• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বুধবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৮

 

এমসিসিআই’র সেমিনার

উন্নয়নশীল দেশ হতে গবেষণা এবং প্রযুক্তি খুবই জরুরি

বিদেশ নির্ভরতা পরিহারের আহ্বান তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রীর

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ০৫ এপ্রিল ২০১৮

সংবাদ :
  • অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক
image

প্রযুক্তি ও উৎপাদনে বিদেশ নির্ভরতা পরিহার করে নিজেদের সম্পদ ব্যবহারের ওপর জোর দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। তিনি বলেছেন, প্রযুক্তিখাতে আমাদের বিদেশ নির্ভরতা এখনও ব্যাপক হারে রয়েছে। অথচ আমরা চাইলেই নিজেদের সক্ষমতা ব্যবহার করে এখাতের উন্নয়ন করতে পারি। একই সঙ্গে অন্যান্য খাতেও একই অবস্থা। বিশেষ করে বড় অবকাঠামো তৈরিতে ও উদ্ভাবনী খাতে আমরা সম্পূর্ণই বিদেশ নির্ভর। এক্ষেত্রে আমাদের দক্ষতা বাড়ানোর ওপর জোর দিতে হবে।

তিনি বলেন, ব্যাংকের একটি সফট্ওয়্যার যেখানে দেশ থেকে আমরা ৫ কোটি টাকায় কিনতে পারি। সেখানে বিদেশ থেকে আমাদের কোম্পানিগুলো ১০০ কোটি টাকায় নিয়ে আসতেই বেশি আগ্রহী। অথচ বিদেশিরা পণ্য তৈরি করে তাদের পরিবেশ অনুসারে। আমাদের সুযোগ ও পরিবেশ উপযোগী হয় না সেগুলো। ফলে পরবর্তীতে সমস্যা তৈরি হয়। যার সমাধানের জন্য আবার তাদের আনতে হয়। এছাড়া এদেশে ইনটেলেকচ্যুয়াল প্রপারটির (মেধাসম্পদ) ও মেধাস্বত্বের তেমন মূল্যায়ন নেই। যার কারণে আমাদের মেধাবীরা একটু সুযোগ পেলেই বিদেশে চলে যান। আমাদের উদ্ভাবনগুলো পিছনে পড়ে থাকে। অথচ আমরা আজ যাদের উন্নত দেশ বলছি তারা আজকের অবস্থানে এসেছে নিজেদের সম্পদ ও মেধা দিয়ে। চলতি বছরের মধ্যে সিটমহল ও হাওর অঞ্চলগুলোর সঙ্গে প্রযুক্তিগত কানেক্টিভিটির প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে বলেও সেমিনারে জানান তিনি।

বৃহস্পতিবার (৫ এপ্রিল) মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ড্রাস্ট্রি (এমসিসিআই) আয়োজিত এক সেমিনারে এসব কথা বলেন তিনি। টেকনোলজি, ইনোভেশন অ্যান্ড পলিসি : হাউ টু প্রসিড’ শীর্ষক সেমিনার সঞ্চালনা করেন চেম্বার সভাপতি ব্যারিস্টার নিহাদ কবির। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রকৌশলী প্রফেসর ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন এমসিসিআই সাবেক সভাপতি সৈয়দ নাসিম মঞ্জুর, এমসিসিআই সদস্য হাবিবুল্লা এন করিম, এসিআই লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. আরিফ দৌলা, এটু আই প্রোগ্রামের উপদেষ্টা অনির চৌধুরী ও মাইক্রোসফ বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সোনিয়া বশির কবিরসহ আরও অনেকে। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. এম রোকনোজ্জামান। এছাড়া একটি প্যানেল আলোচনা ও একটি উন্মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

জামিলুর রেজা বলেন, এখন সময় এসেছে উদ্ভাবন ও প্রযুক্তি খাতের জন্য একটি জাতীয় নীতিমালা করার। নীতিমালা থাকলে এখাতে নিজেদের সম্পদ দিয়েই উন্নয়ন করা সম্ভব। কোরিয়া এক সময় আমাদের সমকক্ষ ছিল। এখন তারা অনেক এগিয়ে গেছে। এটি সম্ভব হয়েছে প্রযুক্তিগত উদ্ভাবনের মাধ্যমে। আমরা নীতিগত সহায়তা পেলে আরও দ্রুতগতিতে এগিয়ে যেতে পারবে। কোরিয়ানরা কন্ট্রাক বেসিসে গবেষণা করতো। আমাদের এখানে গবেষণা খুব কম। যেটুকু হয় তার অনেক সুপারিশই সরকারি নীতিমালায় গ্রহণ করা হয় না। যার কারণে আমাদের হাইটেক পার্কগুলো পিছিয়ে রয়েছে। গাজীপুরের হাইটেক পার্কটি বিগত ১৭ বছরেও কার্যক্রম শুরু করতে পারেনি। তবে আশার কথা হলো সরকারি কর্মকর্তাদের মনোভাব পরিবর্তন হচ্ছে।

এক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে যে, কোন কাজে ব্যর্থ হলেই দেশীয় কর্মকর্তাদের ওপর ভরসা হরালে চলবে না। নিজেদের মেধাসম্পদের ওপর বিশ্বাস রাখতে হবে। তা হলে এক সময় আমাদের লোকজন দক্ষ হয়ে ওঠবে। এজন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে যদি ইন্টার্নশীপের বাধ্যবাধকতা করে দেয়া যায়। তবে পড়াশোনার পাশাপাশি শিক্ষার্থীরা কারিগরিভাবেও দক্ষ হয়ে ওঠতে পারে। এতে উদ্ভাবনী শক্তি বাড়বে। তিনি বলেন, আমাদের অনেক মেধাবী ছেলে বিদেশে কাজ করেন। তাদের দেশে ফিরিয়ে এনে কাজে লাগালে আমাদের অনেক অর্থ বেঁচে যায়। এছাড়া দেশের লোকবল দিয়ে কাজ করালে এক সময় তারাই দক্ষ হয়ে ওঠবে। কারণ সময় এখন ইনোভেশনের (উদ্ভাবন) দিকে যাওয়ার।

নিহাদ কবির বলেন, উন্নয়নশীল দেশ হতে আমাদের রিসার্চ এবং ডেভেলপম্যান্ট খুবই জরুরি। এজন্য প্রযুক্তি পণ্য আমদানিও করতে হবে। এক্ষেত্রে পলিসি সুবিধা দিতে হবে সরকারকে। কোন একটি জিনিসের দাম যে দেশে যেমন তা দিয়ে আমাদের আনতে হবে। এবং সেগুলো দিয়ে কাজ করে আমাদের অর্থ পরিশোধ করতে হবে। কিন্তু আমরা যদি প্রযুক্তিপণ্য আমদানিই না করতে পারি তবে ডেভেলপ হবে কি করে। আমাদের যদি করের ফাঁদে আটকে রাখা হয় তবে এটি বাংলাদেশের অর্থনীতির সঙ্গে সামঞ্জস্য হয় না। এসব বিষয় এছাড়া বৈদেশিক মুদ্রানীতির ক্ষেত্রেও আমাদের দেশে বেশ কিছু সমস্যা রয়েছে। কোম্পানিগুলোর রয়েলিটি টার্নওভারের ছয় শতাংশের বেশি হলে তা পরিশোধ করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের পারমিশন নিতে হয়। এক্ষেত্রে প্রায় সময়ই এক বছরের বেশি সময় লেগে যায়। আমরা যদি নজেলবেসড ইকোনমি করতে চাই তা হলে এসব নীতিগত সহায়তা দিতে হবে।

নাসিম মঞ্জুর বলেন, বিদেশি কোন বায়ার আমাদের দেশে আসলে আগে প্রশ্ন করে তোমরা ইনোভেশনের জন্য কি করছো। আর ইনোভেশনের জন্য টেকনোলজির দরকার। এমনকি আমাদের খাদ্যে ভেজালের সমাধানও দিতে পারে টেকনোলজি। কিন্তু টেকনোলজি আমদানিতে আমরা নীতিগত সহায়তা পাই না। আমি নিজে একটি জুতা ডিজাইনের মেশিন এনেছিলাম। তা যে ক্যাটাগরিতে পড়ে তাতে না দিয়ে অন্য ক্যাটাগরিতে শুল্কায়ন করা হয়েছিল। এতে আমার খরচ বেড়ে গেছে। সুতরাং উদ্ভাবনকে যদি করের ফাঁদে ফেলে দেন তবে তার গতি কমে যাবে। তিনি ট্রেনিং প্রোগ্রামগুলোকে আরও কার্যকরী করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

মূল প্রবন্ধে বলা হয়, বাজারের চাহিদা হলো সর্বোচ্চ মানের পণ্য, পণ্য উৎপদনে সর্বনিম্ন খরচ, এর মধ্যে পরিবেশের ক্ষতি কমিয়ে আনা এবং পরিবেশকে আরও সহনীয় করে তোলা। এসব কিছু পেতে গেলে প্রযুক্তি নির্ভর হতে হবে। কিন্তু প্রযুক্তি নির্ভর হলে অনেক লোক কর্মহীন হয়ে পড়ে। এক হিসাব অনুসারে প্রযুক্তির উদ্ভাবনের ফলে আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে ৮০ কোটি লোক কর্মহীন হয়ে পড়বে। তাই বলে প্রযুক্তির উন্নয়ন বন্ধ করা সম্ভব নয়। এটি উচিৎও নয়। সুতরাং আমাদের দেশে প্রযুক্তির উন্নয়ন করে অর্থনৈতিক উন্নয়ন করতে হলে নীতিগুলোকে সেভাবে সাজাতে হবে। আমাদের দেশের গতানুগতিক শিক্ষা এবং প্রশিক্ষণ এজন্য অনুপযোগী। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্রযুক্তির শিক্ষা বাড়াতে হবে। এছাড়া উদ্ভাবনের ক্ষেত্রে চাহিদা ও সরবরাহ যাতে সমন্বয় হয় সে ক্ষেত্রেও যুগোপুযোগী নীতিমালা তৈরি করতে হবে।

বাংলাদেশ হবে বিশ্বের ইলেকট্রনিক্স পণ্যের রাজধানী

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

বিশ্বের ইলেকট্রনিক্স পণ্য উৎপাদনকারীদের মধ্যে সবচেয়ে দ্রুত বর্ধনশীল প্রতিষ্ঠান দেশীয় প্রতিষ্ঠান। প্রবৃদ্ধির

জাতীয় জাদুঘরসহ ৮ দর্শনীয় স্থান থেকে বছরে আয় ৩ কোটি ৮৫ লাখ টাকা

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

জাতীয় জাদুঘরসহ দর্শনীয় ৮ স্থান থেকে বিগত অর্থবছরে সরকারের আয় হয়েছে ৩ কোটি

রপ্তানিমুখী পণ্যের জন্য বন্ডের আওতা বাড়ানো হবে

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

রপ্তানিমুখী পণ্যের জন্য বন্ডের আওতা বাড়ানো হবে বলে জানিয়েছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের

sangbad ad

ব্র্যাক ব্যাংক : নিট মুনাফা ৩৫% বৃদ্ধি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

ব্র্যাক ব্যাংকের বাৎসরিক সমন্বিত (কনসলিডেটেড) নিট মুনাফা রেকর্ড প্রায় ৩৫% বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০১৭

চলতি বছরেই বিশ্ব অর্থনীতির ৪০তম দেশ হবে বাংলাদেশ : পরিকল্পনামন্ত্রী

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

বাংলাদেশ চলতি বছরই বিশ্ব অর্থনীতির ৪০তম দেশ হবে বলে আসা করছেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল

নারীদের শুধু কুটির শিল্পের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকলে চলবে না

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন দেশের সম্ভাবনাময়ী নারী

এই প্রথম

image

লুনা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজ বিজ্ঞান বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী।

চা শিল্পে অবদান : পুরস্কার পেলেন লায়লা কবির ও আরদাশীর কবির

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

বাংলাদেশে চা শিল্পে অবদানের জন্য পুরস্কার পেলেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও শিল্পদ্যোক্তা লায়লা কবির ও আরদাশীর কবির। রোববার

এক কোটি ডলারের বিনিয়োগ পেল বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান অগমেডিক্স

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালির উদ্যোক্তাদের কাছ থেকে এক কোটি ডলারের বিনিয়োগ পেয়েছে বাংলাদেশি

sangbad ad