• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

 

শিগগিরই রপ্তানি হবে হিমায়িত রসগোল্লা

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বুধবার, ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

সংবাদ :
  • অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক
image

রপ্তানির তালিকায় যুক্ত হতে যাচ্ছে আরো একটি অপ্রচলিত পণ্য রসগোল্লা। এরই মধ্যে বেশ কয়েকটি দেশীয় মিষ্টি প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান বিদেশে শোরুমও খুলেছে। তবে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে মিষ্টি রপ্তানির কাজ জোরেশোরে শুরু না হলেও বিভিন্ন ধরনের মিষ্টি দেশের বাইরে যাচ্ছে। বিশেষ করে হিমায়িত রসগোল্লার চাহিদা বাড়ছে বিদেশে। অবশ্য মিষ্টি রপ্তানির বিষয়টি এখনও পরীক্ষামূলক পর্যায়েই রয়েছে। তবে রপ্তানি বাজার ধরার লক্ষ্যে কাজ করা হচ্ছে। বিশেষ করে রসগোল্লার স্বাদ ও গন্ধ অটুট রেখে রপ্তানি লক্ষ্য বলেই একটু সময় লাগছে। শিগগিরই আনুষ্ঠানিকভাবে হিমায়িত রসগোল্লা রপ্তানি সম্ভব হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

জানা গেছে, গত বছর বাংলাদেশের কয়েকটি প্রতিষ্ঠান রসগোল্লাসহ আরও কয়েক পদের মিষ্টি রপ্তানির ঘোষণা দিলেও এখনও সেভাবে শুরু হয়নি। রপ্তানির উদ্দেশ্যে রসগোল্লা টিনজাত করার প্রক্রিয়া নিয়ে কাজ হচ্ছে গত কয়েক বছর ধরে। তবে আলাউদ্দিন সুইটস, বনফুল, মুসলিম, প্রিমিয়াম সুইটসসহ বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান রপ্তানির পরিবর্তে দেশের বাইরে মিষ্টির আউটলেট প্রতিষ্ঠা করেছে। এর মধ্যে সর্বাধিক মিষ্টির শোরুম রয়েছে সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের বেশ কয়েকটি দেশে। মালয়েশিয়াতেও বাংলাদেশি মিষ্টি প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানের আউটলেট রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক ও ক্যালিফোর্নিয়াতে বাংলাদেশি বেশ কয়েকটি মিষ্টির শোরুম রয়েছে। কানাডায় মুসলিম সুইটস, আলাউদ্দিন ও প্রিমিয়াম সুইটসের একাধিক শোরুম রয়েছে।

পরীক্ষামূলকভাবে প্রথম বাংলাদেশে টিনজাত রসগোল্লা আনার ঘোষণা দেয় প্রাণ আরএফএল গ্রুপের মিষ্টি প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান-মিঠাই। ২০১৭ সালের জুলাই থেকে টিনজাত রসগোল্লা ও গোলাপজাম মিষ্টি বাজারে ছাড়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল প্রতিষ্ঠানটি। তারা জানিয়েছিল, ক্রেতারা রেফ্রিজারেটরে কিংবা ২৮ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রায় ছয় মাস থেকে একবছর পর্যন্ত এই মিষ্টি সংরক্ষণ করতে পারবেন। তবে টিন খোলার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে মিষ্টি খেয়ে ফেলতে হবে। তবে তা এখনও বাজারে আনা সম্ভব হয়নি।

মিঠাইয়ের হেড অব মার্কেটিং মুজাহিদুল ইসলাম বলেন, ‘টিনজাত রসগোল্লা নিয়ে এখনও কাজ চলছে। মিষ্টির স্বাদ ও গুণগত মান ঠিক রেখে টিনজাত প্রক্রিয়া করার কাজ চলছে। কাজটি বেশ কঠিন।

প্রাণ আরএফএলের সহযোগী প্রতিষ্ঠান বঙ্গ বেকার্সের কেক অ্যান্ড সুইট বিভাগের চিফ অপারেটিং অফিসার অনিমেষ সাহা জানান, টিনজাত রসগোল্লা সংরক্ষণ করে রাখার যে চ্যালেঞ্জ সেটি নিয়েই কাজ করছেন তারা। এখনও সফলতা আসেনি। তবে মিষ্টি রপ্তানির কাজ শুরু হয়েছে। তিনি বলেন, বঙ্গ বেকার্সের তত্ত্বাবধানে প্রতি মাসে প্রায় দুই টন ফ্রোজেন মিষ্টি কানাডা ও যুক্তরাষ্ট্রে যাচ্ছে। শিগগিরই দেশের সংখ্যা ও মিষ্টির পরিমাণ বাড়বে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

মিষ্টি রপ্তানির ধারাহিকতায় এ নিয়ে গবেষণার কাজ চালিয়ে যাচ্ছে জেমকন গ্রুপের মিষ্টি প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান মীনা সুইটস। প্রতিষ্ঠানটির সিএইচআরও এবং মীনা সুইটসের সিইও সাঈদ আহমেদ জানান, বাংলাদেশে ভীষণ জনপ্রিয় মীনা সুইটসের স্পঞ্জ রসগোল্লা। তবে এখনও রপ্তানি বিষয়ে কোনও সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। তবে রপ্তানি বাজার ধরার লক্ষ্যে কাজ করছেন তারা। বিশেষ করে রসগোল্লার স্বাদ ও গন্ধ অটুট রেখে রপ্তানি লক্ষ্য বলেই একটু সময় লাগছে। সাঈদ আহমেদও আশা প্রকাশ করেন, শিগগিরই আনুষ্ঠানিকভাবে মিষ্টি রপ্তানি সম্ভব হবে।

‘বাংলার মিষ্টি’র ম্যানেজার কমিউনিকেশন অ্যান্ড বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার সাদিক উদ্দিন বলেন, ‘আপাতত ঢাকাবাসীকেই দেশের বিভিন্ন স্থানের মিষ্টি পরিবেশন করছি। দেশের বাইরে রফতানির সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা আছে।’ তবে সেটি নিয়ে এখনও কাজ শুরু করেনি প্রতিষ্ঠানটি।

প্রিমিয়াম সুইটসের গুলশান ব্রাঞ্চের ম্যানেজার মোহাম্মদ সোহেল বলেন, মিষ্টি রপ্তানিতে জটিলতা রয়েছে এবং এর স্বাদ ও মান ধরে রাখা কঠিন বলে বাংলাদেশ থেকে কারিগর নিয়ে কানাডায় তিনটি শোরুম খোলা হয়েছে। সেখানে রসগোল্লার চাহিদা শীর্ষে। অন্যান্য মিষ্টিও বেশ জনপ্রিয়।

খাদ্য নিরাপত্তা বিষয়ক গবেষক পাভেল পার্থ বলেন, আমরা সবাই জানি, মিষ্টির মতো দুগ্ধজাত পণ্য রপ্তানি বেশ কঠিন। যেকোনও খাদ্যপণ্য বাজারজাত করতে হলে প্রথমেই বিএসটিআইয়ের অনুমোদন নিতে হয়। এর সঙ্গে রপ্তানি যুক্ত হলে অনুমোদন প্রক্রিয়াটি আরও জটিল ও দীর্ঘ হয়। সে সময় বিএসটিআইয়ের অনুমোদনের পাশাপাশি রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর তালিকাভুক্ত করতে হয় মিষ্টিকে। এর সঙ্গে যুক্ত হয় খাদ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমতি, সংশ্লিষ্ট দেশের খাদ্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের অনুমতিপত্র। যে দেশে খাদ্য সরবরাহ করা হবে সেই দেশে কুরিয়ারের মাধ্যমে খাদ্যটি আগে পাঠাতে হয়। তারা সেটি যাচাই করে দেখে। কিন্তু হাতে করে কয়েক ঘণ্টা ফ্লাইটে মিষ্টি নিয়ে এর গুণগত মান ঠিক রাখা সম্ভব। কিন্তু কুরিয়ারে পাঠিয়ে দীর্ঘদিন মিষ্টি সংরক্ষিত রাখার প্রক্রিয়া এখনও চালু হয়নি। মিষ্টির সেলফটাইম বাড়িয়ে রপ্তানি করা বেশ কঠিন একটি প্রক্রিয়া বলে মন্তব্য করেন তিনি।

রসগোল্লাসহ অন্যান্য মিষ্টি রপ্তানি প্রসঙ্গে বাংলাদেশ এক্সপোর্ট প্রমোশন ব্যুরোরে মহাপরিচালক-১ অভিজিৎ চৌধুরী বলেন, বিএসটিআইয়ের অনুমোদন থাকলে যেকোনও খাদ্যপণ্যই রপ্তানিযোগ্য বলে বিবেচিত হয়। সেটি ব্যক্তি বা প্রাতিষ্ঠানিক উদ্যোগে রপ্তানি হতে পারে। এতে আলাদা করে আমাদের অনুমতির প্রয়োজন হয় না। তবে যদি রপ্তানি করা পণ্য নিয়ে কোনও অভিযোগ থাকে সেটি খতিয়ে দেখার কাজটি আমরা করি। এখন পর্যন্ত রপ্তানিকৃত মিষ্টি নিয়ে কোনও অভিযোগ আমরা পাইনি।

প্রসঙ্গত, রসগোল্লা রপ্তানির বিষয়ে বাংলাদেশের চেয়ে অনেক বেশি এগিয়ে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ। স্বাদে ও সৃষ্টিতে বাংলাদেশের রসগোল্লা ‘সেরা’ হলেও গত বছরের জুলাইয়ে রসগোল্লার জিআই অর্থাৎ জিওগ্রাফিকাল আইডেন্টিফিকেশন পেয়েছে পশ্চিমবঙ্গ। জিআই পাওয়ার একবছর আগে থেকে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও উড়িষ্যা থেকে রসগোল্লা রপ্তানি শুরু হয়েছে।

তিন দিন ধরে বেনাপোলে বন্ধ আমদানি-রপ্তানি

সংবাদ ডেস্ক

image

বেনাপোলে বন্দর দিয়ে গত ৩ দিনেও চালু হয়নি দু’দেশের মধ্যে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য।

চামড়া রপ্তানিতে আয় কমছে ২৬.২৬ শতাংশ

অথণৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

চলতি অর্থবছরের প্রথম দুই মাসে চামড়া রপ্তানিতে আয় হয়েছে ১৮ কোটি ৩০ লাখ মার্কিন

নির্বাচনকালীন পরিবেশ অর্থনীতির ওপর প্রভাব ফেলবে না : অর্থমন্ত্রী

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

নির্বাচনকালীন পরিবেশ দেশের অর্থনীতির উপর কোন প্রভাব ফেলবে না বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী

sangbad ad

বিমা দাবি পরিশোধে করেনি ৮ কোম্পানি

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

আস্থা সঙ্কট দূর করতে ৭০টি কোম্পানি প্রায় সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকার বেশি বিমা দাবি

রিহ্যাব পুরস্কার পেলেন ২৪ গণমাধ্যমকর্মী

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (রিহ্যাব) আয়োজিত বর্ষসেরা

সঞ্চয়পত্র থেকে সরকারের ধার ৫ হাজার কোটি টাকা

রোকন মাহমুদ

image

চলতি অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইয়ে সঞ্চয়পত্রে বড় ধরনের বিনিয়োগ এসেছে। এ

বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে চায় থাই ব্যবসায়ীরা

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

বাংলাদেশের বিভিন্ন সম্ভাবনাময় খাতে বিনিয়োগের আগ্রহ প্রকাশ করেছে থাইল্যান্ডের ব্যবসায়ীরা। নিকটতম

পুনর্মুদ্রণ হবে বাংলাদেশ ব্যাংকের ইতিহাস

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

‘বাংলাদেশ ব্যাংকের ইতিহাস’ গ্রন্থ পুনর্মুদ্রণের উদ্যোগ নিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। গ্রন্থটিতে

এসডিজি বাস্তবায়নে বেসরকারি খাতের ভূমিকা অর্ধেকেরও বেশি

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা বা এসডিজি (সাসটেন্যাবল ডেভেলপমেন্ট গোল) বাস্তবায়নে

sangbad ad