• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯

 

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজে দুর্নীতি : ৫ জনকে দুদকের জিজ্ঞাসাবাদ

নিউজ আপলোড : ঢাকা , রোববার, ১২ মে ২০১৯

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
image

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজে আসবাব কেনার নামে সরকারি অর্থ আত্মসাৎ ও অনিয়মের অনুসন্ধানের অংশ হিসেবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদসহ পাঁচ কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন দুদক। ১২ মে রোববার রাজধানীর মহাখালীতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে গিয়ে তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করে দুদকের একটি দল। এর আগে সেখানে গিয়ে অভিযোগসংশ্লিষ্ট নথিও সংগ্রহ করে সংস্থাটি।

দুদক সূত্র জানিয়েছে, অভিযোগটি অনুসন্ধানের জন্য দুদকের চট্টগ্রাম ২ সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক মাহবুবুল আলমের নেতৃত্বে দলটিই স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে গিয়ে অভিযোগ সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ অধিদপ্তরের মহাপরিচাল আবুল কালাম আজাদসহ ৫ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ছাড়া আরও যাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় তাঁরা হলেন, অধিদপ্তরের চিকিৎসা শিক্ষা ও স্বাস্থ্য জনশক্তি উন্নয়ন বিভাগের সাবেক পরিচালক ও লাইন ডিরেক্টর আবদুর রশীদ, কর্মসূচি ব্যবস্থাপক মো. ইউনুস, উপ-কর্মসূচি ব্যবস্থাপক কামরুল কিবরিয়া ও প্রধান সহকারী আবদুল মালেক। তবে উচ্চমান সহকারী খায়রুল আলমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নোটিশ দেওয়া হলেও তিনি অফিসে উপস্থিত ছিলেন না। এর আগে সেখানে উপস্থিত হয়ে ২০১৬-১৭ অর্থবছরে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজে আসবাবপত্র ক্রয়সংক্রান্ত যাবতীয় রেকর্ডপত্রের সত্যায়িত কপি, মেডিকেল কলেজে ফার্নিচার ক্রয়সংক্রান্ত আইন-বিধি ও নীতিমালার কপি সংগ্রহ করে দুদকের দলটি।

দুদক সূত্র জানায়, ২০১৭ সালের ১৮ ডিসেম্বর কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ আসবাব কেনার জন্য ২০ কোটি ৮৫ লাখ ৮৪ হাজার ৮০০ টাকার প্রশাসনিক অনুমোদনসহ বরাদ্দ চান। চিকিৎসা শিক্ষা ও স্বাস্থ্য জনশক্তি উন্নয়ন বিভাগের প্রশাসনিক প্ল্যানে তাঁদের জন্য কোনো বরাদ্দ ছিল না। তারপরও মন্ত্রণালয়ের থোক বরাদ্দ থেকে ওই পরিমাণ টাকা বরাদ্দ দেওয়াসহ প্রশাসনিক অনুমোদনের জন্য পাওয়া প্রস্তাব সুপারিশসহ অগ্রবর্তী করা হয়। নথিতে ওই ছয়জন কর্মকর্তা-কর্মচারী সই করেন।

জিজ্ঞাসাবাদ শেষে অনুসন্ধান দলের প্রধান দুদকের চট্টগ্রাম-২ সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক মাহবুবুল আলম সাংবাদিকদের বলেন, কক্সবাজার মেডিকেল কলেজে আসবাবপত্র কেনার মাধ্যমে দুর্নীতির অভিযোগ প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হয়েছে। কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের আসবাবপত্র কেনার জন্য দুটি প্রতিষ্ঠানকে ঠিকাদার নিয়োগ দেওয়া হয়। এর মধ্যে একটিকে ৩ কোটি ৪৯ লাখ টাকা পরিশোধ করা হয়। আরেক প্রতিষ্ঠানের টাকা পরিশোধ করা হয়নি। আসবাবপত্র কেনার জন্য কোনো বরাদ্দ ছিল না। তারপরও মন্ত্রণালয়ের থোক বরাদ্দ থেকে টাকা বরাদ্দ দেওয়াসহ প্রশাসনিক অনুমোদনের জন্য সুপারিশ করেন মহাপরিচালকসহ জিজ্ঞাসাবাদের আওতায় আসা ছয় কর্মকর্তা-কর্মচারী সই করেছেন। তাঁর মতে, এখানে দুর্নীতি হয়েছে, সেটা স্পষ্ট।

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র : মিনিস্ট্রি রিপোর্ট চাইবে ও দেখবে দুদক

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

দুর্নীতি দমন কশিনের(দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেছেন রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে কেনাকাটায় দুর্নীতির বিষয়টিতে নজর রাখছে

খুন করার পর স্বাভাবিক আচরণ করেও পার পায়নি খুনি!

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

সহকর্মীকে নৃশংসভাবে হত্যার পর পুলিশ ও স্বজনদের খবর দেয়ার পাশাপাশি দাফনে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করেছে হত্যাকারী। সন্দেহ এড়াতে হত্যার

আ’লীগের সাবেক এমপিকে দুদকে তলব

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

ক্ষমতার অপব্যাবহার করে অনিয়ম ও দুর্নীতির মাধ্যমে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পিরোজপুর ১ আসনের

sangbad ad

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালককে দুদকে তলব

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক ডা. আমিনুল ইসলামকে তলব করে নোটিশ পাঠিয়েছে

ফালুসহ ৭জন জমি আত্মসাৎকারীর বিরুদ্ধে দুদকের চার্জশিট অনুমোদন

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

ভালুকার বনবিভাগের ১২৭ শতাংশ জমি আত্মসাতের অভিযোগে বিএনপির সাবেক সংসদ সদস্য মোসাদ্দেক আলী ফালু ও ভালুকার সাব-রেজিস্টার

শরবত খাইয়ে সিএনজি চুরি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

রাজধানীর রামপুরা এলাকায় সিএনজি চালককে মিষ্টি পানীয় শরবতের সঙ্গে

এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদারকে হাজির হতেই হচ্ছে

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

জাতীয় পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদারকে সম্পদের হিসাব দিতে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদকে) হাজির হতেই হচ্ছে। এর আগে দুদকের

অর্থসহ বিপুল পরিমাণ সম্পদ পাচার : ফালুর বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

অফশোর কোম্পানি খুলে ক্ষমতার অপব্যবহার করে ১৮৩ কোটি ৯২ লাখ টাকা দুবাইয়ে পাচার করেছেন বিএনপির সাবেক সংসদ সদস্য মোসাদ্দেক

রাসেল হত্যাকাণ্ডের মূল পরিকল্পানাকারী মাদক দম্পতি গ্রেফতার

বাকী বিল্লাহ

image

রাজধানীর কদমতলী এলাকায় ২০১৫ সালের সংঘটিত রাসেল হত্যাকান্ডে জড়িত মাদক বিক্রেতা পিংকি আক্তার ও তার স্বামী জহিরুল হক

sangbad ad