• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , সোমবার, ১৭ জুন ২০১৯

 

লাশের মুক্তিপণ লাশ রাখার খাটিয়ায় রেখে যেতে বলা হয়েছিল!

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বুধবার, ১০ এপ্রিল ২০১৯

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
image

রাজধানীর ডেমরার মাদ্রাসার শিক্ষার্থী মনির হোসেনকে (৮) শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় মূলপরিকল্পনাকারী মসজিদের ইমাম আবদুল জলিল হাদী ও তার দুই সহযোগী আকরাম হোসেন ও আহাম্মদ সফি ওরফে তোহাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ১টি পাতলা তোয়ালে, ২টি সিমেন্টের বস্তা, ২টি কালো রংয়ের দড়ি, সিমসহ ১টি মোবাইল সেট, মৃতদেহের পড়নে থাকা গ্যাবাডিংয়ের ফুল প্যান্ট ও পাঞ্জাবি উদ্ধার করা হয়। মনিরকে হত্যার পর তারা পরিবারের কাছে তিন লাখ টাকা মুক্তিপণ চেয়েছিল। গোয়েন্দা তথ্য, প্রযুক্তির সহায়তা ও অনুসন্ধানে হাত্যাকাণ্ডের তিন দিনের মধ্যে মনির হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। ১০ এপ্রিল বুধবার সকালে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টার এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান ওয়ারী জোনের ডিসি মো. ফরিদ উদ্দিন।

তিনি জানান, তারা হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। তাদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, ডেমরার ডগাইর নতুন পাড়ার মো. সাইদুল হকের বড় মেয়ে ফাতেমা আক্তার (১২), মেঝ মেয়ে মুন্নি আক্তার (৯) ও ছোট ছেলে মো. মনির হোসেন (৮) নুর-ই মদিনা মাদ্রাসায় লেখাপড়া করত। গত ৭ এপ্রিল সকালে প্রতিদিনের মতো মাদ্রাসায় যায় মনির ও তার দুই বোন। পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী সকাল ১১টায় মাদ্রাসা ছুটির পর মনিরকে অপহরণ করে তারই মাদ্রাসার শিক্ষক ইমাম তার সহযোগীরা।

অপহরণের পর মনিরকে পাশের নির্মাণাধীন মসজিদে (মসজিদুল-ই-আয়শা) নিয়ে যায় তারা। হত্যাকাণ্ডে জড়িত আবদুল জলিল হাদী মসজিদুল-ই-আয়শারও ঈমাম। ওখানে নেয়ার পর শিশু শিক্ষার্থী মনির কান্না-কাটি শুরু করলে তার মুখ চেপে ধরে একজন। তখন মনির আরও জোরে চিৎকার চেচামেচি শুরু করে। এ সময় হাদী গামছা দিয়ে মনিরের চোখ-মুখ বেঁধে ফেলে। এক সময় অপহরণকারীরা বুঝতে পারে মনির আর বেঁচে নেই। তখন তারা মনিরের হাত-পা বেঁধে লাশটি একটি সিমেন্টের বস্তায় ঢুকিয়ে সিঁড়ির পাশে রেখে দেয়।

ডিসি আরও জানান, মনির মারা গেছে জেনেও অপরহরণকারী ও তার সহযোগীরা তার বাবা সাইদুল হকের কাছে মুঠোফোনে তিন লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। অপহরণকারীরা মসজিদের লাশ রাখার খাটিয়ায় মুক্তিপণের টাকা রেখে যেতে বলে। যত দ্রুত সম্ভব মনিরের বাবা ১ লাখ টাকা জোগার করে অপহরণকারীদের নির্দেশ মতে মসজিতে নিয়ে আসে। মনিরকে ফিরে পাওয়ার আশায় তিনি অপেক্ষা করতে থাকেন। এ সময় তিনি মুক্তিপণের টাকা মসজিদের ঈমাম হাদীর কাছে রাখেন। রাতভর অপেক্ষা করেও মনির ফিরে না আসায় পরদিন সকালে তিনি টাকা নিয়ে চলে আসেন।

এদিকে পরদিন ৮ এপ্রিল বিকেল ৫টার দিকে মসজিদের সিঁড়ির কাছ থেকে বস্তাবন্দী মনিরের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। মসজিদের দ্বিতীয় ও তৃতীয় তলার সিঁড়ির মাঝে বস্তাবন্দী মনিরের লাশটি রাখা ছিল। পরে সন্দেহভাজন হিসেবে ওই মসজিদের ইমাম ও ছাত্র তোহাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতার দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। প্রথমে স্বীকার না করলেও ৯ এপ্রিল মঙ্গলবার বিকেলে মনিরকে অপহরণ ও হত্যার কথা স্বীকার করে তারা। তাদের দেয়া তথ্যে বংশালের মালিটোলা থেকে অপর আসামি আকরামকে গ্রেফতার করা হয়।

ঘুষ লেনদেনের অভিযোগে এনামুল : নতুন অনুসন্ধান কর্মকর্তা নিয়োগ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ থেকে ‘দায়মুক্তির’ চুক্তিতে ৪০ লাখ টাকার ঘুষ লেনদেনে ফেঁসেছেন অভিযোগ সংশ্লিস্ট পুলিশের ডিআইজি

বরখাস্ত দুদক পরিচালকের ঘুষ নেওয়ার বিষয়টির প্রমাণ রয়েছে বলে ডিআইজি মিজানুরের দাবি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

দুর্নীতি দমন কমিশনের সাময়িক বরখাস্ত হওয়া পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছির ঘুষ নেওয়ার বিষয়টি সম্পূর্ণ বানোয়াট বললেও অভিযোগকারী

অনুসন্ধানের তথ্য অভিযুক্ত ব্যক্তির কাছে প্রকাশ করায় খন্দকার এনামুল বাছির সাময়িক বরখাস্ত : দুদক চেয়ারম্যান

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অনুসন্ধান করতে গিয়ে পুলিশের ডিআইজি (বরখাস্ত) মোঃ মিজানুর রহমানের কাছ থেকে ৪০ লাখ টাকা ঘুষ নেওয়া এবং গাড়ি

sangbad ad

ভূয়া কাগজপত্রে সরকারকে জড়িত করে ২৫ কোটি টাকা ঋণ আত্মসাৎ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

ভূয়া কাগজপত্র দিয়ে বাংলাদেশ ডেভেলোপমেন্ট ব্যাংক(বিডিবিএল) থেকে ২৫ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে টিপু সুলতান নামে এক ব্যবসায়ী।

দুদকের অনুসন্ধান কর্মকর্তাকে ঘুষ : বরখাস্ত ডিআইজি করছে অভিযোগ দুদক বলছে অনুসন্ধান বিতর্কিতকরণ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

আলোচিত পুলিশের জিআইজি (বর্তমানে সাময়িক বরখাস্ত) মো. মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে ২ কোটি টাকারও বেশি অবৈধ সম্পদ থাকার

লালবাগ রাজস্ব সার্কেলের কানুনগো মেজবাহ বরখাস্ত

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

দুর্নীতি এবং অসদাচরণের প্রমাণ পাওয়ায় ঢাকার লালবাগ রাজস্ব সার্কেলের কানুনগো এইচ এম মেজবাহ উদ্দিনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

আমদানিকারকের স্টিকার না বসিয়ে ইচ্ছেমতো মূল্যে বিদেশি পণ্য বিক্রি : জরিমানা তিন লাখ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

বিদেশি পণ্যের মোড়কে আমদানিকারক স্টিকার নেই। ইচ্ছেমতো দাম নিয়ে ভোক্তাদের ঠকানো হচ্ছে। এ অপরাধে রাজধানীর বেইলি রোডের

বরখাস্ত কর্নেল শহীদ খানের জঙ্গি সম্পৃক্ততার তথ্য পেয়েছে লন্ডন পুলিশ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

লন্ডনে পালানো বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বরখাস্ত হওয়া কর্নেল শহীদ উদ্দিন খানের জঙ্গি সম্পৃক্ততার তথ্য পেয়েছে সেখানকার পুলিশ। সেখানে

সিনেমায় নায়িকা না হতে পেরে বাস্তবে খলনায়িকা!

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

অভিনব কায়দায় প্রতারণা করে সম্পদ হাতিয়ে নেওয়া একটি চক্রের মূলহোতা সুন্দরী তানিয়াসহ

sangbad ad