• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০

 

বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিসংখ্যান

করোনায় ব্যাংকিং লেনদেন কমেছে

নিউজ আপলোড : ঢাকা , শনিবার, ০৮ আগস্ট ২০২০

সংবাদ :
  • অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

করোনাভাইরাসের প্রভাবে সারাবিশ্বে স্থবিরতা নেমে এসেছে। আমদানি-রপ্তানি থেকে শুরু করে অর্থনীতির সব সূচকের অবস্থা নেতিবাচক। মানুষের জীবনযাপনেও নেমে এসেছে স্থবিরতা। এই স্তবিরতা প্রভাবে ফেলেছে ব্যাংকিং খাতে। দেশে করোনাভাইরাস আবির্ভাবের পর ব্যাংকিং লেনদেন কমে প্রায় অর্ধেকে নেমে এসেছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিসংখ্যানে এই তথ্য দেখা গেছে।

পরিসংখ্যানে দেখা যায়, করোনাভাইরাসের ধাক্কায় দেশের ব্যাংকিং লেনদেন প্রায় অর্ধেকে নেমে এসেছে। চেক, ক্রেডিট কার্ড, ডেবিট কার্ডসহ সব ধরনের মাধ্যমেই কমেছে লেনদেন। উন্নত দেশগুলোতে চেকের মাধ্যমে লেনদেন প্রায় বিলুপ্ত হতে চললেও দেশের ব্যাংকিং লেনদেনের সিংহভাগই এখনও চেকনির্ভর। দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়ার আগের মাস তথা ফেব্রুয়ারিতে ব্যাংকগুলোতে চেক ক্লিয়ারিং হয়েছে ২০ লাখ ১৫ হাজার ৪৯টি। কিন্তু এপ্রিল মাসে চেক ক্লিয়ারিংয়ের সংখ্যা কমে মাত্র ৪ লাখ ৭৬ হাজার ৭০৩টিতে নেমে আসে। সে হিসেবে এক মাসের ব্যবধানে ব্যাংকগুলোর চেক ক্লিয়ারিংয়ের পরিমাণ কমেছে ১৫ লাখ ৩৮ হাজার ৩৬৪টি। চেক ক্লিয়ারিং কমার হার ৭৬ দশমিক ৩৪ শতাংশ। ফেব্রুয়ারিতে চেকের মাধ্যমে লেনদেন হয়েছিল ১ লাখ ৮৬ হাজার ২৫৩ কোটি টাকা। আর এপ্রিলে লেনদেনের পরিমাণ ৯৪ হাজার ৭২২ কোটি টাকায় নেমে আসে। এ হিসেবে চেকের মাধ্যমে অর্থ লেনদেন কমেছে ৪৯ দশমিক ১৪ শতাংশ।

দেশের ব্যাংকগুলোর ক্রেডিট কার্ড গ্রাহকের সংখ্যা ১৫ লাখ ৯৯ হাজার ৮২৩। করোনা সংক্রমণের আগে ফেব্রুয়ারিতে ক্রেডিট কার্ডে মোট লেনদেন হয়েছিল ২২ লাখ ৮৬ হাজার ৮০০টি। এপ্রিলে এ লেনদেন ১০ লাখ ৬৪ হাজার ৬৩৫টিতে নেমে এসেছে। এ হিসেবে এক মাসের ব্যবধানে ক্রেডিট কার্ডে লেনদেন কমেছে ১২ লাখ ২২ হাজার ১৫৬টি। ফেব্রুয়ারিতে ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে লেনদেন হয়েছিল ১ হাজার ২১৮ কোটি টাকা। এপ্রিলে এ লেনদেন ৫২৩ কোটি টাকায় নেমে এসেছে। অর্থাৎ, করোনার তা-বে ক্রেডিট কার্ডে টাকার লেনদেন কমেছে ৫৭ দশমিক শূন্য ৬ শতাংশ। সাধারণত ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারকারীরা কেনাকাটার বিল পরিশোধেই ক্রেডিট কার্ডের ব্যবহার বেশি করেন। বিল পরিশোধ করা হয় পিওএস মেশিনের মাধ্যমে। পরিসংখ্যানে দেখা যায়, এপ্রিলে ক্রেডিট কার্ড গ্রাহকদের কেনাকাটায় বড় ধরনের ধস নেমেছে। ফেব্রুয়ারিতে পিওএসের মাধ্যমে ক্রেডিট কার্ডের লেনদেন ছিল ৭৯৫ কোটি টাকা। এপ্রিলে এ লেনদেন মাত্র ২৮২ কোটি টাকায় নেমে আসে। বর্তমানে ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে গ্রাহকদের কাছে ব্যাংকগুলোর বিতরণকৃত ঋণ রয়েছে ৫ হাজার ৪১২ কোটি টাকা।

এছাড়া বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, ফেব্রুয়ারির তুলনায় এপ্রিলে ডেবিট কার্ডে প্রায় ৯০ লাখ লেনদেন কম হয়েছে। ফেব্রুয়ারিতে ডেবিট কার্ডে লেনদেন হয়েছে ১ কোটি ৯৩ লাখ ৫৯ হাজার ৭৩টি। কিন্তু এপ্রিলে এ লেনদেন ১ কোটি ৫ লাখ ২৫ হাজারে নেমে এসেছে।

ফেব্রুয়ারিতে ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে মোট লেনদেনের পরিমাণ ছিল ১৪ হাজার ৭৭৬ কোটি টাকা। কিন্তু এপ্রিলে এ কার্ডের মাধ্যমে মাত্র ৮ হাজার ৩৩৫ কোটি টাকা লেনদেন হয়েছে। সে হিসেবে করোনায় ডেবিট কার্ডেও লেনদেন কমিয়েছে ৪৩ দশমিক ৫৯ শতাংশ।

এছাড়া ব্যাংকগুলোর প্রিপেইড কার্ড গ্রাহকের সংখ্যাও ৫ লাখ ৩১ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়েছে। কিন্তু করোনার ধাক্কায় এ কার্ডের লেনদেন তলানিতে নেমে এসেছে। এপ্রিলে প্রিপেইড কার্ডের মাধ্যমে লেনদেন হয়েছে মাত্র ৬১ কোটি টাকা। অথচ ফেব্রুয়ারিতে এ কার্ডের মাধ্যমে ১৪২ কোটির টাকা লেনদেন হয়েছিল।

ব্যাংকিং লেনদেন কমে যাওয়ার বিষয়ে মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ মাহবুবুর রহমান বলেন, যেকোন ধরনের অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের ফলাফল ব্যাংকিং লেনদেনের মাধ্যমে ফুটে ওঠে। করোনার ধাক্কায় দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যের কতটা ক্ষতি হয়েছে, তা ব্যাংকিং লেনদেনের চিত্র দেখেই বোঝা যাচ্ছে। ব্যাংকগুলোর লেনদেনে বড় বিপর্যয় হয়েছে। সাম্প্রতিক সময়ে কিছুটা উন্নতি হলেও স্বাভাবিক অবস্থা ফিরতে অনেক সময় লাগবে।

দেশের ব্যাংকগুলোর ইন্টারনেট ব্যাকিং সেবার গ্রাহকসংখ্যা ২৬ লাখ ৮৭ হাজার ৩০৪। করোনার আগে ফেব্রুয়ারিতে এ সেবা ব্যবহার করে লেনদেন হয়েছিল ৬ হাজার ২৯৮ কোটি টাকা। কিন্তু এপ্রিলে ইন্টারনেট ব্যাংকিংয়ের লেনদেন মাত্র ৪ হাজার ৬৬৪ কোটি টাকায় নেমেছে।

দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে এমন সেবাগুলোর শীর্ষে রয়েছে মোবাইল ব্যাংকিং বা এমএফএস। করোনাকালে দুস্থ, অসহায় মানুষের জন্য সরকার ঘোষিত প্রণোদনার অর্থ মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে বিতরণ করা হয়েছে। একই সঙ্গে বিতরণ করা হয়েছে গার্মেন্ট শ্রমিকদের বেতনের টাকাও। তারপরও দেশে মোবাইল ব্যাংকিং লেনদেন কমেছে। ফেব্রুয়ারিতে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে লেনদেন হয়েছিল ৪১ হাজার ৩৩৪ কোটি টাকা। এপ্রিলে এ লেনদেন ২৯ হাজার কোটি টাকায় নেমে এসেছে। এ হিসেবে মোবাইল ব্যাংকিং সেবায় লেনদেন কমেছে ২৯ দশমিক ৭৬ শতাংশ।

ব্যাংকিং খাতে অসৎ ত্রিভুজশক্তি ভাঙতে হবে

ফারুক আলম

image

দেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি, মাথাপিছু আয়, ক্রয় ক্ষমতাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে অর্থনীতির সক্ষমতা বেড়েছে।

প্রথম আড়াই মাসে রেমিট্যান্স এসেছে প্রায় ৬শ’ কোটি ডলার

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

করোনার মধ্যেও বিভিন্ন দেশে থাকা প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে বেশি আসছে।

শেয়ারহোল্ডারদের ২৫ শতাংশ লভ্যাংশ দেবে অ্যাপেক্স ফুটওয়্যার

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

শেয়ারহোল্ডারদের ২৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত অ্যাপেক্স ফুটওয়্যার পরিচালনা পর্ষদ।

sangbad ad

সবচেয়ে কম ইপিএস নিয়ে আইপিও অনুমোদনের অপেক্ষায় রবি

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

শেয়ারবাজারের ইতিহাসে সবচেয়ে কম বা ৪ পয়সার শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) নিয়ে প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে মোবাইল অপারেটর কোম্পানি রবি আজিয়াটা।

উভয় শেয়ারবাজারে সূচকের পতন কমেছে লেনদেন

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

আগের দিনের মতো গতকালও পতনে শেষ হয়েছে শেয়ারবাজারের লেনদেন।

ব্যাংকিং খাতে সুশাসন প্রতিষ্ঠায় টিআইবর ১০ দফা সুপারিশ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

ব্যাংকিং খাতে সুশাসন প্রতিষ্ঠা এবং সুস্থ ও নিরাপদ ব্যাংকিং ব্যবস্থা পরিচালনায় এ

কাঁচা পাট রপ্তানিতে শুল্ক আরোপ না করার আহ্বান

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

কাঁচা পাট রপ্তানিতে শুল্কারোপ না করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ জুট অ্যাসোসিয়েশন ও শিপার্স কাউন্সিল অব বাংলাদেশ।

শেয়ারবাজারে বড় দরপতন

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

গতকাল বড় দরপতনে শেষ হয়েছে সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসের শেয়ারবাজারের লেনদেন। একই সঙ্গে

ওয়ালটন শেয়ারের লেনদেন শুরু ২৩ সেপ্টেম্বর

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশ

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হলো ওয়ালটন হাইটেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে