• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট ২০২০

 

রুম্পা হত্যাকাণ্ডে রহস্যের কূল-কিনারা করতে পারছেনা তদন্ত সংশ্লিষ্টরা

নিউজ আপলোড : ঢাকা , শনিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
image

রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরীতে স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী রুবাইয়াত শারমিন রুম্পার মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় তিনদিন পেরিয়ে গেলেও হত্যা । হত্যায় জড়িতদের চিহ্নিত করে বিচারের আওতায় আনার দাবিতে শনিবার (৭ ডিসেম্বর) দ্বিতীয় দিনের মতো বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। ঘটনার রহস্য উন্মোচনে থানা পুলিশের পাশাপাশি গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি), র‌্যাব, পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনও (পিবিআই) ছায়া তদন্ত করছে। এদিকে সহপাঠী সৈকতের সঙ্গে রুম্পার প্রেমের সম্পর্কের বিষয়টি উঠে আসলেও তার সন্ধান পায়নি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

পুলিশের রমনা জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) এসএম শামীম বলেন, সৈকত নামে এক সহপাঠীর সঙ্গে রুম্পার সম্পর্ক ছিল বলে জানা গেছে। বিষয়টি জানার পর সৈকতের সন্ধান চেয়েও পাওয়া যায়নি। সে গা ঢাকা দিয়েছে। তাকে আটক করতে পুলিশ কাজ করছে। সৈকতের কাছ থেকে রুম্পা হত্যার কোন ক্লু পাওয়া যেতে পারে বলে তার ধারণা। এক প্রশ্নে এসি বলেন, আমরা ঘটনাস্থলের আশপাশের অনেকের বাসায় গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেছি। অনেককে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। তবে নতুন কোন তথ্য পাওয়া যায়নি।

গত ৪ ডিসেম্বর বুধবার রাত পৌনে ১১টার দিকে সিদ্ধেশ্বরীর ৬৪/৪ নম্বর বাসার নিচে ওই ছাত্রীর মরদেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়। পরের দিন তার পরিবার এসে রুম্পার মরদেহ শনাক্ত করেন। পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পর নিহতের সহপাঠীরা ক্লাস বর্জন করে মানববন্ধন করে। শনিবারও সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ধানমন্ডি ও সিদ্ধেশ্বরী ক্যাম্পাসে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন তারা। শিক্ষার্থীদের দাবি, রুম্পা হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন। এ হত্যার সঙ্গে জড়িত যারা তাদের যেন দ্রুত আইনের আওতায় আনা হয়।

মানববন্ধনে রুম্পার সহপাঠীরা বলেন, আর যেন কোন রুম্পাকে এভাবে মরতে দেখতে না হয়। এ হত্যাকাণ্ডের একমাত্র বিচার মৃত্যুদণ্ড। দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হলেই পরে আমরা রক্ষা পাব, নাহলে এরকম নির্মম হত্যাকাণ্ড চলতেই থাকবে। স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম মাছুম বলেন, অন্য কোন ইস্যুতে যেন রুম্পা হত্যাকাণ্ড ধামাচাপা না পড়ে সেদিকে নজর দিতে হবে। তিনি বলেন, চারদিকে এত হত্যা, খুন-ধর্ষণের ভিড়ে আমরা শুধু স্বাভাবিক মৃত্যুর গ্যারান্টি চাই, আর কিছু নয়। মানববন্ধন শেষে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা একটি বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে ধানমন্ডি ১৯ থেকে ১৫ নম্বর পর্যন্ত প্রদক্ষিণ করেন। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের সাতটি বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা কর্মসূচিতে অংশ নেন।

গতকাল মুঠোফোনে কথা হয় রুম্পার বাবা রুক্কন উদ্দিনের সঙ্গে। জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার মেয়ে আত্মহত্যা করতেই পারে না। আমি আমার মেয়েকে ভালো করেই চিনতাম। সে আত্মহত্যাকে ঘৃণা করত। সবসময় হাসিখুশি থাকতে পছন্দ করত। মানুষের সঙ্গে খুব মিশত। তিনি বলেন, কিছুদিন আগে রাজধানীর বেইলী রোড থেকে শারমিনের একটি মুঠোফোন ছিনতাই হয়। এরপর তিনি মেয়েকে বলেছিলেন, রাতে কোন কাজে বাড়ির বাইরে গেলে মুঠোফোন যেন সঙ্গে না নেন। বুধবার বাড়িতে মুঠোফোন রেখে যাওয়ার এটাই ছিল কারণ। তিনি আফসোস করে বলেন, সারাজীবন ঢাকাতেই চাকরি করেছি। মেয়েকে আমিই দেখে রাখতাম। দুই বছর আগে পদোন্নতি হওয়ার পর প্রথমবার ঢাকার বাইরে যাই। ঢাকায় থাকলে হয়ত মেয়েকে রক্ষা করতে পারতাম। যদি সো আত্মহত্যা করত, তাহলে নিজের বাসায় থেকেই করতে পারত। বাড়ি থেকে দূরে গিয়ে করতে হতো না। শুনেছি যে বাড়ির ছাদের নিচে রুম্পার লাশ পাওয়া গেছে, সেই বাড়িতে স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু ছাত্র থাকেন। তারাও এখন নাকি পলাতক।

এ বিষয়ে এসি এসএম শামীম বলেন, ওখানে ছেলে-মেয়েদের বেশ কয়েকটি হোস্টেল রয়েছে। তবে দ্বিতীয় তলায় স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের একটি ফ্ল্যাটে তালা মারা অবস্থায় পাওয়া যায়। পরে অবশ্য তারা এসে কথা বলে গেছে। নিহতের পরিবার ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ধারণা, রুম্পাকে হত্যা করা হয়েছে। আর কে বা কারা কেন রুম্পাকে হত্যা করল তা নিশ্চিত হতে শুধু থানা পুলিশ নয়; আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একাধিক সংস্থা মাঠে রয়েছে। তবে গতকাল পর্যন্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দৃশ্যমান কোন অগ্রগতি নেই।

গতকাল দুপুরে মরদেহ উদ্ধারের ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায়, সিদ্ধেশ্বরীর সার্কুলার রোডের ছোট চিকন গলিতে পাশাপাশি অনেকগুলো বহুতল ভবন। শেষ মাথায় আরেকটি সুউচ্চ ভবনের পেছন অংশে শেষ হয়েছে গলিপথ। গলির শেষ মাথায় হাতের ডানে ৬৪/৪ ভবনের নিচেই মুখ পার্শ্বে পড়ে ছিল নিথর রুম্পা। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ৬৪/৪ নং বাসার নিচতলায় ব্যাচেলররা থাকেন। ওই রাতে নিচতলায় থাকা সাতজনের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ছয়জন। রুম্পা উপর থেকে নিচে পড়ার শব্দ শুনে ছুটে এসেছিলেন সবাই। তাদেরই একজন পলাশ দেবনাথ। তিনি বলেন,ঘটনার দিন রাত আনুমানিক ১১টা ৪২ মিনিট। হঠাৎ সজোরে ধুপ করে কিছু পড়ার শব্দ পাই। ময়লার বস্তা মাঝেমধ্যে উপর থেকে ফেলা হয়। তাই হাতেনাতে ধরার জন্য দৌড়ে যাই। কিন্তু এসে দেখি অজ্ঞাত তরুণী পড়ে আছে। কোনো শব্দ নেই। ভেবে পাচ্ছিলাম না, বারান্দার লোহার গ্রিল পেরিয়ে বাইরে যাব নাকি দাঁড়িয়ে থাকব। এরই মধ্যে ২/১ একজন করে আসতে থাকেন। স্থানীয় এক ডাক্তার আসেন। পালস চেক করে জানান, মারা গেছেন। পুলিশ আসে, মরদেহ নিয়ে চলে যায়। তিনি বলেন, অবাক করা বিষয়, কোনো চিৎকার শুনিনি। পড়ার পরও কোনো কান্নার আওয়াজ, আহাজারি কিছুই শোনা যায়নি।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রমনা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জহিরুল ইসলাম বলেন, অনেকগুলো বিষয় সামনে রেখে রুম্পা হত্যা মামলার তদন্ত চলছে। প্রযুক্তির মাধ্যমেও জানার চেষ্টা চলছে, ওই দিন কার কল পেয়ে রুম্পা সবকিছু বাসায় রেখে বের হয়ে গেলো। এবং সিদ্ধেশরীতে কেন আসলো। তিনি বলেন, রুম্পার প্রেমিক সৈকতের নাম উঠে আসলেও তার সন্ধান পাওয়া যায়নি। বিষয়টি বিভিন্ন সংস্থা তদন্ত করছে। সৈকত কোনো সংস্থার কাছে আছে কিনা- তাও জানা যায়নি। তবে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য খোঁজা হচ্ছে।

পুরনো রূপে ফিরেছে রেললাইনের দু’পাশের বস্তি

ফারুক আলম

image

রাজধানীতে রেললাইনের দু’পাশ দখল করে গড়ে ওঠা বস্তি উচ্ছেদের কয়েক মাস পর আবার আগের অবস্থায় ফিরে এসেছে। মালিবাগ, মৌচাক

গাড়িচাপায় পর্বতারোহী রেশমা নিহত

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

image

রাজধানীর লেকরোডে প্রাইভেটকার চাপায় পর্বতারোহী রেশমা নাহার (৩৩) নিহত হয়েছেন। শুক্রবার সকাল ৯টার দিকে সংসদ ভবন এলাকার চন্দ্রিমা উদ্যান সংলগ্ন লেক

লিবিয়া নাগরিকসহ ৬ মানব পাচারকারী আটক

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

মধ্য প্রাচ্যের দেশ লিবিয়ায় অবৈধভাবে মানব পাচারের অভিযোগে রাজধানীতে

sangbad ad

পুরানা পল্টনের বিশিষ্ট ব্যক্তি মহিউদ্দীন ফজলে ইউসুফের ইন্তেকাল

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

ঢাকার পুরানা পল্টনের বিশিষ্ট ব্যক্তি, নাট্যকার নাসিরউদ্দিন ইউসুফ বাচ্চুর বড় ভাই মহিউদ্দীন

বন্যা কবলিত ঢাকার নিন্মাঞ্চল : পরিস্থিতি সংকটাপন্ন

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

সারাদেশের প্রবল বন্যার প্রকোপ এখন রাজধানীর দিকেও প্রলম্বিত হচ্ছে। বন্যার কবলে পড়েছে

কাঁঠাল গাছে ঝুলন্ত লাশ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

রাজধানীর মগবাজারের আমবাগান এলাকায় একটি কাঁঠাল গাছ থেকে অজ্ঞাত পরিচয় এক ব্যক্তির

২৪ ঘন্টায় ঢাকাকে বর্জ্যমুক্ত করার দাবি দুই করপোরেশনের

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

কোরবানির পশুর বর্জ্য ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অপসারণ করা হয়েছে বলে দাবি করেছে

২৪ ঘন্টার মধ্যে কোরবানি পশুর বর্জ্য অপসারণ করা হবে: ডিএনসিসি মেয়র

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসির) মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম বলেছেন, আগামী ২৪

ঢাকা এখন ফাকা

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

ঢাকা এখন ফাঁকা। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের ঝুঁকি থাকার পরও নাড়ির টানে স্বজনদের