• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২০

 

লাশের মুক্তিপণ লাশ রাখার খাটিয়ায় রেখে যেতে বলা হয়েছিল!

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বুধবার, ১০ এপ্রিল ২০১৯

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
image

রাজধানীর ডেমরার মাদ্রাসার শিক্ষার্থী মনির হোসেনকে (৮) শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় মূলপরিকল্পনাকারী মসজিদের ইমাম আবদুল জলিল হাদী ও তার দুই সহযোগী আকরাম হোসেন ও আহাম্মদ সফি ওরফে তোহাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ১টি পাতলা তোয়ালে, ২টি সিমেন্টের বস্তা, ২টি কালো রংয়ের দড়ি, সিমসহ ১টি মোবাইল সেট, মৃতদেহের পড়নে থাকা গ্যাবাডিংয়ের ফুল প্যান্ট ও পাঞ্জাবি উদ্ধার করা হয়। মনিরকে হত্যার পর তারা পরিবারের কাছে তিন লাখ টাকা মুক্তিপণ চেয়েছিল। গোয়েন্দা তথ্য, প্রযুক্তির সহায়তা ও অনুসন্ধানে হাত্যাকাণ্ডের তিন দিনের মধ্যে মনির হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। ১০ এপ্রিল বুধবার সকালে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টার এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান ওয়ারী জোনের ডিসি মো. ফরিদ উদ্দিন।

তিনি জানান, তারা হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। তাদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, ডেমরার ডগাইর নতুন পাড়ার মো. সাইদুল হকের বড় মেয়ে ফাতেমা আক্তার (১২), মেঝ মেয়ে মুন্নি আক্তার (৯) ও ছোট ছেলে মো. মনির হোসেন (৮) নুর-ই মদিনা মাদ্রাসায় লেখাপড়া করত। গত ৭ এপ্রিল সকালে প্রতিদিনের মতো মাদ্রাসায় যায় মনির ও তার দুই বোন। পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী সকাল ১১টায় মাদ্রাসা ছুটির পর মনিরকে অপহরণ করে তারই মাদ্রাসার শিক্ষক ইমাম তার সহযোগীরা।

অপহরণের পর মনিরকে পাশের নির্মাণাধীন মসজিদে (মসজিদুল-ই-আয়শা) নিয়ে যায় তারা। হত্যাকাণ্ডে জড়িত আবদুল জলিল হাদী মসজিদুল-ই-আয়শারও ঈমাম। ওখানে নেয়ার পর শিশু শিক্ষার্থী মনির কান্না-কাটি শুরু করলে তার মুখ চেপে ধরে একজন। তখন মনির আরও জোরে চিৎকার চেচামেচি শুরু করে। এ সময় হাদী গামছা দিয়ে মনিরের চোখ-মুখ বেঁধে ফেলে। এক সময় অপহরণকারীরা বুঝতে পারে মনির আর বেঁচে নেই। তখন তারা মনিরের হাত-পা বেঁধে লাশটি একটি সিমেন্টের বস্তায় ঢুকিয়ে সিঁড়ির পাশে রেখে দেয়।

ডিসি আরও জানান, মনির মারা গেছে জেনেও অপরহরণকারী ও তার সহযোগীরা তার বাবা সাইদুল হকের কাছে মুঠোফোনে তিন লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। অপহরণকারীরা মসজিদের লাশ রাখার খাটিয়ায় মুক্তিপণের টাকা রেখে যেতে বলে। যত দ্রুত সম্ভব মনিরের বাবা ১ লাখ টাকা জোগার করে অপহরণকারীদের নির্দেশ মতে মসজিতে নিয়ে আসে। মনিরকে ফিরে পাওয়ার আশায় তিনি অপেক্ষা করতে থাকেন। এ সময় তিনি মুক্তিপণের টাকা মসজিদের ঈমাম হাদীর কাছে রাখেন। রাতভর অপেক্ষা করেও মনির ফিরে না আসায় পরদিন সকালে তিনি টাকা নিয়ে চলে আসেন।

এদিকে পরদিন ৮ এপ্রিল বিকেল ৫টার দিকে মসজিদের সিঁড়ির কাছ থেকে বস্তাবন্দী মনিরের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। মসজিদের দ্বিতীয় ও তৃতীয় তলার সিঁড়ির মাঝে বস্তাবন্দী মনিরের লাশটি রাখা ছিল। পরে সন্দেহভাজন হিসেবে ওই মসজিদের ইমাম ও ছাত্র তোহাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতার দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। প্রথমে স্বীকার না করলেও ৯ এপ্রিল মঙ্গলবার বিকেলে মনিরকে অপহরণ ও হত্যার কথা স্বীকার করে তারা। তাদের দেয়া তথ্যে বংশালের মালিটোলা থেকে অপর আসামি আকরামকে গ্রেফতার করা হয়।

ব্যাংকের চেয়ারম্যানসহ তিন জনের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

গ্রাহকের সোয়া ৯ কোটি টাকা জালিয়াতীর মাধ্যমে আত্মসাত করার অভিযোগে দি ঢাকা মার্কেন্টাইল কো অপারেটিভ ব্যাংক লিঃ এর চেয়ারম্যান

সাবেক মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের এপিএসকে দুদকে তলব

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সাবেক মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের

ঢাকা ব্যাংকের ২ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাত মামলার চার্জশিট দাখিলে দুদকের অনুমোদন

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

জালিয়াতির মাধ্যমে গ্রাহকদের ৭ কোটি টাকা আত্মসাতের মামলায় ঢাকা ব্যাংকের ফেনী শাখার ২ কর্মকর্তাসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে করা মামলার

sangbad ad

সাঈদ খোকনের বিরুদ্ধে দুর্নীতি অনুসন্ধানে অপেক্ষা করতে বললেন দুদক চেয়ারম্যান

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকনের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ অনুসন্ধানে অপেক্ষা করতে বললেন দুদক চেয়ারম্যান

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এপিএস’কে হাজির হতে দুদকের দ্বিতীয় দফায় তলবি নোটিশ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

অবৈধ সম্পদ অর্জন ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের নানা কাজে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে

সাবেক কাস্টমস কর্মকর্তার ৫ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেটের সাবেক কমিশনার মোঃ শফিকুল ইসলামের অবৈধ সম্পদের পরিমান প্রায় ৫ কোটি টাকার। ঘুষ

চেয়ারম্যান হওয়ার পর শত কোটি টাকার সম্পদের মালিক হওয়ায় এনামুল কবির চৌধুরীকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হওয়ার পর প্রায় শত কোটি টাকার সম্পদের মালিক হয়েছেন সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক

সড়ক প্রশস্ত প্রকল্পে পকেট প্রশস্ত : দুদকের অভিযান

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

গাইবান্ধায় ৩ টি প্যাকেটে ১০৩ কোটি টাকা ব্যায়ে সড়ক প্রশস্তকরণ

মাদকসহ এবার ভূয়া এমপি আটক

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

জাতীয় সংসদের স্টিকার ব্যবহার করে প্রাইভেটকারে মাদক পাচারের সময় এক ভূয়া

sangbad ad