• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৯

 

অর্থবছরের প্রথমার্ধে ঋণপত্রের ব্যয় কমেছে ২৭ শতাংশ

নিউজ আপলোড : ঢাকা , মঙ্গলবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৯

সংবাদ :
  • অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক
image

দেশে রপ্তানি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে কমে আসছে আমদানির চাপও। চলতি অর্থবছরের প্রথমার্ধে (জুলাই-ডিসেম্বর) আমদানি প্রবৃদ্ধি ৬ শতাংশের নিচে। অন্যদিকে এসময়ে আমদানি-রপ্তানির জন্য এলসি (ঋণপত্র) স্থাপনের ব্যয় কমেছে প্রায় ১১শ’ কোটি ডলার, যা ২৭ দশমিক ১২ শতাংশ। এর মানে, আগামীতে আমদানি ব্যয় কমে আসবে। গত অর্থবছর মোট আমদানি বেড়েছিল ২৫ শতাংশ। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, চলতি অর্থবছর মূলধনী যন্ত্রপাতি, চাল, গমসহ বেশ কিছু পণ্যের আমদানি ব্যাপক কমছে। যার প্রভাব পড়েছে পুরো আমদানি খাতে। অবশ্য এত বেশি হারে এলসি কমার প্রধান কারণ হিসেবে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের সরঞ্জাম আমদানির জন্য চলতি অর্থবছর এলসি খোলা কমে আসাই বলছেন তারা।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, চলতি অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর) ২ হাজার ৯৩২ কোটি ডলারের এলসি (ঋণ পত্র) খোলা হয়েছে। আগের অর্থবছরের একই সময়ে এর পরিমাণ ছিল চার হাজার ২৩ কোটি ডলার। এতে করে এলসি কমেছে এক হাজার ৯১ কোটি ডলার, যা ২৭ দশমিক ১২ শতাংশ। চলতি অর্থবছরের ছয় মাসের মোট এলসির মধ্যে ‘অন্যান্য’ খাতে খোলা হয় এক হাজার ৫৬৮ কোটি ডলারের। এবারের ছয় মাসে কমে হয়েছে মাত্র ৪০৭ কোটি ডলার। ফলে শুধু ‘অন্যান্য’ খাতে এলসি কমেছে এক হাজার ১৬১ কোটি ডলার বা ৭৪ দশমিক শূন্য ১ শতাংশ। রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের এলসি ‘অন্যান্য’ খাতে অন্তর্ভুক্ত ছিল।

চলতি অর্থবছর চালের জন্য মাত্র তিন কোটি ৫৬ লাখ ডলারের এলসি খোলা হয়েছে। আগের অর্থবছরের একই সময়ে খোলা হয় ১৩৮ কোটি ডলার। ফলে এলসি কমেছে ৯৭ দশমিক ৪২ শতাংশ। গমের এলসি ২৮ দশমিক ৫৪ শতাংশ কমে ৭৬ কোটি ডলারে নেমেছে। মূলধনী যন্ত্রপাতির জন্য এবার মাত্র ২৩৯ কোটি ডলারের এলসি খোলা হয়েছে, গত অর্থবছরের ছয় মাসে যেখানে খোলা হয় ৩২৯ কোটি ডলারের। অন্যান্য যন্ত্রপাতির এলসি ৩৩২ কোটি ডলার থেকে কমে ৩৩১ কোটি ডলারে নেমেছে। এ ছাড়া তেল, চিনি, পেঁয়াজ, ওষুধ, ফল, কাগজসহ বেশ কিছু পণ্যের এলসি কমেছে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, গত বছরের ২০ নভেম্বর রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের সরঞ্জাম আমদানির জন্য সোনালী ব্যাংকে এক হাজার ১৩৮ কোটি ডলারের এলসি খোলা হয়। যদিও ওই এলসির পুরো দায় পরিশোধ হওয়ার কথা রাশিয়া থেকে। তবে পণ্য আনা-নেওয়ার আন্তর্জাতিক প্রক্রিয়াগত কারণে ওই এলসি খুলতে হয়, যা এলসির পরিসংখ্যানে ছিল। এছাড়া আকস্মিক বন্যায় গত বছর প্রচুর ফসলহানি হয়েছিল। এবার ফসল উৎপাদন স্বাভাবিক থাকায় গত বছরের মতো চাল আমদানির চাপ নেই। আবার বছরজুড়ে ডলারের ওপর বাড়তি চাপ থাকায় বিলাসবহুল পণ্যের এলসি খোলার ক্ষেত্রে ব্যাংকগুলো কিছুটা কড়াকড়ি করেছে। ফলে স্বাভাবিকভাবে এলসি খোলার হার আগের বছরের তুলনায় কমছে। আমদানি চাপ কমে আসার প্রভাবে ছয় মাসে বাণিজ্য ঘাটতিও কমেছে। এ সময়ে ৭৬৬ কোটি ডলারের বাণিজ্য ঘাটতি হয়েছে, যা আগের একই সময়ে ছিল ৮৬৩ কোটি ডলার। এ ছাড়া আলোচ্য সময়ে চলতি হিসাবে ঘাটতি কমে হয়েছে ৩০৮ কোটি ডলার।

তবে কিছু পণ্যের এলসি ব্যয় আগের চেয়ে বেশি। এর অন্যতম হলো- শিল্পে ব্যবহূত কাঁচামালের জন্য এবার ৩৬১ কোটি ডলারের এলসি খোলা হয়েছে। আগের অর্থবছরের একই সময়ে খোলা হয় মাত্র ১৯২ কোটি ডলারের এলসি। টেক্সটাইল কাপড় ও এক্সেসরিজের এলসি ৩৩০ কোটি ডলার থেকে বেড়ে ৩৯২ কোটি ডলার হয়েছে। কেমিক্যালের এলসি ১৫১ কোটি ডলার থেকে বেড়ে হয়েছে ১৬৯ কোটি ডলার। সিমেন্টের কাঁচামাল ক্লিংকারের এলসি মাত্র ৩০ কোটি ডলার থেকে বেড়ে এক লাফে ১৩২ কোটি ডলার হয়েছে।

ছয মাস পর ডানা মিলল ড্রিমলাইনার

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

প্রায় ৬ মাস বন্ধ থাকার পর গত শনিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) থেকে ওমানের মাসকাট রুটে

পাঁচ হাজার পানির জার ধ্বংস ও ৩ প্রতিষ্ঠান বন্ধ

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে পাঁচ হাজার পানির জার ধ্বংস ও পানি উৎপাদনের তিনটি

ঋণখেলাপিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চায় এফবিসিসিআই

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

অসৎ ঋণখেলাপিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আওতায় আনার দাবি জানিয়ে এফবিসিসিআই

sangbad ad

আরও প্রণোদনা চান বিজিএমইএ নেতারা

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

পোশাক শিল্পের ‘সঙ্কট’ কাটাতে সরকারের এই খাতের প্রতিনিধিদের কাছে নগদ প্রণোদনা বাড়ানোসহ

চামড়া শিল্পের সমস্যা দ্রুত সমাধান করা হবে

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

ট্যানারি উদ্যোক্তাদের ব্যবসার স্বার্থে সাভার চামড়া শিল্পনগরির সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে

তিন উৎসবে জমজমাট ফুলের বাজার

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

বসন্ত উৎসব, বিশ্ব ভালোবাসা দিবস ও একুশে ফেব্রুয়ারিকে সামনে রেখে জমে উঠেছে ফুলের

সেবা খাতে রপ্তানি বেড়েছে ৫০ শতাংশ

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

ইতিবাচক ধারায় রয়েছে দেশের সেবা খাতে রপ্তানি আয়। চলতি অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে

সরকারি ঋণের প্রবৃদ্ধি কমেছে

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

প্রকল্প বাস্তবায়ন ও বেতন-ভাতা পরিশোধসহ বিভিন্ন কারণে ব্যাংক খাত থেকে ঋণ নেয় সরকার।

বিদ্যুৎ ও অর্থনৈতিক অঞ্চলে ঋণ দিতে আগ্রহী জাইকা

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

বিদ্যুৎখাত ও অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠায় জাইকা (জাপান ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন

sangbad ad