• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বুধবার, ০৫ আগস্ট ২০২০

 

বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য বিশেষ সুবিধা বাংলাদেশ ব্যাংকের

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বুধবার, ০৮ জুলাই ২০২০

সংবাদ :
  • অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক
image

বিদেশি বিনিয়োগকারীদের আকর্ষণে নীতিমালা সহজীকরণসহ বিশেষ সুবিধা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এখন থেকে বিদেশি প্রতিষ্ঠানগুলো চাইলে তাদের লভ্যাংশের অর্থ বাইরে না পাঠিয়ে বৈদেশিক মুদ্রা (এফসি) অ্যাকাউন্ট খুলে রাখতে পারবে। ওই অর্থ নিজ দেশে বা অন্য দেশে নিয়ে যেতে পারবে। আবার ইচ্ছে করলে ওই অর্থ বাংলাদেশে নিজের প্রতিষ্ঠানে বা অন্য কোন প্রতিষ্ঠানে পুনর্বিনিয়োগও করতে পারবে। সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংকের ফরেন এক্সচেঞ্জ পলিসি ডিপার্টমেন্ট এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা জারি করে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠিয়েছে। বিদেশি বিনিয়োগ আকর্ষণে নানা উদ্যোগের অংশ হিসেবে এই শিথিলতা আনলো কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ চীনে নতুন করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব গত বছরের শেষে ঘটার পর থেকে দেশটি থেকে বিদেশি অনেক বিনিয়োগকারী গুটিয়ে পড়তে চাইছে। পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্কে জটিলতাও এতে প্রভাব ফেলছে। চীনের এক সরকারি তথ্য বলছে, মহামারী শুরুর পর চলতি বছরের প্রথম তিন মাসে দেশটিতে সরাসরি বিদেশি বিনিয়োগ ১০ শতাংশ কমেছে। শুধু মার্চেই গত বছরের একই মাসের তুলনায় ১৪ শতাংশ কমেছে। চীন থেকে সরতে চাওয়া বিদেশিদের আকর্ষণের জন্য ভিয়েতনাম, ইন্দোনেশিয়া, ভারত, শ্রীলঙ্কাসহ বিভিন্ন দেশ উঠেপড়ে লেগেছে। এখন বাংলাদেশও সেই প্রতিযোগিতায় নামলো।

বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা জানান, করোনাভাইরাসের এ সংকট পরবর্তী অর্থনীতির গতি প্রকৃতিতে ব্যাপক পরিবর্তন আসছে। এ সময়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বিশেষত চীন থেকে বড় ধরনের বিনিয়োগ পাওয়ার আশায় রয়েছে সরকার। এরকম প্রেক্ষাপটে বিদেশি বিনিয়োগকারীদের লভ্যাংশ নেয়াসহ বিভিন্ন নীতিমালা সহজীকরণ করা হচ্ছে। বর্তমান নিয়মে কোন ধরনের অনুমোদন ছাড়াই বিদেশি বিনিয়োগকারীর লভ্যাংশের পুরোটাই নিয়ে যেতে পারেন। আগে এক্ষেত্রে নানা বিধি-নিষেধ ছিল। অবশ্য অর্থ প্রত্যাবাসনের ৩০ দিনের মধ্যে প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টসহ বাংলাদেশ ব্যাংকে অবহিত করতে হয়। নতুন নির্দেশনায় বলা হয়েছে, বাংলাদেশে বিদেশি শেয়ারহোল্ডারের প্রদেয় লভ্যাংশ এখন থেকে এফসি হিসেব খুলে সেখানে জমা রাখা যাবে। তবে এই অর্থ যে লভ্যাংশ থেকে পাওয়া ব্যাংক থেকে তা নিশ্চিত হতে হবে। চাইলে তিনি এই অর্থ পুনঃবিনিয়োগ করতে পারবেন। তবে বিনিয়োগের ১৪ দিনের মধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা বিনিয়োগ এবং পরিসংখ্যান বিভাগকে জানাতে হবে। এছাড়া বৈদেশিক মুদ্রা বিনিময় নীতিমালার সব ধরনের নীতিমালা অনুসরণ করতে হবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক লেনদেনের ভারসাম্যের ওপর করা হালনাগাদ প্রতিবেদনের তথ্যে দেখা গেছে, মহামারী করোনাভাইরাসের নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে বিদেশি বিনিয়োগে। সদ্য সমাপ্ত (২০১৯-২০) অর্থবছরের (জুলাই-মে) ১১ মাসে দেশে সরাসরি বিদেশি বিনিয়োগ (এফডিআই) আশঙ্কাজনকভাবে কমছে। অন্যদিকে দেশের শেয়ারবাজারের বিদেশিরা বিনিয়োগ (পোর্টফোলিও ইনভেস্টমেন্ট) যে পরিমাণ করেছে তারে চেয়ে বেশি তুলে নিয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের ফরেন এক্সচেঞ্জ পলিসি ডিপার্টমেন্টের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) মোহাম্মদ খুরশিদ ওয়াহাব বলেন, করোনাভাইরাস মহামারী এবং যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে দ্বন্দ্বের প্রেক্ষাপটে চীন থেকে সরে যাওয়া বিদেশি বিনিয়োগ বাংলাদেশে আনতে অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ গত ২৬ জুন এক চিঠিতে বিদেশি বিনিয়োগকারীরা যাতে অনায়াসে তাদের বিনিয়োগের অর্থ-লভ্যাংশ নিজ দেশ বা অন্যত্র নিয়ে যেতে পারেন সে ব্যাপারে জরুরি ভিত্তিতে পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংককে অনুরোধ করেছিল। সেই অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতেই বিদেশি বিনিয়োগকারীদের এফসি অ্যাকাউন্ট খোলার সুযোগ দেয়া হয়েছে জানিয়ে খুরশিদ বলেন, এতদিন বিদেশি বিনিয়োগকারীরা তাদের লভ্যাংশের অর্থ বিদ্যমান বিধি-বিধানের আওতায় নিজ দেশে নিয়ে যেতে পারতেন। এখন এফসি অ্যাকাউন্ট খুলে ওই অ্যাকাউন্টে লভ্যাংশের অর্থ রাখতে পারবেন। যখন খুশি, তখন নিজ দেশে বা অন্য কোন দেশে নিয়ে যেতে পারবেন। আবার যদি ওই বিনিয়োগকারী মনে করেন তিনি তার লভ্যাংশের অর্থ বাংলাদেশে নিজের প্রতিষ্ঠানে পুনর্বিনিয়োগ বা অন্য কোন প্রতিষ্ঠানে বিনিয়োগ করবেন, তাহলেও ওই এফসি অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা তুলে বিনিয়োগ করতে পারবেন।

গত অর্থবছরের ১১ মাসে বিভিন্ন খাতে সবমিলিয়ে দেশে সরাসরি বিদেশি বিনিয়োগ (এফডিআই) এসেছে ৩৭২ কোটি ৮০ লাখ ডলার, এর মধ্যে নিট বিদেশি বিনিয়োগ ১৯৬ কোটি ৫০ লাখ ডলার যা গত অর্থবছরের চেয়ে এফডিআই কমেছে ১৩ দশমিক ৮০ শতাংশ ও নিট কমেছে ১৯ দশমিক শূন্য ৪ শতাংশ। ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জুলাই-মে সময়ে এফডিআই ছিল ৪৩২ কোটি ৫০ লাখ ডলার এবং যার মধ্যে নিট এফডিআই পেয়েছিল ২৪২ কোটি ৭০ লাখ ডলার।

আলোচিত সময়ে শেয়ারবাজারে বিদেশি বিনিয়োগ (পোর্টফোলিও ইনভেস্টমেন্ট) যা এসেছিল তার চেয়ে বেশি তুলে নিয়ে গেছেন। গত অর্থবছরেও দেশের শেয়ারবাজারে বিদেশি বিনিয়োগ কম ছিল। এবার ধস নেমেছে। ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জুলাই-মে সময়ে শেয়ারবাজারে বিদেশি বিনিয়োগ (নিট) ছিল ১৬ কোটি ২০ লাখ ডলার। সদ্য সমাপ্ত ২০১৯-২০ অর্থবছরের এই ১১ মাসে বিদেশিরা যে পরিমাণ বিনিয়োগ করেছে তার থেকে ৭০ লাখ ডলার বেশি তুলে নিয়ে গেছে।

প্রাইজবন্ডের ১০০তম ড্র, প্রথম পুরস্কার ০৯০৭৪৮৫

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

১০০ টাকা মূল্যমানের প্রাইজবন্ডের সর্ব?শেষ ১০০তম ‘ড্র’ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ছয় লাখ টাকার প্রথম পুরস্কার বিজয়ীর নম্বর ০৯০৭৪৮৫

মাইক্রোসফটের টিকটক কেনা থমকে গেছে

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

image

টিকটকে কিনতে কথাবার্তা চালাচ্ছিল মাইক্রোসফট। তবে এখন তা থমকে গেছে। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প

সিলেটে গরুর চামড়া ২০ টাকা, ছাগলের চামড়া ফ্রি

প্রতিনিধি, সিলেট

image

সিলেটে কােরবানিতে জবাইকৃত একটি গরুর চামড়া ২০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে! আর

sangbad ad

রিলায়েন্স-জেরার বিদ্যুৎ প্রকল্পে ৬৪ কোটি ডলারের ঋণ

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

image

দেশে একটি বিদ্যুৎ প্রকল্পের জন্য ভারত ও জাপানের যৌথ মালিকানার একটি কোম্পানি ৬৪ কোটি ২০ লাখ ডলারের ঋণচুক্তি করেছে কয়েকটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সাথে।

চামড়া সংক্রান্ত সমস্যা সমাধানে কন্ট্রোল সেল গঠন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

গত বছর কোরবানির পশুর চামড়ার দাম নির্ধারণ করে দেয় সরকার। কিন্তু তা মানেনি অনেক ব্যবসায়ী। তাই গত বছর কোরবানির

পার্বত্য অঞ্চলে কৃষিঋণ দিতে বিশেষ নির্দেশনা

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

পার্বত্য চট্টগ্রাম খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটি ও বান্দরবান জেলায় সাধারণ কৃষক ও জুমচাষিদের সহজে ব্যাংক হিসাব খোলা এবং প্রণোদনা সুবিধার

আইপিডিসির অর্ধ-বার্ষিক ইনভেস্টরস মিট অনুষ্ঠিত

image

বেসরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইপিডিসি ফাইন্যান্স আয়োজন করলো প্রতিষ্ঠানটির অর্ধবার্ষিক ইনভেস্টরস মিট যেখানে আইপিডিসি-র আর্থিক

১৭ বছর পর কমল ব্যাংক রেট

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

করোনা সঙ্কটে অর্থের জোগান বাড়াতে প্রায় ১৭ বছর পর ব্যাংক রেট কমিয়ে ৪ শতাংশ করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। বুধবার (২৯ জুলাই) বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটে মুদ্রানীতির এ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। করোনা মহামারিতে বিপর্যস্ত অর্থনীতি পুনরুদ্ধার এবং সরকার নির্ধারিত অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনে চলতি (২০২০-২১) অর্থবছরের জন্য সম্প্রসারণমুখী মুদ্রানীতি ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

বেসরকারি ঋণ প্রবৃদ্ধিতে গুরুত্বারোপ করে নতুন মুদ্রানীতি ঘোষণা

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত অর্থনীতি পুনরুদ্ধার ও সরকারের নির্ধারিত অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনে চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরের মুদ্রানীতি ঘোষণা