• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

 

সরকারি অফিসগুলোর বিরুদ্ধে দু’বছরে ঘুষ-দুর্নীতি ও হয়রানি অভিযোগের পাহাড়

নিউজ আপলোড : ঢাকা , শনিবার, ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

সংবাদ :
  • সাইফ বাবলু
image

ঘুষ-দুর্নীতি অনিয়ম আর হয়রানির শেষ নেই সরকারি সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোতে। বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পেও চলছে লুটপাট। এমন কোন সেক্টর নেই যেখানে ঘুষ-দুর্নীতি নেই। গত দু’বছরে দুর্নীতি দমন কমিশনের অভিযোগকেন্দ্রে সরকারি অফিসগুলোতে ৩১ লাখের বেশি ঘুষ-দুর্নীতির অভিযোগ জমা পড়েছে কিংবা ফোন পেয়েছে। চলতি বছর সারাদেশে ৫ শতাধিক অভিযান চালিয়েছে দুদক। তবুও থামছে না ঘুষ-দুর্নীতি ও অনিয়ম। কাক্সিক্ষত সেবা টাকা ছাড়া মিলছে না সরকারি অফিসগুলোতে, এ চিত্র সারাদেশেই। সবচেয়ে বেশি ঘুষ লেনদেন ও হয়রানি এবং প্রকল্পে লুটপাটের ঘটনা ঘটছে জেলা-উপজেলা পর্যায়ে। স্বচ্ছতা জবাবদিহিতা এবং ব্যবস্থা না থাকায় দুর্নীতির ক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে সরকারি অফিসগুলো।

এ বিষয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেন, দুর্নীতি সংঘটিত হওয়ার আগেই তা প্রতিরোধে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য কমিশনের অভিযোগকেন্দ্রের হটলাইন ১০৬ চালু করা হয়। জনগণ যেভাবে অভিযোগ জানাচ্ছে তাতে কমিশনের দায়িত্ববোধ আরও বেড়ে যাচ্ছে। সব অভিযোগের ব্যাপারে হয়তো কমিশনের পক্ষে ব্যবস্থা নেয়া সম্ভব হচ্ছে না। কারণ কমিশন আইনের তফসিল বহির্ভূত অভিযোগের ব্যাপারে কমিশনের পক্ষে আইনি পদক্ষেপ গ্রহণের সুযোগ নেই। তবে ১০৬ মানুষের অভিযোগ জানানোর প্লাটফর্ম হিসেবে পরিগণিত হচ্ছে।

তিনি বলেন, সরকারি সেবামূলক প্রতিষ্ঠানে অভিযানের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে দুর্নীতি প্রতিরোধে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানকে সতর্ক করা। হয়রানি ও দুর্নীতিমুক্ত সরকারি পরিষেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যেই অভিযান অব্যাহত রাখা হচ্ছে। সেবাপ্রত্যাশী নাগরিক হয়রানি বা অনিয়মের শিকার হয়ে কমিশনের হটলাইন ১০৬-এ অভিযোগ জানালেই এসব দফতরে অভিযান চালানো হবে। শুধু ঢাকা নয়, ঢাকার বাইরে জেলা-উপজেলা এমনকি ইউনিয়ন পর্যায়ে অভিযান চালানো হচ্ছে এবং অনেক সেবাপ্রত্যাশীকে দুদকের হস্তক্ষেপে প্রত্যাশিত সেবা নিশ্চিত করা হয়েছে। এমনকি সরকারি সম্পদের ক্ষতিসাধনও প্রতিরোধ করা সম্ভব হয়েছে। কোন কোন ক্ষেত্রে স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। সরকারি সেবামূলক প্রতিষ্ঠানের উদ্দেশ্যে দুদক চেয়ারম্যান বলেন, হয়রানি ও দুর্নীতিমুক্ত সেবাপ্রাপ্তি জনগণের সাংবিধানিক অধিকার। তাই দুর্নীতি ও হয়রানিমুক্তভাবে সরকারি পরিষেবা নিশ্চিত করুন। জনগণ দুদক অভিযোগকেন্দ্রের হটলাইন ১০৬-এ যতক্ষণ অভিযোগ জানানো বন্ধ না করবেন ততক্ষণ এ অভিযান অব্যাহত রাখা হবে। দুদক সূত্র জানায়, দুর্নীতির সংঘটিত হওয়ার পূর্বেই তা তাৎক্ষণিক প্রতিরোধের লক্ষ্যে ২০১৭ সালের ২৭ জুলাই দুর্নীতি দমন কমিশন অভিযোগকেন্দ্রের হটলাইন ১০৬ চালু করে। দুদকের বর্তমান চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদের নেতৃত্বাধীন কমিশন দুর্নীতির প্রতিরোধে ত্বরিত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। হটলাইনটি চালু হওয়ার প্রথম সপ্তাহেই প্রায় ৭৫ হাজার ফোনকল পায় দুদক।

কমিশনের অভিযোগকেন্দ্রের হটলাইন ১০৬-এ অভিযোগ জানানোর এ ধারা অব্যাহত রয়েছে। কমিশনের আইসিটি শাখা জানিয়েছে বিগত দুই বছর (২০১৭ সালের ২৭ জুলাই হতে চলতি বছরের ৩১ জুলাই পর্যন্ত কমিশনের অভিযোগকেন্দ্রের হটলাইন ১০৬-এ ফোনকল এসেছে প্রায় ৩১ লক্ষ। এছাড়া গত আগস্ট মাসে লক্ষাধিক অভিযোগ পাওয়া গেছে ফোনকলে।

সব মিলিয়ে প্রতিটি কার্যদিবসে গড়ে বিভিন্ন সরকারি অফিসে ঘুষ লেনদেন, হয়রানি, ফাইল আটকে রাখা, দালাল চক্রের দৌরাত্ম্য, প্রকল্পে অনিয়ম, সরকারি অর্থ আত্মসাৎসহ বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে ফোনকল এসেছে প্রায় ৬৫০০-এর মতো। কমিশনের পাঁচজন কর্মকর্তা পালাক্রমে প্রতি ২ ঘণ্টা অন্তর সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত প্রতি কর্মদিবসে এসব ফোনকল রিসিভ করছেন। কমিশনের অভিযোগকেন্দ্রের সব কার্যক্রম ডিজিটাল মনিটরিং করা হচ্ছে। কমিশনের চেয়ারম্যান, কমিশনার এবং সচিবসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা নিয়মিত অভিযোগকেন্দ্রটি সরেজমিনে পরিদর্শন করেন।

দুদক সূত্র জানায়, অনেক অভিযোগকারীই দুদক আইনের তফসিলভুক্ত দুর্নীতির অভিযোগের পাশাপাশি দুর্নীতি দমন কমিশন আইনের তফসিল বহির্ভূত অভিযোগ আসে। যেমন ব্যক্তিগত বিরোধ, যৌতুক, বিদ্যালয়ে পাঠদানে গাফিলতি, পারিবারিক বিরোধ, সামাজিক সমস্যাসহ বিভিন্ন বিষয়ে অভিযোগ করে থাকেন। কমিশনের সুস্পষ্ট নির্দেশনার আলোকে এই কেন্দ্রের কর্মকর্তারা দুদক আইনের তফসিলভুক্ত অপরাধসমূহ যেমন লিপিবদ্ধ করছেন, তেমনি তফসিল বহির্ভূত অপরাধের বিষয়ে অভিযোগকারীর করণীয় সম্পর্কে পরামর্শ প্রদান করছেন। কমিশন এসব অভিযোগ পাওয়ার সঙ্গে-সঙ্গেই ত্বরিত ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। এসব অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযানসহ অন্য আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য কমিশন একজন মহাপরিচালকের নেতৃত্বে একটি বিশেষ এনফোর্সমেন্ট ইউনিট গঠন করে। অভিযোগের ভিত্তিতে দুদকের এই এনফোর্সমেন্ট ইউনিট গত দুই বছরে অর্থাৎ ২০১৭ সালে ২৭ জুলাই থেকে চলতি বছরের ৩০ জুলাই পর্যন্ত দেশব্যাপী ৬২৬ টি দুর্নীতি প্রতিরোধমূলক অভিযান পরিচালনা করেছে। কেবল চলতি বছরের প্রথম সাত মাসেই ৪৭০টি অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এসব অভিযান পরিচালনায় কেন্দ্রীয়ভাবে যেমন কমিশনের সশস্ত্র পুলিশ ইউনিটকে ব্যবহার করা হচ্ছে। পাশাপাশি জেলা-উপজেলা পর্যায়ে স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতাও নেয়া হচ্ছে। অধিকাংশ অভিযানই সফল হয়েছে।

দুদক সূত্র জানায়, ভূমি, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, পরিবহন, পরিবেশ, ইউটিলিটি সেবা, নাগরিক সেবা, কৃষি, অর্থ, বনসহ প্রায় প্রতিটি সেক্টরেই এসব অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। সাধারণ মানুষের সমর্থনও পাওয়া যাচ্ছে। কমিশনের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে (িি.িভধপবনড়ড়শ.পড়স/ধপপ.ড়ৎম.নফ) অভিযানের তথ্য প্রকাশের ফলে বিভিন্ন ব্যক্তি যেমন কমিশনকে প্রশংসা করছেন, আবার কেউ কেউ স্ব-স্ব অধীক্ষেত্রে অভিযান পরিচালনার অনুরোধ জানাচ্ছেন, সংখ্যায় কম হলেও কেউ কেউ সমালোচনাও করছেন। আবার অনেকে দুর্নীতির অভিযোগও জানাচ্ছেন।

দুদক সূত্র জানায়, ইতোমধ্যেই যেসব অফিস-স্থানে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে এগুলো হচ্ছে, ডিসি অফিসের এল.এ শাখা, ডিসি অফিসের রেকর্ড রুম, এসিল্যান্ড অফিস, সাব-রেজিস্ট্রারের কার্যালয়, ইউনিয়ন ভূমি-তহশিল অফিস, জোনাল সেটেলমেন্ট অফিস, রাজউক, খাস জমি উদ্ধার, জাতীয় গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষ, ওষধ প্রশাসন অধিদফতর, সিভিল সার্জন অফিস, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতর, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতর, বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশন (বিসিআইসি), প্রধান বয়লার পরিদর্শকের কার্যালয়, স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল অধিদফতর, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদফতর, বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড, বিটিসিএল, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয়, গণপূর্ত অধিদফতর, সড়ক ও জনপথ অধিদফতর, ওয়াসা (ঢাকা, চট্টগ্রাম), তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন, বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড, ঢাকা পাওয়ার সাপ্লাই অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোং লি. (ডিপিডিসি), ঢাকা ইলেকট্রিক সাপ্লাই কোং লি. (ডেসকো), বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর, কারিগরি শিক্ষা অধিদফতর, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদফতর, মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদফতর, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডসমূহ, বাংলাদেশ শিক্ষা তথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরো (ব্যানবেইস), বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও সনদ কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ), বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, জেলা শিক্ষা অফিস, উপজেলা শিক্ষা অফিস, নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ, বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন (বিএসটিআই), উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকের কার্যালয়, জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকের কার্যালয়, এল.এস.ডি খাদ্য গুদাম, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ), বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশন(বিআরটিসি), বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ), বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি), বাংলাদেশ রেলওয়ে, পাসপোর্ট অধিদফতর, আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর, কারা অধিদফতর, জেলা কারাগার, সিটি করপোরেশন, পৌরসভা, জেলা পরিষদ, ইউনিয়ন পরিষদ, জনশক্তি-কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো, উপজেলা সমাজসেবা, ত্রাণ ও উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তার কার্যালয়,পরিবার পরিকল্পনা অফিস, ডাক বিভাগ, জেলা উপজেলা হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তার কার্যালয়, আঞ্চলিক আয়কর অফিস, অডিট অফিস, কাস্টমস অফিস, বন অধিদফতর-জেলা কার্যালয়। পরিবেশ অধিদফতর যার মধ্যে রয়েছে অবৈধ ইটভাটা উচ্ছেদবন্ধ, অবৈধ পাহাড় কাটা বন্ধ, অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধ, বৃক্ষ স¤পদ রক্ষা, অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ, অবৈধ পাথর উত্তোলন বন্ধ, নদী দখল প্রতিরোধ, নদী দূষণ প্রতিরোধ। প্রাণিসম্পদ অধিদফতর, মৎস্য অধিদফতর, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর, রেজিস্ট্রার অব জয়েন্ট স্টক কোম্পানিজ (আরজেএসসি), বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন, বাংলাদেশ অ্যাক্রেডিটেশন বোর্ড (বিএবি), প্যাটেন্ট, ডিজাইন ও ট্রেডমার্ক অধিদফতর (ডিপিডিটি), সরকারি আবাসন পরিদফতর, একটি বাড়ি একটি খামার, পর্যটন করপোরেশন, ইসলামিক ফাউন্ডেশন, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতর, বাংলাদেশ বেতার, জুট ডাইভারসিফিকেশন প্রমোশন সেন্টার (জেডিপিসি),স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ,অবৈধ টোল আদায় বন্ধ, সরকারি বাসায় অবৈধভাবে বসবাসকৃতদের উচ্ছেদ, ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ, (টিসিবি) আশ্রয়ণ প্রকল্প, পেট্রোবাংলা, বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি, চিড়িয়াখানা, যমুনা ওয়েল, বিসিক সমবায় অধিদফতর, মহিলা বিষয়ক অধিদফতর, ওয়াকফ্ প্রশাসকসহ বিভিন্ন প্রায় শতাধিক দফতর এবং স্থানে এসব অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।

দুর্নীতির বিষয়ে যেসব জায়গায় অভিযোগ করা যাবে তার মধ্যে রয়েছে কমিশনের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজ (িি.িভধপবনড়ড়শ.পড়স/ধপপ.ড়ৎম.নফ), কমিশনের ই-মেইল (পযধরৎসধহ@ধপপ.ড়ৎম.নফ) যে কোন টেলিফোন বা মোবাইল নম্বর থেকে দুদক অভিযোগকেন্দ্রের হটলাইন-১০৬ এ টোল ফ্রি টেলিফোনের মাধ্যমে (রবি-বৃহস্পতিবার, সকাল ০৯টা থেকে বিকেল ০৫টা পর্যন্ত। এছাড়া লিখিতভাবে কমিশনের চেয়ারম্যান-কমিশনার বরাবরে দুদক প্রধান কার্যালয়, ১ সেগুনবাগিচা, ঢাকার ঠিকানায় অথবা ৮টি বিভাগীয় কার্যালয়ে বিভাগীয় পরিচালক বরাবরে (অপরাধটি যে বিভাগের অধীন সংঘটিত), দুর্নীতি দমন কমিশন, বিভাগীয় কার্যালয় ঢাকা, চট্টগ্রাম, রংপুর, ময়মনসিংহ, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, সিলেট। অথবা কমিশনের ২২টি সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক বরাবরে (অপরাধটি যে সমনি¦ত জেলা কার্যালয়ের অধীন সংঘটিত) অভিযোগ দায়ের করা যাবে।

সাবেক স্বামীর হাতে খুন হন সাভারের এনজিওকর্মী হাসি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

সাবেক স্বামীর ইটের আঘাতে খুন হন সাভারের এনজিওকর্মী হাসি আক্তার (২৪)। গত ১ মে সাভারের আমিনবাজারের একটি ভাড়া বাসায় তাকে

বিক্রির উদ্দেশ্যে ইয়াবাগুলো রেখে দেয়া হয় আর ছেড়ে দেয়া হয় আসামিকে!

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

আসামি থেকে ইয়াবা জব্দ করে তাদের ছেড়ে দেন পুলিশের সদস্যরা। এরপর চলে ওই ইয়াবার ভাগবাটোয়ারা ও বিক্রির প্রস্তুতি। অবশেষে

বিয়ের প্রলোভনে ধারাবাহিক ধর্ষণের অভিযোগ!

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

বিয়ের প্রলোভনে নার্সিং ইন্সটিটিউটের এক ছাত্রীকে (২০) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ (মিটফোর্ড) হাসপাতালের

sangbad ad

এমপি’র নামে ভুয়া অশ্লীল ভিডিও প্রকাশে দুজন গ্রেফতার

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

বরিশাল-৪ আসনের সংসদ সদস্য পংকজ দেবনাথের নামে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভুয়া অশ্লীল ভিডিও ছাড়ানোর অভিযোগে দুইজনকে

বিএআরআই’র কর্মকর্তাদের পদায়নে ৫ কোটি টাকার অবৈধ লেনদেনের অনুসন্ধানে দুদক

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন ছাড়াই বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের (বিএআরআই) সাড়ে ৩শ’ বৈজ্ঞানিক সহকারীর গ্রেড-পদায়নে আর্থিক

তিন কোম্পানিকে ৪৩ লাখ টাকা জরিমানা

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

অবৈধভাবে সাবান-ডিটারজেন্ট ও বৈদ্যুতিক মামলামাল তৈরী করার অপরাধে তিনটি কোম্পানিতে অভিযান চালিয়েছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমান আদালত।

দুদকের বরখাস্ত পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছিরকে জামিন দেননি হাইকোর্ট

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

ঘুষ লেনদেনের মামলায় সাময়িক বরখাস্ত হওয়া দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছিরকে জামিন দেননি হাইকোর্ট। মঙ্গলবার

হাতে ঘুষ চোখে দুদক!

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

রাজধানীর প্রাণকেন্দ্র মতিঝিলে বিআইডব্লিটিরএর ভবনে নৌ পরিবহন অধিদপ্তরে দু লাখ টাকা ঘুষসহ হাতেনাতে আটক হলেন শিপ সার্ভেয়ার

মোস্তফা গ্রুপের চেয়ারম্যানসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

ভূয়া এলসি খুলে বিডিবিএল থেকে ১৭৪ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে জালিয়াতকারী প্রতিষ্ঠান মোস্তফা গ্রুপের চেয়ারম্যান হেফাজেতুর

sangbad ad