• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯

 

নারী উদ্যোক্তাদের জন্য আরও কাজ করতে হবে সরকারকে : এসএমই ফাউন্ডেশনের সেমিনারে বক্তারা

নিউজ আপলোড : ঢাকা , রোববার, ১৭ মার্চ ২০১৯

সংবাদ :
  • অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক
image

নারী উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন অনেক এগিয়েছে। দেশের অর্থনীতিতে নারীর অবদানও বাড়ছে। এরপরও একজন নারী উদ্যোক্তা সামাজিক-অর্থনৈতিক নানা কারণে অনেক সমস্যার সম্মুক্ষীণ হচ্ছে। বাংলাদেশকে শিল্পন্নত দেশে পরিণত করতে হলে নারীদের এসব প্রতিবন্ধকতা দূর করতে হবে। ১৭ মার্চ রোববার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) আয়োজিত ক্ষুদ্র নারী উদ্যোক্তার অ-আর্থিক প্রতিবন্ধকতা নিরসন করার উপায় শীর্ষক এক সেমিনারে বক্তারা এসব কথা বলেন।

সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ফেডারেশন অব উইমেন ইন্টারপ্রেয়নিয়রের সভাপতি রোকেয়া আফজাল রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন, ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইন্ডাস্ট্রিয়াল স্টাবিলিটি’র গবেষণা পরিচালক ড. নাজিয়া হাবিব ও এসএমই ফাউন্ডেশনের পরিচালনা পরিষদের পরিচালক ইসমাত জেরিন খান। সেমিনারটি সঞ্চালনা করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. মমতাজ উদ্দিন আহমদ। সভাপতির বক্তব্য রাখেন এসএমই ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান কেএম হাবিব উল্লাহ।

রোকেয়া আফজাল রহমান বলেন, আমাদের আজকের আলোচনা একেবারে আলাদা। আমরা সাধারণত উদ্যোক্তাদের অর্থায়ন নিয়ে বেশি আলোচনা করি। কিন্তু আজকের বিষয়টি হলো অ-আর্থিক বিষয় নিয়ে। সৃষ্টির শুরু থেকেই নারীর সমস্যা ছিল। সেই সমস্যাগুলো মোকাবিলা করেই নারী আজকের অবস্থানে এসেছে। আমাদের সরকার নারীবান্ধব সরকার। নারীর উন্নয়নে সরকার সব সময় কাজ করেছে। আশা করি ভবিষ্যতেও করবে। দেশের ৬৪টি জেলায় এসএমই ফাউন্ডেশনের শাখা খুলতে হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, নারী উন্নয়নে কাজ করতে হলে শুধু ঢাকার নারীদের জন্য করলে হবে না। সারাদেশের নারীর কথা চিন্তা করতে হবে। এজন্য দেশের ৬৪টি জেলায় এসএমই ফাউন্ডেশনের শাখা খুলে নারীদের প্রশিক্ষণ দিতে হবে। জাপানের উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, আমি জাপানে দেখেছি, সেখানে কোন একটি বড় প্রতিষ্ঠান নির্দিষ্ট একটি গ্রাম নির্বাচন করে সেই গ্রামের নারী পুরুষ সবাইকে প্রশিক্ষণ দিয়ে উন্নতমানের পণ্য উৎপাদন করান। এতে উদ্যোক্তা ও কর্মী সবাই লাভবান হয়। বাংলাদেশে এমন ব্যবস্থা করা হলে নতুন নতুন উদ্যোক্তা তৈরি হবে। নারী ঋণখেলাপি করে না জানিয়ে তিনি বলেন, আজ বড় বড় কোম্পানি হাজার হাজার কোটি টাকা ঋণখেলাপি করে। কিন্তু কোন নারী উদ্যোক্তা ঋণখেলাপির রেকর্ড নেই।

অধ্যাপক ড. মমতাজ উদ্দিন আহমদ বলেন, নারীর প্রতি আমাদের দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন করতে হবে। আমরা নারী বলতেই দুর্বল ও পুরুষের চেয়ে কম জানে- এমনটা মনে করি। এটা সঠিক নয়। শিল্প মন্ত্রণালয়ের সচিব আবদুল হালিম বলেন, অসংখ্য মানুষ ব্যবসায় আসে এবং পরে ঝরে পড়ে। টিকে থাকে মাত্র কয়েকজন। অনেকে ব্যবসা করতে আসে কিন্তু ব্যবসা সম্পর্কে তার কোন ধারণাই থাকে না। এজন্য তাদের উপযুক্ত প্রশিক্ষণ নিয়ে ব্যবসা শুরু করতে হবে। বিসিকের কার্যকম সম্পর্কে তিনি বলেন, বিসিক (বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন) যেখানে ২ হাজার একর জমি নিয়ে স্থবির হয়ে পড়ে আছে। সেখানে বেপজা (বাংলাদেশ এক্সপোর্ট প্রসেসিং জোন অথরিটি) তার চেয়ে অনেক কম জমি নিয়ে জাতীয় রপ্তানিতে ২০ শতাংশ অবদান রাখছে। উদ্যোক্তা তৈরিতে যেসব পদক্ষেপ নেয়া দরকার সেসব পদক্ষেপ ধীরে ধীরে নেয়া হবে বলেও জানান তিনি। এসএমই ফাউন্ডেশনের পরিচালক মির্জা গনি শোভন বলেন, বিসিকের ১০ শতাংশ প্লট নারীদের জন্য বরাদ্দ রাখা হয়েছে। কিন্তু অনেকে এটা জানে না। যারা জানে তারাও পায় না। কারণ এটা নামে মাত্র। কিন্তু বাস্তবতা অন্যরকম। তার চেয়ে বরং এসএমই ফাউন্ডেশনকে সরকার শক্তিশালী করলে আরও ভালো ফল আসবে।

ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান কেএম হাবিব উল্লাহ বলেন, মাত্র ২০০ কোটি টাকা নিয়ে এসএমই ফাউন্ডেশনের যাত্রা শুরু হয়। সরকার বলেছে, এই টাকা খরচ করা যাবে না। এই টাকা থেকে যা সুদ আসবে তা দিয়ে চলতে হবে। দেশের ৭৮ থেকে ৮০ শতাংশ মানুষ ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের সঙ্গে জড়িত। এতো বড় একটা জনগোষ্ঠীকে এতো কম টাকা দিয়ে কিভাবে সাহায্য করবো। আমরা তাদের জন্য করতে চাই, কিন্তু অর্থের অভাবে পারি না।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) সাতদিনের এসএমই পণ্য মেলার-২০১৯ রোববার ছিল দ্বিতীয় দিন। মেলা প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চলছে। বিনামূল্যে প্রবেশের ব্যবস্থা রয়েছে মেলায়। এসএমই পণ্য মেলায় ২৮০টি এসএমই উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান তাদের উৎপাদিত পণ্য নিয়ে এই মেলায় অংশগ্রহণ করেছে। এদের মধ্যে ১৮৮ জন নারী ও ৯২ জন পুরুষ উদ্যোক্তা। মেলায় দেশে উৎপাদিত পাটজাত পণ্য, খাদ্য ও কৃষি প্রক্রিয়াজাত পণ্য, চামড়াজাত সামগ্রী, ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী, লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং পণ্য, আইটি পণ্য, প্লাস্টিক ও অন্যান্য সিনথেটিক, হস্তশিল্প, ডিজাইনও ফ্যাশনওয়্যারসহ অন্যান্য মাইক্রো, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের স্বদেশি পণ্য প্রদর্শিত ও বিক্রয় হচ্ছে। সেমিনারে আরও বক্তব্য রাখেন সারাদেশ থেকে আসা উদ্যোক্তারা।

পুঁজিবাজারকে শক্ত ভিত্তিতে দাঁড় করাতে চান অর্থমন্ত্রী

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

পুঁজিবাজারের চলমান দুরবস্থায় বিনিয়োগকারীরা যখন রাস্তায় তখন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল জানালেন, পুঁজিবাজারকে শক্ত ভিত্তিতে

২০২১ সাল থেকে সকল স্কুল-মাদ্রাসায় কারিগরি শিক্ষা বাধ্যতামূলক

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

বাংলাদেশে প্রতি বছর ২২ লাখ লোক শ্রমবাজারে প্রবেশ করে, কিন্তু কর্মসংস্থানের জন্য যে পরিমান দক্ষতা দরকার তা তাদের নাই। ফলে অধিকাংশই

উদ্যোক্তা সৃষ্টিতে উপজেলা পর্যায়ে কারিগরি প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা হচ্ছে

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেছেন, দেশে উদ্যোক্তা সৃষ্টিতে উপজেলা পর্যায়ে কারিগরি

sangbad ad

শেয়ারবাজার টানা দরপতনে ডিএসইর সামনে বিনিয়োগকারীদের বিক্ষোভ

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবশেক

image

শেয়ারবাজারে টানা দরপতনের কারণে বিক্ষোভ করেছেন পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীরা। ১১ জুলাই বৃহস্পতিবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই)

আসবাবপত্র রপ্তানিতে ভালো অবস্থানে বাংলাদেশ

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

দেশের বাইরে ক্রমান্বয়ে জনপ্রিয় হয়ে ওঠছে বাংলাদেশে তৈরি আসবাবপত্র বা গৃহস্থলী পণ্য। গত এক দশক ধরে ক্রমান্বয়ে বাড়ছে এখাতে রপ্তানি

সচেতনতা বাড়ানোই বীমা খাতের প্রধান চ্যালেঞ্জ

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

সময়ের সঙ্গে বাড়ছে দেশের অর্থনীতির আকার। সেই সঙ্গে বেড়েছে বীমা খাতের পরিধি। এরপরও অর্থনীতিতে বাড়েনি বীমা খাতের অবদান

এনবিআরে বিড়ি শ্রমিকদের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

প্রস্তাবিত বাজেটের বৈষম্যমূলক শুল্কনীতির প্রতিবাদ ও ভারতের ন্যায় প্রতি হাজার বিড়িতে ১৪ টাকা করারোপসহ ৬ দফা দাবিতে জাতীয় রাজস্ব

ডিসিসিআই’র ‘ইন্টারন্যাশনাল ক্লিন টেকনোলজি ফেয়ার’

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

‘ইন্টারন্যাশনাল ক্লিন টেকনোলজি ফেয়ার’ শীর্ষক ২ দিনের মেলার আয়োজন করছে ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই)।

প্রতিবছর ১০ লাখ মোটরসাইকেল উৎপাদন হবে দেশে : শিল্প মন্ত্রণালয়

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

দেশে ২০২৭ সাল নাগাদ মোটরসাইকেলের বার্ষিক উৎপাদনক্ষমতা ১০ লাখে উন্নীত করার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে শিল্প মন্ত্রণালয়। পাশাপাশি

sangbad ad