• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯

 

ছাত্রলীগের ভিপি প্রার্থীর বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ

নিউজ আপলোড : ঢাকা , শনিবার, ০২ মার্চ ২০১৯

সংবাদ :
  • প্রতিনিধি, ঢাবি
image

ডাকসু নির্বাচনে ছাত্রলীগের ভিপি প্রার্থীর রঙিন পোস্টার -সংবাদ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনের আচরণবিধি অনুযায়ী কোন প্রার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের দেয়ালগুলোতে লিফলেট বা হ্যান্ডবিল লাগাতে পারবেন না। একই সঙ্গে প্রচারণার উদ্দেশ্যে সাদাকালো ছবি ছাড়া অন্য কোন ছবি ব্যবহার করতে পারবেন না। তবে, শুরুতেই বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের তৈরিকৃত আচরণবিধির প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়েছেন ছাত্রলীগের প্যানেলে ডাকসুতে ভিপি পদপ্রার্থী সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন। এদিকে, ছাত্রত্ব নেই এমন দুজন প্রার্থীও হল সংসদের নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন বলে জানা গেছে। অন্যদিকে, ছাত্রলীগের প্যানেলের বাইরে যারা স্বতন্ত্রভাবে নির্বাচন করছেন তাদের প্রার্থিতা প্রত্যাহারে চাপ দেয়ার অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগের শীর্ষ নেতাদের বিরুদ্ধে। ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, প্রার্থিতা প্রত্যাহার না করলে তাদের হল থেকে বের করে দেয়ার হুমকি দিয়েছে ছাত্রলীগ। তবে, বিষয়টি অস্বীকার করেছেন ছাত্রলীগ নেতারা। এদিকে আপিল করে প্রার্থিতা ফিরে পাচ্ছেন কেন্দ্রীয় সংসদের পাঁচ প্রার্থীসহ অনেকে। শুক্রবার (১ মার্চ) নির্বাচনকে সামনে রেখে অনানুষ্ঠানিক প্রচারণা চালিয়েছেন প্রার্থীরা।

আচরণবিধিকে বৃদ্ধাঙ্গুলি ছাত্রলীগের ভিপি প্রার্থীর :
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) গঠনতন্ত্রের ৬ (ক) ধারায় রঙিন পোস্টারের ব্যবহার ও দেয়ালে পোস্টার সাঁটানোর ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও তা মানছেন না ছাত্রলীগের প্যানেল থেকে ভিপি প্রার্থী রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন। শুক্রবার ক্যাম্পাসের বিভিন্ন দেয়ালে সাঁটানো পোস্টারে শোভনের পক্ষে ভোট চেয়ে লেখা হয়, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ নির্বাচন ২০১৯ সম্মিলিত শিক্ষার্থী সংসদ মনোনীত বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনকে ভিপি পদে আপনার মূল্যবান ভোট দিয়ে শিক্ষার্থীদের অধিকার আদায়ে সুযোগ দিন। প্রচারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।’ এ বিষয়ে ডাকসু নির্বাচনের প্রধান রিটার্নিং কর্মকর্তা অধ্যাপক ড. এসএম মাহফুজুর রহমান বলেন, কেউ রঙিন পোস্টারের ব্যবহার করতে পারেন না। এটি অবশ্যই আচরণবিধির লঙ্ঘন। বিষয়টি সম্পর্কে খোঁজখবর নিয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক একেএম গোলাম রব্বানী বলেন, আচরণবিধি সবার জন্য প্রযোজ্য, অভিযোগ এলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডাকসু নির্বাচনের আচরণবিধির ৬(ক) ধারায় বলা হয়েছে, ‘নির্বাচনী প্রচারণায় কোন প্রার্থী নিজের সাদাকালো ছবি ছাড়া লিফলেট বা হ্যান্ডবিলে অন্য কারও ছবি বা প্রতীক ব্যবহার করতে পারবেন না। লিফলেট ছাপানো ও বিলি করা যাবে। আর ৬(খ) ধারায় বলা হয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও হল এলাকায় অবস্থিত কোন প্রকার স্থাপনা, দেয়াল, যানবাহন, বেড়া, গাছপালা, বিদ্যুৎ ও টেলিফোনের খুঁটি বা অন্য কোন দ-ায়মান বস্তুতে লিফলেট বা হ্যান্ডবিল লাগানো যাবে না।’ আর শাস্তি হিসেবে আচরণবিধিতে বলা আছে- ‘নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গ করলে সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তা অভিযোগ ও তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেবেন। সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তা প্রয়োজনবোধে স্বতঃপ্রণোদিতভাবে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিতে পারবেন। আর ১৫(খ) ধারায় বলা হয়েছে, কোন প্রার্থী বা তার পক্ষে অন্য কেউ নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গ করলে সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা জরিমানা, প্রার্থিতা বাতিল অথবা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার কিংবা রাষ্ট্র বা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুযায়ী অন্য কোন দ-ে দ-িত হবেন। এদিকে, আচরণবিধি লঙ্ঘনের বিষয়ে জানতে ছাত্রলীগ সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনের দুইটি নাম্বারে বারবার কল দেয়া হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

প্রার্থিতা ফিরে পাচ্ছেন আবেদনকৃতরা : এদিকে ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনের মনোনয়ন যাচাই-বাছাই শেষে প্রার্থিতা বাতিল হওয়া অনেক প্রার্থী আপিলে তাদের প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন। বেশ কয়েকজন প্রার্থী ও একজন রিটার্নিং কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলে এমন তথ্য পাওয়া গেছে। শুক্রবার মুঠোফোনে রিটার্নিং কর্মকর্তারা প্রার্থীদের প্রার্থিতা ফিরে পাওয়ার কথা জানিয়েছেন। এর ফলে আপিল করাদের নির্বাচনে প্রার্থিতা করতে আর কোন বাধা রইল না। কেন্দ্রীয় সংসদে প্রার্থিতা ফিরে পাওয়া পাঁচজনের মধ্যে রয়েছেন- এ. আর. এম আসিফুর রহমান, উম্মে হাবিবা বেনজির, ইশাত কাশফিয়া ইলা, শাফায়াত হাসনাইন সাবিত। আর একজনের নাম জানা যায়নি। সূত্র জানায়, প্রার্থিতা ফিরে পাওয়ায় তাদের ডাকসু নির্বাচনে অংশ নিতে আর কোন বাধা থাকবে না। প্রার্থিতা ফিরে পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বাম জোট সমর্থিত প্যানেলে জিএস প্রার্থী উম্মে হাবীবা বেনজীর বলেন, শুক্রবার বিকেল পৌনে চারটার দিকে বাংলাদেশ কুয়েত মৈত্রী হলের রিটার্নিং কর্মকর্তা কামরুন নাহার আমাকে কল দিয়ে প্রার্থিতা ফিরে পাওয়ার বিষয়টি জানিয়েছেন।

স্বতন্ত্রদের প্রার্থিতা প্রত্যাহারে ছাত্রলীগের চাপ : এদিকে ছাত্রলীগের বাইরে গিয়ে যারা স্বতন্ত্রভাবে নির্বাচনে লড়ছেন তাদের প্রার্থিতা প্রত্যাহারে চাপ দিচ্ছে সংগঠনটির শীর্ষ নেতারা। ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করেন, গত কয়েকদিন ধরে বিভিন্ন হলে গিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের ডেকে প্রার্থিতা প্রত্যাহারে চাপ দিচ্ছেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন, সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী এবং ঢাবি শাখার সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন। এর ফলে অনেকেই নিজেদের প্রার্থিতা প্রত্যাহার করেছেন। যারা প্রার্থিতা প্রত্যাহার করেনি তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগও আনা হয়েছে। এতে ভুক্তভোগীরা হল থেকে বের হতে বাধ্য হয়েছেন। এদের মধ্যে বৃহস্পতিবার রাতে স্বতন্ত্রভাবে সলিমুল্লাহ মুসলিম হল সংসদের সাধারণ সম্পাদক (জিএস) প্রার্থী ফরিদ উদ্দীনের ১১৩ নাম্বার রুমে ইয়াবার অভিযোগ এনে তার রুমটি সিলগালা করা হয়েছে। তিনি এখন হলের বাইরে অবস্থান করছেন। একই অভিযোগে এজিএস প্রার্থী মেহেদী মাসুদ পিয়াস এবং সমাজসেবা সম্পাদক শাকিকুল ইসলাম হলের বাইরে অবস্থান করছেন। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হল, শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হল, ফজলুল হক মুসলিম (এইএইচ) হল, সুফিয়া কামাল হল, ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ হলসহ প্রায় সব হলেই স্বতন্ত্র প্রার্থীদের সঙ্গে যোগাযোগ করছে ছাত্রলীগ। প্রার্থিতা প্রত্যাহার না করলে তাদেরকে হল থেকে বের করে দেয়াসহ বিভিন্ন হুমকি দেয়া হচ্ছে। তাদের মধ্যে একজন শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের এজিএস প্রার্থী মোহন জানান, তার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করতে বলা হলে তিনি তা প্রত্যাহার করেন। একই সঙ্গে তাকে ছাত্রলীগের প্যানেলে কাজ করতে বলা হয়েছে। তবে অনেকেই নিজেদের প্রার্থিতা প্রত্যাহার করবে না বলেও জানিয়েছে। এ বিষয়ে ঢাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন বলেন, আমরা সবাইকে ছাত্রলীগের প্যানেলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে বলেছি। স্বপ্নের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তোলার জন্য সবাইকে নিয়ে আমরা একসঙ্গে কাজ করতে চাই।

ছাত্রত্ব নেই, তবুও প্রার্থী : বিশ্ববিদ্যালয়ের ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর পাস করেছেন সাইফুল্লাহ আব্বাসী ও সুরপ মিয়া। চলতি বছরের জানুয়ারি মাসের ২৮ তারিখে তাদের মাস্টার্সের ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। তবুও বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হল সংসদের ভিপি (সহ-সভাপতি) ও সহ-সাধারণ সম্পাদক (এজিএস) পদে নির্বাচন করছেন তারা।

সূত্র জানায়, সাইফুল্লাহ আব্বাসী ও সুরপ মিয়া ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের ছাত্র। তাদের মধ্যে সাইফুল্লাহ আব্বাসী ২০১২-১৩ শিক্ষা বর্ষের ছাত্র। তিনি এক বছর শিক্ষা বিরতি দেন। তবুও গতবছর তার সম্মান পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হয়। এরপর তিনি মাস্টার্সে ভর্তি হন। অন্যদিকে, সুরপ মিয়াও একই বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষা বর্ষের ছাত্র। তিনিও গতবছর সম্মান উত্তীর্ণ হয়ে মাস্টার্সে ভর্তি হন। তাদের মাস্টার্সের ফলাফল প্রকাশ করা হয় গত জানুয়ারির ২৮ তারিখে। এর আগে সিন্ডিকেট সভায় পাশ হওয়ার পর বিশ্ববিদ্যালয়য়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান ২৭ জানুয়ারি এই ফলাফলের অনুমোদন দেন। মাস্টার্সে সাইফুল্লাহ আব্বাসী ৩ দশমিক ১৬ সিজিপিএ পেয়ে উত্তীর্ণ হন। এবং সুরপ মিয়া ৩ দশমিক ১৮ পেয়ে মাস্টার্সে উত্তীর্ণ হন। ছাত্রলীগের মনোনীত এই দুই ছাত্রের মধ্যে সাইফুল্লাহ আব্বাসী এখন শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের ভিপি এবং সুরপ মিয়া একই হলের এজিএস প্রার্থী।

বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়মানুযায়ী, তফসিল ঘোষণার আগে যদি কোন ছাত্রের ফলাফল প্রকাশের মাধ্যমে ছাত্রত্ব শেষ হয় তবে তিনি ডাকসু বা হল সংসদে নির্বাচন করতে পারবেন না। যদিও এই দুই ছাত্রের ‘ছাত্রত্ব’ না থাকলেও তাদের প্রার্থী তালিকায় বৈধ দেখানো হয়েছে। অন্যদিকে তফসিল ঘোষণা করা হয় গত ১১ই ফেব্রুয়ারি। এই তফসিল ঘোষণার পর গত ২০ ফেব্রুয়ারি ডাকসুর সর্বশেষ ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হয়। এতে এই দুই প্রার্থীর নাম আসে।

এ বিষয়ে সাইফুল্লাহ আব্বাসী বলেন, আমার নাম চূড়ান্ত ভোটার তালিকায় আছে। সেজন্যই আমি নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছি। এটাকে প্রশাসনের ভুল মনে করছেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ বিষয়ে কিছু বলতে পারবো না। এ বিষয়ে জানতে সুরপ মিয়ার মুঠোফোনে কল দেয়া হলে তিনি কল রিসিভ করে কেটে দেন। পরবর্তীতে বারবার কল দেয়া হলেও তিনি কল রিসিভ করেন নি।

এ বিষয়ে শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. দেলোয়ার হোসেন বলেন, যার নাম চূড়ান্ত তালিকায় আছে সে প্রার্থী হতে পারবে। অভিযুক্তদের ছাত্রত্ব নেই উল্লেখ করলে তিনি বলেন, যার হল কার্ডের মেয়াদ আছে, সে ভোটার ও প্রার্থী হতে পারবে। তবে, এর আগে তিনি সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ‘বিষয়টি আমাদের অবহিত ছিল না। কোনো প্রার্থী লিখিত অভিযোগ দিলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

এ বিষয়ে ডাকসুর গঠনতন্ত্র যুগোপযোগী ও সংশোধন কমিটির প্রধান অধ্যাপক মিজানুর রহমান সংবাদকে বলেন, নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার দিন যাদের ছাত্রত্ব ছিল, তারা ডাকসু ও হল সংসদে ভোটার ও প্রার্থী হতে পারবে। ১১ তারিখ তফসিল ঘোষণা হয়েছিল, কারো যদি ১০ তারিখেও ফল প্রকাশ হয় তবে সে নির্বাচনে অংশ নিতে পারে না।

তবে, ডাকসুর প্রধান রিটার্নিং কর্মকর্তা অধ্যাপক ড. এস এম মাহফুজুর রহমান বলছেন ভিন্ন কথা। তিনি বলেন, অভিযোগ জানানোর জন্য সময় দেয়া হয়েছে। তখন কেন কেউ এ বিষয়ে অভিযোগ করে নি। এখন আর আমার কিছু করার নেই।

প্রজেক্ট বাস্তবায়নে তিন গুন সময় পার হওয়ার পর প্রশ্ন: ঢাবি ক্যাম্পাস সিসিটিভির আওতায় আসবে কবে!

আবদুল্লাহ আল জোবায়ের

image

নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ২০১৬ সালে পুরো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ক্যাম্পাস সিসিটিভির আওতায় আনার কর্মসূচি হাতে নেয়া

জবির সমাবর্তনে রেজিস্ট্রেশনের সময় বাড়লো

প্রাতিনিধি, জবি

image

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) প্রথম সমাবর্তনে অংশগ্রহণের রেজিস্ট্রেশনের সময় ৩০ এপ্রিল মঙ্গলবার শেষ হবার কথা থাকলেও তা চালিয়ে

গ্রন্থ সংগ্রাহক আজীবন সম্মাননা পেলেন ১০ জন

image

ঢাকার ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি চর্চার প্রতিষ্ঠান ‘ঢাকা কেন্দ্র’। প্রতিষ্ঠানটি দশ গ্রন্থসুহৃদকে ‘গ্রন্থ সংগ্রাহক আজীবন সম্মাননা পুরস্কার ২০১৯’ প্রদান

sangbad ad

ছিনতাইয়ের অভিযোগে জাবির ৫ ছাত্রলীগ কর্মী বহিষ্কার

প্রতিনিধি, জাবি

image

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের এক কর্মচারীর স্বজনকে (জামাতা) ‘মারধর ও ছিনতাইয়ের’ অভিযোগে ছাত্রলীগের পাঁচ কর্মীকে সাময়িকভাবে

জাবিতে ‘জিওগ্রাফি ডিবেটিং ক্লাব’র নতুন কমিটি

প্রতিনিধি, জাবি

image

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘জিওগ্রাফি ডিবেটিং ক্লাব’ এর নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। এতে ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের ৪৪তম ব্যাচের

বিকৃত রাজনীতির কারণেই স্বাধীনতা যুদ্ধে গণহত্যা চালানো হয় : সম্মেলনে বক্তারা

প্রতিনিধি, ঢাবি

image

গণহত্যা রাজনীতির অংশ। বিকৃত রাজনীতি পরিকল্পিতভাবে গণহত্যার পটভূমি তৈরি করে। পরবর্তীতে

রবিউলের ওপর হামলার বিচার না হলে রাজপথ ছাড়বে না প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীরা

প্রতিনিধি, ঢাবি

image

অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগে ডাকসুর পুনর্নির্বাচনের দাবিতে অনশন করায়

পুনরায় ডাকসু নির্বাচন দাবিতে অনশন অব্যাহত

প্রতিনিধি, ঢাবি

image

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচন বাতিল করে পুনরায়

ডাকসুর নতুন যুগের সূচনা

আবদুল্লাহ আল জোবায়ের, ঢাবি

image

নানা অনিয়মের অভিযোগ এবং অধিকাংশ প্যানেলের প্রার্থীদের বর্জন, ফল বাতিলে পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি, প্রার্থীদের ওপর হামলার ঘটনার পরও

sangbad ad