• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭

 

বিদ্যুৎ ও জ্বালানির দাম বাড়লে উৎপাদন খরচ বাড়বে ৮-১০ শতাংশ

নিউজ আপলোড : ঢাকা , রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

বিদ্যুতের দাম পুনরায় বাড়ানো হলে উৎপাদনমুখী শিল্প খাতে ৮ থেকে ১০ শতাংশ উৎপাদন ব্যয় বেড়ে যাবে বলে জানিয়েছে ঢাকা চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই)। ফলে বিদ্যুতের দাম আবার বাড়ানোর প্রস্তাবে ডিসিসিআই উদ্বেগ প্রকাশ করছে। একই সঙ্গে দাম না বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছে ব্যবসায়ীদের এ সংগঠনটি। গতকাল এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ আহ্বান জানানো হয়। ‘জ্বালানি মনিটরিং কমিটি’ গঠনের দাবি জানিয়েছেন সংগঠনের নেতারা।

বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি করতে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন আজ এক গণশুনানির আয়োজন করেছে। মূলত ছয়টি বিতরণ কোম্পানির প্রস্তাবের ওপর ভিত্তি করে এ আয়োজন

উল্লেখ্য, বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি করতে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন আজ এক গণশুনানির আয়োজন করেছে। মূলত ছয়টি বিতরণ কোম্পানির প্রস্তাবের ওপর ভিত্তি করে এ আয়োজন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, যদি আবারও বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি করা হয় তাহলে প্রতিযোগী মূল্যে শিল্প উৎপাদন সক্ষমতা ব্যাহত হবে। বিশেষ করে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প, স্টিল রি-রোলিং, টেক্সটাইল খাতে ১০ শতাংশ খরচ বেড়ে যাবে। এছাড়া বৃহৎ অবকাঠামো প্রকল্পসমূহ, রপ্তানি সক্ষমতা, শিল্প বহুমুখীকরণ ব্যাহত হওয়ার পাশাপাশি ব্যবসা পরিচালনায় ব্যয় বৃদ্ধি পাবে, যা কিনা বিশেষ করে দেশের ক্রমবিকাশমান এসএমই খাতের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করবে। বিদ্যুতের পুনরায় মূল্য বৃদ্ধি স্থানীয় ও বিদেশি বিনিয়োগ বাধাগ্রস্ত করতে পারে এবং সর্বোপরি মূল্যস্ফীতির ওপর বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে।

ঢাকা চেম্বার সরকারি সংশ্লিষ্ট সংস্থাসমূহকে বিদ্যুতের ট্যারিফ বাড়ানোর প্রস্তাব প্রত্যাহার এবং সব সরকারি ও বেসরকারি স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে নিয়ে একটি ‘জ্বালানি মনিটরিং কমিটি’ গঠনসহ দীর্ঘমেয়াদি জ্বালানি নিরাপত্তা পরিকল্পনা গ্রহণের উদ্যোগ গ্রহণের আহ্বান জানাচ্ছে, যাতে করে ভবিষ্যতে সবার জন্য সাশ্রয়ী মূল্যে গুণগত মানসম্মত নির্ভরযোগ্য জ্বালানি নিশ্চিত করা যায়। সরকারের রূপকল্প ২০২১ বাস্তবায়ন এবং বেসরকারি বিনিয়োগ নির্ভর অর্থনীতিকে ত্বরান্বিত করতে সাশ্রয়ী মূল্যে গুণগত মানসম্মত জ্বালানি সেই সঙ্গে দক্ষ জ্বালানির ব্যবহার সহায়ক ভূমিকা পালন করবে। এ মুহূর্তে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি না করে বরং সরকারি বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রের পরিচালন ও ব্যবস্থাপনা দক্ষতা বৃদ্ধি, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা, সিস্টেম লস আরও হ্রাস করতে বিদ্যুৎ সঞ্চালন ও বিতরণ কার্যক্রমে বেসরকারি খাতকে অধিক পরিমাণে অন্তর্ভুক্তকরণের জন্য ডিসিসিআই সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছে।

ডিসিসিআই বলছে, গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানিগুলো খুচরা পর্যায়ে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প খাতে ৯ টাকা ১৬ পয়সা থেকে ১০ টাকা, বাণিজ্যিক ব্যবহারকারীদের ক্ষেত্রে ১১ টাকা ৯৮ পয়সা থেকে ১২ টাকা ৯৮ পয়সা, বৃহৎ শিল্পকারখানার ক্ষেত্রে ৯ টাকা ৫২ পয়সা থেকে ১০ টাকা ৩২ পয়সা এবং গৃহস্থালীতে ব্যবহারের ক্ষেত্রে ৫ টাকা ৬৩ পয়সা থেকে ৬ টাকা ১০ পয়সা হারে বৃদ্ধির প্রস্তাব দিয়েছে। বিদ্যুতের দাম এরূপ বৃদ্ধিতে দেশের অর্থনীতির ওপর বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে বলে ধারণা করছে ডিসিসিআই।

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি আধুনিক জীবন ব্যবস্থার অবিচ্ছেদ্য অংশ এবং অর্থনৈতিক উন্নয়নের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো উপকরণ। নিরবচ্ছিন্ন জ্বালানি ও বিদ্যুৎ সরবরাহ শিল্প, কৃষি এবং সেবা খাতের ক্রমবর্ধমান অগ্রগতির মূল চাবিকাঠি।

বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি) এর ক্ষতি পুষিয়ে উঠার দাবির বিপরীতে বর্তমানে শিল্প ও বাণিজ্যিক গ্রাহকদের ক্ষেত্রে বিদ্যুতের দাম উৎপাদন খরচের চেয়ে প্রায় ১৮০ শতাংশ বেশি, যা প্রস্তাবিত মূল্য বৃদ্ধির সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। ভোক্তা পর্যায়ে বিদ্যুতের মূল্য অপরিবর্তিত রেখে বিতরণ পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি করেও পিডিবির ক্ষতি পুষিয়ে নেয়া যেতে পারে এবং মূল্য সমতার এ সামঞ্জস্য নীতি গণমুখী মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে সহায়তা করবে।

লক্ষ্য করা যায় যে, বেসরকারি খাতের ফার্নেস ওয়েল/হেভি ফুয়েল ওয়েল ভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদনকারীরা বিপিসি’র প্রদানকৃত দরের তুলনায় প্রায় ৯০ শতাংশ কম মূল্যে বিদেশ থেকে ফার্নেস ওয়েল/হেভি ফুয়েল ওয়েল আমদানি করতে পারে। স্বল্প উৎপাদন ব্যয় নিশ্চিত করতে বেসরকারি খাতের উদ্যোক্তাদের আরও অধিক হারে ফার্নেস ওয়েল আমদানি করতে উদ্বুদ্ধ করার জন্য সরকারের প্রতি ডিসিসিআই আহ্বান জানাচ্ছে। এ মুহূর্তে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি না করে বরং সরকারি বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রের পরিচালন ও ব্যবস্থাপনা দক্ষতা বৃদ্ধি, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা, সিস্টেম লস আরও হ্রাস করতে বিদ্যুৎ সঞ্চালন ও বিতরণ কার্যক্রমে বেসরকারিখাতকে অধিক পরিমাণে অন্তর্ভুক্তকরণের জন্য ডিসিসিআই সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছে।

পরীক্ষামূলক সম্প্রচার

খাদ্য ঘাটতি মেকাবিলায় জিএম ফসলের দিকে যেতে হবে : মতিয়া চৌধুরী

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী বলেছেন, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে জিএম ফসলের চাষ হচ্ছে। জিএম ফসল

চলতি বছর ১০ লাখ কর্মীর বিভিন্ন দেশে কর্মসংস্থান হবে

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি বলেছেন, অভিবাসন ব্যয় কমানো, ভিসা

গাফিলতির দায় এড়াতে তথ্য গোপন করছে বাংলাদেশ ব্যাংক : আরসিবিসি

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

বাংলাদেশের রিজার্ভ থেকে চুরি হওয়া ৮১ মিলিয়ন ডলার ফিলিপিন্সের যে ব্যাংক দিয়ে জালিয়াতদের হাতে

sangbad ad

বহুজাতিক কোম্পানিগুলোকে পুঁজিবাজারে আনতে পদক্ষেপ চায় বাণিজ্যমন্ত্রী

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

পুঁজিবাজারে উন্নতির জন্য বহুজাতিক কোম্পানির পাশাপাশি বড় কোম্পানিকে তালিকাভুক্ত করতে

এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের এমডি’কে অপসারণ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

প্রবাসী উদ্যোক্তাদের মালিকানায় বেসরকারি এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি)

বাংলাদেশে ২৩০ কোটি ডলার বিনিয়োগে চীনা প্রতিষ্ঠানের চুক্তি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

অর্থনৈতিক অঞ্চলে ২৩০ কোটি ডলার বিনিয়োগ করতে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) সঙ্গে

দেশের স্বর্ণখাত কালোবাজার নির্ভর: টিআইবি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

দেশের স্বর্ণখাত জবাবদিহিতাহীন এবং কালোবাজার নির্ভর। রবিবার ‘বাংলাদেশে স্বর্ণখাতে স্বচ্ছতা ও

বৈশ্বিক শস্য উৎপাদনের প্রাক্কলন বাড়িছে আইজিসি

সংবাদ ডেস্ক

২০১৭-১৮ মৌসুমে বিশ্বব্যাপী শস্য উৎপাদনকারী অঞ্চলগুলোয় বৈরী আবহাওয়া বিরাজ করছে।

পুঁজিবাজারে গ্রিন টেকনোলজির কোম্পানি নাহি অ্যালুমনিয়াম কম্পোজিট

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

শিল্পখাতে ক্রমে যুক্ত হচ্ছে সময়োপযোগী অনেক পণ্য। এ ক্ষেত্রে দেশের নির্মাণ শিল্প খাতে

sangbad ad