• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮

 

১৩ সেপ্টেম্বর টিকফার চতুর্থ বৈঠক

বিনিয়োগ ও পণ্যের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব দিবে বাংলাদেশ

নিউজ আপলোড : ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৮ আগস্ট ২০১৮

সংবাদ :
  • অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক
image

আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর ওয়াশিংটনে অনুষ্ঠিত হচ্ছে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের ট্রেড অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট কো-অপারেশন ফোরাম এগ্রিমেন্টের (টিকফা) চতুর্থ সভা। খাতসংশ্লিষ্টদের কাছ থেকে সুনির্দিষ্ট এজেন্ডা না পাওয়ায় দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, ন্যায্যমূল্য ও ক্রয় নৈতিকতা, অর্থনৈতিক অঞ্চলে যুক্তরাষ্ট্রের বিনিয়োগ ও প্রযুক্তি স্থানান্তর, অবকাঠামো উন্নয়ন, স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নত দেশে পরিণত হওয়ার সক্ষমতা বৃদ্ধির জনিত সমস্যা সমাধানের প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা করবে বাংলাদেশ। তবে মার্কিন প্রতিনিধিরা সভায় বাংলাদেশে তুলা রপ্তানি, করপোরেট কর, বীমাসহ কয়েকটি বিষয়ে আলোচনার প্রস্তাব দিয়েছে। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে এ কথা জানা গেছে।

বাণিজ্যমন্ত্রণালয়ের সূত্রে জানা গেছে, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিবের নেতৃত্বে বাংলাদেশের নয় সদস্যের প্রতিনিধি দল এবারের সভায় অংশ নেবে। আগামী ১০-১৫ সেপ্টেম্বর প্রতিনিধি দলটি যুক্তরাষ্ট্র সফর করবে। সভার প্রস্তুতি হিসেবে চলতি মাসেই বিনিয়োগ ও বাণিজ্য সংশ্লিষ্টদের নিয়ে কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে মার্কিন প্রশাসনের কাছে বাংলাদেশের সম্ভাব্য দাবিদাওয়া নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তবে সুনির্দিষ্ট কোন এজেন্ডা এখনও খাতসংশ্লিষ্টদের কাছ থেকে পাওয়া যায়নি। যদিও এবারের সভার আয়োজক যুক্তরাষ্ট্র এরই মধ্যে বাংলাদেশের কাছে আলোচনার সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব পেশ করেছে।

জানা গেছে, যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তাবে প্রথমেই আছে মার্কেট অ্যাকসেস বা বাজার প্রবেশ সংক্রান্ত। এক্ষেত্রে বাংলাদেশে তুলা রপ্তানির সুবিধার্থে দেশটি এখানে আমদানিকৃত তুলা পরীক্ষার শর্ত শিথিলের প্রস্তাব দিয়েছে। বর্তমানে আমদানিকৃত মার্কিন তুলায় জীবাণু সংক্রমণের বিষয়ে দুই ধাপে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়। যুক্তরাষ্ট্র এ পরীক্ষার ধাপ কম দেখতে চায়। এছাড়া বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহী প্রতিষ্ঠানগুলোর ওপর আরোপিত করপোরেট করহারও অনেক বেশি বলে মনে করছে দেশটি। এ কর কমানোর বিষয়েও আলোচনা করতে চায় তারা।

সংশ্লিষ্টরা জানান, যুক্তরাষ্ট্র সরকার বাংলাদেশে ব্যাংকের মাধ্যমে বীমা পদ্ধতি চালুর সুযোগ দেখতে চায়। এ নিয়েও কথা বলতে আগ্রহী মার্কিন প্রতিনিধিরা। এছাড়া ই-ওয়েস্ট, ড্রাগস অ্যান্ড কসমেটিকস অ্যাক্ট, মেধাস্বত্ব, সরকারি ক্রয় ও শ্রমচর্চার বিষয়েও আলোচনার প্রস্তাব দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

এ বিষয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা বলেন, বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের বিনিয়োগ এবং দেশটির সঙ্গে বাংলাদেশের বাণিজ্য বৃদ্ধির একমাত্র প্লাটফর্ম এখন টিকফা। বর্তমানে দেশটির প্রশাসন যে রক্ষণশীল মনোভাব প্রকাশ করছে, তাতে এ প্লাটফর্মে আলোচনার ধারাবাহিকতা এবং আলোচিত বিষয়ের গুরুত্ব অনেক। এবারের সভার আয়োজক ও প্রস্তাবক যুক্তরাষ্ট্র। তারা সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব উল্লেখ করেছে। কিন্তু বর্তমান বা ভবিষ্যতে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সংক্রান্ত দরকষাকষির সুনির্দিষ্ট কোন প্রস্তুতি বাংলাদেশ এখনও নিতে পারেনি। একটি বিষয় ছিল অগ্রাধিকারমূলক বাণিজ্য সুবিধা বা জিএসপি। কিন্তু রাজনৈতিক অনাগ্রহের কারণে বিষয়টি আলোচনায় অন্তর্ভুক্ত নাও হতে পারে।

প্রসঙ্গত, টিকফা সভায় বাংলাদেশ কী কী বিষয় উত্থাপন করতে পারে, তা নিয়ে গত ১৪ জুলাই আলোচনা হয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে। এ সময় সম্ভাব্য এজেন্ডা হিসেবে দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, ন্যায্যমূল্য ও ক্রয় নৈতিকতা, অর্থনৈতিক অঞ্চলে যুক্তরাষ্ট্রের বিনিয়োগ ও প্রযুক্তি স্থানান্তরের কথা উঠে আসে। এছাড়া অবকাঠামো উন্নয়ন, স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নত দেশে পরিণত হওয়ার সক্ষমতা বৃদ্ধির মতো কিছু বিষয়ও মোটা দাগে চিহ্নিত করা হয়।

কর্মকর্তারা জানান, যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বাংলাদেশের কোন প্রতিষ্ঠান সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছে কিনা, দেশটিতে পণ্য প্রবেশে বাংলাদেশিরা কোন বৈষম্যের শিকার হন কিনা, সে দেশের কোন নীতি বা আইন বাংলাদেশি রপ্তানিকারকদের জন্য বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে কিনা, সে বিষয়ে এফবিসিসিআই ও বিজিএমইএর মতো সংগঠনগুলোর কাছে জানতে চেয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

এর আগে গত বছর বাংলাদেশে টিকফার তৃতীয় সভায় যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের জ্বালানি ও অবকাঠামো খাতে অংশগ্রহণ এবং দরপত্র প্রক্রিয়া নিয়ে কথা বলেছিল। সেবার ১৩ সদস্যের মার্কিন প্রতিনিধি দলের সদস্য রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট বৈঠকের পর বলেছিলেন, মার্কিন প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রচুর প্রস্তাব রয়েছে। বেশকিছু উদ্ভাবনী পণ্য ও সর্বাধুনিক প্রযুক্তি রয়েছে। আমরা জ্বালানি ও অন্যান্য অবকাঠামো প্রকল্পগুলোর দরপত্র প্রক্রিয়ায় মার্কিন অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে চাই। সরকারি ক্রয়ে স্বচ্ছতা নিয়ে বলেছি নিরপেক্ষতার জন্য।

ওই সভা শেষে বাণিজ্য সচিব শুভাশীষ বসু জানান, আমাদের শুল্ক ও করনীতি নিয়ে তারা পরিষ্কার হতে চেয়েছে। বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের যে প্রতিষ্ঠানগুলো এখানে কাজ করে, তারা আগে জানতে পারে না, কোন পণ্যে কত শুল্ক দিতে হবে। এছাড়া বিদেশি প্রতিষ্ঠানগুলোর কর কীভাবে ধরা হয়েছে, তা নিয়ে অস্পষ্টতা রয়েছে বলে তারা জানিয়েছে। জবাবে বাংলাদেশে বিদেশি ও দেশীয় ব্যাংক ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের ওপর একই রকমভাবে কর ধার্য করার কথা যুক্তরাষ্ট্রকে পরিষ্কারভাবে জানানো হয়েছে বলে সচিব জানান।

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের আমদানি লাইসেন্স নিয়ে আলোচনা করেছে। এটিকে আরও সহজ কীভাবে করা যায়, তা জানতে চেয়েছে। আমাদের আমদানি নীতি উন্মুক্ত করে দেয়া রয়েছে। ওষুধ আনতে গেলে আমাদের ওষুধ প্রশাসন অধিদফতর থেকে একটি অনুমতি নিতে হয়, যা স্থানীয় প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। এছাড়া স্বত্বাধিকার ও কপিরাইট আইন নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে।

রিহ্যাব পুরস্কার পেলেন ২৪ গণমাধ্যমকর্মী

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (রিহ্যাব) আয়োজিত বর্ষসেরা

সঞ্চয়পত্র থেকে সরকারের ধার ৫ হাজার কোটি টাকা

রোকন মাহমুদ

image

চলতি অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইয়ে সঞ্চয়পত্রে বড় ধরনের বিনিয়োগ এসেছে। এ

বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে চায় থাই ব্যবসায়ীরা

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

বাংলাদেশের বিভিন্ন সম্ভাবনাময় খাতে বিনিয়োগের আগ্রহ প্রকাশ করেছে থাইল্যান্ডের ব্যবসায়ীরা। নিকটতম

sangbad ad

পুনর্মুদ্রণ হবে বাংলাদেশ ব্যাংকের ইতিহাস

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

‘বাংলাদেশ ব্যাংকের ইতিহাস’ গ্রন্থ পুনর্মুদ্রণের উদ্যোগ নিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। গ্রন্থটিতে

এসডিজি বাস্তবায়নে বেসরকারি খাতের ভূমিকা অর্ধেকেরও বেশি

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা বা এসডিজি (সাসটেন্যাবল ডেভেলপমেন্ট গোল) বাস্তবায়নে

ব্যাংক সেবার বাইরে দুই-তৃতীয়াংশ মানুষ

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

ব্যাংক খাতের সঙ্গে বাংলাদেশের মানুষের সম্পর্ক এখনও কাক্সিক্ষত লক্ষ্যে পৌঁছায়নি। অনেক

আরো এক কোটি ১৪ লাখ পরিবারের তথ্য সংগ্রহ করা হবে

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

দেশের পরিবারভিত্তিক দরিদ্র্য ও সুবিধাবঞ্চিতদের চিহ্নিত করতে ন্যাশনাল হাউজহোল্ড ডাটাবেজ

অভ্যন্তরীনভাবে ব্যাংকিং খাতে সুশাসন বলতে কিছু নেই

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

ব্যাংকিং খাতে সুশাসনের অভাবের পাশাপাশি দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনা জেঁকে বসেছে বলে মন্তব্য

প্রতিযোগিতা করে বাণিজ্য করতে বাংলাদেশ সক্ষম

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

উন্নত বিশ্বের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে বাণিজ্য করতে বাংলাদেশ সক্ষম বলে মন্তব্য করেছেন

sangbad ad