• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ০৪ জুন ২০২০

 

করোনার প্রভাব

ভ্যাট রিটার্ন অর্ধেকে নেমেছে

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বুধবার, ২০ মে ২০২০

সংবাদ :
  • অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক
image

ফাইল ছবি

করোনার প্রভাবে মূল্য সংযোজন কর (মূসক) বা ভ্যাট রিটার্ন জমা অর্ধেকে নেমে এসেছে। করোনার সংক্রমন ঠেকাতে প্রায় দুই মাস ধরে সাধারণ ছুটি চলছে। এই ছুটির মধ্যে ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানগুলোর যেমন বেচাকেনা নেই, তেমনি মাসিক ভ্যাট রিটার্ন জমায় আগ্রহও নেই। নতুন ভ্যাট আইন অনুযায়ী, প্রতি মাসের ১৫ তারিখের মধ্যে আগের মাসের ভ্যাট রিটার্ন জমা দিতে হয়। গত শুক্রবার চলতি মাসের সময়সীমা শেষ হয়েছে। ওই দিন সারা দেশের ২৫২ টি সার্কেল অফিস বিশেষ ব্যবস্থায় খোলা রাখা হয়।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) সূত্রে জানা গেছে, সারা দেশে বর্তমানে ১ লাখ ৭৮ হাজার ভ্যাট নিবন্ধন নেওয়া প্রতিষ্ঠান আছে। এর মধ্যে প্রতি মাসে গড়ে এক লাখের মতো প্রতিষ্ঠান রিটার্ন জমা দিয়ে থাকে। কিন্তু করোনার কারণে রিটার্ন জমা অর্ধেকের বেশি কমে গেছে। চলতি মাসে ( মে) সাড়ে ৪২ হাজার রিটার্ন জমা পড়েছে। রাজস্ব আদায় হয়েছে ৩ হাজার ৮৭৮ কোটি টাকা। গত এপ্রিল মাসে রিটার্ন জমা হয়েছিল সাড়ে ৩১ হাজার। রাজস্ব আদায় ছিল তিন হাজার কোটি টাকার বেশি।

ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে, সাধারণ ছুটি থাকায় হিসাবনিকাশ করার কর্মীরা ছুটিতে আছেন। সংক্রমন ঝুঁকির কারণে বেশিরভাগ ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানও পুরোপুরি বন্ধ। এমন অবস্থায় কোনোভাবেই নির্ধারিত সময়ে ভ্যাট রিটার্ন দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।

গত জুলাই মাসে চালু হওয়া নতুন ভ্যাট আইনে রিটার্ন জমার সময় বৃদ্ধির কোনো সুযোগ নেই। সময়মতো ভ্যাট রিটার্ন জমা না দিলে ১০ হাজার টাকা জরিমানা ও ভ্যাটের টাকার সুদ দেওয়ার বিধান আছে। কিন্তু করোনার কারণে সৃষ্ট বিশেষ পরিস্থিতিতে আইনে সংশোধনী আনার অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। গত ৭ মে মন্ত্রিসভায় এই নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়।

ভ্যাট কমিশনারেট (ঢাকা পূর্ব) কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, এই কমিশনারেটের অধীনে ১০ হাজারের বেশি প্রতিষ্ঠান ভ্যাট নিবন্ধন নিয়েছে। এর মধ্যে নিয়মিত ভ্যাট রিটার্ন দেয় সাড়ে ৫ হাজারের মতো প্রতিষ্ঠান। তবে চলতি মে মাসে ৩ হাজার ১ শোর মতো প্রতিষ্ঠান ভ্যাট রিটার্ন দিয়েছে। এক হাজারে বেশি শুণ্য রিটার্ন জমা দিয়েছে। এর মানে, এসব প্রতিষ্ঠানে এপ্রিল মাসে কোনো বেচাকেনা হয়নি, বন্ধ ছিল।

ভ্যাট কমিশনারেটের (ঢাকা পূর্ব) কমিশনার শওকত হোসেন বলেন, করোনার কারণে সব কিছু বন্ধ থাকায় অন্য সময়ের তুলনায় অর্ধেকের কিছু বেশি রিটার্ন জমা পড়েছে।

জুন মাস থেকেই পোশাক শ্রমিক ছাঁটাই শুরু হবে | এটি অনাকাক্সিক্ষত বাস্তবতা : রুবানা হক

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্বে পোশাকের চাহিদা কমে াচ্ছে। দেশের পোশাক কারখানার কাজও ৫৫

ঘরে বসেই খোলা যাবে সোনালী ব্যাংকের একাউন্ট

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

এখন থেকে যেকোন গ্রাহক ঘরে বসেই সোনালী ব্যাংকের একাউন্ট খুলতে পারবেন।একাউন্ট খোলার জন্য গ্রাহকদেরকে স্ব-শরীরে ব্যাংকের কোন শাখায় যাওয়ার দরকার হবে না। কোভিড-১৯ মহামারীর প্রভাব হতে গ্রাহকদের সুরক্ষা দিতে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ এ পদক্ষেপ নিয়েছে।

চট্টগ্রাম ইপিজেডে চীনা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট,

image

চট্টগ্রাম ইপিজেডে ১ দশমিক ২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগের জন্য চীনা

sangbad ad

মামলার ভয়ে পাওনা পরিশোধে আলোচনা করতে চায় ইডব্লিউএম

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

মামলার ভয়ে ব্রিটিশ ক্রেতা এডিনবরা উলেন মিলকে (ইডব্লিউএম) বাংলাদেশের বকেয়া পরিশোধ নিয়ে

পোশাক খাতের সংস্কার তদারক করবে আরএসসি

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

বাংলাদেশে এখন থেকে স্থানীয় আইনে পোশাক খাতের সংস্কার কাজের তদারকি করবে নতুন প্ল্যাটফর্ম আরএমজি সাসটেইনেবল কাউন্সিল (আরএসসি)।

ডিপিএসসহ ব্যাংক আমানতে বিলম্ব ফি দিতে হবেনা

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট, নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

করোনা পরিস্থিতির কারনে বাংকে ডিপিএস বা অন্য কোনো সঞ্চয়ী হিসাবের টাকা নির্ধারিত

নাসা গ্রুপের চেয়ারম্যান সপরিবারে করোনায় আক্রান্ত

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

নাসা গ্রুপের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মজুমদার স্ত্রী, পুত্র ও পুত্রবধূসহ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন । তিনি বেসরকারি এক্সিম ব্যাংকের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মজুমদার ব্যাংক মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকসেরও (বিএবি) চেয়ারম্যান।

করোনাকালের মানবিক বাজেট চাই

মো. কামরুজ্জামান

image

আমাদের মত উন্নয়নশীল দেশে বাজেট-বরাদ্দের চেয়ে বাজেট-বাস্তবায়ন সব সময় গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হয়ে দাঁড়ায়। লক্ষণীয় হল,

শেয়ারবাজারে লেনদেন শুরু হচ্ছে আজ

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে দীর্ঘ ৬৬ দিন বন্ধ থাকার পর আজ রোববার ৩১ মে থেকে দেশের শেয়ারবাজারে লেনদেন চালু হচ্ছে। লেনদেন চালুর বিষয়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) অনাপত্তি দেয়ার প্রেক্ষিতে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই) কর্তৃপক্ষ এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

sangbad ad