• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯

 

এবি ব্যাংক দুর্নীতি : চেয়ারম্যানের বিদেশ ভ্রমনের আদেশ স্থগিত

নিউজ আপলোড : ঢাকা , মঙ্গলবার, ০২ এপ্রিল ২০১৯

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
image

সিঙ্গাপুরে অফসোর কোম্পানীতে বিনিয়োগের অন্তরালে ১৬৫ কোটি টাকা পাচারের অভিযোগে করা মামলার মূল হোতা আরব বাংলাদেশ ব্যাংকের (এবি ব্যাংক) চেয়ারম্যান এম ওয়াহিদুল হক এবং হেড অব কর্পোরেশন (মামলার আরেক আসামী) ব্যবসায়ী মোস্তফা’র বিদেশে যাওয়ার আইনী আদেশ স্থগিত করেছে আদালত। দুদকের রিভিউ আবেদনের পেক্ষিতে ১ এপ্রিল সোমবার বিকেলে এ আদেশ দেন মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোঃ ইমরুল কায়েস।

দুদক সূত্র জানায়, বিদেশে ১৬৫ কোটি টাকা পাচারের মামলার মূল আসামী এবি ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান ওয়াহিদুল হক এবং কর্মকর্তা আবু হেনা মোস্তফা কামালের বিদেশ গমনে কোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে রিভিশনের জন্য দুদক থেকে আবেদন করা হয় গত ২৭ মার্চ। আবেদনের পেক্ষিতে সোমবার মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো: ইমরুল কায়েস এজলাসে শুনানী হয়। শুনানী শেষে আদালত দুদকের রিভিশনের আবেদন গ্রহণ করেন এবং সিএমএম কোর্টের আদেশ স্থগিত করেন। ফলে অর্থ আত্নসাতের মুল হোতা এম, ওয়াহিদুল হক এবং আবু হেনা মোস্তফা কামাল বিদেশ গমন করতে পারবেন না।

সূত্র জানায়, গত বছরের (২০১৮) ৩০ জানুয়ারী সিঙ্গাপুরে অফসোর কোম্পানীর সৃস্টি করে বিনিয়োগের নামে আরব বাংলাদেশ বাংক (এবি বাংক) থেকে ১৬৫ কোটি টাকা পাচার এবং আত্মসাতের অভিযোগে মামলা করে দুদক। রাজধানীর মতিঝিল থানায় দুদকের সহকারী পরিচালক গুলশান আনোয়ার প্রধান বাদী হয়ে মামলাটি করেন। মামলায় ওইদিনই এবি ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান ও অর্থ পাচার এবং আত্মসাত ঘটনার হোতা এম ওয়াহিদুল হক, হেড অব কপোঃ আবু হেনা মোস্তফা কামাল, এবং ব্যবসায়ী সাইফুল হককে আসামী করা হয়। মামলার পরই ৩ আসামীকে গ্রেফতার করে দুদকের অনুসন্ধান টিম। মামলাটি তদারকি করছেন দুদকের উপ পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেন। মামলার তদন্ত শেষ পর্যায়ে রয়েছে। বর্তমানে আসামীরা জামিনে আছে। জামিনা থাকা আসামী এবি ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান এম ওয়াহিদুল হক গোপনে বিদেশ যাওয়ার অনুমতি চেয়ে এবং দদুকের জব্দ করা পাসপোর্ট ফেরতে চেয়ে সিএমএম আদালতে আবেদন করেন। আসামী আবেদনের প্রেক্ষিতে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সত্যব্রত শিকদার সাবির্ক বিবেচনায় আসামী এম, ওয়াহিদুল হক এবং হেড অব কর্পোরেশন আবু হেনা মোস্তফা কামালকে তিনমাসের বিদেশ গমনের অনুমতি দিয়েছেন। কিন্তু দুদক মনে করে এ দুই আসামী বিদেশ গেলে আর দেশে ফিরতে না। এতে মামলার তদন্ত কার্যক্রম ব্যবহত হবে। এ কারণে সিএমএম কোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে মহানগর জজ আদালতে আবেদন করেছিলো দুদক। মহানগর জায়রা জজ আদালত সিএমএম কোর্টের আদেশ স্থগিত করেছে।

দুদক সূত্র জানায়, তদন্ত করে অনুসন্ধান ও তদন্ত সংশ্লিস্ট টিম জানতে পারে বহুল আলোচিত এবি ব্যাংক থেকে এবি ব্যাংক লি: এর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ অসৎ উদ্দেশ্যে ক্ষমতার অপব্যবহার পূর্বক প্রতারণার মাধ্যমে অপরাধমুলক বিশ্বাসভঙ্গ করে ভূয়া অফসোর কোম্পানীতে বিনিয়োগের আড়ালে ২০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ও কনসালটেন্সি ফি বাবদ ২৫, হাজার মার্কিন ডলার (সর্বমোট ২০.০২৫ মিলিয়ন মা: ড:) (বাংলাদেশী মুদ্রায় প্রায় ১৬৫ কোটি টাকা) এবি ব্যাংক লি: এর অফসোর ব্যাংকিং ইউনিট (ওবিইউ) শাখা, চট্রগ্রাম হতে দুবাইতে পাচার করে । পাচারকৃত অর্থ স্থানান্তর ও রুপান্তরের মাধ্যমে অবস্থান গোপন পূর্বক আত্নসাত করে আসামীরা। অভিযোগের অনুসন্ধান শেষে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া ২০১৮ সালের গত ৩০ জানুয়ারী দুদকের সহকারী পরিচালক ও অনুসন্ধান কর্মকর্তা মো: গুলশান আনোয়ার প্রধান বাদী হয়ে রাজধানীর মতিঝিল থানায় মামলা দায়ের করেন । ওইদিনই ওই মামলার মূল হোতা এবি ব্যাংকের চেয়ারম্যান এম, ওয়াহিদুল হক, হেড অব কর্পো: আবু হেনা মোস্তফা কামাল এবং ব্যবসায়ী মো: সাইফুল হককে গ্রেফতার করা হয়। পরবর্তীতে তদন্ত কর্মকর্তা বাংলাদেশ ব্যাংক এবং এবি ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট রেকর্ডপত্রাদি জব্দ করেন ও দুবাই, সিংগাপুর, কানাডায় তথ্যের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের মাধ্যমে পত্র প্রেরণ করেন। দুবাই থেকে সংগৃহীত তথ্য মতে, দুবাইয়ের কর্মাশিয়াল ব্যাংক থেকে টাকা কানাডা এবং সিংগাপুরে গেছে মর্মে প্রমাণ পাওয়া যায় এবং দুবাইয়ের চেং বাওয়ের একাউন্ট থেকে টাকা ট্রান্সফারের পর উক্ত একাউন্টি বন্দ করে দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ থেকে প্রেরিত তথ্যাদি বিশ্লেষণে এবং সংগৃহীত রেকর্ডপত্রাদি যাচাই-বাছাইয়ের পর এটা প্রমাণিত যে, ওই অর্থ পাচারের সাথে এবি ব্যাংকের তৎকালীন চেয়ারম্যান এম, ওয়াহিদুল হক এবং হেড অব কর্পো: আবু হেনা মোস্তফা কামাল সরাসরি জড়িত। ইতোমধ্যে সংগৃহীত রেকর্ডপত্রের আলোকে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়া জন্য আইনি মতামত চেয়ে কমিশন বরাবরে প্রতিবেদন দেওয়া হয়েছে। মতামত সাপেক্ষে তদন্ত প্রতিবেদন শীঘ্রই জমা দেওয়া হবে।

অনুসন্ধান সংশ্লিস্ট এক কর্মকর্তা বলেন, এবি ব্যাংক থেকে সিঙ্গাপুরে অফসোর কোম্পানীতে বিনিয়োগের অন্তরালে ১৬৫ কোটি টাকা বিদেশে পাচার এবং আত্মসাতের ঘটনায় মূল হোতা সাবেক চেয়ারম্যান এম ওয়াহিদুল হক এবং হেড অব কপোঃ আবু হেনা মোস্তফা কামাল। দুদকের অনুসন্ধানে এ বিষয়ে সব তথ্য প্রমাণ রয়েছে। গত বছরের(২০১৮) ৩০ জানুয়ারী মামলার পর পরই আসামীদের গ্রেফতার করা হলেও তারা জামিনে বেরিয়ে যায়। মামলাটি বর্তমানে তদন্ত শেষ পর্যায়ে রয়েছে। ইতোমধ্যে কিভাবে ভুয়া অফসোর কোম্পানী সৃস্টি করে ১৬৫ কোটি টাকা পাচার করা হয়েছে, পাচার করা অর্থ কে কিভাবে ভাগভাটোয়ারা করেছে কাদের কি ভুমিকা ছিলো সবকিছু শেষ পর্যায়ে। মামলাটি আদালতে চার্যশিটের জন্য প্রায় চুড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। ইতোমধ্যে আসামীদের সংশ্লিস্টতার শতভাগ প্রমাণ রয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে আসামীরা বিদেশ যাওয়ার সুযোগ পেলে মামলাটি ক্ষতিগ্রস্থ হবে।

ওয়াসার ১১ খাতে দুর্নীতি চিহ্নিত করেছে দুদক

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

সীমাহীন দুর্নীতির কারণে ঢাকা ওয়াসা থেকে কাক্সিক্ষত সেবা পাচ্ছেন না গ্রাহকরা। সুপেয়

সরকারি সম্পদ ব্যক্তিগত প্রয়োজনে ব্যবহারের মাধ্যমে অর্থ আত্মসাত করায় দুদকের মামলা

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের পদস্ত কর্মকর্তাদের জন্য জরুরী প্রয়োজনে রাখা দুটি গাড়ি ক্ষমতার অপব্যবহার করে পদস্ত কর্মকর্তাদের জন্য রাখা নিজেরা

ডিআইজি মিজান ও দুদকের বাছিরের বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

৪০ লাখ টাকার ঘুষ লেনদেনের অভিযোগে সাময়িক বরখাস্ত পুলিশের ডিআইজি মিজানুর রহমান ও দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পরিচালক

sangbad ad

স্বামী-স্ত্রীর কোটি টাকার ডিপ্লোমা বাণিজ্য

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

ভুয়া চারুকলা ডিপ্লোমা ইনস্টিটিউট, ইউনিভার্সিটি, মেডিকেল ট্রেনিং ইনস্টিটিউট, ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, বিএড কলেজ, প্যারামেডিকেল

২৭ লাখ টাকাসহ চাকরিচ্যুত পুলিশ কর্মকর্তা গ্রেফতার

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

রাজধানীর হাতিরঝিল থেকে চাকরিচ্যুত এক সহকারী এএসআইকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৩। তার নাম কবির হোসেন শেখ (৩৮)। ১৫ জুলাই

অবৈধ সম্পদ ডিসিসির সাবেক প্রকৌলীর বিরুদ্ধে মামলা হচ্ছে

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

পাঁচ কোটি টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের (ডিসিসি) সাবেক অতিরিক্ত প্রধান

নিজেকে বাঁচাতে আরেক অডিও’র কথা বলে ৫ জনকে দায়ী করলেন বাছির

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

এবার নিজেকে বাঁচাতে আরও ৫ জনকে জড়িয়ে অভিযোগ করেছেন বরখাস্ত দুদক পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছির। এতে তিনি দাবি করেছেন

এসকে সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

ফারমার্স ব্যাংক (বর্তমানে পদ্মা ব্যাংক) থেকে ক্ষমতার অপব্যবহার করে অবৈধভাবে ৪ কোটি টাকা ঋন নিয়ে তা আত্মসাৎ ও পাচারের

ঘুষ লেনদেন ও অনিয়মের অভিযোগে জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের প্রধান কার্যালয়ে দুদকের অভিযান

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

প্লট ও ফ্ল্যাট বরাদ্দে অনিয়ম, নামজারি ও রেজিস্ট্রিশনে ঘুষ লেনদেনের অভিযোগে জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের প্রধান কার্যালয়ে অভিযান

sangbad ad