• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , রোববার, ২৫ আগস্ট ২০১৯

 

মধ্যম-উচ্চ আয়ের দেশে উত্তীর্ণ সময়ের ব্যাপার মাত্র : পরিকল্পনামন্ত্রী

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ০৯ মে ২০১৯

সংবাদ :
  • অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক
image

অর্থ ও পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালনের অভিজ্ঞতা থেকে এমএ মান্নান বলেছেন, বাংলাদেশ মধ্যম ও উন্নত আয়ের দেশে উত্তীর্ণ হওয়া সময়ের ব্যাপার মাত্র। তিনি যেভাবে দেশ পরিচালনা করছেন তাতে অতি শীঘ্রই আমরা উন্নত দেশে পরিণত হবো। ৮ মে বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধু একাডেমি নামের একটি সংগঠন আয়োজিত অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন পরিকল্পনামন্ত্রী।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, দেশ প্রধানমন্ত্রীর হাতে থাকলে মধ্যম ও উন্নত দেশের কাতারে পৌঁছানো সময়ের ব্যাপার। অতি শীঘ্রই আমরা উন্নত দেশে পরিণত হব। আমি পাঁচ বছর প্রতিমন্ত্রী (অর্থ) ছিলাম। তখন আমি দায়িত্ব পালন করেছি, এখন দেখছি। শেখ হাসিনার কাছে যত পরিকল্পনা নিয়ে যাই প্রতি মঙ্গলবার প্রতিটি পরিকল্পনা হাতে নিয়েই বলেন- বলুন তো এই কাজটি করলে আমার গ্রামের গরিব দুঃখী মানুষের কি উপকার হবে, গ্রামের কৃষক কি পাবে, জেলে কি পাবে, প্রতিবন্ধী ভাইবোনেরা কি পাবে, নারীরা কি পাবে, মুক্তিযোদ্ধারা কি পাবে? তাকে বোঝাতে হয়। তিন ঘণ্টা চার ঘণ্টা আলোচনা হয় পাঁচ সাতটা প্রকল্প নিয়ে। তাকে বুঝিয়ে তার হাত থেকে প্রকল্প আনতে হয়। তার সব চিন্তা- চেতনার কেন্দ্র বাংলার দরিদ্র মানুষ।

শেখ হাসিনার নেতৃত্ব বাংলাদেশের উন্নয়ন এখন আন্তর্জাতিক অঙ্গনে স্বীকৃত মন্তব্য করে তিনি বলেন, এখন আপনি যেখানেই যান বাংলাদেশের নাম। ওয়ার্ল্ড ব্যাংক বলুন, এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক বলুন, চায়না ব্যাংক বলুন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বলুন যারা স্বাধীনতার সময় আমাদের পক্ষে ছিল না তারাও এখন আমাদের সমীহ করে কথা বলে। ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন বলেন, চীন বলেন, আমাদের কাছের বন্ধু ভারতও সকাল-সন্ধ্যা আমাদের খোঁজ খবর নিতে বাধ্য হয়। ফোন করে দিদি কি করছেন, কি করা যায় বুদ্ধি দেন। এটা সম্ভব হয়েছে শেখ হাসিনার দৃঢ় নেতৃত্বের ফলে। তার ওপর কত ধরনের ঝুঁকি গিয়েছে, কিন্তু তিনি কাঁপেন না।

বিএনপির মধ্যে থাকা ‘প্রতিক্রিয়াশীলরা’ শেখ হাসিনাকে ‘ঘায়েল’ করতে চাইলে ঐক্যবদ্ধভাবে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, শত্রু শেষ নয়। শত্রু এখনও আছে এই দেশে। বঙ্গবন্ধু তাদের হাতে প্রাণ দিয়েছেন। যে শত্রুকে তিনি নিশ্চিহ্ন করেছিলেন, সেই শত্রু থেকে শত্রু জন্ম হয়েছে। আজকে যেই শত্রুকে শেখ হাসিনা লণ্ডভণ্ড করেছেন, বিএনপিকে লণ্ডভণ্ড করেছেন, ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে গেছেন। এই বিএনপির মধ্যেই যারা প্রতিক্রিয়াশীল আছেন বিভিন্ন কোণায় কোণায় তারা আবার একত্র হয়ে চেষ্টা করবে শেখ হাসিনাকে কিভাবে ঘায়েল করা যায়। বাংলাদেশকে কিভাবে আবার তাবেদার রাষ্ট্রে পরিণত করা যায়। এটা রুখে দেয়ার জন্য আমাদের সজাগ থাকতে হবে।

আওয়ামী লীগের মূল ধারার লোকজন একত্রিত থেকে নেত্রীকে শক্তি যোগালে এই অগ্রযাত্রা কেউ রুখতে পারবে না বলে মনে করেন পরিকল্পনামন্ত্রী। তিনি বলেন, আমার যেটুকু বিশ্বাস, সামান্য যতটুকু কাজ বাকি আছে মধ্যম আয়ের দেশে যাওয়া, উন্নত দেশে প্রবেশ করা- সেটা সম্ভব হবে। আমাদের সামনে পথরেখা আছে। তিনি সব সময় বাংলার আগামী দিন আর বাংলার বর্তমানের জন্য ভাবেন। তাকে নেতাকর্মীদের সার্বক্ষণিক সহায়তা দিতে হবে।

এম এ মান্নান আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে যে নানা ধরনের অপকৌশল, ষড়যন্ত্র অবলম্বন করা হয়েছিল বছরের পর বছর তা প্রতিহত করে তাদের লণ্ডভণ্ড করে দিয়ে তিনি এখন বাংলাদেশের মানুষের নেতৃত্বে শক্ত অবস্থানে আছেন। এই উপমহাদেশে মুসলিম লীগ প্রতিক্রিয়াশীল রাজনীতির প্রধান ভূমিকায় যারা ছিল, আমাদের লক্ষ্যই ছিল ওদের সৃষ্ট প্রতিক্রিয়াশীলতা, অবিচার থেকে রক্ষার জন্য আমরা জাতীয়তাবাদী চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে লড়াই করেছিলাম। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব যেভাবে এদেশে বৃহত্তম প্রতিক্রিয়াশীল শক্তি মুসলিম লীগকে ধ্বংস করেছিল, লণ্ডভণ্ড করেছিল সেভাবে আজকে তার সুযোগ্য কন্যা নব্য প্রতিক্রিয়াশীলদের, যারা বঙ্গবন্ধু হত্যার পর জমায়েত হয়েছিল, বিএনপি নামের দল করে তারা দেশটাকে নিজেদের লুণ্ঠনক্ষেত্র করতে চেয়েছিল। এটাকে কৌশলে, বুদ্ধিতে এবং চরিত্রের গুণে সততার দ্বারা মানুষের মন জয় করে বিশ্ববাসীর মন জয় করে শেখ হাসিনা নিজের অবস্থানকে সুদৃঢ় করেছেন। মুসলিম লীগ যেভাবে লণ্ডভণ্ড হয়েছিল বিএনপিও লণ্ডভণ্ড। বিএনপির অবস্থান এখন কোথায়? তারা মানুষের কাছে এখন হাসির পাত্র হয়ে গিয়েছে। এটা সম্ভব হয়েছে শেখ হাসিনার শক্তিশালী নেতৃত্বের জন্য। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা মোজাফফর হোসেন পল্টু, বঙ্গবন্ধু একাডেমির সভাপতি নাজমুল হক, মহাসচিব হুমায়ূন কবির মিজি উপস্থিত ছিলেন।

ব্রাজিলে রপ্তানি বাড়াতে এফটিএ চুক্তির বিষয়ে আশাবাদী বাণিজ্যমন্ত্রী

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

ব্রাজিলে তৈরি পোশাকসহ অন্যসব পণ্য রপ্তানি বৃদ্ধিতে নানা উদ্যোগ হাতে নিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। এর একটি হচ্ছে ফ্রি ট্রেড এগ্রিমেন্ট (এফটিএ)।

পুঁজিবাজারে চার ডজন কোম্পানির পরিচালকের নেই ন্যূনতম শেয়ার

এস এম জাকির হোসাইন

image

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানির উদ্যোক্তাদের সম্মিলিতভাবে ৩০ শতাংশ এবং পরিচালকের ব্যক্তিগতভাবে ২ শতাংশ শেয়ার থাকা বাধ্যতামূলক। কিন্তু পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ৩১৭ কোম্পানির মধ্যে ৪৮

কর ফাঁকি রোধে অ্যাপ তৈরি করবে এনবিআর

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

রাজস্ব ও কর ফাঁকি রোধে সফটওয়্যার এবং মোবাইল অ্যাপ তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। সফটওয়্যারের মাধ্যমে আয়কর বিভাগের ৬৪৯টি কর অঞ্চলকে মোবাইল অ্যাপের সঙ্গে যুক্ত

sangbad ad

ঋণ প্রবাহ বাড়ানোর সঙ্গে কমাতে হবে সুদহার : এফবিসিসিআই

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

চলতি ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য ৫৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রপ্তানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করেছে সরকার। এ লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সহজলভ্য

এবারও কঠিন হবে বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যপূরণ

রোকন মাহমুদ

image

বেসরকারি খাতে ১৪ দশমিক ৮০ শতাংশ ঋণ প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যপূরণ করাও কঠিন হবে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। তারা বলছেন, চলতি

ব্যাংকারদের আইসিটিতে দক্ষতা বাড়ানোর পরামর্শ

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্টের (বিআইবিএম) ‘ইউজ অব

বেসকারি ঋণে অর্জন হয়নি মুদ্রানীতির লক্ষ্য

রোকন মাহমুদ

image

বেসরকারি খাতে ব্যাংকের ঋণপ্রবাহ কমছেই। এমনকি গত ছয় বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন ঋণ বিতরণ করেছে ব্যাংকগুলো। গত জুন পর্যন্ত বার্ষিক

রুগ্ণ পুঁজিবাজারে পতন হচ্ছে আরও

রোকন মাহমুদ

image

রুগ্ণ পুঁজিবাজার দিন দিন আরও জীর্ণশীর্ণ হচ্ছে। নানা অনিয়মে প্রাইমারি বাজারে বন্ধ হয়েছে নতুন কোম্পানির আবেদন গ্রহণ। আর সেকেন্ডারি

পুঁজিবাজারকে শক্ত ভিত্তিতে দাঁড় করাতে চান অর্থমন্ত্রী

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

পুঁজিবাজারের চলমান দুরবস্থায় বিনিয়োগকারীরা যখন রাস্তায় তখন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল জানালেন, পুঁজিবাজারকে শক্ত ভিত্তিতে

sangbad ad