• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯

 

লাশের মুক্তিপণ লাশ রাখার খাটিয়ায় রেখে যেতে বলা হয়েছিল!

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বুধবার, ১০ এপ্রিল ২০১৯

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
image

রাজধানীর ডেমরার মাদ্রাসার শিক্ষার্থী মনির হোসেনকে (৮) শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় মূলপরিকল্পনাকারী মসজিদের ইমাম আবদুল জলিল হাদী ও তার দুই সহযোগী আকরাম হোসেন ও আহাম্মদ সফি ওরফে তোহাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ১টি পাতলা তোয়ালে, ২টি সিমেন্টের বস্তা, ২টি কালো রংয়ের দড়ি, সিমসহ ১টি মোবাইল সেট, মৃতদেহের পড়নে থাকা গ্যাবাডিংয়ের ফুল প্যান্ট ও পাঞ্জাবি উদ্ধার করা হয়। মনিরকে হত্যার পর তারা পরিবারের কাছে তিন লাখ টাকা মুক্তিপণ চেয়েছিল। গোয়েন্দা তথ্য, প্রযুক্তির সহায়তা ও অনুসন্ধানে হাত্যাকাণ্ডের তিন দিনের মধ্যে মনির হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। ১০ এপ্রিল বুধবার সকালে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টার এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান ওয়ারী জোনের ডিসি মো. ফরিদ উদ্দিন।

তিনি জানান, তারা হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। তাদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, ডেমরার ডগাইর নতুন পাড়ার মো. সাইদুল হকের বড় মেয়ে ফাতেমা আক্তার (১২), মেঝ মেয়ে মুন্নি আক্তার (৯) ও ছোট ছেলে মো. মনির হোসেন (৮) নুর-ই মদিনা মাদ্রাসায় লেখাপড়া করত। গত ৭ এপ্রিল সকালে প্রতিদিনের মতো মাদ্রাসায় যায় মনির ও তার দুই বোন। পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী সকাল ১১টায় মাদ্রাসা ছুটির পর মনিরকে অপহরণ করে তারই মাদ্রাসার শিক্ষক ইমাম তার সহযোগীরা।

অপহরণের পর মনিরকে পাশের নির্মাণাধীন মসজিদে (মসজিদুল-ই-আয়শা) নিয়ে যায় তারা। হত্যাকাণ্ডে জড়িত আবদুল জলিল হাদী মসজিদুল-ই-আয়শারও ঈমাম। ওখানে নেয়ার পর শিশু শিক্ষার্থী মনির কান্না-কাটি শুরু করলে তার মুখ চেপে ধরে একজন। তখন মনির আরও জোরে চিৎকার চেচামেচি শুরু করে। এ সময় হাদী গামছা দিয়ে মনিরের চোখ-মুখ বেঁধে ফেলে। এক সময় অপহরণকারীরা বুঝতে পারে মনির আর বেঁচে নেই। তখন তারা মনিরের হাত-পা বেঁধে লাশটি একটি সিমেন্টের বস্তায় ঢুকিয়ে সিঁড়ির পাশে রেখে দেয়।

ডিসি আরও জানান, মনির মারা গেছে জেনেও অপরহরণকারী ও তার সহযোগীরা তার বাবা সাইদুল হকের কাছে মুঠোফোনে তিন লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। অপহরণকারীরা মসজিদের লাশ রাখার খাটিয়ায় মুক্তিপণের টাকা রেখে যেতে বলে। যত দ্রুত সম্ভব মনিরের বাবা ১ লাখ টাকা জোগার করে অপহরণকারীদের নির্দেশ মতে মসজিতে নিয়ে আসে। মনিরকে ফিরে পাওয়ার আশায় তিনি অপেক্ষা করতে থাকেন। এ সময় তিনি মুক্তিপণের টাকা মসজিদের ঈমাম হাদীর কাছে রাখেন। রাতভর অপেক্ষা করেও মনির ফিরে না আসায় পরদিন সকালে তিনি টাকা নিয়ে চলে আসেন।

এদিকে পরদিন ৮ এপ্রিল বিকেল ৫টার দিকে মসজিদের সিঁড়ির কাছ থেকে বস্তাবন্দী মনিরের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। মসজিদের দ্বিতীয় ও তৃতীয় তলার সিঁড়ির মাঝে বস্তাবন্দী মনিরের লাশটি রাখা ছিল। পরে সন্দেহভাজন হিসেবে ওই মসজিদের ইমাম ও ছাত্র তোহাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতার দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। প্রথমে স্বীকার না করলেও ৯ এপ্রিল মঙ্গলবার বিকেলে মনিরকে অপহরণ ও হত্যার কথা স্বীকার করে তারা। তাদের দেয়া তথ্যে বংশালের মালিটোলা থেকে অপর আসামি আকরামকে গ্রেফতার করা হয়।

থাপ্পড়ের জবাব গণধর্ষণে

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

থাপ্পড়ের প্রতিশোধ নিতে বন্ধুদের দিয়ে বান্ধবীকে (১৬) গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত শুক্রবার (১১ অক্টোবর) রাতে রাজধানীর

সম্রাট ১০ দিনের রিমান্ডে

আদালত বার্তা পরিবেশক

image

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটকে রমনা থানার অস্ত্র ও মাদক আইনের আলাদা দুই মামলায়

প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে বাবা-চাচারাই খুন করে তুহিনকে : ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার

লতিফুর রহমান রাজু, সুনামগঞ্জ

image

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার রাজানগর ইউনিয়নের কেজাউরা গ্রামে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে শিশু তুহিনকে নৃশংস ও নিষ্ঠুরভাবে খুন করে বাবা

sangbad ad

মুখ খুললেন দুদক

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

আলোচিত বেসিক ব্যাংকের সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকা লোপাটের ঘটনায় মামলার তদন্তে অর্থ লুটের মূল হোতা সাবেক চেয়ারম্যান

অপহৃতের লাশ বস্তা বন্দি করে নদীতে ফেলে দেয়ার স্বীকারউক্তি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকা থেকে অপহৃত কিশোর কুতুব উদ্দিন পাপ্পু (১৫) মৃত্যুর পর তার লাশ মুন্সীগঞ্জের লৌহজং এলাকার নদীতে

জালিয়াত প্রতিষ্ঠান ক্রিসেন্ট গ্রুপের ২০ কোটি টাকার সম্পত্তি ক্রোক

সাইফ বাবলু

image

খেলাপি গ্রাহক ‘জালিয়াত প্রতিষ্ঠান’ ক্রিসেন্ট গ্রুপের ৫ প্রতিষ্ঠানের নামে নিয়মনীতি তোয়াক্কা না করে প্রায় ২ হাজার কোটি টাকা ঋণ দেওয়া

ই-উস্কানী’র বিরুদ্ধে তৎপর প্রসাশন

বাকী বিল্লাহ

image

সংঘবদ্ধ চক্র পরস্পর যোগসাজশে দেশে অস্থিরতা সৃষ্টি ও আইন শৃংখলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটাতে নানা ভাবে সামাজিক যোগাযোগ্য মাধ্যমে

৩য় শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টায় ৪৫ এর মানিক

প্রতিনিধি, হবিগঞ্জ

image

হবিগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী এনা পরিবহনে তৃতীয় শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযাগে ওই বাসের সুপার ভাইজার

ই-মেইল থেকে চুক্তিপত্র মুছে দিয়ে কোম্পানির কোটি টাকার ক্ষতি

বাকী বিল্লাহ

image

পাল্টে গেছে অপরাধের ধরন। প্রতিনিয়ত দেশে নতুন নতুন কৌশলে অপরাধ ঘটছে। আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির যুগে সংঘবদ্ধ চক্র চাকরী করতে

sangbad ad