা প্রদানের পাশাপাশি ভর্তুকি দিয়ে অল্প মূল্যে সার সরবরাহ করার ব্যবস্থা করেছিলেন। এছাড়া যুদ্ধবিদ্ধস্থ চা কারখানাগুলো চালুর জন ইন্ডাষ্ট্রিয়াল ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া থেকে ৩০ লক্ষ ভারতীয় মূদ্রা লোন নিয়ে যন্ত্রপাতি আমদানি করেছিলেন।

রিহ্যাব পুরস্কার পেলেন ২৪ গণমাধ্যমকর্মী

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (রিহ্যাব) আয়োজিত বর্ষসেরা

সঞ্চয়পত্র থেকে সরকারের ধার ৫ হাজার কোটি টাকা

রোকন মাহমুদ

image

চলতি অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইয়ে সঞ্চয়পত্রে বড় ধরনের বিনিয়োগ এসেছে। এ

বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে চায় থাই ব্যবসায়ীরা

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

বাংলাদেশের বিভিন্ন সম্ভাবনাময় খাতে বিনিয়োগের আগ্রহ প্রকাশ করেছে থাইল্যান্ডের ব্যবসায়ীরা। নিকটতম

sangbad ad

পুনর্মুদ্রণ হবে বাংলাদেশ ব্যাংকের ইতিহাস

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

‘বাংলাদেশ ব্যাংকের ইতিহাস’ গ্রন্থ পুনর্মুদ্রণের উদ্যোগ নিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। গ্রন্থটিতে

এসডিজি বাস্তবায়নে বেসরকারি খাতের ভূমিকা অর্ধেকেরও বেশি

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা বা এসডিজি (সাসটেন্যাবল ডেভেলপমেন্ট গোল) বাস্তবায়নে

ব্যাংক সেবার বাইরে দুই-তৃতীয়াংশ মানুষ

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

ব্যাংক খাতের সঙ্গে বাংলাদেশের মানুষের সম্পর্ক এখনও কাক্সিক্ষত লক্ষ্যে পৌঁছায়নি। অনেক

আরো এক কোটি ১৪ লাখ পরিবারের তথ্য সংগ্রহ করা হবে

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

দেশের পরিবারভিত্তিক দরিদ্র্য ও সুবিধাবঞ্চিতদের চিহ্নিত করতে ন্যাশনাল হাউজহোল্ড ডাটাবেজ

অভ্যন্তরীনভাবে ব্যাংকিং খাতে সুশাসন বলতে কিছু নেই

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

ব্যাংকিং খাতে সুশাসনের অভাবের পাশাপাশি দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনা জেঁকে বসেছে বলে মন্তব্য

প্রতিযোগিতা করে বাণিজ্য করতে বাংলাদেশ সক্ষম

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

উন্নত বিশ্বের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে বাণিজ্য করতে বাংলাদেশ সক্ষম বলে মন্তব্য করেছেন

sangbad ad